নূর ও রাশেদের বিষয়ে তথ্য চেয়েছে টাস্কফোর্স

বঙ্গবন্ধুকে হত্যাকাণ্ডের ফাঁসির আসামি এ এইচ এম বি নূর চৌধুরী ও এম রাশেদ চৌধুরীর খোঁজ নিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সাত দিন সময় দেওয়া হয়েছে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Dec 2011, 07:01 AM
Updated : 22 Dec 2011, 07:01 AM
ঢাকা, ডিসেম্বর ২২ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- বঙ্গবন্ধুকে হত্যাকাণ্ডের ফাঁসির আসামি এ এইচ এম বি নূর চৌধুরী ও এম রাশেদ চৌধুরীর খোঁজ নিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সাত দিন সময় দেওয়া হয়েছে।
বঙ্গবন্ধুকে হত্যাকাণ্ডে পালিয়ে থাকা আসামিদের ফিরিয়ে আনতে গঠিত টাস্কফোর্সের বৈঠক শেষে বৃহস্পতিবার আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, “নূর চৌধুরী ও রাশেদ চৌধুরীর ব্যাপারে সর্বশেষ খোঁজ-খবর জানতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সাত দিনের সময় দেওয়া হয়েছে।”
বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত নূর চৌধুরী কানাডায় এবং এম রাশেদ চৌধুরী যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন। গত ৫ অক্টোবর বঙ্গবন্ধুর দুই খুনিকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তরের জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা সরকারের কাছে চিঠি পাঠান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।
তবে ৪ ডিসেম্বর পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনির সঙ্গে বৈঠকের পর কানাডার হাইকমিশনার হিদার ক্রুডেন জানান, কানাডা মৃত্যুদণ্ডের বিরোধী এবং কারো মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের শঙ্কা থাকলে তাকে হস্তান্তর করে না দেশটি। এজন্য নূর চৌধুরীকে হস্তান্তর করবে না তারা।
তবে নূর চৌধুরীকে ফেরত আনতে এর পরও তৎপর রয়েছে সরকার। এ জন্য আইনজীবী প্রতিষ্ঠান নিয়োগ করা হয়েছে বলে আইনমন্ত্রী জানান।
বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের দণ্ডিত আসামিদের মধ্যে নূর ও রাশেদসহ ছয় জন এখনো পলাতক রয়েছেন। অন্যরা হলেন- সাবেক সেনা কর্মকর্তা আব্দুর রশিদ, শরিফুল হক ডালিম, আব্দুল মাজেদ ও মোসলেহউদ্দিন।
১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তার পরিবারের অধিকাংশ সদস্যকে হত্যা করা হয়। দীর্ঘ সময় পর এ মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ১২ আসামির মধ্যে গত বছর পাঁচ জন সাবেক সেনা কর্মকর্তার ফাঁসি কার্যকর হয়।
তারা হলেন- সৈয়দ ফারুক রহমান, বজলুল হুদা, সুলতান শাহরিয়ার রশিদ খান, মহিউদ্দিন আহমেদ ও এ কে এম মহিউদ্দিন।
বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এসআই/আরএ/এমআই/১৮৫৭ ঘ.
তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক