ওয়ার্নারের কাছে সমালোচনার জবাব ‘মুখের হাসি’

দুঃসময়কে পাল্টা জবাব বুঝি একেই বলে। চারদিকে যখন ডেভিড ওয়ার্নারের ফর্ম নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার ঝড়, তিনি জবাব দিলেন ২২ গজেই। দারুণ এক ইনিংস খেলে অবদান রাখলেন দলের জয়ে। ব্যাট কথা বলার পর অবশ্য আর মুখের কথায় জবাব দেওয়ার প্রয়োজন মনে করছেন না অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার। এসব তার ধাতে নেই বলেও জানালেন। তার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, খারাপ সময়েও মুখের হাসি অটুট রাখা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Oct 2021, 07:58 AM
Updated : 29 Oct 2021, 08:35 AM

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভের ম্যাচে বৃহস্পতিবার ৪২ বলে ৬৫ রানের ইনিংস খেলেন ওয়ার্নার। স্রেফ ৩ উইকেট হারিয়ে ৩ ওভার বাকি রেখেই শ্রীলঙ্কার ১৫৪ রান টপকে যায় অস্ট্রেলিয়া।

এই ম্যাচের আগে সময়টা পক্ষে ছিল না ওয়ার্নারের। আইপিএলে দুটি ম্যাচ খেলার পরই জায়গা হারান একাদশে। এরপর ঠাঁই হয়নি তার আইপিএল দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ডাগ আউটেও। আগামী মৌসুমে ওয়ার্নারকে সানরাইজার্স ধরে রাখবে না বলেই ধারণা করা হচ্ছে। অথচ এই ফ্র্যাঞ্চাইজির একমাত্র শিরোপা তার নেতৃত্বে, এই দলের হয়ে তার ব্যাটিং ও নেতৃত্বের রেকর্ড দুর্দান্ত।

আইপিএলের পর বিশ্বকাপের আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে ভালো করেননি তিনি। রানের দেখা পাননি বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও। আইপিএল থেকে শুরু হওয়া সমালোচনা আরও বাড়তে থাকে বিশ্বকাপে এসে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচের আগে এই প্রসঙ্গে ওয়ার্নার বলেছিলেন, “ফর্মহীনতার কথা শুনে আমার হাসিই পায়, কয়টা ম্যাচে রান পাইনি? আইপিএলে দুটি ম্যাচ আর দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে, এই তো!”

তার কথা যে ভুল ছিল না, সেটি প্রমাণ করে দিলেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে। সংবাদ সম্মেলনে প্রসঙ্গও উঠল, এই ইনিংস কি সমালোচনার জবাব? ওয়ার্নার হাসলেন আবার।

“সমালোচকদের মুখ বন্ধ করা? নাহ, কখনোই না। এটা খেলাধুলার জগৎ। এখানে যেমন চূড়ায় বিচরণ থাকবে, তেমনি তলানির স্বাদও পেতে হবে। স্রেফ আত্মবিশ্বাস ধরে রাখতে হবে, মুখে হাসি ফোটাতে হবে এবং সেটা কখনোই সরতে দেওয়া যাবে না।”

“এটা তাই কখনোই অমন নয় (সমালোচনার জবাব)। যারা আমার সমালোচনা করেন, তারা ঠিকই জানেন, আমি কেমন।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক