চার জেলা নিয়ে নতুন বিভাগ ময়মনসিংহ

ঢাকা বিভাগের চার জেলা নিয়ে ময়মনসিংহ বিভাগ গঠনের সিদ্ধান্তে চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে সরকার, যা ছিল বৃহত্তর ময়মনসিংহবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Sept 2015, 09:50 AM
Updated : 14 Sept 2015, 12:33 PM

ময়মনসিংহ, জামালপুর, শেরপুর ও নেত্রকোণা জেলা নিয়ে দেশের অষ্টম এই বিভাগ গঠিত হবে। এক কোটি ১৩ লাখ ৬৯ হাজার জনসংখ্যার ময়মনসিংহ বিভাগের আয়তন হবে ১০ হাজার ৫৮৪ বর্গকিলোমিটার।

সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির (নিকার) সভায় এই প্রশাসনিক বিভাগ গঠনের চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়।

সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা সাংবাদিকদের বলেন, নতুন এই বিভাগে সবার প্রথমে হবে বিভাগীয় কমিশনার ও রেঞ্জ ডিআইজি পুলিশের অফিস। পর্যায়ক্রমে অন্য সব অফিসের কার্যালয়ও পাবে ময়মনসিংহ।

ময়মনসিংহ, জামালপুর, শেরপুর ও নেত্রকোণার সঙ্গে টাঙ্গাইল ও কিশোরগঞ্জ জেলা রেখে ময়মনসিংহ বিভাগ গঠনের প্রস্তাবে গত ২৬ জানুয়ায়ী নীতিগত অনুমোদন দিয়েছিল মন্ত্রিসভা। তবে চূড়ান্ত অনুমোদনে টাঙ্গাইল ও কিশোরগঞ্জ জেলাকে ঢাকার সঙ্গেই রাখা হয়েছে।

ময়মনসিংহ বিভাগ হওয়ার আগ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে জেলা ছিল ১৭টি। নতুন বিভাগ হওয়ায় ১৩ জেলা নিয়ে ঢাকা বিভাগকে পুনর্গঠন করা হবে বলে জানান মোশাররাফ।

এর আগে বিভিন্ন সময়ে ময়মনসিংহকে বিভাগ ঘোষণার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও বিষয়টি বাস্তব রূপ পেতে শুরু করে চলতি বছর জানুয়ারিতে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণের ওপর জোর দিয়ে ঢাকাকে ভেঙে তিনটি বিভাগ করার পক্ষে মত দিলে সে সময় ময়মনসিংহকে দেশের অষ্টম প্রশাসনিক বিভাগ ঘোষণার প্রস্তাবে সায় দিয়ে মন্ত্রিসভা বিষয়টি নিকারে পাঠায়।

বিষয়টি পর্যালোচনা করে সুপারিশ দিতে একটি কমিটিও গঠন করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার নিকারে প্রস্তাবটি চূড়ান্ত অনুমোদন পায়।   

ঢাকা বিভাগকে ভেঙে ফরিদপুর নামে একটি বিভাগ এবং কুমিল্লা ও নোয়াখালী জেলা নিয়ে আরেকটি বিভাগ গঠনের সিদ্ধান্তও সরকারের রয়েছে বলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একজন কর্মকর্তা জানান, নতুন বিভাগ গঠনের বিষয়ে সরকার আনুষ্ঠানিক আদেশ জারি করবে। এরপর বিভাগীয় পর্যায়ের কর্মকর্তা নিয়োগ দিয়ে নতুন অফিস স্থাপনের কাজ শুরু হবে।

নিকারের বৈঠকে পিরোজপুর জেলার ভাণ্ডারিয়া উপজেলা সদরে ভাণ্ডারিয়া পৌরসভা গঠনেরও অনুমোদন দেওয়া হয়। এছাড়া মামলা সংক্রান্ত জটিলতায় আটকে থাকা কুমিল্লার হোমনা পৌরসভার সীমানা সম্প্রসারণ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবও অনুমোদন পেয়েছে বলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান।

“এ পৌরসভার সীমানা নিয়ে একটি মামলা থাকায় সীমানা সম্প্রসারণ করা যাচ্ছিল না। ওই মামলা প্রত্যাহার হওয়ায় এখন সীমানা সম্প্রসারণ করা হবে।”

মুরাদনগর থানাকে বিভক্ত করে ‘বাঙ্গুরা বাজার’ নামে নতুন একটি থানা গঠনের সিদ্ধান্ত দিয়েছে নিকার।

মুরাদনগর উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন নিয়ে নতুন এই থানা হবে জানিয়ে মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা বলেন, এই থানার আয়তন হবে ১৮৯ বর্গকিলোমিটার; জনসংখ্যা দুই লাখ ২০ হাজার ৭৪০ জন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক