ঘুরে দাঁড়াতে একটা জয়ের অপেক্ষায় বাংলাদেশ

সাকিব আল হাসান বলেছিলেন, স্বপ্ন বারবার পাল্টায় না। কিন্তু বাস্তবতা তো পাল্টায়! সেই বাস্তবতার আঁচ লাগে স্বপ্নেও। সেমি-ফাইনাল খেলার স্বপ্ন নিয়ে বিশ্বকাপে আসা বাংলাদেশ দল কি এখনও তা লালন করছে নাকি তাতে লেগেছে কঠিন বাস্তবতার ছোবল? নুরুল হাসান সোহান কণ্ঠে প্রত্যয় নিয়েই জানালেন, শেষ চারের আশা এখনও ছাড়েননি তারা। স্রেফ দুঃসময় কাটানো একটি জয়ের দেখা পেতে চান তারা।

ক্রীড়া প্রতিবেদকদুবাই থেকে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Oct 2021, 04:02 PM
Updated : 28 Oct 2021, 04:25 PM

সেই জয়টির জন্য বেশি অপেক্ষার সুযোগও আর নেই। প্রথম দুই ম্যাচ হেরে যাওয়ায় দল যেখানে দাঁড়িয়ে, তাতে আরেকটি ম্যাচ হেরে গেলে লক্ষ্য পূরণের আশাও আর থাকবে না। শুক্রবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তাই জিততেই হবে বাংলাদেশকে।

মাঠের ভেতরের হতাশাজনক পারফরম্যান্সে, মাঠের বাইরের নানা ঘটনায় দলের আবহ যদিও খুব আদর্শ নয় এখন। তবে ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রতিনিধি হয়ে এসে সোহান বললেন, অতীতের অভিজ্ঞতা থেকে এবারও দুঃসময়কে পাল্টা জবাব দিতে চান তারা।

“আমার মনে হয়, টি-টোয়েন্টিতে ছোট বা বড় দল নেই। নিজেদের দিনে যারা ভালো করবে, তারাই জিতবে। এই ম্যাচ আমাদের জন্য অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আগেও দেখেছি, বাংলাদেশ দলের খারাপ সময় এসেছে, সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। এবারও সেভাবে (ফিরে) আসতে পারি। আমরা কেবল একটা ম্যাচ জেতার জন্য অপেক্ষা করছি।”

“এখানে (ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে) সবাই নিজের শতভাগ দেওয়ার জন্য উদগ্রীব হয়ে আছে বলে আমি মনে করি। খেলা শেষেই ফল দেখা যাবে, কিন্তু আমরা শতভাগ দিয়ে চেষ্টা করতে চাই। যেহেতু ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শেষ দুই তিনটা সিরিজে টি-টোয়েন্টিতে আমরা ভালো খেলেছি, সেগুলো আরও বেশি অনুপ্রেরণা দিবে।” 

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এ পর্যন্ত ১২ টি-টোয়েন্টি খেলে পাঁচটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। হেরেছে ছয় ম্যাচে, পরিত্যক্ত হয়ছে অন্যটি। ২০১৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতে ফিরেছিল বাংলাদেশ। 

ওই রকম কিছু সতীর্থদের কাছ থেকে দেখতে চান সোহান। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বারবারই বলেছেন, গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে নিজেদের উজাড় করে দিতে চান তারা।

“আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হল কালকের ম্যাচটা। দেশে থাকতে আমরা অনেকেই বলে এসেছি, সেমি-ফাইনালে খেলতে চাই। কালকের ম্যাচটা যদি জিততে পারি সেমি-ফাইনালের আশাটা থাকবে।”

“এখন আমাদের সবার মনোযোগ এই ম্যাচ নিয়েই। যদি আমরা কালকের ম্যাচটা ভালোভাবে শুরু এবং শেষ করতে পারি তাহলে, সামনে যে ম্যাচগুলো আছে, সেগুলো আরও সহজ হয়ে যাবে। আমার মনে হয় যে, এতে পুরো দলটাই চাঙা হয়ে যাবে। যেহেতু আমরা প্রথম দুটি ম্যাচ হেরেছি, আমরা অবশ্যই একটু ব্যাকফুটে আছি। কালকের ম্যাচটা আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক