মার্শকে না দেখে স্মিথকে দেখে হতাশ ওয়ার্ন

বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তুতি পর্বে ব্যাট হাতে সবচেয়ে উজ্জ্বল ছিলেন মিচেল মার্শ। সেই তিনি বিশ্বকাপে দলের একাদশে জায়গা হারালেন এক ম্যাচ ব্যাট করেই! এই অলরাউন্ডারকে একাদশের বাইরে রাখা মানতেই পারছেন না শেন ওয়ার্ন। কিংবদন্তি এই লেগ স্পিনার বরং টি-টোয়েন্টিতে জায়গা দেখেন না স্টিভেন স্মিথের।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 Oct 2021, 07:37 AM
Updated : 31 Oct 2021, 07:37 AM

বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১১ রান করে আউট হন মার্শ। পরের ম্যাচে ব্যাটিংই পাননি। দল জেতে দুটিতেই। তৃতীয় ম্যাচে শনিবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মার্শকে একাদশের বাইরে রেখে অস্ট্রেলিয়ায় মাঠে নামায় স্পিনিং অলরাউন্ডার অ্যাশটন অ্যাগারকে।

মার্শের মূল শক্তির জায়গা ব্যাটিং, অ্যাগারের বোলিং। ব্যাটসম্যান একজন কমিয়ে খেলতে নেমে বিপাকে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। তিন ওভারের মধ্যেই হারায় তারা ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভেন স্মিথকে। আগ্রাসী ব্যাটসম্যান গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে নামতে হয় পাওয়ার প্লের মধ্যেই। তিনি আউট হয়ে যান দ্রুতই। পাওয়ার প্লেতে ৬ ওভারে অস্ট্রেলিয়া ৩ উইকেট হারিয়ে তোলে কেবল ২১ রান।

ম্যাচ চলার সময়ই অস্ট্রেলিয়ার একাদশ ও ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্ন তোলেন ওয়ার্নার।

“মার্শকে বাইরে রেখে অস্ট্রেলিয়ার (দল) নির্বাচন ও ম্যাক্সওয়েলকে পাওয়ার প্লেতে নামানো হতাশাজনক। তার (ম্যাক্সওয়েল) কখনোই পাওয়ার প্লেতে আসা উচিত নয়, স্টয়নিসকে নামানো উচিত ছিল তখন। খুবই দুর্বল কৌশল ও পরিকল্পনা অস্ট্রেলিয়ার। স্মিথকে আমি পছন্দ করি, কিন্তু টি-টোয়েন্টি দলে তার জায়গা দেখি না। মার্শকে রাখতেই হবে।”

ম্যাচে শেষ পর্যন্ত প্রবল দাপুটে পারফরম্যান্সে অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে দেয় ইংল্যান্ড। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বিদের কাছ থেকে নিজ দেশকে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট শিখতে বললেন ওয়ার্ন।

“যথাযথ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট এটি ইংল্যান্ডের। ইংলিশদের কাছে ধাক্কা খাওয়ার পর আশা করি অস্ট্রেলিয়া শিখবে, কীভাবে খেলতে হয়। পাকিস্তান ও ইংল্যান্ড দেখাচ্ছে, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট কীভাবে খেলতে হয়। অস্ট্রেলিয়ার উচিত খেলার ধরন নিয়ে তাদের ভাবনা পাল্টানো ও দল (একাদশ) বদলানো।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক