ছবিতে মুক্তির গান

দৃক আয়োজিত আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র উৎসব 'ছবি মেলা-৫' এর অংশ হিসেবে বুধবার শিল্পকলা একাডেমিসহ নগরীর বিভিন্ন গ্যালারিতে শুরু হয়েছে দ্বিতীয় পর্বের ২৩টি প্রদর্শনী। বিকেলে শিল্পকলা একাডেমিতে দ্বিতীয় পর্বের এসব প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও এডভোকেট সুলতানা কামাল।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Feb 2009, 01:02 PM
Updated : 11 Feb 2009, 01:02 PM
ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ১১ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম) -- দৃক আয়োজিত আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র উৎসব 'ছবি মেলা-৫' এর অংশ হিসেবে বুধবার শিল্পকলা একাডেমিসহ নগরীর বিভিন্ন গ্যালারিতে শুরু হয়েছে দ্বিতীয় পর্বের ২৩টি প্রদর্শনী।
বিকেলে শিল্পকলা একাডেমিতে দ্বিতীয় পর্বের এসব প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও এডভোকেট সুলতানা কামাল।
দ্বিতীয় পর্বের ১৫টি প্রদর্শনী চলছে শিল্পকলা একাডেমির গ্যালারিতে । বাকি ৮টি চলছে রাজধানীর আন্যান্য গ্যালারিতে ।
প্রদর্শনী উদ্বোধনকালে সুলতানা কামাল বলেন, "এ ধরনের কাজের আয়োজনের জন্য সম্মিলিত উদ্যোগের প্রয়োজন হয়। এটা একটা আন্তর্জাতিক উৎসব। উৎসবের ছবিগুলোতে মানুষের হতাশা, বন্দিত্ব ও মর্যাদা এসব বিষয় ফুটে উঠেছে। মানুষ সব কিছুর মাঝেও মুক্তির একটি আস্বাদ পেতে চায়। মানুষ যখন 'মুক্তির' ইচ্ছা করে তখন সে তা খুঁজে পায়। মানুষের মুক্তির ইচ্ছাকে বাস্তবায়ন করতে হলে সাধনার কোনও বিকল্প নেই। যখন আমরা পরস্পরের হাতে হাত রেখে কাজ করি তখনই আমরা লক্ষ্য অর্জনে সক্ষম হই।"
এছাড়া অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন উৎসব পরিচালক শহীদুল আলম ও কনসার্ন বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর কিরণ ক্রলি।
শিল্পকলা একাডেমির গ্যালারিতে যেসব প্রদর্শনী চলছে তার মধ্যে বেশ কয়েকটি দর্শকদের দৃষ্টি কেড়েছে। এর মধ্যে আছে, বাংলাদেশের আলোকচিত্রী শিহাব উদ্দিনের 'আমরাও মানুষ'।
তার ছবিগুলো ঢাকার 'পথবাসী' মানুষের দঃখগাঁথা। এদের সবচেয়ে বড় কষ্ট- মানুষ হিসেবে তাদের কোনো মর্যাদাই নেই। রাজধানীর 'পথবাসীদের' প্রতিদিনের সংগ্রাম, পরস্পরের প্রতি ভালোবাসা, তাদের প্রতি নগরীর মানুষের নিদারুণ অবজ্ঞা ক্যামেরার ফ্রেমে ধরেছেন শিহাব ।
কেউ রাস্তায় ঘুমাচ্ছে, গণশৌচাগারের সামনে সকালে দীর্ঘ লাইন। শারীরিক প্রতিবন্ধী 'রাবেয়ার' হামাগুড়ি দিয়ে রাস্তা পার হওয়ার দৃশ্য। অসুস্থ বন্ধুকে 'তেলপোড়া' দিয়ে বুকে মালিশ করছে একজন পথবাসী, অথচ কেউ কারো নামটি পর্যন্ত জানেনা- এরকম অনেক ছবির মধ্যে মাত্র কয়েকটি, যা খুবই হৃদয়স্পর্শী।
'আমরাও মানুষ' শিরোনামটি এই আশ্রয়হীন মানুষদেরই ঠিক করে দেওয়া।
'ফ্রিডম ট্র্যাক' শীর্ষক প্রদর্শনীতে নরওয়ের আলোকচিত্রী টম হ্যাতলস্তাদ 'মুক্তি' সম্পর্কে অন্যদের ভাবনা তুলে ধরেছেন। এটি একটি ডক্যুমেন্টারি প্রজেক্ট, যা ছবি মেলার থিম 'মুক্তি'র সঙ্গে সম্পৃক্ত।
নরওয়ে থেকে একাকী গাড়ি চালিয়ে ৫৫ দিনে দীর্ঘ ১৫ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে ঢাকা আসার পথে টম অনেক মানুষের সঙ্গে মিশেছেন, কথা বলেছেন। সেইসঙ্গে 'মুক্তি' শব্দটাকে আরও বিশদভাবে ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করেছেন। এই দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় তিনি নর্ডিক দেশগুলো এবং পূর্ব ইউরোপ হয়ে তুরস্ক, ইরান, পাকিস্তান, ভারত, নেপাল পেরিয়ে বাংলাদেশে পৌঁছান। এভাবেই ১৫ হাজার কিলোমিটারের এক বিশাল ক্যানভাসে টম এঁকেছেন 'মুক্তির' ছবি ।
টম তার অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে গিয়ে বলেন, "যে দেশগুলো আমি ভ্রমণ করেছি, সবগুলোরই রয়েছে যুদ্ধ এবং আগ্রাসনের ইতিহাস । এ সব দেশের মানুষের কাছে 'মুক্তি' শব্দটির ব্যাখ্যা একেবারেই ভিন্ন, যা পাশ্চাত্যের বেশিরভাগ মানুষের চাইতে আলাদ।"
ডেনমার্কের আলোকচিত্রী ম্যাডস নিসেনের প্রদর্শনী 'তিব্বতে আন্দোলন'। চীনা শাসনের বিরুদ্ধে তিব্বতিদের আন্দোলনের ৪৯তম বার্ষিকীতে গত বছরের মার্চে লাসায় তিব্বতিদের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ নিষ্ঠুরভাবে দমন করে চীনা কর্তৃপক্ষ। ওই বিক্ষোভের আঁচ গিয়ে লাগে চীনের মূল ভূখণ্ডের কয়েকটি প্রদেশেও। নিউজ উইকের প্রতিবেদক হিসেবে ম্যাডস নিসেন গানসু প্রদেশের তিব্বতি অধ্যুষিত ছোট শহর তংরেনে গিয়েছিলেন ঘটনা কাভার করতে। ছবিগুলো সেখানকার।
ব্রাজিলের ফটোগ্রাফার এডুয়ার্ডো মার্টিনোর প্রদর্শনীর নাম 'আশার বন্দিরা : ব্রাজিলের আধুনিককালের ক্রিতদাস'। এটি ব্রাজিলের দাস শ্রমিকদের করুণ জীবনগাঁথা। কৃষি খামারের মালিকরা কীভাবে 'জাল' ঋণের ফাঁদে শ্রমিকদের আটকে রাখে দাসের মতো তা-ই তুলে ধরা হয়েছে ছবিতে।
এছাড়া শিল্পকলা একাডেমির গ্যালারিতে চলছে, সিঙ্গাপুরের ট্রিষ্টিয়ান কাইয়ের 'বিউটিফুলি রিচ', ইন্দোনেশিয়ার রনি জাকারিয়ার 'ইন হারমনি-যোগ্যকর্তা', থাইল্যান্ডের মাইকেল শাওয়ানাসির 'নারীর জীবন:সিরিজ ২০০০-০৮ থেকে', শ্রীলংকার দানুসকা আমারাসেকারার 'দি আই অব দ্য বিহোল্ডার', চীনের আলোকচিত্রীদের দলীয় প্রদর্শনী 'চায়না : ফ্রিডম ফ্রম পোভার্টি', সিঙ্গাপুরের রেনহুই ঝাউয়ের 'টু সেল এ টাইগার' শীর্ষক প্রদর্শনী। আরো আছে মেক্সিকোর ফটোগ্রাফারদের দলীয় প্রদর্শনী 'অ্যাবাউট ফ্রিডম'।
৩০ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এ আলোকচিত্র উৎসবের দ্বিতীয় পর্বে বাংলাদেশসহ ২১টি দেশের ১৯ জন শিল্পীর একক প্রদর্শনী ও ৪টি দলীয় প্রদর্শনী চলছে।
বাংলাদেশ, চীন ও মেক্সিকোর আলোকচিত্রীদের তিনটি দলীয় প্রদর্শনী চলছে শিল্পকলা একাডেমীর গ্যালারিতে।
আর ইরাকি আলোকচিত্রীদের দলীয় প্রদর্শনীটি চলছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইন্সটিটিউটের উল্টো দিকে রাস্তার পাশের ছবির হাটে। এর শিরোনাম 'ওপেন শাটার্স'।
উৎসবের দ্বিতীয় পর্বের প্রদর্শনীর অপর তিনটি ভেন্যু হচ্ছে-দৃক গ্যালারি, গ্যোটে ইসটিটিউট এবং এশিয়াটিক গ্যালারি অফ ফাইন আর্টস।
দৃক গ্যালারিতে চলছে তিনটি প্রদর্শনী। আর্জেন্টিনার ফটোগ্রাফার পলা লুট্রিনজারের 'এল লামেন্তো দে লো মুরোস' (দেয়ালের আর্তি), নেদারল্যান্ডসের কাদির ভ্যান লোহুইজেনের 'ডায়মন্ড ম্যাটার্স' এবং সুইডিশ ফটোগ্রাফার ফাতেমি গোশেহ'র 'দ্য ফেস অব টেররিস্ট' (সন্ত্রাসীর মুখ)।
'রোডব্লকস' শিরোনামের প্রদর্শনীটি চলছে গ্যোটে ইন্সটিটিউটে। এর আলোকচিত্রী ইসরাইলের এডি জেরাল্ড।
এশিয়াটিক গ্যালারি অফ ফাইন আর্টসে চলছে জাপানের কোসুকে ওকাহারার 'ভ্যানিশিং এক্সিস্টেন্স-অ্যাবানডান্ড লেপ্রোসি ভিলেজেস ইন চায়না' এবং ফিলিপাইনের আলোকচিত্রী এস্তান কাবিগাসের 'কোপিং ঊইথ আ ডেসাপারেসিডো' প্রদর্শনী দু'টি।
এই পাঁচটি ভেন্যুর সবকটি প্রদর্শনীই চলবে ২০ ফেব্র"য়ারি পর্যন্ত।
পঞ্চম ছবি মেলায় মোট ৩৩টি দেশের ৬৩টি প্রদর্শনী স্থান পেয়েছে।
বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এইচএ/০০৪৫ ঘ.
তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক