বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্টের বিজয়ীদের পাশে থাকবে ওয়ালটন

প্রযুক্তি খাতের বিকাশ ঘটানোর মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর অর্থনৈতিক মুক্তি ও সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন এগিয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রির ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম মোর্শেদ।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Oct 2021, 05:34 PM
Updated : 30 Oct 2021, 05:34 PM

শনিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ অডিটোরিয়ামে বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট’ (বিগ)-২০২১ সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এ প্রতিযোগিতার বাছাই শেষে বিজয়ী ২৬ দেশি প্রতিষ্ঠানকে যে কোনো সহযোগিতা দিতে ওয়ালটন পাশে থাকবে বলে জানান তিনি।

স্টার্টআপ ও ইনোভেটরদের নিয়ে আয়োজিত এ প্রতিযোগিতার স্পন্সর ছিল ওয়ালটন। প্রতিযোগিতার সেরা স্টার্টআপ ‘ওপেন রি ফ্যাক্টরি‘এক লাখ ডলারের পুরস্কার অর্জন করেছে।

অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এতে সভাপতিত্ব করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক মো. আব্দুল মান্নান ও ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর লিয়াকত আলী।

ওয়ালটন হাই-টেকের এমডি বলেন, উদ্ভাবনী শক্তি যখন প্রযুক্তিশিল্পের বিকাশ ঘটাবে, তখনই বঙ্গবন্ধুর অর্থনৈতিক মুক্তির স্বপ্ন ও সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন এগিয়ে যাবে।

বিশেষ কিছু কারণে স্বাধীনতার পর সেই সুযোগ পাওয়া যায়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় ইচ্ছা ও চেষ্টায় বাংলাদেশ আজ অন্য উচ্চতায় যাচ্ছে।”

গোলাম মুর্শেদ বলেন, স্টার্টআপ ও ইনোভেটরদের নিয়ে এমন আয়োজন ১৫ বা ২০ বছর আগে যদি হতো, তবে ওয়ালটনের মতো আরও অন্তত ২৬টি প্রতিষ্ঠান এখন বাংলাদেশে থাকত।

প্রতিযোগিতার ফাইনালে ১০টি বিদেশিসহ ৩৬টি স্টার্টআপকে চূড়ান্ত বিজয়ী হিসেবে নির্বাচিত করা হয়। বিজয়ী প্রতিটি স্টার্টআপকে দেয়া হয় ১০ লাখ টাকা করে অনুদান।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক