আজিমপুরে নিহত যুবক ‘গুলশান হামলাকারীদের সহযোগী’

রাজধানীর আজিমপুরে পুলিশি অভিযানে নিহত যুবক গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলাকারীদের সহযোগী বলে ধারণা পুলিশের।

লিটন হায়দারও গোলাম মুজতবা ধ্রুববিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Sept 2016, 06:01 PM
Updated : 10 Sept 2016, 06:05 PM

শনিবার সন্ধ্যায় আজিমপুরে বিজিবি সদরদপ্তরের ২ নম্বর গেইটের একটি বাসায় পুলিশের অভিযানে সন্দেহভাজন এক জঙ্গি নিহত এবং তিন নারী আহত হন।

রাত ১০টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে পুলিশের মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক সাংবাদিকদের বলেন, নিহত যুবকের সঙ্গে গুলশান হামলায় সংশ্লিষ্টতার সন্দেহভাজন একজনের চেহারার মিল রয়েছে।

গত ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার কিছুদিন আগে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার একটি ফ্ল্যাটে হামলাকারীরা আশ্রয় নিয়েছিল বলে পুলিশি তদন্তে উঠে আসে। ওই ফ্ল্যাটের মালিক নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য গিয়াস উদ্দিন আহসান এবং ফ্ল্যাটটি ভাড়া দেওয়ার দায়িত্বে থাকা তার ভাগ্নে আলম ও ভবনের ব্যবস্থাপক তুহিনকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ।

‘আব্দুল করিম’ ছদ্মনামে এক ব্যক্তি ওই ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়েছিল বলে জানান আইজিপি।

তিনি বলেন, “হলি আর্টিজানে হামলাকারীদের জন্য আব্দুল করিম নামে একজন বসুন্ধরায় ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়েছিলেন। তার চেহারার সঙ্গে এই যুবকের চেহারার মিল রয়েছে।”

এছাড়া ওই বাসায় আহত তিন নারীর মধ্যে একজন সাবেক সেনা কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলামের স্ত্রী হতে পারেন বলে ধারণার কথা জানান শহীদুল হক।

এ ঘটনায় আহত পুলিশ সদস্যদের দেখতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “একজন মেজর জাহিদের স্ত্রী হতে পারেন। তবে আমরা নিশ্চিত না।”

গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে মিরপুরের রূপনগরের একটি বাসায় পুলিশের অভিযানে সাবেক সেনা কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম নিহত হন। প্রায় দুই বছর আগে মেজর পদ থেকে ইস্তফা দেওয়া জাহিদ নব্য জেএমবির সামরিক কমান্ডার ছিলেন বলে পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক