গোলাম আযমের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ

জামায়াতে ইসলামীর সাবেক আমির গোলাম আযমের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের সাক্ষীদের সাক্ষ্য নেয়া শেষ হয়েছে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Oct 2012, 12:09 PM
Updated : 7 Oct 2012, 12:09 PM
ঢাকা, অক্টোবর ০৭ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- জামায়াতে ইসলামীর সাবেক আমির গোলাম আযমের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের সাক্ষীদের সাক্ষ্য নেয়া শেষ হয়েছে।
জামায়াতের গুরু হিসেবে পরিচিত গোলাম আযমের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রোববার ট্রাইব্যুনালকে এ তথ্য জানান।
পুলিশের অতিরিক্ত সুপারিনটেনডেন্ট (এএসপি) মতিউর রহমান তার বক্তব্যের শুরুতে এমন ইঙ্গিত দেন যে, এই মামলায় প্রসিকিউশন আর কোনো সাক্ষীকে হাজির করবে না।
তদন্ত কর্মকর্তা এই মামলায় ষোড়শ সাক্ষী ছিলেন।
১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের অভিযোগে গত ১৩ মে জামায়াতের সাবেক এই আমিরকে অভিযুক্ত করে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১।
তার বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর পক্ষে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের সংশ্লিষ্টতা, ষড়যন্ত্র, উসকানি ও সমর্থনের অভিযোগ আনা হয়।
গোলাম আযমকে ৩৮ জন মানুষকে হত্যার জন্য অভিযুক্ত করা হয়েছে, যা তিনি জামায়াতের প্রধান হিসেবে এবং শান্তি কমিটিতে তার প্রভাব দিয়ে প্রতিরোধ করতে পারতেন।
গত ১২ ডিসেম্বর প্রথম দফায় ৫২ দফা অভিযোগ উত্থাপন করে গোলাম আযমকে গ্রেপ্তারের আবেদন জানায় ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউশন। ট্রাইব্যুনালের নির্দেশে তা পুনর্বিন্যস্ত করে ৫ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিক অভিযোগ উপস্থাপন করা হয়।
বাংলাদেশের স্বাধীনতার তীব্র বিরোধিতাকারী গোলাম আযম ১৯৭১ সালে শান্তি কমিটি, রাজাকার ও আলবদর বাহিনী গঠনে নেতৃত্ব দেন, যাদের সহযোগিতা নিয়ে পাকিস্তানি সেনারা বাংলাদেশে ব্যাপক হত্যা ও নির্যাতন চালায়।
তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান জামায়াতে ইসলামীর আমির গোলাম আযম সে সময় বাংলাদেশের স্বাধীনতার বিপক্ষে অবস্থান নেওয়ার জন্য মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতেও প্রকাশ্যে তদবির চালিয়েছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে।
১৯৭১ থেকে ৭ বছর লন্ডনে অবস্থান করার পর ১৯৭৮ সালে আবার বাংলাদেশে আসেন এই জামায়াত নেতা। ২০০০ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশে দলকে নেতৃত্ব দেন তিনি।
গোলাম আযম ছাড়াও জামায়াতে ইসলামীর পাঁচ শীর্ষ নেতা মতিউর রহমান নিজামী, আলী আহসান মো. মুজাহিদ, দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী, মো. কামারুজ্জামান ও আব্দুল কাদের মোল্লা এবং বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও জিয়াউর রহমান আমলের মন্ত্রী আব্দুল আলীমের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে মামলা চলছে।
মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে হত্যা, খুন, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।
বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/টিএ/এইচএএইচ/এমআই/২৩৫৫ ঘ.
তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক