বিমানের ২ বোয়িংয়ের ঠোকাঠুকিতে বরখাস্ত ৩ কর্মকর্তা

হ্যাঙ্গারে নেওয়ার সময় শাহজালাল বিমানবন্দরে দুই বোয়িংয়ের ঠোকাঠুকির ঘটনায় বিমানের ৩ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 July 2022, 05:53 PM
Updated : 8 July 2022, 04:59 AM

প্রাথমিক তদন্তের ভিত্তিতে মঙ্গলবার তাদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয় বলে জানিয়েছেন বিমানের মহাব্যবস্থাপক ও জনসংযোগ বিভাগের প্রধান তাহেরা খন্দকার।

তারা হলেন- মুখ্য প্রকৌশলী মো. হারুন-উর-রশিদ চৌধুরী, প্রকৌশল কর্মকর্তা শাহ হক নেওয়াজ এবং জুনিয়র টেকনিক্যাল কর্মকর্তা নুরুল আলম।

গত ৩ জুলাই শাহজালালের হ্যাঙ্গারে বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনারের ডানায় (উইং) বিমানেরই আরেকটি ৭৩৭ উড়োজাহাজের ডানা আঘাত করে।

বিমানকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিমানের ড্রিমলাইনারটি সিঙ্গাপুর থেকে এসে সন্ধ্যায় শাহজালালে অবতরণ করেছিল। রাত ৯টার পর উড়োজাহাজটি নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণের জন্য হ্যাঙ্গারে নিয়ে যাওয়ার সময় অঘটনটি ঘটে। সেখানে আগে থেকে রাখা বোয়িং ৭৩৭ এর বাম পাশের ডানায় সঙ্গে ড্রিমলাইনারের ডান পাশের ডানা আঘাত করে।

তাহেরা খন্দকার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “এতে দুটো উড়োজাহাজের পাখা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে বিমান কর্তৃপক্ষ। এ তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতেই তিনজনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।”

এর আগে গত ১০ এপ্রিল বিমানবন্দরের হ্যাঙ্গারে বিমানের একটি বোয়িংয়ের আরেকটি বোয়িংয়ের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে দুটো উড়োজাহাজই কিছু দিনের জন্য বসে যায়। সে ঘটনায় গত ১১ মে বিমানের মুখ্য (প্রিন্সিপাল) প্রকৌশলীসহ পাঁচজনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়।

এরপর গত ৪ জুন বিমানের দাঁড়িয়ে থাকা একটি বোয়িং ৭৩৭ উড়োজাহাজে বেসরকারি এয়ারলাইন্স ইউএস বাংলার একটি ব্যাগবাহী ট্রলি এসে ধাক্কা দিলে উড়োজাহাজটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

গত ১৬ জুন বিমানের একটি বোয়িং-৭৮৭ ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ যাত্রী নামানোর পর অঘটনের শিকার হয়। নিয়ম অনুযায়ী বোর্ডিং ব্রিজের সঙ্গে উড়োজাহাজের দরজার সংযোগ না খুলেই সেটি পার্কিংয়ে নেওয়ার জন্য ধাক্কা (পুশব্যাক) দিতে শুরু করেন রক্ষণাবেক্ষণে নিযুক্ত কর্মীরা। এতে কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি জানালেও বিমান কর্তৃপক্ষ একটি তদন্ত কমিটি করে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক