ঢাকা মহানগরীতে পাল্টেছে অপরাধের ধরন

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অধীন ৩৩ টি থানায় বিগত বছরে দস্যুতা, নারী ও শিশু নির্যাতন, ছিনতাই এবং চুরিসহ বিভিন্ন অপরাধে ২০০৬ সালের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ মামলা হয়েছে। আবু নোমান সজীব জানাচ্ছেন বিস্তারিত।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 Jan 2008, 02:13 AM
Updated : 4 Jan 2008, 02:13 AM
আবু নোমান সজীব
বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম প্রতিবেদক
ঢাকা, জানুয়ারি ০৪ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)-ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অধীন ৩৩ টি থানায় বিগত বছরে
দস্যুতা, নারী ও শিশু নির্যাতন, ছিনতাই এবং চুরিসহ বিভিন্ন অপরাধে ২০০৬ সালের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ মামলা হয়েছে। ১/১১র পটপরিবর্তনের পর নতুন তত্ত্বাবধায়ক সরকার দায়িত্ব নেওয়ায় পরিবর্তিত পরিস্থিতির সঙ্গে সঙ্গে অপরাধের ধরন এবং প্রকৃতিও অনেকটাই পাল্টে গেছে। পেশাদার সন্ত্রাসীরা নতুন নতুন কৌশলে অপরাধকর্ম চালিয়েছে গত বছর। আবু নোমান সজীব জানাচ্ছেন বিস্তারিত।
অন্যদিকে ২০০৬ সালের তুলনায় রাজনৈতিক হত্যাকান্ড কমলেও বছরজুড়ে মোট হত্যাকান্ডের সংখ্যা ছিল প্রায় একই।
ঢাকা মহানগর পুলিশের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০০৬ সালে রাজধানীর ৩৩ টি থানায় দস্যুতা, খুন, নারী ও শিশু নির্যাতন এবং চুরিসহ বিভিন্ন অপরাধে মোট মামলা হয়েছিল ১৫৮৩১ টি। বিপরীতে ২০০৭ সালে এর সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ হয়ে দাঁড়িয়েছে মোট ২৪৭১৩ টি।
গত বছরে রাজধানীতে ২০০৬ সালের তুলনায় মোট হত্যাকাণ্ডের সংখ্যা ছিল প্রায় একই। ২০০৬ সালে রাজধানীর থানাগুলোতে হত্যার ঘটনায় দায়ের হওয়া মোট মামলার সংখ্যা ছিলো ৩৪৬টি। অন্যদিকে ডিএমপির তথ্য অনুযায়ী গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত রাজধানীতে হত্যাকান্ডের ঘটনায় কমপক্ষে ৩৩৩ টি মামলা দায়ের হয়েছে। বছরের বাকি ছয়টি দিনে রাজধানীতে আরো কমপক্ষে সাতটি খুনের তথ্য পাওয়া গেছে। এ নিয়ে মোট হত্যাকাণ্ডের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৪০। এর মধ্যে সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী সায়মা খানম হত্যা, এনএসআই কর্মকর্তা আতিয়ার রহমান হত্যা, সেনা কমকর্তা দম্পতির ছেলে রুশো হত্যা এবং ভিকারুন্নিসার ছাত্রী সাদিয়া নওশীন হত্যাসহ ২০টির মতো চাঞ্চল্যকর মামলা রয়েছে।
গত বছরে রাজধানীতে নারী নির্যাতনের হার আশংকাজনকভাবে বেড়েছে। ২০০৬ সালে রাজধানীর থানাগুলোতে নারী নির্যাতনের ঘটনায় মোট মামলা হয়েছিল ৮৫১টি। বিপরীতে গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত একই অভিযোগে মামলা হয়েছে মোট ১৫৯৪ টি। মামলার সংখ্যা দ্বিগুণ হওয়া ঘটনার সংখ্যা দ্বিগুণ হওয়ার নিশ্চিত প্রমাণ না হলেও তা যে অনেক বেড়েছে তা পরিষ্কার।
গত বছরে রাজধানীতে ডাকাতির ঘটনাও বেড়েছে অনেক। ২০০৬ সালে ডাকাতির ঘটনায় মোট ৫৮ টি মামলা হয়। বিপরীতে বিগত বছরের ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত রাজধানীর থানাগুলোতে ডাকাতির ঘটনায় মামলা হয়েছে ৯৮ টি।
একইভাবে বিগত বছরে রাজধানীতে দস্যুতার হারও বেড়েছে প্রায় দেড় গুণ। ২০০৬ সালে রাজধানীর থানাগুলোতে দস্যুতার ঘটনায় মোট মামলা হয় ১৬০টি। অথচ ২০০৭ সালের ২৫ ডিসেম্বর দস্যুতার ঘটনায় মামলা হয়েছে ৪৪৭টি।
গত বছর রাজধানীতে চুরিও বেড়েছে। ২০০৬ সালের চেয়ে গত বছর চুরির মামলা বেশি হয়েছে ১৭১৮টি। ২০০৬ সালে রাজধানীর থানাগুলোতে চুরির অভিযোগে মোট মামলা হয়েছিল ২৫৯৪টি। বিপরীতে ২০০৭ এর ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত চুরির অভিযোগে মামলা হয়েছে ৪৩১২টি।
একইভাবে রাজধানীতে ২০০৭ সালে দাঙ্গা, ধর্ষণ, ছিনতাই, অপহরণ, সিঁদেল চুরি, গাড়ি,তার ও গবাদি পশু চুরিসহ বিভিন্ন অপরাধে মামলার সংখ্যা অনেক বেড়েছে।
কিন্তু সার্বিকভাবে আইন -শৃঙ্খলা পরিস্থিতি যে খারাপ হয়েছে তা মানতে রাজী নন ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার নাইম আহম্মেদ। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে স
তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক