বিদ্যুৎ খাতে সাফল্য ব্যর্থতার সমীকরণে উৎপাদন বেড়েছে ১০৩ মেগাওয়াট

গেল এক বছরে দেশ যেমন ভয়াবহ গ্রিড বিপর্যয়ের মুখে পড়েছিল তেমনি সর্বোচ্চ পরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদনও হয়েছে গেল বছরই। । ২০০৭ সালে বিদ্যুৎ উৎপাদন বেড়েছে ১০৩ মেগাওয়াট। অন্যদিকে তিন দফা জাতীয় গ্রিড বিপর্যয়ে সারাদেশ বিদ্যুৎবিহীন হয় একই বছর। মারুফ মল্লিক জানাচ্ছেন

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Jan 2008, 03:21 AM
Updated : 6 Jan 2008, 03:21 AM
মারুফ মল্লিক
বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এনার্জি করসপনডেন্ট
ঢাকা, ডিসেম্বের ৩০ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- গেল এক বছরে দেশ যেমন ভয়াবহ গ্রিড বিপর্যয়ের মুখে পড়েছিল তেমনি সর্বোচ্চ পরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদনও হয়েছে গেল বছরই। ।
২০০৭ সালে বিদ্যুৎ উৎপাদন বেড়েছে ১০৩ মেগাওয়াট। অন্যদিকে তিন দফা জাতীয় গ্রিড বিপর্যয়ে সারাদেশ বিদ্যুৎবিহীন হয় একই বছর। মারুফ মল্লিক জানাচ্ছেন বিস্তারিত।
অবশ্য প্রধান উপদেষ্টার জাতির উদ্দেশে দেওয়া ৯ সেপ্টেম্বরের ভাষণ বলে অন্য কথা। সেদিন ড. ফখরুদ্দীন আহমদ বলেছিলেন "এবছরের (২০০৭) ডিসেম্বরের মধ্যে অতিরিক্ত ২০০ মেগাওয়াট, আর আগামী বছর জুন নাগাদ আরও ৩৭০ মেগাওয়াট অতিরিক্ত বিদ্যুৎ উৎপাদিত হবে বলে সরকার আশা করছে।"
গত এক বছরের বিদ্যুৎ বিভাগের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব ড. এম ফাওজুল কবির খান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, "খুব ভালো করেছি বলা যাবে না। তবে কিছু উন্নতি হয়েছে। বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।"
তিনি জানান, চলতি বছরে দেশে ১০৩ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রুরাল পাওয়ার কোম্পানী লিমিটেডের ৭০ মেগাওয়াট এবং সামিত পাওয়ারের ৩৩ মেগাওয়াট।
বিদ্যুখাতের সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা ছিল এক মাসের ব্যবধানে দেশে তিনবার জাতীয় গ্রিড বিপর্যয়। ১৬ নভেম্বর ২ দফা জাতীয় গ্রিড বিকল হয়ে পড়ে। ওই সময় টানা কয়েকঘণ্টা সারাদেশ বিদ্যুৎ ছিল না। এরপর ১৫ ডিসেম্বর আবার গ্রিড বিপর্যয় ঘটে। এবার তিন ঘণ্টা বিদ্যুৎবিহীন ছিল সারা দেশ।
বিদ্যুৎ খাতের গত এক বছরের কর্মকাণ্ডের খতিয়ান বিশে
তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক