তৌফিক ইমরোজ খালিদী লাইভ: নতুন শিক্ষাক্রমে কী হচ্ছে, কেমন হচ্ছে? উত্তর দেবেন শিক্ষামন্ত্রী

স্কুল-কলেজের শিক্ষাক্রম আর মূল্যায়ন পদ্ধতিতে আসছে বড় পরিবর্তন; সেই সঙ্গে আসছে নানা প্রশ্ন।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Dec 2021, 06:03 AM
Updated : 6 Dec 2021, 07:17 AM

কেমন হচ্ছে এই পাঠ্যক্রম? শিশুরা মানিয়ে নিতে পারবে তো? শিক্ষকরাই বা কতটা প্রস্তত?

আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকেই প্রাথমিক ও মাধ্যমিকে নতুন এই পাঠ্যক্রম ও মূল্যায়ন পদ্ধতির পরীক্ষামূলক বাস্তবায়ন শুরু হচ্ছে। 

দেশে আগের কোনো শিক্ষানীতিই পুরোপুরি বাস্তবায়ন হয়নি। সৃজনশীল পদ্ধতির পরীক্ষা নিরীক্ষায় লাভ-ক্ষতির অংকটাও মেলেনি। সেই বাস্তবতায় নতুন পরিবর্তন বাস্তবসম্মত হচ্ছে তো?

উত্তর দিতে হাজির হচ্ছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। তৌফিক ইমরোজ খালিদী লাইভের এবারের পর্বে অতিথি হয়ে আসছেন তিনি।

সোমবার বেলা আড়াইটায় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের কার্যালয় থেকে সরাসরি সম্প্রচার হবে অনুষ্ঠানটি।

জেনে নিতে, প্রশ্ন করে বুঝে নিতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সঙ্গী হতে পারবেন পাঠক আর দর্শকরাও।

প্রেক্ষাপট

২০২৫ সাল থেকে পুরোপুরি নতুন শিক্ষাক্রমে পড়বে শিক্ষার্থীরা। ২০২৩ সাল থেকে এটি ধাপে ধাপে বাস্তবায়ন করার আগে আসছে জানুয়ারিতে প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের ২০০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিবর্তিত শিক্ষাক্রমের পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু হবে।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের সামনে নতুন এই শিক্ষাক্রমের রূপরেখা তুলে ধরেন।

তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত পরীক্ষা না রাখা, এসএসসির আগে কোনো পাবলিক পরীক্ষা না নেওয়া, নবম-দশম শ্রেণিতে বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্য বিভাগের বিভাজন তুলে দেওয়াসহ একগুচ্ছ পরিবর্তনের কথা বলা হচ্ছে সেখানে।

এছাড়া পরীক্ষার চাপ কমাতে বছর শেষে সামষ্টিক মূল্যায়নের আগে শিক্ষাবর্ষ জুড়ে চলবে শিখনফল মূল্যায়ন।

শিক্ষাব্যবস্থাকে আরও কার্যকর ও বাস্তবভিত্তিক করতে এই পরিবর্তনগুলো প্রত্যাশিত ছিল বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে বড় এই পরিবর্তনের জন্য দেশের শিক্ষাব্যবস্থা কতটা প্রস্তুত, তা নিয়ে তাদের সংশয় আছে।

সরকার অবশ্য একে পরীক্ষা, বিষয়বস্তু ও পাঠ্যপুস্তকের চাপ কমিয়ে শিক্ষার্থীদের মুখস্ত নির্ভরতা থেকে বের করে অভিজ্ঞতা ও কার্যক্রমভিত্তিক শেখার মাধ্যমে পাঠচক্রকে ‘আনন্দময় করার উদ্যোগ’ বলছে।

এসব বিষয় নিয়েই হবে আলোচনা। শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে তৌফিক ইমরোজ খালিদী লাইভে যুক্ত হবেন শিক্ষাবিদ, শিক্ষাক্রম বিশেষজ্ঞ, শিক্ষক আর অভিভাবকরাও।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক