নোয়াখালীতে আশ্রয় কেন্দ্রে আসছে মানুষ

নোয়াখালীর হাতিয়া,  সুবর্ণচর ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার দুর্গম চরের লোকজনকে নিকটস্থ  ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্রে সরিয়ে আনতে শুরু করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

নোয়াখালী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 May 2013, 06:26 AM
Updated : 15 May 2013, 09:53 AM

বুধবার বিকেল ৫টার পর থেকে সরিয়ে আনাশুরু হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক মো. সিরাজুল ইসলাম।

তিনি জানান,  উপকূলীয় ৫টি  উপজেলার মোট ২৪৪টি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

হাতিয়ার কেরিং চর ও নলের চর ইউনিয়নে কোন আশ্রয় কেন্দ্র না থাকায় সেখানকার বাসিন্দাদের পাশের ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র ও বহুতল  শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরিয়ে আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহেদুল ইসলাম।

তিনি জানান,  ১১৭টি আশ্রয় কেন্দ্রে লোকজনকে সরিয়ে আনার কাজ করছে স্বেচ্ছাসেবকরা। এছাড়া আরো ৮টি কেল্লা প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

নিঝুম দ্বীপ,  দমারচর,  ঢালচরসহ আশপাশের দ্বীপ এলাকার লোকজনকে সরিয়ে আনার জন্য ৭টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

সুবর্ণচর উপজেলার ইউএনও খালিদ মেহেদী হাসান জানিয়েছেন, ১০৮টি আশ্রয় কেন্দ্র ও ৩০টি কেল্লায় লোকজনকে সরিয়ে আনার কাজ চলছে।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ইউএনও আবদুল আউয়াল জানিয়েছেন, ২০টি আশ্রয় কেন্দ্রের পাশাপাশি ১০০টি প্রতিষ্ঠানে লোকজনকে সরিয়ে আনা হচ্ছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক