• স্কটল্যান্ডের নেতৃত্ব ছাড়ার ঘোষণা কোয়েটজারে
    তার নেতৃত্বে দারুণ সব সাফল্য পেয়েছে স্কটল্যান্ড। দলটির সফলতম অধিনায়কও তিনি। অর্জনে ভরা এই অধ্যায়ের ইতি টানতে যাচ্ছেন কাইল কোয়েটজার। ঘোষণা দিয়েছেন অধিনায়কত্ব ছাড়ার।
  • ছবিতে ভারতের খুনে পারফরম্যান্স
    সেমি-ফাইনালে যেতে হলে প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে জিততে হবে বিশাল ব্যবধানে। এর সঙ্গে তাকিয়ে থাকতে হবে গ্রুপের বাকি ম্যাচগুলোর দিকেও। এমন সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়ে ভারত নিজেদের কাজটা করছে ঠিকভাবে। দুবাইয়ে শুক্রবার স্কটল্যান্ডকে স্রেফ উড়িয়ে দিয়েছে তারা। ৮৫ রানে গুটিয়ে দিয়ে ৮১ বল আগে তুলে নিয়েছে ৮ উইকেটের জয়। ছবি: রয়টার্স।
  • গাপটিলের ব্যাটে সেমির পথে কিউইদের আরেক ধাপ
    টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম দুই ম্যাচে হাসেনি তার ব্যাট। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে নিজেকে মেলে ধরলেন মার্টিন গাপটিল। তার বিস্ফোরক ইনিংসে বড় সংগ্রহ পেল নিউ জিল্যান্ড। বড় রান তাড়ায় লড়াই করলেও শেষ পর্যন্ত পেরে ওঠেনি স্কটিশরা। দারুণ জয়ে সেমি-ফাইনালের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেল কেন উইলিয়ামসনের দল।
  • জাদুকরী বোলিংয়ে নামিবিয়ার নায়ক ট্রাম্পেলমান
    ১-০-২-৩! এই যদি হয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচের প্রথম ওভারে কোনো বোলারের বোলিং ফিগার, ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দেওয়া হয়ে যায় অনেকটাই। রুবেন ট্রাম্পেলমানের বেঁধে দেওয়া সেই সুর ধরেই স্কটল্যান্ডকে অল্প রানে আটকে রাখে নামিবিয়া। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে স্বপ্নময় পথচলায় তারা তুলে নেয় আরেকটি দুর্দান্ত জয়।
  • স্বপ্নের পথচলায় স্কটল্যান্ডকেও হারাল নামিবিয়া
    যেন রূপকথার নতুন নতুন গল্প লিখে চলেছে নামিবিয়া! একের পর এক গড়ছে ইতিহাস। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথমবার খেলতে আসা দলটি আরও একবার উপহার দিল অসাধারণ পারফরম্যান্স। নেদারল্যান্ডস, আয়ারল্যান্ডের পর এবার তাদের কাছে ধরাশায়ী স্কটল্যান্ড। দুর্দান্ত বোলিংয়ে প্রতিপক্ষকে অল্প রানে আটকে ব্যাটসম্যানদের নৈপুণ্যে জয় দিয়ে আসরের মূল পর্ব শুরু করল তারা।
  • দুর্দান্ত স্কটল্যান্ডের সেরা ডেভি
    ভালো শুরুর পর দ্বিতীয় ওভারে একটু ছন্দপতন। তবে ঘুরে দাঁড়াতে সময় নেননি জশ ডেভি। ওমানকে অল্প রানে বেঁধে রাখতে স্কটল্যান্ডের এই পেসার রাখেন মুখ্য ভূমিকা।
  • ওমানকে উড়িয়ে গ্রুপ সেরা স্কটল্যান্ড, রানার্স-আপ বাংলাদেশ
    প্রথম দুই ম্যাচে যেতে পারেননি দুই অঙ্কে। এবার ব্যাট হাতে ঝড় তুললেন কাইল কোয়েটজার। বোলারদের গড়ে দেওয়া ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে অধিনায়কের কার্যকর ইনিংসে ওমানকে সহজেই হারিয়ে গ্রুপ সেরা হলো স্কটল্যান্ড। জায়গা করে নিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে।
  • ‘বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে স্কটল্যান্ডের জয় একই সমান্তরালে’
    ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে স্কটল্যান্ডের অধিনায়ক ছিলেন প্রেস্টন মমসেন। এবারও তিনি বিশ্বকাপ আছেন, তবে ধারাভাষ্যকার হিসেবে। অথচ বয়স তার মোটে ৩৪! ২০১৪ সালে আইসিসির সহযোগী দেশগুলোর সেরা ক্রিকেটারের স্বীকৃতি পেয়েছিলেন তিনি। সহযোগী দেশগুলোর অধিকার নিয়েও ছিলেন সোচ্চার। তবে স্কটিশ ক্রিকেটের অনিশ্চিত ভবিষ্যতের কথা ভেবে ক্রিকেট ছেড়ে দেন ২৯ বছর বয়সেই। এখন তিনি একজন প্রতিষ্ঠিত চার্টার্ড সার্ভেয়ার। সুযোগ পেলে ধারাভাষ্য দেন। বাংলাদেশের বিপক্ষে স্কটল্যান্ডের জয়ে উচ্ছ্বসিত সাবেক এই ব্যাটসম্যান মাসকাটে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তুলে ধরলেন এই জয়ের মাহাত্ম্য, স্কটল্যান্ডের সামনে হাতছানি, সহযোগী দেশগুলোর হাহাকারসহ অনেক কিছু।
  • সুপার টুয়েলভে যেতে বাংলাদেশের সমীকরণ
    ওমানকে হারিয়ে সুপার টুয়েলভের আশা বাঁচিয়ে রাখার মাঝে বড় একটা ধাপও যেন পার হলো বাংলাদেশ। আর তাদের জয়ে পরের ধাপে যাওয়ার দুয়ার টিকে রইলো ‘বি’ গ্রুপের সব দলেরই।
  • ব্যাটিং ঝড়ে ম্যাচের সেরা বেরিংটন
    দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে দল যখন বিপাকে, দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিলেন রিচি বেরিংটন। বিস্ফোরক ইনিংসে গড়ে দিলেন বড় পুঁজি। যার ওপর ভর করে পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্কটল্যান্ড।
  • পিএনজিকে হারিয়ে পরের ধাপের দুয়ারে স্কটল্যান্ড
    সম্ভবত বিশ্বকাপের সবচেয়ে রঙচঙে জার্সি পাপুয়া নিউ গিনির। তাদের ক্যাপ তো দারুণ নান্দনিক। বিস্ময়করভাবে, মাঠে গুটিকয় দর্শকও পাওয়া গেল তাদের। ব্যান্ড-ঢোল বাজিয়ে, নাচে-গানে তারা মুখর করে রাখল চারপাশ। মাঠের ক্রিকেটে তাদের আনকোরা দল বেশির ভাগ সময় ধুঁকে শেষ দিকে উপহার দিল বিনোদন। তবে শেষ পর্যন্ত পারল না চমকপ্রদ কিছু করতে। বাংলাদেশকে হারানোর পর পাপুয়া নিউ গিনিকেও হারিয়ে স্কটল্যান্ড পৌঁছে গেল পরের ধাপের দুয়ারে।
  • ‘অন্য কন্ডিশনে আটকে যেতে পারত বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা’
    অনেকটা নিজেদের দেশের কন্ডিশনে খেলা বলে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কাকে আটকানোর খুব একটা সুযোগ দেখছেন না প্রেস্টন মমসেন। তবে স্কটল্যান্ডের সাবেক এই অধিনায়কের ধারণা, অন্য কোনো কন্ডিশন হলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম পর্বে আটকেও যেতে পারত টেস্ট খেলুড়ে দেশ দুটি।
  • বাংলাদেশকে ওমান-পিএনজির ওপরে দেখেন না স্কটিশ কোচ
    স্কটল্যান্ড, ওমান, পাপুয়া নিউ গিনির (পিএনজি) সঙ্গে থাকা গ্রুপে পরিষ্কার ফেবারিট থেকেই বিশ্বকাপ শুরু করছে বাংলাদেশ। তবে মাঠের বাইরের সেই সমীকরণে বিশ্বাস নেই স্কটল্যান্ডের। বিশ্বকাপ শুরুর আগে স্কটিশ কোচ শেন বার্জারের কণ্ঠে আত্মবিশ্বাসী উচ্চারণ, গ্রুপ পর্বে তারা বাংলাদেশকে অন্য দুই প্রতিপক্ষের চেয়ে ওপরে রাখেন না মোটেও।
  • বাংলাদেশের প্রথম প্রতিপক্ষ: আত্মবিশ্বাসে বলীয়ান স্কটল্যান্ড
    ক্রিকেটে ২০১৮ সালে হৃদয় ভাঙে স্কটল্যান্ডের। খুব-খুব কাছে গিয়েও পরের বছরের ওয়ানডে বিশ্বকাপে জায়গা করে নিতে ব্যর্থ হয় দেশটি। এরপর কঠিন পথ পেরিয়ে ফিরেছে বিশ্ব মঞ্চে। জায়গা করে নিয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রাথমিক পর্বে। আত্মবিশ্বাসে বলীয়ান দেশটি সুপার টুয়েলভের স্বপ্ন নিয়ে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ, ওমান আর পাপুয়া নিউ গিনির।