‘লাখো কণ্ঠে জাতীয় সংগীত’ বর্জন উদীচীর

ইসলামী ব্যাংকের টাকা নেয়ায় ‘লাখো কণ্ঠে জাতীয় সংগীত’ আয়োজনে অংশ না নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে গণজাগরণ আন্দোলনের অন্যতম সহযাত্রী উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 March 2014, 06:15 PM
Updated : 19 March 2014, 06:15 PM

স্বাধীনতা দিবসে সরকারি ওই আয়োজনে গণজাগরণ মঞ্চ চিহ্নিত ‘যুদ্ধাপরাধীদের প্রতিষ্ঠান’ ইসলামী ব্যাংকের তিন কোটি টাকা নেয়ার খবর প্রকাশের পর বুধবার এই ঘোষণা দিয়েছে দেশের অন্যতম প্রাচীন এই সাংস্কৃতিক সংগঠনটি।

‘জামায়াতী পৃষ্ঠপোষকতায়’ পরিচালিত ইসলামী ব্যাংকের কাছ থেকে টাকা নেয়ার প্রতিবাদে অনুষ্ঠান বর্জনের এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে সত্যেন সেনের গড়া এই সংগঠনটির এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

“উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ থেকে বিরত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়ে এর অংশগ্রহণকারীদের তালিকা থেকে নিজেদের নাম প্রত্যাহার করার ঘোষণা দিচ্ছে।”

ইসলামী ব্যাংকের অনুদান ফেরত না দেয়া পর্যন্ত উদীচীর এ সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে বলে বিবৃতিতে বলেন সংগঠনের সভাপতি কামাল লোহানী ও সাধারণ সম্পাদক প্রবীর সরদার।

প্রবীর সরদার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এই অনুষ্ঠানে অংশ নিতে ১০/১২ দিন আগে শিল্পকলা একাডেমি তাদের আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণ জানায়। তা গ্রহণ করে প্রস্তুতিও নেয়া হচ্ছিল।

“কিন্তু অনুষ্ঠানটি আয়োজনের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুদ্ধাপরাধী সংগঠন ও বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধে প্রত্যক্ষভাবে বিরোধিতাকারী জামায়াতে ইসলামীর তত্ত্বাবধানে পরিচালিত ইসলামী ব্যাংকের কাছ থেকে তিন কোটি টাকা অনুদান নেন, যার সংবাদ দেশের প্রধান প্রধান গণমাধ্যমগুলোতে ছবিসহ প্রকাশিত হয়েছে। এরপর উদীচীর মতো ঐতিহ্যবাহী সংগঠন সেই অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারে না।”

তবে উদীচী বলেছে, ইসলামী ব্যাংক থেকে নেয়া অর্থ ফেরত দেয়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এলে তারাও ওই অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার বিষয়টি পুনঃবিবেচনা করবে।

একসাথে তিন লাখ মানুষের অংশগ্রহণে জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়ার লক্ষ্য নিয়ে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় এবং এতে সহযোগিতা করছে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ।

তবে এই আয়োজনে ইসলামী ব্যাংকের অনুদান নেয়ার বিষয়টি প্রকাশের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

এর মধ্যে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে বক্তব্যে ইসলামী ব্যাংকের অর্থ ফেরত দেয়ার পক্ষে মত জানান।

এরপর সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর ইসলামী ব্যাংকের টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করলে ইসলামী ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা ওই অনুষ্ঠানের জন্য তিন কোটি টাকা অনুদান দিয়েছে।   

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক