আশুরা শনিবার

যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদার মধ্য দিয়ে আশুরা পালনে নানা প্রস্তুতি নিয়েছে মুসলমানরা।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 Oct 2015, 04:54 PM
Updated : 23 Oct 2015, 06:27 PM

দিবসটি উপলক্ষে শনিবার বের করা হবে তাজিয়া মিছিল।

১০ মহররম মুসলিম বিশ্বে ত্যাগ ও শোকের প্রতীক। বাংলাদেশে ধর্মপ্রাণ মুসলমান, বিশেষ করে শিয়া মুসলমানরা ধর্মীয় অনুশাসনের মধ্য দিয়ে পালন করেন দিনটি।

এই দিনে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.)-এর দৌহিত্র হযরত ইমাম হোসেন (রা.) ফোরাত নদীর তীরে কারবালা প্রান্তরে শহীদ হন।

সেই থেকে মুসলিম বিশ্বে কারবালার শোকাবহ ঘটনাকে ত্যাগ ও শোকের প্রতীক হিসেবে পালন করা হয়।

রাজধানীতে আরবি মহরম মাসের ৫, ৭ তারিখে দুপুরে 'তাজিয়া মিছিল' বের হয়ে সন্ধ্যায় হোসেনী দালান ইমামবাড়ায় ফিরে আসে।

আর ৮ মহরম সন্ধ্যায় ও ৯ মহরম রাত ১২টার পর ফের বের করা হয় 'তাজিয়া মিছিল'।

ফাইল ছবি

রাজধানীতে ১০ মহরমের দিন প্রতিবারই 'তাজিয়া মিছিল' ও 'জসনে জুলুস' এর মধ্য দিয়ে দিনের সূচনা হয়। এ সময় অনেককে নিজের দেহে আঘাত করে রক্ত ঝরাতে দেখা যায়।

এ দিনের অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বিশেষ মোনাজাত, কোরআনখানি, দোয়া, মাহফিল।

হোসেনী দালান ইমামবাড়ার ব্যাবস্থাপনা কমিটির সদস্য ও মুখপাত্র সৈয়দ বারেক রেজা (মজলুম) জানান, শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মূল তাজিয়া মিছিল হোসেনী দালান ইমামবাড়া থেকে শুরু হয়ে আজিমপুর, নিউ মার্কেট হয়ে ধানমণ্ডি ২ নম্বর সড়কের পশ্চিম প্রান্তে 'কারবালা' প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হবে।

এর আগে ভোরে আরেকটি মিছিল ইমামবাড়া থেকে বের হয়ে বকশী বাজার, নাজিমুদ্দিন রোড, চক বাজার, রহমতগঞ্জ, চাঁদনী ঘাট, উর্দু রোড ও বকশীবাজার ঘুরে আবার ইমামবাড়ায় ফিরে আসবে।

এছাড়া রাজধানীর মোহাম্মদপুর ও মিরপুর, মগবাজার ও পল্টন থেকেও তাজিয়া মিছিল বের হয়। এসব মিছিল শেয় হয় তেজগাঁও নাখালপাড়া শিয়া মাজারে (কারবালা)।