চালের আমদানি শুল্ক কমালো সরকার

বোরোর ভরা মৌসুমেও দাম বেড়ে যাওয়ায় আমদানির মাধ্যমে দেশের বাজার স্থিতিশীল রাখতে সরকার চালের শুল্ক কমিয়ে ২৫ শতাংশে নামিয়ে এনেছে।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 June 2022, 12:02 PM
Updated : 25 June 2022, 12:02 PM

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সম্প্রতি এক পরিপত্রে সিদ্ধ ও আতপ চাল আমদানিতে আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত শুল্ক ছাড়ের ঘোষণা দেয়। বুধবার বিজি প্রেস থেকে গেজেট আকারে ওই পরিপত্র প্রকাশ করা হয়।

কমানোর আগে চাল আমদানিতে মোট ৬২ দশমিক ৫ শতাংশ আমদানি শুল্ক নির্ধারণ করা ছিল।

এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম স্বাক্ষরিত ওই পরিপত্রে শুল্ক ছাড়ের আদেশ আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বহাল থাকার কথা জানানো হয়।

খাদ্য মন্ত্রণালয় আবার চাল আমদানির অনুমোদন দেওয়ার প্রেক্ষিতে এনবিআর চালের শুল্ক কমানোর আদেশ দিল।

এর আগে চাল আমদানিতে ২৫ শতাংশ শুল্ক, ২৫ শতাংশ নিয়ন্ত্রণমূলক শুল্ক, ৫ শতাংশ অগ্রিম কর এবং ৫ শতাংশ অ্যাডভান্সড ট্রেড ভ্যাটসহ (এটিভি) মোট ৬২ দশমিক ৫ শতাংশ আমদানি শুল্ক ছিল।

নতুন পরিপত্রের মাধ্যমে শুল্ক ২৫ শতাংশের পুরোটাই প্রত্যাহার করা হয়েছে। আর নিয়ন্ত্রণমূলক আমদানি শুল্ক ১০ শতাংশ কমিয়ে ১৫ শতাংশে নামিয়ে আনা হয়েছে। অগ্রিম কর হিসেবে ৫ শতাংশ এবং অগ্রিম আয়কর ৫ শতাংশ অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে।

সব মিলিয়ে চাল আমদানির শুল্ক ২৫ শতাংশে নামিয়ে আনা হয়েছে।

সম্প্রতি ভরা মৌসুমে চালের দাম অস্বাভাবিক বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষিতে গত ৬ জুন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারের সভাপতিত্বে খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ কমিটির (এফপিএমসি) সভায় বেসরকারিভাবে ফের চাল আমদানির অনুমতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

ওই দিন সভা শেষে এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, “মিটিংয়ের রেজ্যুলেশনসহ সারসংক্ষেপ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে দ্রুতই পাঠানো হবে এবং এরপর পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে।”

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে গত মৌসুমে চাল আমদানির যে অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল, সেটির মেয়াদ শেষ হয়েছে গত বছরের ৩১ অক্টোবর। 

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক