বাগেরহাটে বিএনপি প্রার্থীর গাড়িবহরে হামলা

বাগেরহাট-২ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী এম এ সালামের প্রচার গাড়িবহরে হামলার অভিযোগ উঠেছে নৌকার সমর্থকদের বিরুদ্ধে।

বাগেরহাট প্রতিনিধি.বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Dec 2018, 02:33 PM
Updated : 16 Dec 2018, 03:43 PM

রোববার দুপুরে শহরের হরিণখানা এলাকায় নৌকা প্রতীক প্রার্থীর সমর্থকরা লাঠিসোটা নিয়ে এ হামলা চালায় বলে বিএনপির অভিযোগ।

হামলায় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী বিএনপি নেতা এম এ সালামসহ দলের অন্তত সাত নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে তাদের দাবি।

এম এ সালাম এই হামলার জন্য আওয়ামী লীগকে দায়ী করেছেন। তবে আওয়ামী লীগ হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

এ আসনে নৌকার প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা শেখ তন্ময়।

বাগেরহাট-২ আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ও জেলা বিএনপির সভাপতি এম এ সালাম অভিযোগ করেন, বেলা পৌনে ১২টার দিকে চারটি মাইক্রোবাসযোগে সদর উপজেলার যাত্রাপুর এলাকায় গণসংযোগে যাচ্ছিলেন তিনি।

“আমার গাড়িবহর শহরের হরিণখানা এলাকার পাঁচ রাস্তার মোড়ে পৌঁছলে আগে থেকে দাঁড়িয়ে থাকা আওয়ামী লীগের নৌকার প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থকরা লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়।”

তিনি বলেন, এ সময় তারা দ্রুত গাড়ি নিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে তাদের ২০/২৫টি মোটরসাইকেল পিছু ধাওয়া করে সামনে পথ আটকে সালামের গাড়িসহ চারটি মাইক্রোবাসের কাচ ভাংচুর করে এবং গাড়িতে থাকা নেতাকর্মীদের লাঠি দিয়ে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে আহত করে।

“এ সময় আমিসহ অন্তত সাতজন কমবেশি আহত হই। আহত অন্যরা হলেন মারুফ খান, জসিম, রাহুল, ‎হ্নদয়, মহসিন এবং প্রার্থীর গাড়ি চালক রনি।”

আহতদের মধ্যে মারুফ খানকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় বলেন, ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী এম এ সালামের গাড়িবহরে অজ্ঞাত পরিচয় কতিপয় দুর্বৃত্তের ইটপাটকেল নিক্ষেপের খবর শুনে পুলিশ সেখানে যায়।

“কিন্তু সেখানে গিয়ে আমরা কোনো ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ি বা ঐক্যফ্রন্টের কাউকে দেখতে পাইনি। প্রার্থী এম এ সালাম নিজে আমাকে ফোনে ঘটনাটি জানিয়েছেন তবে তিনি এখনও লিখিত অভিযোগ দেননি। অভিযোগ করলে আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।”

বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক শেখ কামরুজ্জামান টুকু সাংবাদিকদের বলেন, বিএনপি প্রার্থী এম এ সালাম আসন্ন নির্বাচনে পরাজয় বুঝতে পেরে আওয়ামী লীগের উপর দোষ চাপিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা করছেন।

“আমার দলের কোনো নেতাকর্মী ওই হামলায় জড়িত নয়। এম এ সালাম নিজেই হামলার নাটক সাজিয়েছেন কিনা তা তদন্ত করে দেখতে পুলিশের কাছে দাবি জানাচ্ছি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক