সামাজিক মাধ্যম তদারকিতে ইসির ৮ সদস্যের টিম

নির্বাচনকালীন সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ও অপপ্রচার প্রতিরোধে আট সদস্যের একটি মনিটরিং টিম গঠন করেছে নির্বাচন কমিশন।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 Dec 2018, 04:19 PM
Updated : 26 Dec 2018, 05:49 PM

বুধবার ইসি সচিবালয়ের যুগ্মসচিব এসএম আসাদুজ্জামান বলেন, এখন থেকে ২৪ ঘণ্টা এই টিম ফেসবুকসহ সোশাল মিডিয়ায় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গুজব ও অপপ্রচার রোধে কাজ করবে।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত ভোটকে সামনে রেখে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট গুজব, প্রপাগান্ডা যা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করে এমন কার্যক্রম বন্ধের লক্ষ্যে প্রশাসনের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশন থেকেও ২৪ ঘণ্টা সোশাল মিডিয়া মনিটরিং করা হবে।

নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ভোট নিয়ে প্রপাগান্ডা, গুজব, নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ বা বানচাল করার উদ্দেশ্যে ফেইসবুকসহ সোশাল মিডিয়ার ব্যবহার ঠেকাতে গত ২৬ নভেম্বর ইসি সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে ২৪ ঘণ্টা মনিটরিংয়ের নির্দেশ দেয়।

ইসির এই তদরকি দলের প্রধান হিসেবে রয়েছেন জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম।

এছাড়াও পুলিশ হেড কোয়ার্টার, পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চ, র‌্যাব, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি), বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) এবং ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সেন্টার (এনটিএমসি) থেকে একজন করে প্রতিনিধি এবং নির্বাচন কমিশনের সিনিয়র মেইনটেন্যান্স ইঞ্জিনিয়ার নিয়ে এই টিম গঠন করা হয়েছে।

মনিটরিংয়ে নির্বাচন বিরোধী কোনো গুজব কিংবা অপপ্রচার প্রমাণিত হলে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অবহিত করবে নির্বাচন কমিশন।

ইতোমধ্যে টেলিযোগাযোগ খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি, পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থাসহ সংশ্লিষ্টদের নিয়ে কয়েক দফা বৈঠক করেছেন ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

গত নভেম্বরে এক বৈঠক শেষে ইসি সচিব বলেন, সোশাল মিডিয়া কোনোভাবেই বন্ধ করা যাবে না বলে মত দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

তবে যারা গুজব ছড়াবে, সহিংসতা ও অপপ্রচার ছড়াবে তাদের বিষয়ে এনটিএমসি, বিটিআরসি ও আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সাইবার ক্রাইম ইউনিট মনিটরিং করবে।