এসএসসি-এইচএসসির বিষয়ে সিদ্ধান্ত ‘শিগগির’ জানাব: শিক্ষামন্ত্রী

মহামারীর মধ্যে এসএসসি ও এইচএসসির লাখো পরীক্ষার্থীর উদ্বেগের অবসান এখনও ঘটাতে পারেননি শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 June 2021, 06:30 PM
Updated : 22 June 2021, 06:30 PM

গত ১৫ জুন শিক্ষামন্ত্রী এক অনুষ্ঠানে বলেছিলেন, পরীক্ষা হবে, নাকি অন্যভাবে মূল্যায়ন করা হবে, সেই সিদ্ধান্ত ‘কিছু দিনের’ মধ্যেই হবে।

তার এক সপ্তাহ বাদে মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে এসে তিনি বললেন, “আমরা খুব শিগ্‌গিরই সিদ্ধান্তটি জানিয়ে দেব।”

২০২০ সালের মার্চে করোনাভাইরাস সংক্রমণ দেখা দেওয়ার ঠিক আগেই এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়েছিল। কিন্তু এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা আটকে যান।

এর পর আর কোনো পাবলিক পরীক্ষা হয়নি। আর উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন ফল প্রকাশ করা হয় তাদের এসএসসি ও জেএসসির ফলের গড় করে।

এবার মার্চে স্কুল-কলেজ খোলার পরিকল্পনা হলেও করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ তাতে বাদ সাধে। এখনও খোলার সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি সরকার। এরফলে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষাও ঝুলে আছে।

শিক্ষামন্ত্রী মঙ্গলবার বলেন, “আমরা জানি এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা ভীষণ উদ্বেগের মধ্যে আছে। আমরা এটা নিয়ে ব্যাপক আলোচনা করছি। আর বেশি দিন উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যে থাকতে হবে না।”

মঙ্গলবার ৪৩ লাখ শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তি ও টিউশন ফি প্রদান সংক্রান্ত এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি ও টিউশন ফি বাবদ মোট ১ হাজার ৭৮ কোটি ৯২ লাখ ৭৮ হাজার ১০ টাকা দেওয়া হয়েছে। 

এর মধ্যে উপবৃত্তি বাবদ ২৯ হাজার ৩০১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪২ লাখ ৮৪ হাজার ৯২৮ জন শিক্ষার্থীকে মোট ৮৮২ কোটি ৯৩ লাখ ৫০ হাজার ৬০০ টাকা দেওয়া হয়। 

এছাড়া শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি বাবদ দেওয়া হয় ১৯৫ কোটি ৯৯ লাখ ২২ হাজার ৪১০ টাকা।

দীপু মনি জানান, প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের সমন্বিত উপবৃত্তি কর্মসূচির আওতায় এই অর্থ ইএফটির মাধ্যমে সরাসরি শিক্ষার্থীদের কাছে পৌঁছে যাবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক