এবার শিরোপাই চাই সাকিবের

ব্যাটে-বলের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে প্রথম দুই আসরে বিপিএলের সেরা খেলোয়াড় হয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার এবার ব্যক্তিগত তেমন কোনো লক্ষ্য স্থির করেননি। বিপিএলের চতুর্থ আসরে তার লক্ষ্য একটাই- ঢাকা ডায়নামাইটসকে শিরোপা এনে দেওয়া।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 Nov 2016, 01:07 PM
Updated : 26 Nov 2016, 01:07 PM

৮ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে রয়েছে ঢাকা। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে হারিয়ে দলকে দুই নম্বরে নিয়ে যাওয়ার পর সংবাদ সম্মেলনে সাকিব এবারের বিপিএলে নিজের ও দলের লক্ষ্য সম্পর্কে জানান।

“এবার বিপিএলে লক্ষ্য ফাইনাল খেলা, পারলে চ্যাম্পিয়ন হওয়া। শিরোপা জেতা ছাড়া আমার আর কোনো ব্যক্তিগত কোনো লক্ষ্য নেই। গাড়ি-টাড়িও দেখা যাচ্ছে না, গাড়ি না থাকলে ম্যান অব দ্য সিরিজ হয়ে লাভ কী(হাসি)।”

“ব্যক্তিগত লক্ষ্য থাকে অনেক সময়। কিন্তু একটা সময় একটা পর্যায়ে গিয়ে ওগুলো অতটা গুরুত্বপূর্ণ মনে হয় না। গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে, দলের হয়ে কতটা অবদান রাখা যায়, শিরোপা জেতা যায়। একটা শিরোপা জেতার সম্ভাবনা এখনও আছে আমাদের। আমরা চেষ্টা করব সবাই মিলে যেন ওটা জিততে পারি।”

বিপিএলের প্রথম দুই আসরেই সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছিলেন সাকিব। দ্বিতীয় আসরে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্সের হয়ে শিরোপাও জিতেছিলেন এই অলরাউন্ডার।

বিপিএলের আগের তিন আসরেই অধিনায়ক হিসেবে শিরোপা জিতেছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। তার দলের এবার শেষ চারে থাকার কোনো বাস্তব সম্ভাবনা নেই। দলকে শিরোপা জয়ে নেতৃত্ব দিতে উন্মুখ হয়ে আছেন সাকিব।

“এবার ফাইনালে যেতে চাই, সেটা যেভাবেই হোক। আমি অবদান রাখলাম কী রাখলাম না তা আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ না। আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো দল কেমন করছে সেটা। আর ফাইনালে যেতে আমাদের যা করার সেটা করতে পারছি কিনা।”

“আমাদের দল ভালো। কিন্তু ভালো দল হলেই যে ফাইনাল খেলব এমন কোনো কথা নেই। ভালো দল হওয়ার সাথে সাথে মাঠে ভালো খেলাও গুরুত্বপূর্ণ, পাশাপাশি ভাগ্যও লাগে।”

দলের কাছে তার পারফরম্যান্সের গুরুত্ব কতটা তাও জানেন সাকিব।

"আমার পারফরম্যান্স গুরুত্বপূর্ণ। আজকে যেমন একটু দরকার ছিল, এটা করতে পারছি সেজন্য ভালো লাগছে। সময় যখন আসবে তখন যেন করতে পারি সেটা গুরুত্বপূ্র্ণ।"

চলতি আসরে এখন পর্যন্ত ৩০.৬৬ গড়ে ৬ উইকেট নিয়েছেন সাকিব। ২২.৩৩ গড়ে করেছেন ১৩৪ রান। কুমল্লিার বিপক্ষে শনিবার অপরাজিত ৪১ রান এখন পর্যন্ত তার সেরা।

“একটু অবদান রাখতে পারলে তো ভালোই লাগে। অত বেশি ব্যাটিং করার সুযোগ পাচ্ছিলাম না, আজকে সেই সুযোগটি ছিল। এর আগে এক-দুই ম্যাচে সুযোগ ছিল কিন্তু কাজে লাগাতে পারিনি। আজকে সুযোগও ছিল, উইকেটও ভালো ছিল।”

রান পাওয়ায় খুশি সাকিব। জানিয়েছেন, নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে কোনো দুর্ভাবনা ছিল না তার। দলের প্রয়োজন খুব গুরুত্বপূর্ণ সময়ে দায়িত্ব নিতে হচ্ছে তাকেই। তাই মনে করছেন, রান বা উইকেট দেখে তার পারফরম্যান্স বোঝা কঠিন হবে।

“পারফরম্যান্স যদি রান আর উইকেট দেখে ঠিক করেন তাহলে মনে হবে পারফর্ম করছি না। প্রথম কথা হচ্ছে, আমি কয়টা ম্যাচ ব্যাটিং করেছি। কোথায় ব্যাটিং, সেখানে কয়টা বল খেলার সুযোগ ছিল-এটা বিবেচনায় রাখা গুরুত্বপূর্ণ।"

“উইকেট পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। আমার মনে হয়, আমি ভালো বোলিং করেছি। রাজশাহীর সঙ্গে ম্যাচটা বাদ দিলে টুর্নামেন্টে ভালো বোলিং করেছি। তবে উইকেট সবাই যতটা প্রত্যাশা করে ততটা হয়ত হয়নি।”

শিরোপার পথে চিটাগং ভাইকিংস ও খুলনা টাইটানসকে সবচেয়ে বড় বাধা মনে হচ্ছে সাকিবের।

“আমাদের সবাই যদি সবার খেলাটা খেলতে পারে তাহলে আমাদের হারানো খুব কঠিন হবে। খুলনা ভালো করছে। তবে আমার কাছে মনে হয় চিটাগং এখন সেরা দল। রংপুরের স্পিন আক্রমণ ভালো। আমার মনে হয় আগের তিনবারের চেয়ে এবার সবচেয়ে বেশি প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক