ঢাকায় শাহজাহানপুরে সড়কে গুলি, আওয়ামী লীগ নেতাসহ দুজন নিহত

ঢাকার শাহজাহানপুরে সড়কে দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতাসহ দুজন।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 March 2022, 06:09 PM
Updated : 29 March 2022, 12:35 PM

নিহতদের মধ্যে জাহিদুল ইসলাম টিপু (৫৪) মতিঝিল থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। তিনি মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ছিলেন।

নিহত অন্যজনের নাম সামিয়া আফনান প্রীতি (১৮)। তিনি বদরুন্নেছা সরকারী মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী। তিনি মালিবাগ থেকে রিকশায় চেপে তার এক বন্ধুর বাসায় যাচ্ছিলেন।

বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে আমতলী মানামা ভবনের সামনের সড়কে মাইক্রোবাসে থাকা টিপুকে লক্ষ্য করে এই হামলা হয় বলে স্থানীয়দের ভাষ্য।

হামলাকারী কয়েকজন ছিলেন বলে স্থানীয়রা জানালেও পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেছেন, একজন দুর্বৃত্ত মোটরসাইকেলে এসে গাড়িতে থাকা টিপুকে লক্ষ্য করে গুলি চালান।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জরুরি বিভাগের আবাসিক চিকিৎসক মো. আলাউদ্দিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, গুলিবিদ্ধ টিপু এবং প্রীতিকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়।

স্থানীয়রা বলছেন, হামলার সময় টিপু মাইক্রোবাসে যাচ্ছিলেন। তাকে গুলির পর দুর্বৃত্তরা এলোপাতাড়ি গুলি চালালে ওই সড়কে থাকা রিকশারোহী প্রীতিও গুলিবিদ্ধ হন। আহত হন টিপুর গাড়িচালক মুন্না (২৪)।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, রাত সোয়া ১১টার দিকে তিনজনকে হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসক টিপু ও প্রীতিকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত মুন্নাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

টিপুর স্ত্রী ফারহানা ইসলাম ডলি ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ওই এলাকার নারী কাউন্সিলর। তাদের বাসা শাহজাহানপুরে।

টিপুর মৃত্যুর খবরে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের অনেক নেতা-কর্মী ঢাকা মেডিকেলে জড়ো হন। 

সেখানে থাকা ঢাকা দক্ষিণের ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সলর মামুনুর রশীদ শুভ্র বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমরা যতদূর জেনেছি, উনি বাসায় ফিরছিলেন নিজের গাড়িতে। গাড়িটা জ্যামে পড়েছিল। তখন কিছু ‍যুবক এসে গুলি চালায়। উনার (টিপু) গায়ে ৯টি গুলি লাগে। তার ড্রাইভারের হাতে গুলি লেগেছে। এলোপাতাড়ি গুলিতে একটি রিকশায় থাকা একটি মেয়ের গায়েও গুলি লাগে।”

নিহত প্রীতির বন্ধু সুমাইয়া আকতার ঢাকা মেডিকেলে সাংবাদিকদের বলেন, প্রীতির বাসা মালিবাগে। তিনি তিলপাপাড়ায় তার বাসায় আসছিলেন।

“তাকে এগিয়ে আনতে খিলগাঁও রেলগেট এলাকায় গিয়ে তার সঙ্গে রিকশায় উঠি। দুজনে একসাথে আসার সময় এই ঘটনা।”

কী কারণে কারা এই হামলা চালাতে পারে- জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ নেতা শুভ্র বলেন, “সেটা আমরাও বুঝতে পারছি না। তিনি (টিপু) একজন ভালো মানুষ। এমন ঘটনার কোনো কারণও খুঁজে পাচ্ছি না।”

প্রায় এক দশক আগে যুবলীগ নেতা রিয়াজুল হক খান মিল্কী হত্যা মামলার আসামি ছিলেন টিপু।

নিহত জাহিদুল ইসলাম টিপু।

ডিএমপির মতিঝিল বিভাগের পুলিশের উপ-কমিশনার আবদুল আহাদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, টিপুর গাড়িতে আরও কয়েকজন ছিলেন। খিঁলগাও রেল গেইট ও শাহজাহানপুর আমতলার মাঝামাঝি এলাকায় গাড়িটি যানজটে পড়েছিল। তখন রাস্তার বিপরীত দিকে থেকে একজন দুর্বৃত্ত হেলমেট পরে গাড়ির জানালা দিয়ে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। পরে ওই হেলমেট পরা দুর্বৃত্ত মোটরসাইকেল চালিয়ে পালিয়ে যায়।

একটি সিসি ক্যামেরার ভিডিওতে দেখা যায়, মাইক্রোবাসে চালকের পাশের সিটে বসা ছিলেন টিপু। গাড়িটি এজিবি কলোনি থেকে খিলগাঁও রেলগেইটের দিকে যাচ্ছিল। ইসলামী ব্যাংকের উত্তর শাহজাহানপুর শাখার সামনে মাস্ক পরা একজন কাছ থেকে গাড়িতে গুলি চালায়। এরপর আততায়ী সড়ক বিভাজক টপকে গুলি করতে করতে রাস্তার অন্য পাশে অপেক্ষমান মোটরসাইকেলে গিয়ে ওঠেন।

পুলিশ জানায়, ঘটনাস্থল থেকে ১২টি গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে।

কেন এই হত্যাকাণ্ড, পুলিশ তা তদন্ত শুরু করেছে বলে আহাদ জানান।

কাউন্সিলর শুভ্র জানান, শুক্রবার জুমার নামাজের পর মতিঝিল এজিবি কলোনি মাঠে টিপুর জানাজা হবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক