এবার অঘটনের শিকার বিমানের ড্রিমলাইনার

শাহজালাল বিমানবন্দরে এবার অঘটনের শিকার হল বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বোয়িং ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 June 2022, 07:13 PM
Updated : 16 June 2022, 07:13 PM

নিয়মানুযায়ী বোর্ডিং ব্রিজের সঙ্গে উড়োজাহাজের দরজার সংযোগ না খুলেই সেটি পার্কিংয়ে নেওয়ার জন্য ধাক্কানো (পুশব্যাক) হলে এই অঘটন ঘটে।

এতে কোনো ক্ষয়ক্ষতি হযনি জানালেও বিমান কর্তৃপক্ষ একটি তদন্ত কমিটি করেছে।

বিমানকর্মীদের সঙ্গে কখা বলে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকালে সৌদি আরব থেকে ঢাকায় ফেরা উড়োজাহাজটি ৪ নম্বর বোর্ডিং ব্রিজে যুক্ত হয়ে যাত্রী নামায়।

বোর্ডিং ব্রিজ হচ্ছে এয়ারপোর্ট টার্মিনাল ভবনের সঙ্গে উড়োজাহাজের দরজার সংযোগকারী স্থানান্তরযোগ্য সেতু। সাধারণত বড় উড়োজাহাজগুলো বোর্ডিং ব্রিজে সংযুক্ত হলে যাত্রীরা সরাসরি টার্মিনাল ভবনে নামতে পারেন।

ড্রিমলাইনারটিকে যাত্রী ও মালামাল নামানোর পর পার্কিংয়ে নেওয়ার কথা ছিল। কার্যপ্রণালী (চেকলিস্ট) অনুযায়ী, বোর্ডিং ব্রিজের সঙ্গে উড়োজাহাজের দরজার সংযোগ খুলে দরজা বন্ধ করে উড়োজাহাজটি সরাতে হবে। কিন্তু সেটি না করে বিমানের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের কর্মীরা বোর্ডিং ব্রিজ যুক্ত অবস্থায় জিএসই (গ্রাউন্ড সাপোর্ট ইকুইপমেন্ট) দিয়ে উড়োজাহাজটিকে পেছনে ঠেলতে (পুশব্যাক) শুরু করেছিলেন।

এ বিষয়ে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম বলেন, “বোর্ডিং ব্রিজ থেকে উড়োজাহাজকে আলাদা করার সময় যে চেকলিস্ট অনুসরণ করতে হয়, এক্ষেত্রে তা করা হয়নি। উড়োজাহাজটির দরজা ও বোর্ডিং ব্রিজের সংযোগ না খুলেই পুশব্যাক করা হয়েছে। তবে এতে বোর্ডিং ব্রিজের সংযোগ ও বিমানে কোনো ক্ষতি হয়নি।”

রাতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিমানের মহাব্যাপস্থাপক (জনসংযোগ) তাহেরা খন্দকার জানান, বোয়িং-৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার (বিজি-৩৪০) উড়োজাহাজটি হ্যাংগারে নেওয়ার সময় বোর্ডিং ব্রিজের ক্যানোপি ও উড়োজাহাজের দোরগোড়ার সংযোগস্থলের সংস্পর্শ হতে বিচ্ছিন্ন হওয়ার সময় বোর্ডিং ব্রিজে থাকা ঘর্ষণ প্রতিরোধক রাবারের সঙ্গে ঘর্ষণ লাগে। প্রকৌশলীরা তাৎক্ষণিকভাবে জানান যে, বোর্ডিং ব্রিজের ঘর্ষণ প্রতিরোধক রাবারটি ঠিক করা হয়েছে, বিমানের কোনো ক্ষতি হয়নি।

এর কারণ উদঘাটনে দুই সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে জানিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কমিটিকে আগামী তিন কার্য দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

তাহেরা জানান, উড়োজাহাজটির কোনো ক্ষতি না হওয়ায় এটি রিয়াদের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার জন্য যাথারীতি সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত রয়েছে।

এর আগে গত ১০ এপ্রিল বিমানবন্দরের হ্যাঙ্গারে বিমানের একটি বোয়িংয়ের আরেকটি বোয়িংয়ের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে দুটো উড়োজাহাজই কিছুদিনের জন্য গ্রাউন্ডেড হয়। সে ঘটনায় গত ১১ মে বিমানের মুখ্য (প্রিন্সিপাল) প্রকৌশলীসহ পাঁচজনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করার কথা জানায় বিমান।

এরপর গত ৪ জুন বিমানের দাঁড়িয়ে থাকা একটি বোয়িং ৭৩৭ উড়োজাহাজে বেসরকারি এয়ারলাইন্স ইউএস বাংলার একটি ব্যাগবাহী ট্রলি এসে ধাক্কা দিলে উড়োজাহাজটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বিমানের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষ মেরামতের অর্থ দিতে সম্মত হয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক