কোহলির মন্তব্যে হতবাক কপিল

‘আমরা যথেষ্ট সাহসী ছিলাম না’- নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে হারের পর ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির এমন মন্তব্য মোটেও পছন্দ হয়নি কপিল দেবের। অধিনায়কের চিন্তাভাবনা এমন হলে দলের পক্ষে ঘুরে দাঁড়ানো কঠিন বলে মনে করেন ভারতের প্রথম বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Nov 2021, 03:02 PM
Updated : 1 Nov 2021, 03:02 PM

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে রোববার নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে পাত্তাই পায়নি ভারত। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকে রানের জন্য হাপিত্যেশ করে তারা করতে পারে কেবল ১১০ রান। কিউইরা ৮ উইকেটে জিতে যায় ৩৩ বল হাতে রেখে।

ম্যাচের পর কোহলি বলেন, “বেশ অদ্ভূত…সত্যি বলতে, আমার মনে হয় না, ব্যাটে-বলে আমরা যথেষ্ট সাহসী ছিলাম। বোলিংয়ে…অবশ্যই আমাদের পুঁজি যথেষ্ট ছিল না। কিন্তু আমরা মাঠে ঢোকার সময় শরীরী ভাষায় আমরা যথেষ্ট তেতে ছিলাম না...।”

দলের অধিনায়কের এ ধরনের কথা বলা উচিত নয় বলে মনে করেন কপিল। কিংবদন্তি এই অলরাউন্ডার এবিপি নিউজের সঙ্গে কথোপকথনে বলেন, কোহলির মন্তব্যে অবাক হয়েছেন তিনি।

“তার মতো এমন বড় খেলোয়াড়ের কাছ থেকে এটি খুবই দুর্বল বক্তব্য। এই যদি হয় দলের শরীরী ভাষা, অধিনায়কের চিন্তাভাবনা, তাহলে দলকে উজ্জীবিত করা সত্যিই কঠিন। এই কথাগুলো শুনে আমি অবাক হয়েছি। সে এ ধরনের খেলোয়াড় নয়।”

“সে একজন যোদ্ধা। আমার মনে হয়, ওই মুহূর্তে সে নিজেকে হারিয়ে ফেলেছিল। একজন অধিনায়কের ‘আমরা যথেষ্ট সাহসী ছিলাম না’-এই ধরনের মন্তব্য করা উচিত নয়। সে দেশের জন্য খেলছে এবং তার সেই আবেগ আছে। কিন্তু যখন কেউ এমন কথা বলে, তখন নিঃসন্দেহে অভিযোগের আঙুল উঠবেই।”

প্রথম ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে ১০ উইকেটে হারের পর নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে এই হার, ভারতের সেমি-ফাইনালে খেলার পথ হয়ে গেছে খুব কঠিন।

নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ১২০ বলের ইনিংসে মাঝে ৭০ বলে কোনো বাউন্ডারিই মারতে পারেননি ভারতের ব্যাটসম্যানরা। অধিনায়ক কোহলি ৯ রান করেন ১৭ বল খেলে। আরেক আগ্রাসী ব্যাটসম্যান রিশাভ পান্তের ১২ রান আসে ১৯ বলে। রোহিত শর্মা করেন ১৪ বলে ১৪, হার্দিক পান্ডিয়া ২৪ বলে ২৩।

কিউই বোলারদের আঁটসাঁট বোলিংয়ে হাঁসফাঁস করতে করতে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা উইকেট হারায় বড় শট খেলার চেষ্টায়। আউট হওয়া ৭ ব্যাটসম্যানের ৬ জনই ধরা পড়েন সীমানায়। বাকি একজন, রিশাভ পান্ত বোল্ড হন তেড়েফুঁড়ে মারার চেষ্টায়। এমন পারফরম্যান্সের পর সমালোচনাও যথেষ্ট নয় বলে মনে করেন কপিল।

“আমার বলার কোনো ভাষা নেই। আমরা কতইবা সমালোচনা করতে পারি? যে দল দাবি করে, তারা আইপিএল খেলেছে এবং যথেষ্ট অনুশীলন করেছে, তারাই যখন এভাবে খেলে, তখন সমালোচনা হবেই।”

“জিতলে কোনো প্রশংসাই যথেষ্ট নয়। তেমনি এখন যত বেশি সমালোচনাই হোক তা যথেষ্ট নয়, কারণ তারা প্রত্যাশানুযায়ী ক্রিকেট খেলতে পারেনি। লড়াই করে হারলে আমরা বুঝতাম। কিন্তু তাদের এমন কোনো পারফরম্যান্স ছিল না, যা নিয়ে আমরা খুশি হতে পারি।”

নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে কোহলিদের বাজে পারফরম্যান্সের সমালোচনা করেন দেশটির অন্য সাবেক ক্রিকেটাররাও। সাবেক ওপেনার বিরেন্দর শেবাগ যেমন টুইট করেন, “ভারতের খুবই হতাশাজনক পারফরম্যান্স। নিউ জিল্যান্ড দুর্দান্ত ছিল। ভারতের খেলোয়াড়দের শরীরী ভাষা ভালো ছিল না, বাজে শট নির্বাচন।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক