• রানের বন্যা বইয়ে সেরার লড়াইয়ে বেয়ারস্টো- মিচেল-রুট
    টানা পাঁচ ইনিংসে পঞ্চাশ ছাড়ানো রান, সেঞ্চুরি যেখানে তিনটি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অসাধারণ এই পারফরম্যান্সে জুন মাসের সেরার লড়াইয়ে জায়গা করে নিলেন নিউ জিল্যান্ডের ড্যারিল মিচেল। কিউইদের হোয়াইটওয়াশ করা ওই সিরিজেই দুটি করে সেঞ্চুরি উপহার দেওয়া জনি বেয়ারস্টো ও জো রুটও আছেন ‘আইসিসি প্লেয়ার অব দা মান্থ’-এর সংক্ষিপ্ত তালিকায়।
  • মিচেলের দিকে বল ছুঁড়ে ব্রডের শাস্তি
    হেডিংলি টেস্টে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানের দিকে বল ছুঁড়ে মারায় শাস্তি পেয়েছেন স্টুয়ার্ড ব্রড। ইংল্যান্ডের এই পেসারকে আনুষ্ঠানিকভাবে তিরস্কার করেছে আইসিসি। তার নামের পাশে যোগ হয়েছে একটি ডিমেরিট পয়েন্টও।
  • রুট-পোপের ব্যাটে হ্যাটট্রিক জয়ের আশায় ইংল্যান্ড
    ইংল্যান্ডের সামনে টেস্ট ইতিহাসের প্রথম দল হিসেবে এক সিরিজে তিনবার আড়াইশর বেশি রান তাড়া করে জয়ের হাতছানি। নিউ জিল্যান্ড আছে হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর লড়াইয়ে। হেডিংলি টেস্টের চার দিন শেষে প্রথমটির সম্ভাবনাই এখন বেশি। অলিভার পোপ ও জো রুটের দারুণ জুটিতে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ ইংলিশদের হাতে।
  • ৪ সেঞ্চুরি জুটি, ৭২৪ রান, রেকর্ড বইয়ে মিচেল-ব্লান্ডেল
    ইংল্যান্ড-নিউ জিল্যান্ড চলতি সিরিজের বেশ পরিচিত একটা দৃশ্য হলো দলের বিপদে ড্যারিল মিচেল ও টম ব্লান্ডেলের জুটির দৃঢ়তা। যখনই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছে নিউ জিল্যান্ড, ত্রাতা হয়ে এসেছেন তারা দুজন। তাদের ব্যাটে দল উদ্ধার হয়েছে বারবার। কিউইদের শেষ ইনিংসেও যার দেখা মিলল আরেকবার। মিচেল ও ব্লান্ডেল উপহার দিলেন আরেকটি শতরানের জুটি, তাদের জুটিতে ধরা দিল আরেক রেকর্ড।
  • আমলাকে ছাড়িয়ে মিচেলের রেকর্ড
    ব্যাট হাতে স্বপ্নের মতো কাটানো সিরিজে একের পর এক রেকর্ড গড়ে চলেছেন ড্যারিল মিচেল। প্রথম সফরকারী ব্যাটসম্যান হিসেবে ইংল্যান্ডের মাটিতে তিন বা এর কম ম্যাচের টেস্ট সিরিজে পাঁচশ রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন নিউ জিল্যান্ডের এই ব্যাটসম্যান।
  • ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়ে বেয়ারস্টোর দুর্দান্ত সেঞ্চুরি, অপেক্ষায় ওভারটন
    হেডিংলি টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ব্যাটে-বলে লড়াইটা হলো দারুণ। নতুন বলে সুইং বোলিংয়ের অসাধারণ প্রদর্শনীতে ট্রেন্ট বোল্ট কাঁপিয়ে দিলেন ইংল্যান্ডের ব্যাটিং। দলের সামনে যখন অল্পতে গুটিয়ে যাওয়ার চোখ রাঙানি, ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়ে গেলেন জনি বেয়ারস্টো ও জেমি ওভারটন। একশর বেশি স্ট্রাইক রেটে বেয়ারস্টো করলেন টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। অভিষেকেই তিন অঙ্কের স্বাদ পাওয়ার দুয়ারে বোলিং অলরাউন্ডার ওভারটন।
  • টানা ৩ সেঞ্চুরিতে মিচেলের ইতিহাস
    লর্ডস, ট্রেন্ট ব্রিজ, হেডিংলি- ভেন্যু বদল হলেও ড্যারিল মিচেলের ব্যাটে রানের প্রবাহ থামেনি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে নিউ জিল্যান্ডের এই ব্যাটসম্যান করলেন টানা তৃতীয় সেঞ্চুরি। এতে ওলট-পালট হলো রেকর্ড বইয়ের পাতা।
  • নিকোলসের ‘অদ্ভুত’ আউটের পর মিচেল-ব্লান্ডেলের লড়াই
    বাঁহাতি স্পিনার জ্যাক লিচের বলে বেরিয়ে এসে জোরের ওপর শট খেললেন হেনরি নিকোলস। বল নিজের দিকে আসতে দেখে নন স্ট্রাইক প্রান্তে ড্যারিল মিচেল শেষ মুহূর্তে ব্যাট সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলেন, কিন্তু পারলেন না। বল তার ব্যাটে লেগে মিড অফে জমা পড়ল অ্যালেক্স লিসের হাতে, আউট! ঘটনার আকস্মিকতায় অবাক বোলার নিজেও। ততক্ষণে অবশ্য তাকে ঘিরে উদযাপনে মাতোয়ারা সতীর্থরা।
  • ১৯০ রানের পর দুই ক্যাচ হাতছাড়া-মিচেলের অম্লমধুর দিন
    ছোট্ট টেস্ট ক্যারিয়ারে তৃতীয় সেঞ্চুরি। এক যুগের প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে সেরা ইনিংস। প্রাপ্তি তাই যথেষ্টই। তবু আক্ষেপ খানিকটা থাকার কথা। খুব কাছে গিয়েও ছোঁয়া হলো না প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি! এরপর ফিল্ডিংয়ে নেমে হাতছাড়া হলো দুটি ক্যাচ। সব মিলিয়ে অসাধারণ ব্যাটিংয়ের দিনটিতে কিছু অপূর্ণতাও রয়ে গেল ড্যারিল মিচেলের।
  • মিচেল-ব্লান্ডেলের দৃঢ়তায় বড় সংগ্রহের পথে নিউ জিল্যান্ড
    ক্যাচ ছাড়লে চড়া মূল্য দিতে হয়, ড্যারিল মিচেলকে জীবন দেওয়ার পর হয়তো জো রুটও ভাবছেন সেই কথা। জীবন পেয়ে কিউই ব্যাটসম্যান যে ইংল্যান্ডের সামনে দাঁড়িয়ে গেছেন দেয়াল হয়ে। ফিফটি করে ছুটছেন সেঞ্চুরির দিকে। সঙ্গে টম ব্লান্ডেলের পঞ্চাশ ছাড়ানো ইনিংসে বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে ফেলেছে নিউ জিল্যান্ড।
  • রুটের ব্যাটে আশায় ইংল্যান্ড
    কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের বলটা বেন স্টোকসের ব্যাটের কানা ছুঁয়ে এলোমেলো করে দিল স্টাম্প। নিউ জিল্যান্ডের খেলোয়াড়রা মেতে উঠলেন উদযাপনে। ইংল্যান্ড অধিনায়ক হাঁটা দিলেন ড্রেসিংরুমের পথে। পরক্ষণেই দৃশ্যপটে হাজির তৃতীয় আম্পায়ার। ‘ওভারস্টেপ’ করেছিলেন বোলার, ‘নো’ বল! ১ রানে জীবন পেয়ে স্টোকস করলেন ফিফটি। সঙ্গে জো রুটের অপরাজিত ফিফটিতে লর্ডস টেস্টে জয়ের সম্ভাবনায় এগিয়ে এখন ইংলিশরাই।
  • অসাধারণ জুটিতে সেঞ্চুরির দুয়ারে মিচেল ও ব্লান্ডেল
    ম্যাথু পটসকে দৃষ্টিনন্দন এক অফ ড্রাইভে চার মেরে ৯৭ রানে পৌঁছে গেলেন ড্যারিল মিচেল। রাতে ঠিকমতো ঘুম হবে কি নিউ জিল্যান্ডের এই ব্যাটসম্যানের? দিনের খেলা যে সেখানেই শেষ! আরও একবার যখন দলের সামনে চোখ রাঙাচ্ছিল অল্পতে গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কা। টম ব্লান্ডেলের সঙ্গে কী চমৎকার জুটিই না গড়ে তুললেন মিচেল। তাদের ব্যাটেই এখন লর্ডস টেস্টে ইংল্যান্ডকে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য দেওয়ার পথে কিউইরা।
  • রান না নিয়ে আইসিসির সম্মাননা পেলেন মিচেল
    দলের বিশ্বকাপ ফাইনাল ভাগ্য তখন দোদুল্যমান। একটি রানও মহামূল্য। এরকম গুরুত্বপূর্ণ সময়ে রানের সুযোগ পেয়েও স্রেফ ক্রিকেটীয় ভব্যতা দেখিয়ে রান নেননি ড্যারিল মিচেল। সেদিন শেষ পর্যন্ত ৭২ রান করে দলের জয়ে ম্যাচ সেরা হয়েছিলেন তিনি। এবার আইসিসি তাকে পুরস্কৃত করল ওই একটি রান না নেওয়ার জন্য।
  • ভারত সফরে কনওয়ের বদলে মিচেল
    ডেভন কনওয়ের চোট টেস্ট দলে ফেরার পথ করে দিয়েছে ড্যারিল মিচেলকে। ভারতের বিপক্ষে আসছে সিরিজের নিউ জিল্যান্ড দলে যোগ করা হয়েছে এই অলরাউন্ডারকে।
  • ২২ গজে মিচেলের বীরত্ব, গ্যালারিতে স্বাক্ষী রাগবি তারকা বাবা
    ড্যারিল মিচেল তখন উইকেটে লড়ে যাচ্ছেন নিউ জিল্যান্ডকে জয়ের পথে এগিয়ে নিতে। টিভি ক্যামেরায় তখন গ্যালারিতে দেখা গেল আরেক মিচেলকে। তিনিও ক্রীড়া জগতেরই তারকা এবং নিজের জগতে দারুণ পরিচিত মুখ। নিউ জিল্যান্ডের সাবেক রাগবি ইউনিয়ন তারকা এবং এখন ইংল্যান্ড রাগবি দলের ডিফেন্স কোচ, জন মিচেল। তবে এ দিন গ্যালারিতে তার একটিই পরিচয়, ড্যারিল মিচেলের বাবা!
  • নিউ জিল্যান্ডের নায়ক ‘দা অ্যাকসিডেন্টাল ওপেনার’
    বিশ্বকাপের আগে নিউ জিল্যান্ড দলে ড্যারিল মিচেলের ভূমিকা ছিল ‘ফিনিশার।’ তা বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে তিনি খেলার ‘ফিনিশ’ করলেন বটে। তবে মাঝে কিংবা শেষ দিকে উইকেটে গিয়ে নয়, শুরুতে নেমে। এই বিশ্বকাপে যে বদলে গেছে তার পরিচয়! নতুন পরিচয়ে নিজেকে দারুণভাবে মেলে ধরে নিউ জিল্যান্ডের ফাইনালে ওঠার নায়ক মিচেল।
  • নিউ জিল্যান্ডের প্রথমে মিচেলের প্রথম
    রান তাড়ায় ইনিংস শুরু করতে নেমে ভুগছিলেন ব্যাটে-বলে করতে। তবে শেষ দিকে ঠিকই জ্বলে উঠলেন ড্যারিল মিচেল। ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে নিউ জিল্যান্ডকে প্রথমবারের মতো তুললেন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে। নিজে এই সংস্করণে প্রথমবার জিতলেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার।
  • 'নিশামই গড়ে দিয়েছে ব্যবধান'
    অসাধারণ এক ইনিংসে প্রথমবারের মতো নিউ জিল্যান্ডকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে নেওয়ার নায়ক ড্যারিল মিচেল। তবে তার পাশে দাঁড়িয়ে অবদান কোনো অংশে কম নয় ক্যামিওতে ম্যাচের চিত্র বদলে দেওয়া জিমি নিশামের। শেষের সেই ঝড়ো ইনিংসের জন্য সবার মুখে তাই নিউ জিল্যান্ডের এই অলরাউন্ডারের প্রশংসা।
  • নিউ জিল্যান্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ফিলিপস ও মিচেল
    দেশের হয়ে সাম্প্রতিক সময়ে দারুণ পারফরম্যান্সের পুরস্কার পেলেন গ্লেন ফিলিপস ও ড্যারিল মিচেল। প্রথমবারের মতো নিউ জিল্যান্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তির প্রস্তাব পেয়েছেন এই দুজন।
  • কনওয়ে-মিচেলের সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের সামনে বড় লক্ষ্য
    শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ভুগিয়েছে ফিল্ডিং। হাতছাড়া হয়েছে ক্যাচ আর রান আউটের অনেক সুযোগ। তবুও রুবেল হোসেন ও তাসকিন আহমেদের হাত ধরে শুরুটা ভালো হয়েছিল। কিন্তু সেটা ধরে রাখা যায়নি। সুযোগ দুই হাতে কাজে লাগিয়েছেন ডেভন কনওয়ে ও ড্যারিল মিচেল। তাদের দুর্দান্ত দুই সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশকে বড় লক্ষ্য দিয়েছে নিউ জিল্যান্ড।
  • উইলিয়ামসনের প্রতি মিচেলের কৃতজ্ঞতা
    চা-বিরতির সময় ড্যারিল মিচেল শুনেছিলেন, মাইলফলকে পৌঁছাতে দুই ওভার পাচ্ছেন। সেঞ্চুরি পেতে ওইটুকু সময়ে তুলতে হবে ৩১ রান। পারেননি তিনি। ভেবেছিলেন, এখনই হয়তো ফিরে যেতে ডাকবেন অধিনায়ক। তবে তা করেননি কেন উইলিয়ামসন, পরিকল্পনার বাইরে গিয়ে সময় দেন মিচেলকে। এজন্য অধিনায়কের প্রতি কৃতজ্ঞ এই পেস বোলিং অলরাউন্ডার।
  • উইলিয়ামসনের রেকর্ড ডাবল সেঞ্চুরি, নিকোলস-মিচেলের সেঞ্চুরি
    ক্রাইস্টচার্চে বৃষ্টি এলো, থেমেও গেল। কেন উইলিয়ামসনের ব্যাটে রানের বর্ষণে কোনো থামাথামি নেই। রেকর্ডের মালা গেঁথে কিউই অধিনায়ক উপহার দিলেন আরও একটি ডাবল সেঞ্চুরি। সঙ্গে হেনরি নিকোলসের দেড়শ, রেকর্ড গড়া জুটি আর ড্যারিল মিচেলের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে রান উৎসবে মাতল নিউ জিল্যান্ড।
  • নিউ জিল্যান্ডের মিচেলের শাস্তি
    হ্যামিল্টন টেস্টে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়ের উদ্দেশে বাজে ভাষা ব্যবহার করায় শাস্তি পেয়েছেন নিউ জিল্যান্ডের অলরাউন্ডার ড্যারিল মিচেল। ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে তাকে। পাশাপাশি তার নামের পাশে যোগ হয়েছে একটি ডিমেরিট পয়েন্ট।