পদ্মা সেতু দিয়ে টুঙ্গিপাড়ায় প্রথম সফর প্রধানমন্ত্রীর

প্রথমবারের মত পদ্মা সেতু হয়ে সড়কপথে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় গিয়ে জাতির পিতার সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা; এই সফরে তার সঙ্গী ছিলেন ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় এবং মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 July 2022, 11:42 AM
Updated : 5 July 2022, 04:13 AM

টুঙ্গিপাড়ায় গিয়ে প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট নৃশংস হত্যাকাণ্ডের শিকার শহীদদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে মোনাজাতে অংশ নেন। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার প্রথমবারের মত ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় এবং মেয়ে সায়মা ওয়াজেদকে নিয়ে পদ্মা সেতু হয়ে সড়কপথে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় যান। ছবি: পিআইডি

সেখানে শেখ হাসিনা ও তার পরিবারের সদস্যদের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে এবং দেশের অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধির প্রত্যাশায় দোয়া করা হয় বলে প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেস সচিব এম এম ইমরুল কায়েস জানান।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতার সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। স্বাধীনতার মহান স্থপতির স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সেখানে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার প্রথমবারের মত ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় এবং মেয়ে সায়মা ওয়াজেদকে নিয়ে পদ্মা সেতু হয়ে সড়কপথে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় যান। ছবি: পিআইডি

সোমবার ঢাকা থেকে সড়ক পথে তিন ঘণ্টার যাত্রা শেষে বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী। তার এ সফর উপলক্ষে টুঙ্গিপাড়াকে সাজানো হয় বর্ণিল সাজে।

টুঙ্গিপাড়া যাওয়ার পথে শেখ হাসিনা তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে জাজিরা পয়েন্টের সার্ভিস এলাকায় কিছুক্ষণ বিশ্রাম নেন। পদ্মা সেতুতে মা ও বোনের সঙ্গে তোলা একটি ছবিও ফেইসবুকে প্রকাশ করেছেন সজীব ওয়াজেদ জয়।

পদ্মা সেতুতে মা ও বোনের সঙ্গে তোলা একটি ছবি ফেইসবুকে প্রকাশ করেছেন সজীব ওয়াজেদ জয়।

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল হাসান সোহেল জানান, সকাল ৯টা ২০ মিনিটে পদ্মা সেতু হয়ে জাজিরা প্রান্তে আসেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে শেখ রাসেল সেনানিবাস সংলগ্ন সার্ভিস এরিয়া-২-তে সপরিবারে সকালের নাস্তা করেন তিনি। এরপর ১০টা ২০ মিনিটে টুঙ্গিপাড়ার উদ্দেশে রওনা হন।

এ উপলক্ষে সকাল থেকেই বিভিন্ন বাহিনীর সমন্বয়ে যৌথ টহলের পাশাপাশি ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

[প্রতিবেদন তৈরিতে তথ্য দিয়ে সহায়তা করেছেন শরীয়তপুর প্রতিনিধি]

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক