অলকের ‘দ্বিতীয় সেরা’ ইনিংস

বিপিএলের ফাইনালের ২৮ বলের ‘ছোট’ ইনিংসকে ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা মানছেন অলক কাপালী। একমাত্র আন্তর্জাতিক শতকের পরেই অপরাজিত ৩৯ রানের এই ইনিংসকে রাখছেন এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Dec 2015, 08:52 AM
Updated : 16 Dec 2015, 08:52 AM

মঙ্গলবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ইমরুল কায়েস-অলকের দৃঢ়তায় বরিশাল বুলসকে ৩ উইকেটে হারিয়ে বিপিএলে শিরোপা জেতে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।

শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ১৫৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে এক সময়ে বিপদে পড়ে যায় কুমিল্লা। আসহার জাইদি, ড্যারেন স্টিভেন্স, মাশরাফি বিন মুর্তজা ও শুভাগত হোম চৌধুরীর দ্রুত বিদায়ে ম্যাচ হেলে পড়ে বরিশালের দিকে। সেখান থেকে ম্যাচ ছিনিয়ে আনেন অলক।

শেষ ৮ বলে প্রয়োজন ছিল ২১ রান। এর ১৯ রানই আসে অলকের ব্যাট থেকে। তার শেষের দারুণ ব্যাটিংয়েই শিরোপা জেতে কুমিল্লা।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে অলক জানান, ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে শতক ছাড়া আর কোনো ইনিংসে এতটা খুশি হননি তিনি।

“২০০৮ সালে এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে চার উইকেট পড়ে যাওয়ার পর খুব ভালো একটি সেঞ্চুরি করেছিলাম। ওটা আমার জন্য ভালো স্মৃতি ছিল। আর আজকের ইনিংসটা দারুণ দরকার ছিল। পুরো টুর্নামেন্ট আমরা ভালো খেলেছি। আজকে অবস্থা ভালো ছিল না, ভালো খেলা দরকার ছিল।”

২০০৮ সালে করাচিতে ভারতের বিপক্ষে এশিয়া কাপের ম্যাচে ২৪তম ওভারে ক্রিজে এসে ১১৫ রানের অনবদ্য এক ইনিংস খেলেছিলেন অলক। শেষ ওভারে আউট হওয়ার আগে ৯৭ বলে ৫টি ছক্কা আর ১০টি চারের সাহায্যে ১১৫ রান করেন তিনি।

শেষ পর্যন্ত দল হারলেও সেই ইনিংসকেই এখনও ক্যারিয়ারের সেরা মানেন অলক। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার আছে ১৪টি শতক, আছে দ্বিশতকও। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে আছে চার শতক। ঘরোয়া ক্রিকেটে ম্যাচ জেতানো ইনিংস কম খেলেননি। সে সবকে পেছনে ফেলে বিপিএলের ফাইনালের ইনিংসই ঘরোয়া ক্রিকেটে নিজের সেরা ইনিংস মানছেন তিনি।