ছবিপ্রেমীদের ভিড় লেগেছে শহরে

রাজধানী ঢাকা এখন দেশ-বিদেশের ছবিপ্রেমীদের পদচারণায় মুখর। প্রতিটি প্রধান গ্যালারিতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের নানা প্রান্তের আলোকচিত্রীদের ছবি প্রদর্শিত হচ্ছে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 Jan 2009, 09:06 AM
Updated : 31 Jan 2009, 09:06 AM
ঢাকা, জানুয়ারি ৩১ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)-- রাজধানী ঢাকা এখন দেশ-বিদেশের ছবিপ্রেমীদের পদচারণায় মুখর। প্রতিটি প্রধান গ্যালারিতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের নানা প্রান্তের আলোকচিত্রীদের ছবি প্রদর্শিত হচ্ছে।
নগরবাসীর সঙ্গে এসব গ্যালারি ঘুরে ঘরে ছবি দেখছেন 'ছবি মেলা-৫' এ অংশ নেওয়া বিদেশী আলোকচিত্রীরাও। সেইসঙ্গে যোগ দিচ্ছেন বক্তৃতা, বিতর্ক, আলোচনা, ডিজিটাল উপস্থাপনা ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনীতে।
দৃক আয়োজিত আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র উৎসব 'ছবি মেলা- ৫' শুক্রবার ঢাকায় শুরু হয়। প্রধান অতিথি ভারতীয় সাহিত্যিক ও মানবাধিকার কর্মী মহাশ্বেতা দেবী 'ছবি মেলা-৫' উদ্বোধন করেন।
এবারের ছবিমেলার থিম ফ্রিডম বা 'মুক্তি'। ছবি মেলা চলবে ২০ ফেব্র"য়ারি পর্যন্ত।
শনিবার দৃক গ্যালারিতে শুরু হয়েছে দুটি আলোকচিত্র প্রদর্শনী। গ্যালারি-১ এ উদ্বোধন হয়েছে আর্জেন্টিনার ফটোগ্রাফার মারসেলো ব্রডস্কির 'বুয়েনা মেমোরিয়া' শীর্ষক প্রদর্শনী। এটি আলোকচিত্রীর যৌবনের দিনগুলোর প্রতিচ্ছবি। এ যেন সময়ের পরিক্রমায় হারিয়ে যাওয়া দিনগুলোতে এক নস্টালজিক অভিযাত্রা।
আর গ্যালারি-২ এ শনিবার শুরু হয়েছে 'বাংলাদেশ ১৯৭১' শীর্ষক প্রদর্শনী।
এটি উদ্বোধন করেন আলোকচিত্রী নাইব উদ্দিন আহমেদ। এতে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ছবি প্রদর্শিত হচ্ছে।
দুটি প্রদর্শনীই ৯ ফেব্র"য়ারি পর্যন্ত চলবে। প্রতিদিন দুপুর ১২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত তা দর্শকদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।
এদিকে বেঙ্গল গ্যালারি অফ ফাইন আর্টসে শুরু হয়েছে 'এ পিপল ওয়্যার' শীর্ষক প্রদর্শনী। এর কিউরেটর নেপালের কুণ্ড দিক্ষীত। বিকেল ৫ টায় এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন 'নিউ এজ' পত্রিকার সম্পাদক নূরুল কবির। বিশেষ অতিথি ছিলেন কুণ্ড দিক্ষীত। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উৎসব পরিচালক আলোকচিত্রী শহীদুল আলম।
এ প্রদর্শনীর ছবিগুলোতে নেপালের ১০ বছরের গেরিলাযুদ্ধ এবং সাধারন মানুষের জীবনে তার কী প্রভাব পড়েছে তা ফুটে উঠেছে। সেইসঙ্গে অহিংসার বাণীও হয়েছে প্রচারিত। এটি চলবে ৯ ফেব্র"য়ারি পর্যন্ত।
জাতীয় জাদুঘর, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী, বেঙ্গল গ্যালারি অব ফাইন আর্টস, দৃক গ্যালারি, আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ, গ্যেটে ইনস্টিটিউট, ব্রিটিশ কাউন্সিল, এশিয়াটিক গ্যালারি অব ফাইন আর্টস, শাঁখারীবাজারের কল্পনা বোর্ডিংস, কারওয়ানবাজার আন্ডারপাস ও চারুকলার সামনের 'ছবির হাট'--এই ১১টি ভেন্যুতে ছবি প্রদর্শিত হবে।
এছাড়া ১০টি রিক্সা ভ্যানে করে ঢাকা শহরের রাস্তা ও মার্কেটগুলির সামনের খোলা জায়গায় ভ্রাম্যমাণ প্রদর্শনীর ব্যবস্থা থাকছে। মোট ৬২টি আলাদা প্রদর্শনীতে ৩৫ দেশের ফটোগ্রাফারদের এক হাজারের বেশি ছবি প্রদর্শিত হবে এবারের মেলায়।
৩১ জানুয়ারি শনিবার থেকে ৬ ফেব্র"য়ারি পর্যন্ত ঢাকার গ্যেটে ইন্সটিটিউটে থাকছে ছবি নিয়ে বক্তৃতা, বিতর্ক, আলোচনা, ডিজিটাল উপস্থাপনা ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী।
এবারের মেলায় অংশ নিচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকা, আর্জেন্টিনা, বাংলাদেশ, নেপাল, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য, ডেনমার্ক, অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, লেবানন, চীন, জার্মানি, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইসরায়েল, ইতালি, ইরাক, জাপান, মালি, মেক্সিকো, রাশিয়া, নাইজেরিয়া, নরওয়ে, পাকিস্তান, ফিলিস্তিন, ফিলিপাইন, নেদারল্যান্ডস, যুক্তরাষ্ট্র, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, শ্রীলংকা, সৌদি আরব ও সুইডেন।
বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এইচএ/জিএনএ/২০৫৯ ঘ.
তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক