বিশৃঙ্খলা দেখে পদ্মা সেতুতে হাঁটা-ছবি তোলা বারণ করে গণবিজ্ঞপ্তি

পদ্মা সেতুতে হেঁটে ওঠা কিংবা গাড়ি থামিয়ে ছবি তোলা বারণ থাকলেও প্রথম দিনে মানুষের উচ্ছ্বাসে ভেসে গিয়েছিল এসব বিধি-নিষেধ।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 June 2022, 12:44 PM
Updated : 26 June 2022, 01:06 PM

যার পরিপ্রেক্ষিতে সেতু কর্তৃপক্ষ রোববার গণবিজ্ঞপ্তি দিয়ে এই বিধি-নিষেধ স্মরণ করিয়ে দিয়েছে।

সেই সঙ্গে সেতুর উপর গাড়ি থামানো বন্ধে তৎপরও হয়েছে কর্তৃপক্ষ।

পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পরদিন রোববার খুলে দেওয়া হলে পার হওয়ার চেয়ে সেতুর উপরে ঘুরতে আসা মানুষের সংখ্যাই ছিল বেশি । ছবি: মোস্তাফিজুর রহমান

দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানীর সরাসরি সড়ক যোগাযোগ স্থাপনকারী দেশের দীর্ঘতম পদ্মা সেতু শনিবার উদ্বোধনের পর রোববারই উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

খোলার পরপরই মানুষ হামলে পড়ে সেতুর উপর দিয়ে যেতে। হেঁটে কাউকে উঠতে না দিলেও মোটর বাইক কিংবা গাড়ি নিয়ে উঠে অনেকেই সেতুর উপর গাড়ি থামিয়ে ছবি তোলায় মেতে ওঠে। অনেকে লাইভও করছিলেন। আবার বাস থামিয়েও নেমে পড়ে যাত্রীরা।

এরপর বিকালে সেতু বিভাগের পক্ষ থেকে বিধি-নিষেধের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে গণবিজ্ঞপ্তি দেওয়ার কথা জানান সেতু মন্ত্রণালয়ের সচিবের একান্ত সচিব এ এস এম রিয়াদ হাসান।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ওই গণবিজ্ঞপ্তিতে জনসাধারণের প্রতি নির্দেশনা দেওয়া আছে।”

পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পরদিন রোববরা সেতুর উপরে মোটরসাইকেল থামিয়ে ছবি তুলছে এক দল। সেতুর উপরে দাঁড়ানো বা ছবি তোলা নিষেধ থাকলেও কেউ মানছিল না। ছবি: মোস্তাফিজুর রহমান

যা যা করা যাবে না

>> পদ্মা সেতুর উপর অনুমোদিত গতিসীমা ৬০ কিলোমিটার/ঘণ্টা।

>> পদ্মা সেতুর উপর যে কোনো ধরনের যানবাহন দাঁড়ানো ও যানবাহন থেকে নেমে সেতুর উপরে দাঁড়িয়ে ছবি তোলা/হাঁটা সম্পূর্ণ নিষেধ।

>> তিন চাকা বিশিষ্ট যানবাহন (রিকশা, ভ্যান, অটোরিকশা ইত্যাদি), পায়ে হেঁটে, সাইকেল বা নন-মটোরাইজড গাড়ি যোগে সেতু পারাপার হওয়া যাবে না।

>> গাড়ির বড়ির চেয়ে বেশি চওড়া এবং ৫.৭ মিটার উচ্চতার চেয়ে বেশি উচ্চতার মালামালসহ যানবাহন সেতুর উপর দিয়ে পারাপার করা যাবে না।

>> সেতুর উপরে কোনো ধরনের ময়লা ফেলা যাবে না।

পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পরদিন রোববার খুলে দেওয়া হলে অনেকেই যান সপরিবারে, সেতুর উপর দাঁড়িয়ে ছবি তুলতে। ছবি: মোস্তাফিজুর রহমান

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “পদ্মা সেতু একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় স্থাপনা বিধায় সেতু পারাপারে সর্বসাধারণকে উপরোক্ত নির্দেশনা মেনে চলার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।”

রিয়াদ হাসান বলেন, “এই গণবিজ্ঞপ্তিটা আগে (উদ্বোধনের আগে) একবার দেওয়া হয়েছিল। আজকে আবার নতুন করে দেওয়া হল।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক