ঢাকায় দিনের মধ্যে কোরবানির বর্জ্য সরানোর ঘোষণা

পশু কোরবানির বর্জ্য দিনের মধ্যেই সরিয়ে ফেলার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 July 2022, 04:10 PM
Updated : 6 July 2022, 05:33 PM

এবারের ঈদে পশু জবাইয়ের পর দুপুর ১২টার মধ্য বর্জ্য স্থানান্তর কেন্দ্রে পৌঁছানোর পরিকল্পনা জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস।

বুধবার ঢাকার বকশিবাজারে উমেশ দত্ত সড়ক ৫০ ফুট প্রশস্ত করার লক্ষ্যে চলমান উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সামনে এ কথা বলেন তিনি।

কোরবানির পশু জবাইয়ে সুনির্দিষ্ট স্থান নির্ধারণ নিয়ে পরিকল্পনার কথা জানতে চাইলে মেয়র বলেন, “শুধু জাজেস কোয়ার্টার ও অফিসার্স কোয়ার্টারের জন্য তিনটি সুনির্দিষ্ট স্থানে আমরা কোরবানির পশু জবাইয়ের ব্যবস্থা করছি।

“এছাড়া ওয়ার্ডভিত্তিক কোনো নির্দিষ্ট স্থানে পশু জবাইয়ের ব্যবস্থা করা হচ্ছে না। এলাকাবাসী ওয়ার্ডভিত্তিক তাদের মতো করেই তারা পশু জবাই দেবে।

“তবে জবাইয়ের পরপর দুপুর ১২টার মধ্যেই তারা সেই পশুর বর্জ্য আমাদের (ওয়ার্ডভিত্তিক) নির্দিষ্ট বর্জ্য সংগ্রহকারীর মাধ্যমে বর্জ্য স্থানান্তর কেন্দ্রে পৌঁছে দেবে।”

এ সময় খেলার মাঠে পশুর হাট করা হয়েছে কি না জানতে চাইলে মেয়র বলেন, “আমরা বলেছি, আমাদের কোনো খেলার মাঠে হাট দেওয়া হবে না। আমরা খেলার মাঠে হাট দেইনি।

“এবার হাটের সংখ্যাও আমরা কমিয়ে দিয়েছি এবং আরও দূরবর্তী বিস্তৃত করেছি। মাত্র ১০টি হাট দেওয়া হয়েছে।”

হাটগুলোতে কোনো ইজারাদার কোনো শর্ত ভাঙলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন জানিয়ে মেয়র তাপস বলেন, “কোনোরকম বিশৃঙ্খলা হোক আমরা সেটা কোনোভাবেই কামনা করব না।”

ডিএনসিসি মেয়রের ঘোষণা

কোরবানির ফলে তৈরি হওয়া বর্জ্য ১২ ঘণ্টার মধ্যে অপসারণের ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা উত্তর  সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

মঙ্গলবার দুপুরে ডিএনসিসি নগর ভবনে আয়োজিত ১৪তম করপোরেশন সভায় মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, “এখন প্রতিদিনের বর্জ্য প্রতিদিন অপসারণ হচ্ছে। তাই কোরবানির বর্জ্য সরাতেও ১২ ঘণ্টার বেশি লাগবে না।

“আমাদের পর্যাপ্ত লোকবল রয়েছে। বর্জ্য অপসারণের সাথে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। বেশ কিছু ওয়ার্ডে কোরবানির জায়গাও নির্ধারণ করা আছে। সবার সহযোগিতা পেলে যথাসময়ে বর্জ্য অপসারণ করা সম্ভব।”

এসময় কোরবানির পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে কাউন্সিলর এবং সংশ্লিষ্ট বিভাগকে কঠোর নির্দেশনা দেন তিনি।

মেয়র বলেন, “পশুর হাটে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রবেশ করতে হবে। মাস্ক ছাড়া কেউ হাটে প্রবেশ করতে পারবে না।”

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন এলাকায় ছয়টি কোরবানির পশুর হাটে ডিজিটাল পেমেন্ট বুথ স্থাপন করা হয়েছে এবং এতে ক্রেতা-বিক্রেতারা খুব খুশি বলে জানান তিনি।

আতিকুল ইসলাম বলেন, “নিরপাদ ও সহজ লেনদেন, তাৎক্ষনিক ব্যাংক একাউন্ট খোলার সুযোগ, ২৪ ঘণ্টা ব্যাংকিং সুবিধা এবং ছিনতাই, মলম পার্টির খপ্পর থেকে রক্ষায় স্মার্ট হাট চমৎকার উদ্যোগ।”

ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম  ছিদ্দিকের সঞ্চালনায় সভায় ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জোবায়দুর রহমান, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহ: আমিরুল ইসলাম, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর এস এম শরিফ-উল ইসলাম, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবদুল হামিদ মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক