শাহজাহানপুরের জোড়া খুনের মামলায় আসামি ‘অজ্ঞাত’

ঢাকার শাহজাহানপুরে প্রকাশ্য রাস্তায় মতিঝিল থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম টিপুসহ দুইজনকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় মামলা হয়েছে থানায়।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 March 2022, 07:10 AM
Updated : 29 March 2022, 12:34 PM

টিপুর স্ত্রী ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফারহানা ইসলাম ডলি শুক্রবার সকালে শাহজাহানপুর থানায় এই মামলা দায়ের করেন বলে ঢাকা মহানগর পুলিশের সবুজবাগ জোনের সহকারী কমিশনার মনতোষ বিশ্বাস জানান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “মামলায় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করা হয়েছে।”

বৃহস্পতিবার রাতে শাহজাহানপুরের আমতলী মানামা ভবনের সামনের হেলমেটপরা এক অস্ত্রধারীর গুলিতে নিহত হন মাইক্রোবাসে থাকা টিপু (৫৪)।

ওই সময় গাড়ির কাছেই রিকশায় থাকা বদরুন্নেছা সরকারী মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী সামিয়া আফনান প্রীতিও গুলিতে নিহত হন। আহত হন টিপুর গাড়ী চালক মুন্না।

মনতোষ বিশ্বাস বলেন, যেহেতু একই ঘটনায় দুজন নিহত হয়েছে, এক মামলাতেই দুই হত্যার তদন্ত করবে পুলিশ।

জাহিদুল ইসলাম টিপু

সামিয়া আফনান জামাল প্রীতি

কারা এই হত্যায় জড়িত জানতে চাইলে এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, তাদের তদন্ত এখনো প্রাথমিক পর্যায়ে আছে।

“ঘটনাস্থলের আশপাশ থেকে সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে এবং আরও কিছু সংগ্রহের চেষ্টা চলছে। যেগুলো সংগ্রহ করা হয়েছে সেসব বিশ্লেষণের পর্যায়ে রয়েছে। আমরা কাউকে শনাক্ত করতে পারিনি এখনো। তবে চেষ্টা চলছে।”

পুলিশের পাশপাশি র‌্যাব, ডিবি, সিআইডিসহ বিভিন্ন সংস্থাও তদন্তে নেমেছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের কর্মকর্তারা।

শুক্রবার কারওয়ানবাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এ বাহিনীর আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, ঘটনাস্থল থেকে তারা কিছু আলামত উদ্ধার করেছেন। তাদের তদন্তে কিছুটা অগ্রগতিও হয়েছে।   

“মাইক্রোবাসটি জ্যামে আটকে থাকা অবস্থায় গাড়িটির বাঁ পাশে দাঁড়িয়ে গুলি চালায় এক শ্যুটার। এ সময় মাইক্রোবাসের ডান পাশে রিকশায় থাকা এক শিক্ষার্থীও গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়।

“আমরা ঘটনার বেশ কিছু ফুটপ্রিন্ট, তথ্য ও আলামত পেয়েছি। বেশ কিছু মোটিভ পেয়েছি। যে শ্যুটার, তাকেও আমরা সিসি ক্যামেরার ফুটেজের মাধ্যমে শনাক্ত করার চেষ্টা করছি। আমরা অনেক দূর এগিয়ে গেছি। পুলিশের বিভিন্ন সংস্থাও কাজ করছে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক