এ জার্নি বাই লাইফ

সাইফ বরকতুল্লাহ
Published : 29 Sept 2019, 06:48 AM
Updated : 29 Sept 2019, 06:48 AM


আশা ভঙ্গের ভেষজ মেডিসিন এই বইয়ের প্রতিটি পৃষ্ঠা। এখানে ব্যক্ত হয়েছে একটা সহজিয়া জীবন দর্শন। আছে আনন্দ, বিষাদ, অসুখ, উপশম, জন্ম ও পরাজয়ের মর্মস্পর্শী প্রতিবদেন। প্রচলিত অর্থে জীবনী নয় আবার জীবনীও। কখনো মনে হতে পারে দিনলিপি, ট্র্যাভেলগ বা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ। সবকিছু মিলে যেন এক গদ্যককটেল। তাই পর্বগুলোর বিন্যাসে প্রচলিত পারম্পর্য খোঁজা অপ্রাসঙ্গিক। এটিই হচ্ছে সমকালীন উপন্যাস 'এ জার্নি বাই লাইফ'।

গ্রন্থটিকে সমকালীন উপন্যাস বলা হলেও মূলত লেখক তার জীবনের দর্শনকেই চিত্রায়িত করেছেন। যেমনটি সরকার আমিন নিজেই বলেছেন, এ বইটিতে আমি একটা ভাঙাচোরা জীবন মেরামতের ব্যক্তিগত কাহিনি বলেছি। যে জীবনটা যাপন করেছি। যাপন করে যাচ্ছি। দীর্ঘশ্বাস যেমন আরামদায়ক তেমনি এই বইটা উপশম হয়েছে আমার ক্ষেত্রে। রিভিউ সাধারণত পাঠক লিখে থাকেন, আমার বইটার প্রথম পাঠক যেহেতু আমি নিজেই সেহেতু এই পাঠপ্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করলাম।

'এ জার্নি বাই লাইফ'কে সমকালীন উপন্যাস বলা হলেও মূলত আত্মজীবনীমূলক উপন্যাস। সরকার আমিন তার জীবনের অভিজ্ঞতার চিত্র এখানে উপস্থাপন করেছেন যা পাঠ করে এক নতুন জীবনকে উপলব্ধি করতে পারবেন পাঠকরা।


'এ জার্নি বাই লাইফ' প্রকাশন আড্ডা
জীবনে বায়ান্নটি বসন্ত পেরিয়ে আবারও পেছনে যেতে চাইলেন। দাঁড়িয়ে গেলেন আয়নার সামনে। অন্য এক জীবন দেখতে পেলেন। আবিষ্কার করলেন নিজেকে। জীবনের টুকরো টুকরো ঘটনাগুলোকে স্মৃতির আয়নায় ভাসিয়ে চিত্রায়ন করার চেষ্টা করলেন। পুরনো বকুল কুড়িয়ে সরকার আমি গাঁথলেন সুবাসিত কথা। এভাবেই রচিত 'এ জার্নি বাই লাইফ'। গত ২৭ সেপ্টেম্বর ঢাকায় বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে বাতিঘরে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল গ্রন্থটি নিয়ে প্রকাশনা আড্ডা। বাতিঘরের ব্যবস্থাপনায় আড্ডাটি আয়োজন করে সরকার আমিনের সহকর্মী ও লেখক বন্ধুরা।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই চর্যাগীতির একটি গান দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। এই গানে অংশ নেন তরুণ গবেষক সাইমন জাকারিয়া, তার স্ত্রী সৃজনী তানিয়া এবং বাউল অন্তর সরকার।

অনুষ্ঠানে অধ্যাপক সৈয়দ আকরম হোসেন বলেন, আমিনকে বাইরে থেকে যতটা স্বাভাবিক হাসিখুশি মনে হয়, ভেতরটা কিন্তু তেমন নয় সব সময়। তার ভিতরে অনেক চোরাস্রোত বইতে থাকে। কিন্তু আমিন সেটা বুঝতে দেয় না। এই ক্ষমতা সবার থাকে না।

এছাড়াও সরকার আমিনের জীবনের নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা ও স্মৃতিচারণ করেন কবি ও বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক মনজুরে মওলা, প্রফেসর হারুন-উর রশিদ, কবি কামাল চৌধুরী, কবি নির্মলেন্দু গুণ, কবি অসীম সাহা, অভিনেতা ও অনুবাদক খায়রুল আলম সবুজ, কবি ফরিদ কবির, কবি কামরুল হাসান, কবি রাজু আলাউদ্দিন, কবি আলফ্রেড খোকন, কবি শোয়াইব জিবরান, প্রাবন্ধিক ড. জালাল ফিরোজ, চৌধুরী বাবুল বড়ুয়া এবং আকছির এম চৌধুরী প্রমুখ।


এছাড়াও লেখক, কবি, সাহিত্যিক, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, গণমাধ্যমকর্মী, শুভাকাঙ্ক্ষী এবং সরকার আমিনের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সরকার আমিনের ৫২তম জন্মদিন উপলক্ষে 'এ জার্নি বাই লাইফ' গ্রন্থটি প্রকাশ করেছে বাতিঘর। প্রচ্ছদ করেছেন মোস্তাফিজ কারিগর। দাম ৪০০ টাকা।

শুভ জন্মদিন সরকার আমিন

গত ২৭ সেপ্টেম্বর 'এ জার্নি বাই লাইফ' বইটির প্রকাশনা অনুষ্ঠানটি ছিল একই সঙ্গে কবি সরকার আমিনের জন্মদিনের অগ্রিম উদযাপনও বটে। অনুষ্ঠানে আমিনকে বইটির জন্য অভিনন্দন জানাবার পাশাপাশি জন্মদিনের শুভেচ্ছাও জানান সবাই।
পুরো অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেছেন কবি ও কথাসাহিত্যিক শাহনাজ মুন্নী।

সরকার আমিনের জন্ম ১৯৬৭ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ার সুহিলপুর গ্রামে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর শেষে একই বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি করেছেন। এ পর্যন্ত তার ২৫টি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। বর্তমানে বাংলা একাডেমির উপপরিচালক পদে কর্মরত।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক