কেউ প্রমাণ দেখাতে পারবে না: আমু

আমির হোসেন আমু বলেছেন, সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় তার দল ভাঙার এবং শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে অবস্থানের চেষ্টা কেউ প্রমাণ করতে পারবে না।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Sept 2011, 09:12 AM
Updated : 15 Sept 2011, 09:12 AM
ঢাকা, সেপ্টেম্বর ১৫ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- আমির হোসেন আমু বলেছেন, সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় তার দল ভাঙার এবং শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে অবস্থানের চেষ্টা কেউ প্রমাণ করতে পারবে না।
প্রধান দু'দলের বাইরে দেশে নতুন কোনো ভাবধারা সৃষ্টির চেষ্টা চলছে কি না সে বিষয়ে সজাগ থাকতেও সবার প্রতি আহবান জানিয়েছেন তিনি।
বৃহস্পতিবার বিভিন্ন জাতীয় দৈনিতে প্রকাশিত উইকিলিকসের তারবার্তাভিত্তিক এক সংবাদের প্রতিক্রিয়ায় এ কথা বলেন আমু।
আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের এ সদস্য বলেন, "ওয়ান ইলেভেনে আমি সংস্কার প্রস্তাব দিইনি। এমনকি সারাদেশের আওয়ামী লীগের জেলা-উপজেলাসহ কোনো পর্যায়ের নেতাকর্মী বলতে পারবে না- আমি শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার জন্য তাদের প্রভাবিত করেছি বা পরামর্শ দিয়েছি। এমন কোনো প্রমাণ কেউ দেখাতে পারবে না।"
তিনি বলেন, "এখন পর্যন্ত শেখ হাসিনার নেতৃত্বে কাজ করে যাচ্ছি।"
'শেখ হাসিনার মুক্তির বিরোধিতা করেছিলেন আমির হোসেন আমু'- উইকিলিকসের ফাঁস করা মার্কিন গোপন তারবার্তার বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার দেশের জাতীয় দৈনিকগুলোতে এ সংবাদ পরিবেশিত হয়।
এ প্রসঙ্গে আমির হোসেন আমু তার ইস্কাটনের বাসায় বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন।
"২০০৮ সালের ১১ জুন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা কারাগার থেকে মুক্তি লাভ করেন," উল্লেখ করে তিনি বলেন, "এরপর, ১৮ জুন আমার তার মুক্তির বিরোধিতা করার কোনো প্রশ্নই আসে না। এমন অভিযোগ ছেলেখেলা।"
যে তারবার্তার ভিত্তিতে সংবাদটি প্রকাশ হয়েছে সেটি ২০০৮ সালের ১৮ জুন বাংলাদেশে মার্কিন দূতাবাস থেকে ওয়াশিংটনে পাঠান হয় বলে দৈনিকগুলো উল্লেখ করেছে।
আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে (২০০৭ সালের ১৬ জুলাই) গ্রেপ্তার করা হয়।
ওই বছরেরই ৩ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার করা হয় বিএনপি-প্রধান খালেদা জিয়াকে। তাদের দুজনকে সংসদ ভবনে স্থাপিত বিশেষ কারাগারে রাখা হয়।
আমু বলেন, ১১ জুন হাসিনা মুক্তি পাওয়ার পর তিনি সুধা সদনে হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন।
ওইদিনই দ্বিতীয় দফায় তিনি হাসিনার ডাক পেয়ে সুধা সদনে যান- এ কথা জানিয়ে আমিন হোসেন আমু বলেন, "কারণ সন্ধ্যার পরে তৎকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টারা সুধা সদনে গিয়েছিলেন। তাদের সঙ্গে বৈঠকে আমিও উপস্থিত ছিলাম।"
উইকিলিকসের তথ্যকে অবাস্তব, মিথ্যা, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও ভিত্তিহীন দাবি করে আমু বলেন, "এ ধরনের পরিস্থিতি সৃষ্টির মধ্য দিয়ে দেশে নতুন কোনো ভাবধারা সৃষ্টির চেষ্টা চলছে কি না সবাইকে তা উপলব্ধি করা উচিত।"
উইকিলিকসে ফাঁস হওয়া মার্কিন তারবার্তাভিত্তিক সংবাদ বাংলাদেশেকে রাজনীতিশূন্য করার ষড়যন্ত্রের অংশ বলে মন্তব্য করেছেন সংসদে বিরোধী দল বিএনপির এক নেতাও।
বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এসইউএম/পিডি/২১০৩ ঘ.
তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক