তরুণদের যোগাযোগের ভাষা বুঝতে হবে: রাদওয়ান মুজিব

তরুণদের চিন্তা-চেতনার ধরন বুঝে তাদের কাছে ইতিহাস তুলে ধরা উচিৎ বলে মনে করছেন বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র ও সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) ট্রাস্টি রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Feb 2020, 04:46 PM
Updated : 24 Feb 2020, 04:46 PM

সোমবারইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশে (ইউল্যাব) আয়োজিত ‘হাসিনা: এ ডটারস টেল’ডকুড্রামার প্রদর্শনীতে একথা বলেন তিনি।

ইতিহাসকেতরুণদের কাছে নিয়ে যাওয়া গ্রাফিক নভেল ‘মুজিব’ ও ‘জয় বাংলা কনসার্টের’ উদাহরণ টেনেরাদওয়ান মুজিব বলেন, “আমাদের বুঝতে হবে কীভাবে তরুণদের সঙ্গে যোগাযোগ করা উচিৎ।”

ভবিষ্যতেতরুণ প্রজন্মের সঙ্গে যোগাযোগ পদ্ধতি কেমন হবে, তা ঠিক করতে  এখন থেকেই সবাইকে চিন্তা-ভাবনা করার পরামর্শওদেন তিনি।

ডকুড্রামানির্মাণের পেছনে ভাবনা তুলে ধরে রাদওয়ান বলেন, ”প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বপালনের কারণে অনেকের কাছেই যে বিষয়টি ধরা পড়ে না, তা হল তিনি বঙ্গবন্ধু শেখমুজিবুর রহমানের কন্যা।

”এখানেশেখ হাসিনাকে বঙ্গবন্ধুর কন্যা হিসেবে উপস্থাপন ও পরিচয় করিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করাহয়েছে।”

পাঁচবছর ধরে কাজ করা ‘হাসিনা: এ ডটারস টেল’ নির্মাণের শুরুর দিনটির কথা বর্ণনা করতেগিয়ে ডকুড্রামাটির সহ-প্রযোজক রাদওয়ান বলেন, “আমার খালার সঙ্গে কথা বলার জন্য আমিও পিপলু ভাই (ডকুড্রামার পরিচালক) প্রায় পাঁচ ঘণ্টা অপেক্ষা করেছি।

“এসময়ের মধ্যে তিনি আমার ছেলেকে ঘুম পাড়িয়ে রেকর্ডের জন্য আমাদের সঙ্গে যুক্ত হন।আমি তাকে বলি, আমার ছেলেকে কোলে নিয়েই বের হয়ে আসতে।”

ইউল্যাবেদুইশ শিক্ষার্থী ডকুড্রামাটি উপভোগ করেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনার জীবনের অনেক অজানা অধ্যায় রয়েছে সেখানে।

ডকুড্রামাপ্রদর্শনী শেষে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ও পিপলু খান মঞ্চে এসে উপস্থিত তরুণদেরবিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

বঙ্গবন্ধুরশততম জন্মবর্ষ উপলক্ষে করা এই আয়োজনে আরও উপস্থিত ছিলেন ইউল্যাবের কর্মকর্তারা।

জাতিরপিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বড় মেয়ে শেখ হাসিনার সঙ্গে তার বোন শেখরেহানার জবানিতে নির্মিত হয়েছে এই প্রামাণ্যচিত্র।

চলচ্চিত্রটিসারাদেশে মুক্তি পায় ২০১৮ সালের ১৬ নভেম্বর।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক