৭৫ লাখ ডোজ কোভিড টিকা দেওয়া হবে মঙ্গলবার

একদিনে দেশের ৭৫ লাখ মানুষকে করোনাভাইরাসের টিকার বুস্টার ও দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার কর্মসূচি নিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 July 2022, 02:12 PM
Updated : 18 July 2022, 03:03 PM

মঙ্গলবার সব সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বিশেষায়িত হাসপাতাল, জেলা সদর হাসপাতাল, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং সিটি করপোরেশন ও পৌরসভা এলাকার টিকাদান কেন্দ্রে বুস্টার ডোজ দেওয়া হবে।

সোমবার সংবাদ সম্মেলনে টিকাদানের বিশেষ এ কর্মসূচির তথ্য জানান স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

১৮ বছরের বেশি বয়সি যাদের দ্বিতীয় ডোজ পাওয়ার পর চার মাস পার হয়েছে এমন ব্যক্তিরা বুস্টার ডোজ পাবেন।

এর আগে চলতি বছরের ৪ এপ্রিল এক কোটি মানুষকে বুস্টার ডোজ দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে সপ্তাহব্যাপী বিশেষ কোভিড টিকাদান কার্যক্রম চালায় সরকার।

বেশ কিছু দিন নিম্নমুখী থাকার দেশে গত জুন থেকে আবার ঊর্ধ্বমুখী হতে শুরু করেছে করোনাভাইরাস সংক্রমণ। দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাও বেড়েছে। এমন প্রেক্ষাপটে বুস্টার ডোজ নেওয়ার পরিমাণও কমেছে বলে অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানান। জাহিদ মালিকও এ কারণেই বুস্টার ডোজের এ কর্মসূচি নেওয়ার কথা বলেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বক্তব্য দেন।

তিনি বলেন, দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি এবং বুস্টার ডোজ নেওয়ার হার কম হওয়ায় এ কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।

“আমরা ওই ক্যাম্পেইনে একটা লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছি প্রায় ৭৫ লাখ ডোজ। সবাই মিলে কাজ করলে এটা অর্জন করা সম্ভব। এটা অর্জন করলে দেশ সুরক্ষিত থাকবে, সংক্রমণ কমবে। মানুষের মৃত্যুঝুঁকি কমবে।”

কোভ্যাক্স থেকে টিকা পেতেও মজুদ শেষ করা দরকার জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, টিকার মজুদ বেশি থাকলে কোভ্যাক্স থেকে টিকা দেবে না। এজন্য টিকা দিয়ে শেষ করতে হবে।

“আমাদের হাতে টিকা আছে তা দিয়ে দেওয়া দরকার। কারণ এই টিকারও একটা মেয়াদকাল আছে। কতদিন আমরা টিকা নিয়ে বসে থাকব। আপনারা টিকা নিতে থাকেন। আমাদের হাতে যদি স্টক বেশি থাকে তাহলে কোভ্যাক্স কিন্তু আমাদের টিকা দেবে না। আমাদের কাছে কত টিকা মজুদ আছে তাদের কাছে সেই রেকর্ড আছে।”

তিনি জানান, দেশের জনসংখ্যার ৭৬ দশমিক ০৫ শতাংশ মানুষ করোনাভাইরাসের টিকার প্রথম ডোজ পেয়েছেন। এছাড়া ৭০ দশমিক ৩ শতাংশ দ্বিতীয় ডোজ এবং ১৭ দশমিক ৯ শতাংশ মানুষকে বুস্টার ডোজ দেওয়া হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, এদিন ১৬ হাজার ১৮১টি টিকা কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে। টিকাদান কার্যক্রম চালাবেন ৩৩ হাজার ২৪৬ জন কর্মী। তাদের সঙ্গে ৪৯ হাজার ৮৬৯ জন স্বেচ্ছাসেবী কাজ করবেন।

সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, দেশে বর্তমানে অ্যাস্ট্রাজেনেকা, ফাইজার, সিনোফার্ম, সিনোভ্যাক এবং জনসন ও জনসনের প্রায় ২ কোটি ৭৮ লাখ ডোজ টিকা মজুদ রয়েছে।

দেশে রোববার পর্যন্ত ১২ কোটি ৯৫ লাখ ৩৩ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসের টিকার অন্তত এক ডোজ পেয়েছেন। দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১১ কোটি ৯৮ লাখ ৫৭ হাজার এবং বুস্টার ডোজ পেয়েছেন ৩ কোটি ৪ লাখ ৪৬ হাজারের বেশি মানুষকে।

আরও পড়ুন

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক