বাবুল আক্তারের পদত্যাগপত্র মন্ত্রণালয়ে

স্ত্রী হত্যার ঘটনায় আলোচিত পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারের পদত্যাগপত্র স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এসেছে বলে মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জানিয়েছেন।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 August 2016, 07:28 PM
Updated : 14 August 2016, 07:34 PM

রোববার রাতে ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনকে তিনি বলেন, “পুলিশ সদরদপ্তর থেকে যে ফাইলটি আমাদের কাছে এসেছে, তাতে বাবুল আক্তারের নিজের হাতে লেখা পদত্যাগপত্র রয়েছে। বিষয়টি আমাদের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছে। শিগগিরই আমরা সিদ্ধান্ত নেব।”

পদোন্নতি পেয়ে এসপি হয়ে বাবুল আক্তার চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় পুলিশ সদর দপ্তরে বদলি হয়ে আসার কয়েক দিনের মধ্যে গত ৫ জুন সকালে বন্দর নগরীর ও আর নিজাম রোডে খুন হন তার স্ত্রী মাহমুদা আক্তার মিতু।

শুরুতে জঙ্গিদের সন্দেহ করা হলেও মিতু হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে কয়েকজনকে গ্রেপ্তারের পর পুলিশ বলছে, এটা ছিল দুর্বৃত্তদের হামলা।

গত ২৪ জুন মধ্যরাতে ঢাকার বনশ্রীতে শ্বশুরবাড়ি থেকে বাবুলকে তুলে আনে পুলিশ। প্রায় ১৪ ঘণ্টা গোয়েন্দা কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে বাসায় পৌঁছে দেওয়া হয়। এরপর থেকে প্রায় দেড় মাস বাবুল অফিসে যাননি।

এরপর গত ৩ অগাস্ট বাবুল পুলিশ সদরদপ্তরে গেলেও তিনি কাজে যোগ দেননি বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন।

স্ত্রী হত্যা মামলার বাদী বাবুল মিতু হত্যাকাণ্ডের পর দুই সন্তানকে নিয়ে ঢাকায় এসে তার শ্বশুরবাড়িতে ওঠেন। এখনও সেখানেই রয়েছেন তিনি।  

গত ২১ জুলাই পুলিশ প্রধান এ কে এম শহীদুল হক সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, “সে (বাবুল) চাকরিতে বহাল আছে, কিন্তু অফিস করছে না। অফিসে আসে না, আমাদের সাথে যোগাযোগও করে না। সে কেন আসে না, সে কথা আমরা বলতে পারব না।”

তবে স্ত্রী খুন হওয়ার পর বাবুল মানসিকভাবে বিপর্যন্ত রয়েছেন দাবি করে তার বাহিনীর প্রধান শহীদুল হক বলেন, “তার নাকি চাকরি করার মতো মানসিকতা নেই।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক