ঝাঁপের আড়ালে চলছে রেস্তোরাঁ

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি ঠেকাতে চলমান ‘লকডাউনে’ খাবারের দোকান ও রেস্তোরাঁয় বসে খাওয়া নিষেধ হলেও তা মানা হচ্ছে না। ঢাকার বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ঢালী ফুড কোর্টের ভেতরে শুক্রবার খোলা দেখা যায় ১৫ থেকে ১৬টি খাবারের দোকান। সেখানে বসে খাওয়া-দাওয়াও চলছিল।
  • ‘লকডাউনে’ রেস্তোরাঁ খোলা রাখা গেলেও বসে খাওয়া বন্ধ থাকার কথা; কিন্তু বসুন্ধরায় ঢালী ফুড কোর্টে তা মানতে দেখা যায়নি।

    ‘লকডাউনে’ রেস্তোরাঁ খোলা রাখা গেলেও বসে খাওয়া বন্ধ থাকার কথা; কিন্তু বসুন্ধরায় ঢালী ফুড কোর্টে তা মানতে দেখা যায়নি।

  • কোনো ধরনের স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই খোলা রাখা হয়েছে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ঢালী ফুড কোর্ট। শুক্রবার সন্ধ্যার পরে সেখানে ছিল মানুষের উপচে পড়া ভিড়।

    কোনো ধরনের স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই খোলা রাখা হয়েছে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ঢালী ফুড কোর্ট। শুক্রবার সন্ধ্যার পরে সেখানে ছিল মানুষের উপচে পড়া ভিড়।

  • বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ঢালী ফুড কোর্টের ভেতরে শুক্রবার সন্ধ্যায় লকডাউন উপেক্ষা করে খেতে আসা ক্রেতাদের ভিতর বেশিরভাগ ছিল তরুণ-তরুণী।

    বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ঢালী ফুড কোর্টের ভেতরে শুক্রবার সন্ধ্যায় লকডাউন উপেক্ষা করে খেতে আসা ক্রেতাদের ভিতর বেশিরভাগ ছিল তরুণ-তরুণী।

  • করোনাভাইরাস মহামারীকালে ‘লকডাউন’ উপেক্ষা করে কোনো ধরনের সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ঢালী ফুড কোর্টের ভেতরে শুক্রবার সন্ধ্যায় চলছিল খাওয়া-দাওয়া।

    করোনাভাইরাস মহামারীকালে ‘লকডাউন’ উপেক্ষা করে কোনো ধরনের সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ঢালী ফুড কোর্টের ভেতরে শুক্রবার সন্ধ্যায় চলছিল খাওয়া-দাওয়া।

  • বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ঢালী ফুড কোর্টের বাইরে থেকে এভাবেই ঝাঁপ বন্ধ করে ভেতরে খোলা রাখা ছিল ১৫ থেকে ১৬টি খাবারের দোকান।

    বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ঢালী ফুড কোর্টের বাইরে থেকে এভাবেই ঝাঁপ বন্ধ করে ভেতরে খোলা রাখা ছিল ১৫ থেকে ১৬টি খাবারের দোকান।

Print Friendly and PDF