• অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের হারাল দ.আফ্রিকা
    প্রতিপক্ষ দলে টি-টোয়েন্টির বিধ্বংসী সব ব্যাটসম্যান। কিন্তু ক্রিস গেইল, আন্দ্রে রাসেলদের ঝড় তোলার সুযোগই দিলেন না দক্ষিণ আফ্রিকার বোলাররা। দারুণ বোলিংয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আটকে রাখলেন দেড়শর নিচে। পরে ব্যাটসম্যানদের নিখুঁত পারফরম্যান্সে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের বড় ব্যবধানে হারাল টেম্বা বাভুমার দল।
  • শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে সিরিজ দক্ষিণ আফ্রিকার
    হারলেই হাতছাড়া হয়ে যাবে সিরিজ, এমন সমীকরণে খেলতে নামা শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং লাইনআপ মুখ থুবড়ে পড়ল। এইডেন মারক্রাম ও তাবরাইজ শামসির স্পিনে স্বাগতিকরা গুটিয়ে গেল একশ পার হতেই। ছোট লক্ষ্য তাড়ায় কুইন্টন ডি ককের ব্যাটে রেকর্ড গড়া জয় নিয়ে সিরিজ ঘরে তুলল দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • দক্ষিণ আফ্রিকার দারুণ জয়
    টপ অর্ডার তিন ব্যাটসম্যানের কার্যকর তিনটি ইনিংস দলকে এনে দিল লড়াইয়ের পুঁজি। নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে বাকিটা সারলেন বোলাররা। দারুণ জয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজে এগিয়ে গেল দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • আভিশকার সেঞ্চুরিতে শ্রীলঙ্কার জয়
    দারুণ সেঞ্চুরিতে আলো ছড়ালেন আভিশকা ফার্নান্দো। দলকে এনে দিলেন লড়াইয়ের পুঁজি। জয়-পরাজয়ের হিসেবে অবশ্য দুই দলের স্লগ ওভারের পারফরম্যান্স রাখল বড় ভূমিকা। শ্রীলঙ্কা শেষ ১০ ওভারে তুলেছিল ৯০। দক্ষিণ আফ্রিকার শেষ ১০ ওভারে প্রয়োজন ছিল ৯১। এর আগেই তাদের থামিয়ে সিরিজে এগিয়ে গেল শ্রীলঙ্কা।
  • গেইল-পোলার্ডদের হারিয়ে সিরিজ দক্ষিণ আফ্রিকার
    চার ম্যাচ শেষে সিরিজে সমতা, শেষ ম্যাচ তাই কার্যত ফাইনাল। আর ফাইনাল কিংবা আবশ্য জয়ের ম্যাচ মানেই তো দক্ষিণ আফ্রিকার ভেঙে পড়ার ইতিহাস! তবে এবার ‘চোক’ করল না তারা। ব্যাটে-বলে পরিপাটি পারফরম্যান্সে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে জিতে নিল সিরিজ।
  • হাসান-আফ্রিদির তোপে উড়ে গেল দ. আফ্রিকা
    দ্বিতীয় নতুন বলের সামনে দাঁড়াতেই পারলেন না দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যানরা। হাসান আলি ও শাহিন শাহ আফ্রিদির তোপে উড়ে গেল তাদের সব প্রতিরোধ। এইডেন মারক্রামের লড়াকু সেঞ্চুরির পরও সহজেই দ্বিতীয় টেস্টে জিতল পাকিস্তান।
  • শেষ বেলায় দ্রুত ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে দ. আফ্রিকা
    জমে গিয়েছিল এইডেন মারক্রাম ও রাসি ফন ডার ডাসেনের জুটি। জেগেছিল প্রথম ইনিংসের হতাশা কাটিয়ে প্রতিপক্ষকে বড় লক্ষ্য দেওয়ার আশা। কিন্তু জুটি ভাঙতেই যেন পথ হারাল দক্ষিণ আফ্রিকা। শেষ বেলায় দ্রুত তিন উইকেট হারিয়ে করাচি টেস্টে চাপে পড়েছে সফরকারীরা।
  • ইংল্যান্ড সিরিজ শেষ মারক্রামের
    আঙুলের চোটে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চলমান চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ থেকে ছিটকে গেছেন দক্ষিণ আফ্রিকান ওপেনার এইডেন মারক্রাম।
  • এবার ছিটকে গেলেন মারক্রাম
    ভারত সফরে ভুগতে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকা ধাক্কা খেয়েছে আবারও। কেশভ মহারাজের পর কব্জির চোট নিয়ে ছিটকে গেলেন ওপেনার এইডেন মারক্রাম।
  • মারক্রামের দুর্দান্ত সেঞ্চুরির পর অস্ট্রেলিয়ার ফেরা
    প্রতিভার ঝিলিক তার ব্যাটে দেখা গেছে আগেই। সেই উজ্জ্বল সম্ভাবনাকেই যেন আরও পোক্ত করল আরেকটি দুর্দান্ত ইনিংস। এইডেন মারক্রাম ছাড়িয়ে গেলেন নিজের আগের সেরা ইনিংসকে। তবে এই ওপেনারের দেড়শ ছাড়ানো ইনিংসকে থামিয়ে পরে ম্যাচে ফিরেছে অস্ট্রেলিয়া।
  • মারক্রাম-ডি ভিলিয়ার্সের ব্যাটে বড় লিডের পথে দক্ষিণ আফ্রিকা
    এইডেন মারক্রামের প্রতিভা আর সামর্থ্যের জানান দেওয়া আরেকটি দুর্দান্ত ইনিংস। আবারও আস্থার প্রতিমূর্তি এবি ডি ভিলিয়ার্স। অস্ট্রেলিয়ানদের সুইং, বাউন্স, রিভার্স সুইং সামলে বাড়তে থাকল দক্ষিণ আফ্রিকার লিড। ব্যাটে-বলে দারুণ লড়াইয়ের দিনটিতে বাড়তি আলোচনার খোরাক জোগাল ক্যামেরন ব্যানক্রফটের দিকে বল টেম্পারিংয়ের সন্দেহের তীর।
  • ডারবানে জয়ের পথে অস্ট্রেলিয়া
    এইডেন মারক্রামের সেঞ্চুরিতে দ্বিতীয় ইনিংসে লড়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে শেষ বেলার চার উইকেট নিয়ে ডারবান টেস্ট মুঠোয় নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। কুইন্টন ডি কক, মর্নে মর্কেল যতটা পারছেন বড় করছেন ম্যাচের দৈর্ঘ্য। দুই জনে ডারবান টেস্ট নিয়ে গেছেন পঞ্চম ও শেষ দিনে।
  • দুই ওয়ানডে খেলেই অধিনায়ক মারক্রাম
    দক্ষিণ আফ্রিকার ভবিষ্যত অধিনায়ক হিসেবে তাকে ভাবা হচ্ছে আরও কয়েক বছর আগে থেকেই। তবে সেই ভবিষ্যত যে এত দ্রুতই বর্তমানে চলে আসবে, সেটি ভাবতে পেরেছিলেন হয়ত কম জনই। দক্ষিণ আফ্রিকার ওয়ানডে দলের নতুন অধিনায়ক হয়েছেন এইডেন মারক্রাম।
  • মারক্রাম-আমলাকে হতাশ করে ভারতের ফেরা
    দক্ষিণ আফ্রিকার শুরুটা ছিল দারুণ। এইডেন মারক্রাম, হাশিম আমলাদের সৌজন্যে দিনটা হয়ে উঠছিল তাদেরই। কিন্তু গড়বড় শেষ বিকেলে। তিন ওভারের মধ্যে দুটি রান আউটসহ তিন উইকেট তুলে নিয়ে লড়াইয়ে ফিরেছে ভারত।
  • ২ দিনেই জিম্বাবুয়েকে হারাল দ. আফ্রিকা
    চার দিনের টেস্ট দুই দিনে জিতে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। দিন-রাতের ম্যাচে গোলাপী বলের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি জিম্বাবুয়ে। প্রথম ইনিংসে অতিথিদের গুঁড়িয়ে দেন মর্নে মর্কেল, দ্বিতীয় ইনিংসে কেশভ মহারাজ।
  • মারক্রামের সেঞ্চুরির পর মর্কেলের ছোবল
    চার দিনের টেস্টের শুরুতে দাপট দেখিয়েছেন বোলাররা। তার মাঝেই ঝকঝকে এক সেঞ্চুরি করেছেন এইডেন মারক্রাম। শেষ বেলায় ব্যাট করতে নেমে মর্নে মর্কেলের ছোবলে একমাত্র টেস্টে চাপে পড়েছে জিম্বাবুয়ে।
  • প্রথম দিনই নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে বাংলাদেশ
    বাংলাদেশ দলে চারটি পরিবর্তন, তার তিনটিই বোলিংয়ে। ব্লুমফন্টেইন টেস্টের প্রথম দিনে পড়েনি তার কোনো ছাপ। ডিন এলগার আর এইডেন মারক্রামের সেঞ্চুরির পর হাশিম আমলা আর ফাফ দু প্লেসির জুটিতে বিশাল সংগ্রহ গড়ার পথে দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • ‘বাংলাদেশ মোটেও খারাপ বোলিং করেনি’
    মাত্র একটি উইকেট হারিয়ে রান তিনশ ছুঁতে চলেছে। সেই একটি উইকেটও কোনো বোলার পায়নি। দিন জুড়ে আউট করার সুযোগ তৈরি করা যায়নি। এরপরও নাকি খারাপ হয়নি বাংলাদেশের বোলিং!