ফের ৬.৭ মাত্রার ভূমিকম্প

বড় ধরনের ভূমিকম্পে বহু হতাহতের পরদিন পরাঘাতে আবারও কেঁপে উঠেছে নেপাল, ভারত ও বাংলাদেশ।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 April 2015, 07:17 AM
Updated : 26 April 2015, 10:23 AM

রোববার বাংলাদেশ সময়বেলা ১টা৯ মিনিট৯ সেকেন্ডেএই ভূমিকম্পেরউৎপত্তিস্থল ছিল নেপালের কোদারি থেকে১৭ কিলোমিটারদূরে।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপসংস্থা-ইউএসজিএসজানিয়েছে, উৎপত্তিস্থলে এ ভূমিকম্পের মাত্রাছিল রিখটারস্কেলে ৬.৭।

বাংলাদেশের প্রায় সবজেলা থেকেইভূকম্পন অনুভূতহওয়ার খবরপাওয়া গেছেবলে আবহাওয়াঅধিদপ্তরের কর্তব্যরত পূর্বাভাস কর্মকর্তা বিডিনিউজটোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান।

তিনি জানান, ঢাকাথেকে এরকেন্দ্রস্থল ছিল ৬ শ’ কিলোমিটারেরওবেশি দূরে,ভূপৃষ্ঠ থেকে১০ কিলোমিটারগভীরে।

টানা দ্বিতীয় দিনেরমতো ভূমিকম্পেআতঙ্কিত হয়েঅনেকেই ভবনছেড়ে রাস্তায়নেমে এলেওদেশের কোথাওহতাহত বাক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের সাবেকপরিচালক সমরেন্দ্রকর্মকার জানান,শনিবারের তীব্রভূমিকম্পের পর এখন যেসব ভূকম্পনহচ্ছে সেগুলো‘আফটার শক’বা পরাঘাত।

“এধরনের আফটারশক বড়ভূমিকম্পের পর অন্তত দু’দিনবিভিন্ন সময়েঘটে।আফটার শকেরতীব্রতা অপেক্ষাকৃতকম থাকে। প্রথমউৎপত্তিস্থলের আশপাশেইআফটার শকের উৎপত্তি হয়েথাকে।”

আগের দিন শনিবারবেলা ১২টা১১ মিনিট২৭ সেকেন্ডেশক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে নেপাল,ভারত ওবাংলাদেশ।এর উৎপত্তিস্থলছিল নেপালেরলামজুংয়ের ২৯ কিলোমিটার দক্ষিণ পূর্বে,মাত্রা ছিল৭.৮।

ওই ভূমিকম্পে কেবলনেপালেই দুইহাজারের বেশিমানুষের মৃত্যুহয়েছে।বিধ্বস্ত হয়েছেবহু ঘরবাড়ি।

বাংলাদেশেও মাটির দেয়ালেচাপা পড়ে,আতঙ্কে হুড়োহুড়িতেএবং ভূমিকম্পেরসময় নৌকাডুবেচারজনের মৃত্যুরখবর পাওয়াগেছে।

সমরেন্দ্র কর্মকার বলেন,বাংলাদেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ডাউকি ফল্টথাকায় বাংলাদেশওবড় ধরনেরভূমিকম্পের ঝুঁকিতে রয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক