তিন ব্লগার রিমান্ডে

ইন্টারনেটে কথিত ‘ধর্মীয় উস্কানিমূলক’ লেখালেখির অভিযোগে গ্রেপ্তার তিন ব্লগারকে সাত দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 April 2013, 03:57 AM
Updated : 2 April 2013, 01:00 PM
পুলিশ মঙ্গলবার দুপুরে ব্লগার সুব্রত অধিকারী শুভ, মশিউর রহমান বিপ্লব ও রাসেল পারভেজকে মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে।

শুনানি শেষে মহানগর হাকিম তারেক মইনুল ইসলাম সাত দিনের হেফাজত মঞ্জুর করেন। তিন জনের জামিন আবেদনও নাকচ করে দেন তিনি।

সোমবার রাতে রাজধানীর ইন্দিরা রোড, পলাশী ও মনিপুরি পাড়া এলাকা থেকে সুব্রত শুভ, বিপ্লব ও রাসেলকে আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ।

হেফাজতে ইসলামীর দাবির পর এই গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ জানিয়েছে ব্লগার ও অনলাইন অ্যাক্টিভিস্টরা। তারা বলছে, এর মধ্য দিয়ে ‘মৌলবাদীদের’ কাছে সরকারের ‘নতি’ স্বীকার ঘটেছে।

গ্রেপ্তার তিনজনের কাছ থেকে একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার, একটি ল্যাপটপ, দুটি ইন্টারনেট মডেম ও একটি এক্সটারনাল হার্ডডিস্ক জব্দ করা হয়।

এদের মধ্যে শুভ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র। তাকে রাত সাড়ে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস থেকে ‘তুলে নিয়ে যাওয়া হয়’ বলে তার বন্ধু ও সহপাঠীদের অভিযোগ।

আর বিপ্লব ও রাসেল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী। রাসেল বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থ বিজ্ঞানের ছাত্র ছিলেন।

মঙ্গলবার দুপুরে মিন্টো রোডে গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের উপ-কমিশনার (ডিসি) মোল্লা নজরুল ইসলাম বলেন, ইন্টারনেটে উস্কানিমূলক লেখালেখির মাধ্যমে সাইবার অপরাধ আইন অনুযায়ী (আইসিটি অ্যাক্ট ২০০৬) ওই তিন ব্লগার অপরাধ করেছেন। সে অনুযায়ীই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।   

আইসিটি আইনের ৫৭ এর (১) ও (২) ধারা অনুযায়ী, ধর্ম নিয়ে উস্কানিমূলক লেখালেখিকে অপরাধ হিসাবে গণ্য করে সর্বোচ্চ ১০ বছর কারাদণ্ড এবং এক কোটি টাকা অর্থদণ্ড দেয়ার কথা বলা হয়েছে বলে জানান তিনি।

মোল্লা নজরুল ইসলাম বলেন, “জিজ্ঞাসাবাদে তারা বলেছে, তারা কোনো ধর্মে বিশ্বাস করে না। তারা প্রকৃতিবাদে বিশ্বাসী।”

তিনি বলেন, এই তিন ব্লগার ফেইসবুক, সামহ্যোয়ার ইন ব্লগ, নাগরিক ব্লগ, আমার ব্লগ ও ইস্টিশন ব্লগে বিভিন্ন নামে ধর্মীয় অবমাননাকর লেখা লিখতেন। তাদের জব্দ করা কম্পিউটার, ল্যাপটপ ও হার্ডডিস্ক থেকে এর ‘প্রমাণ’ পাওয়া গেছে।

এই গ্রেপ্তারে মত প্রকাশের স্বাধীনতা হরণ হচ্ছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, “বাক স্বাধীনতা সবারই আছে। তবে অন্যের বিশ্বাসকে আঘাত করা মানে বাক স্বাধীনতা নয়।”

সাংবাদিকরা এ সময় গ্রেপ্তার তিন ব্লগারের সঙ্গে কথা বলতে চাইলেও পুলিশের পক্ষ থেকে অনুমতি দেয়া হয়নি। 

কথিত ‘নাস্তিক ব্লগারদের’ শাস্তির দাবিতে ৬ এপ্রিল হেফাজতে ইসলামীর লংমার্চ সামনে রেখে এই গ্রেপ্তার করা হয়েছে কি না জানতে চেইলে পুলিশ কর্মকর্তা নজরুল বলেন, “আমাদের মনিটরিংয়ে যখন ধরা পড়বে তথনই আমরা আটক করব।”

গোয়েন্দা পুলিশের উত্তর বিভাগের উপ-কমিশনার নজরুল বলেন, ডিবির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মশিউর রহমান, মো. শহীদুল্লাহ, মানস কুমার পোদ্দারের নেতৃত্বে একটি দল সোমবার রাত পৌনে ১০টার দিকে ফার্মগেইটের ইন্দিরা রোড ও মণিপুরিপাড়া থেকে বিপ্লব ও রাসেলকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাদের তথ্যের ভিত্তিতে রাত পৌনে ৩টার দিকে পলাশী মোড় থেকে সুব্রত শুভকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ফেইসবুক ও ব্লগে ইসলাম ও হযরত মুহম্মদকে (সা.) নিয়ে ‘অবমাননাকর’ মন্তব্যকারীদের সনাক্ত ও তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে গত ১৩ মার্চ একটি কমিটি করে সরকার। ফেইসবুক ও ব্লগে ‘আপত্তিকর’ মন্তব্য নিয়ে অভিযোগ জানাতে একটি ই-মেইল ঠিকানাও খুলেছে এই কমিটি।

বিটিআরসির তথ্য মতে বর্তমানে বাংলাদেশে প্রায় তিন কোটি ইন্টারনেট ব্যবহারকারী রয়েছে এবং ফেইসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৩২ লাখের বেশি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক