কোভিড: দৈনিক শনাক্ত রোগী দুই হাজারও ছাড়াল

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বমুখী ধারার মধ্যে ১৮ সপ্তাহ পর দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ফের দুই হাজার ছাড়িয়েছে।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 June 2022, 12:03 PM
Updated : 27 June 2022, 01:53 PM

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, সোমবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৮২০টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ১০১ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে, মৃত্যু হয়েছে আরও দুইজনের।

সর্বশেষ গত ১৯ ফেব্রুয়ারির একদিনে এর চেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছিল। সেদিন ২ হাজার ১৫০ জনের কোভিড শনাক্তের কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

তাতে নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ১৫ দশমিক ২ শতাংশ। আগের দিন রোববার এই হার ছিল ১৫ দশমিক ৬৬ শতাংশ।

নতুন রোগীদের নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৯ লাখ ৬৭ হাজার ২৭৪ জন। তাদের মধ্যে ২৯ হাজার ১৪২ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে করোনাভাইরাস।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন আরও ১৭৯ জন কোভিড রোগী। তাদের নিয়ে ১৯ লাখ ৬ হাজার ৮৬৭ জন সেরে উঠলেন।

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনের দাপট কমলে ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা হাজারের নিচে নেমে এসেছিল। ধারাবাহিকভাবে কমতে কমতে এক পর্যায়ে ২৬ মার্চ তা একশর নিচে নেমে এসেছিল।

গত ৫ মে দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা নেমেছিল ৪ জনে। শনাক্তের হার ১ শতাংশের নিচে ছিল বেশ কিছু দিন। তবে গত ২২ মের পর থেকে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা আবারও বাড়ছে।

১১ সপ্তাহ পর দৈনিক শনাক্ত কোভিড রোগীর সংখ্যা গত ১২ জুন একশ ছাড়িয়ে যায়। ১৫ দিনের মাথায় সোমবার তা দুই হাজারের ঘরও ছাড়াল।

গত এক দিনে শনাক্ত নতুন রোগীর মধ্যে ১৮০৬ জনই ঢাকা মহানগর ও জেলার বাসিন্দা। দেশের ৪৪ জেলায় এদিন নতুন রোগী পাওয়া গেছে।

গত একদিনে যে দুইজন মারা গেছেন তাদের একজন নারী এবং একজন পুরুষ। দুইজনই ঢাকা বিভাগের বাসিন্দা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, গত ২০ থেকে ২৬ জুন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৮৮৪৬ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে, মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের। আগের সপ্তাহে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ছিল ২২১২ জন, কারও মৃত্যুর খবর সে সময় আসেনি।

এই হিসাবে এক সপ্তাহে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৩০০ শতাংশ; আর মৃত্যু বেড়েছে ৯০০ শতাংশ।

মহামারীর মধ্যে সার্বিক শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ১৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ। আর মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৮ শতাংশ।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ২০২০ সালের ৮ মার্চ। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ব্যাপক বিস্তারের মধ্যে গত বছরের ২৮ জুলাই দেশে রেকর্ড ১৬ হাজার ২৩০ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়।

প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ২০২০ সালের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ২০২১ সালের ৫ অগাস্ট ও ১০ অগাস্ট ২৬৪ জন করে মৃত্যুর খবর আসে, যা মহামারীর মধ্যে এক দিনের সর্বোচ্চ সংখ্যা।

বিশ্বে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মারা গেছে ৬৩ লাখ ২৯ হাজারের বেশি মানুষ। বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ৫৪ কোটি ৩৬ লাখ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক