নাগরিক সমস্যা নিয়ে নাগরিক সাংবাদিকদের ‘নগর নাব্য – মেয়র সমীপেষু’ এবার চাঁদপুর জেলা প্রশাসনে

রিফাত কান্তি সেন
Published : 27 April 2017, 09:30 PM
Updated : 27 April 2017, 09:30 PM

নগরের নানা অসঙ্গতি আর নাগরিকের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে ব্লগ ডট বিডিনিউজ২৪ ডটকমে প্রকাশিত নির্বাচিত প্রতিবেদন নিয়ে ফেব্রুয়ারি ২০১৭ -তে প্রকাশিত 'নগর নাব্য – মেয়র সমীপেষু'। চাঁদপুর প্রশাসনের নিকট চাঁদপুরের নানা ভোগান্তির গল্প ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের  'নগর নাব্য – মেয়র সমীপেষু'  -র মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। এছাড়া প্রতিনিয়তই ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে চাঁদপুরের নাগরিকদের বিভিন্ন সমস্যf নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হচ্ছে।

বই হাতে পেয়ে চাঁদপুর প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানালেন, নাগরিক সাংবাদিকতার প্রসার আরো বাড়িয়ে দিতে হবে। তিনি বলেন, আমরা আপনাদের লেখা ভোগান্তির গল্পগুলো দেখা মাত্রই তা সমাধান করতে আপ্রাণ চেষ্টা করি। এছাড়া তিনি নাগরিক সাংবাদিক রিফাত কান্তি সেনের প্রশংসা করে বলেন, নাগরিকদের জন্য খুব ভাল কাজ করছেন আপনি। যে সমস্ত খবরগুলো মেইনস্ট্রিম জার্নালিজমে আসে না সেটাই পাওয়া যায় নাগরিক সাংবাদিকতার মাধ্যমগুলোতে।


এ সময় এডিসি আবদুল হাইকে প্রশ্ন করা হয়, ফরিদগঞ্জের যে গাছটি দেয়াল টপকে আছে তা কি অপসারণ করা হয়েছে?  [এ নিয়ে ৮ এপ্রিল ২০১৭ তারিখ প্রকাশিত পোস্ট – ফরিদগঞ্জের ওয়াপদা অফিস সংলগ্ন হেলে পরা জাম গাছটি মরণ ফাঁদে পরিণত]

তিনি উত্তরে বলেন, বিষয়টি আপনার মাধ্যমে নজরেে আমার আসে এবং  ফরিদগঞ্জ ইউএনও -কে দ্রুত ব্যবস্থা নিতেও বলি। যদি কোন কারনে মিসটেক হয় তবে আমি আবারও কথা বলবো। অচিরেই সমস্যার সমাধান হবে।


এছাড়া ডাস্টবিন ব্যবহারে নাগরিকদের উদাসীনতার কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আসলেই ব্যাপারটি দুঃখজনক। ডাস্টবিনগুলোর সঠিক ব্যবহার হচ্ছে না। এরপরই এডিসি মহোদয়কে অভিহিত করা হয়, চাঁদপুর মহিলা কলেজ বিজ্ঞান বিভাগের পার্শ্ববর্তী ডাস্টবিনটির কারণে শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি হচ্ছে। দুর্গন্ধে ক্লাস করতে কষ্ট হয় শিক্ষার্থীদের। এ ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ আছে কি? [এ নিয়ে ২৬ এপ্রিল ২০১৭ তারিখ প্রকাশিত পোস্ট – চাঁদপুর সরকারি মহিলা কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের পার্শ্ববর্তী ডাস্টবিনের দুর্গন্ধে ভোগান্তিতে শিক্ষার্থীরা]

নগর নাব্য – মেয়র সমীপেষু বইটি গুরুত্বের সাথে পড়ছেন এডিসি আবদুল হাই

জবাবে তিনি বলেন, অবশ্যই, আমি ডাস্টবিনের ভোগান্তির চিত্রগুলো দেখেছি আপনাদের মাধ্যমে। অচিরেই ব্যাবস্থা নেয়া হবে এ সমস্ত জনদুর্ভোগের।

হাস্যরসাত্বক এডিসি আবদুল হাই খুবই অতিথিপরায়ণ। ভাল মানুষের তালিকায় ঠিক প্রথম সারিতে রাখার মত একজন ব্যক্তি তিনি। ফেনী জেলার এক অজপাড়া গাঁয়ে বেড়ে উঠা যুবক আজ চাঁদপুরে কর্মরত এডিসি আবদুল হাই জনপ্রিয়তার শীর্ষে। নাগরিক সমস্যা সমাধানে চট্টগ্রাম বিভাগের শ্রেষ্ঠ নাগরিক সেবাদানকারী কর্মকর্তার পুরস্কার পান তিনি। এমনকি সরকারের নতুন এক উদ্যোগ সিটিজেন জার্নালিজম চাঁদপুর নামে একটি ফেসবুক গ্রুপও তৈরি করেন এবং সেখানে তুলে ধরা হয় পুরো জেলার নাগরিক সমস্যা।

নাগরিক সাংবাদিকতার জয়গান গেয়ে 'নগর নাব্য- মেয়র সমীপেষু' বইটি সম্পর্কে আবদুল হাই বলেন, চমৎকার একটি সংকলন এটি। তার উপর আমার দায়িত্বরত এলাকার একজন নাগরিক সাংবাদিকের লেখা রয়েছে বইটিতে। খুবই চমৎকার একটি বিষয়। বিশেষ করে নগরের নানা সমস্যা বইটিতে ফুটে উঠেছে।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন তরুণ তিন লেখক মোঃ মমিন খান, আলামিন হোসেন ও জয়নাল আবেদিন।

নগর নাব্য -মেয়র সমীপেষু  প্রকাশনাটি সংগ্রহ করা যাবে বিপিএল এর সাইটে (লিংক) অনলাইন অর্ডারের মাধ্যমে অথবা বিপিএল ফেসবুক পাতায় বার্তাযোগাযোগে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক