bdnews24.com - Home https://bangla.bdnews24.com/ The RSS feed of bdnews24.com en Bangladesh News 24 Hours Ltd. 2017-09-13 09:34:43.0 2017-09-13 09:34:43.0 Home customGroupedContent 1 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1425206 নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 18:02:53.0 2017-11-23 18:18:51.0 প্রমাণ হল গণশুনানি অর্থহীন: ক্যাব বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধিতে প্রমাণ হল গণশুনানি অর্থহীন: ক্যাব গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম ফের বাড়ানোর কঠোর সমালোচনা করেছে ভোক্তা অধিকার সংগঠন ক্যাব। গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম ফের বাড়ানোর কঠোর সমালোচনা করেছে ভোক্তা অধিকার সংগঠন ক্যাব। false https://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1425206.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/10/05/27_energy-regulatory-commission-ghana-sunyani_051017_0001.jpg/ALTERNATES/w300/27_energy+regulatory+commission+ghana+sunyani_051017_0001.jpg
প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম গড়ে ৩৫ পয়সা বা ৫ দশমিক ৩ শতাংশ বাড়ানোর ঘোষণা দিয়ে বৃহস্পতিবার বিইআরসি বলেছে, নতুন এ হার কার্যকর হবে আগামী ডিসেম্বর থেকে।

দাম বাড়ানো হয়েছে কেবল খুচরা পর্যায়ে; পাইকারিতে বিতরণ কেন্দ্রগুলোর জন্য বিদ্যুতের দাম তাতে বাড়ছে না।

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর ২০১০ সালের ১ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত আটবার বাড়ানো হল বিদ্যুতের দাম।

চলতি বছর মার্চে বিভিন্ন খাতে গ‌্যাসের দাম ৫০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ানোর পর জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বিদ্যুতের দামও সমন্বয় করার কথা বলেছিলেন।

বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর ঘোষণা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিইআরসি

বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর ঘোষণা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিইআরসি

এরপর এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন গত সেপ্টেম্বরে বিতরণ কোম্পানিগুলোর প্রস্তাব যাচাই-বাছাই করে শুনানির আয়োজন করে। সেখানে পাইকারিতে প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম প্রায় ১৫ শতাংশ এবং গ্রাহক পর্যায়ে ৬ থেকে সাড়ে ১৪ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব আসে।

এবারও শুনানিতে বিতরণ সংস্থাগুলোর দাম বৃদ্ধির প্রস্তাবের বিরোধিতা করা হয় ভোক্তাদের পক্ষ থেকে। ব্যতিক্রমী এক উদ্যোগে কনজ্যুমার্স অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের (ক্যাব) পক্ষ থেকে দেওয়া দাম কমানোর একটি প্রস্তাব নিয়েও শুনানি হয়।

বৃহস্পতিবার বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির ঘোষণার প্রতিক্রিয়ায় ক্যাবের জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা এম শামসুল আলম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “এবারও দাম বৃদ্ধির যুক্তি হিসেবে তারা বলল- সবকিছুরই দাম বাড়ে তেমনি বিদ্যুতেরও দাম বাড়ানো হয়েছে। আর গণশুনানি অকার্যকার ও অর্থহীন প্রতীয়মান হল, গণশুনানি এক ধরনের প্রহসন।”

গত ২৫ সেপ্টেম্বর গণশুনানিতে অংশ নিয়ে ভোক্তা সংগঠন ও বামদলগুলো বিদ্যুতের দাম কমানোর পক্ষে তাদের যুক্তি তুলে ধরে।

বিদ্যুতের দাম কমানোর প্রস্তাব নিয়ে ব্যতিক্রমী এই গণশুনানি হয়েছিল

বিদ্যুতের দাম কমানোর প্রস্তাব নিয়ে ব্যতিক্রমী এই গণশুনানি হয়েছিল

সেখানে আয়-ব্যয় সমন্বয়ের জন্য দাম না বাড়িয়ে বরং এক পয়সা থেকে ৬ পয়সা পর্যন্ত দাম কমানো যেতে পারে বলে হিসাব দেখান ক্যাবের জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা এম শামসুল আলম; যার কিছুটা মেনে নেন পিডিবির কর্মকর্তারা।

বিদ্যুতের উৎপাদন, বিতরণ ও সঞ্চালনে ‘অযৌক্তিকভাবে’ হাজার কোটি টাকা ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে বলে দাবি করেন শামসুল আলম।

“মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাবকে তারা কেউই যৌক্তিক প্রমাণ করতে পারেনি; তারপরও মূল্য কী করে বাড়ে? এটা কেবল আমাদের মতো দেশের প্রেক্ষাপটেই সম্ভব, এর সাথে ন্যায়-নীতি, ভোক্তাদের স্বার্থ-অধিকার ও আইনের কোনো সম্পর্ক নেই।”

শামসুল আলম গণশুনানির প্রসঙ্গ টেনে বলেন, “তাদের বহুভাবে ভাগ করে করে দেখানো হয়েছে যে এই খাতে ১৩ থেকে ১৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয় অযৌক্তিকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে, তারপরও বলেননি মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাব অযৌক্তিক, আমরা এটা গ্রহণ করব না।”

গণশুনানির সময় সমাবেশে বাম দলগুলো

গণশুনানির সময় সমাবেশে বাম দলগুলো

গণশুনানিতে অংশ নেওয়া সিপিবির কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “এই দাম বৃদ্ধি অনৈতিক। আমরা অচিরেই গণবিরোধী এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করব।”

পরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সিপিবি-বাসদ ও গণতান্ত্রিক মোর্চা আগামী ৩০ নভেম্বর হরতালের ঘোষণা দেয়।

গণশুনানির প্রসঙ্গ টেনে প্রিন্স বলেন, “আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে গণশুনানিতে আমরা এটা প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছি যে, এ মুহূর্তে বিদ্যুতের দাম কমানো সম্ভব, কিন্তু সেটা না করে বরং বাড়ানো হলো। এর মধ্যে দিয়ে জনস্বার্থ না দেখে গুটিকয়েক লুটেরা, দুর্নীতিবাজদের স্বার্থই রক্ষা করা হলো।”

]]>
2 2 Home economy_bn অর্থনীতি news-bn 202 1425138 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 15:32:19.0 2017-11-23 18:59:31.0 বিদ্যুতের দাম ফের বাড়ল বিদ্যুতের দাম বাড়ল ৫.৩% গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম আবারও বাড়িয়েছে সরকার; এর ফলে প্রতি মাসে বাড়তি টাকা গুনতে হবে ভোক্তাদের। গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম আবারও বাড়িয়েছে সরকার; এর ফলে প্রতি মাসে বাড়তি টাকা গুণতে হবে ভোক্তাদের। false https://bangla.bdnews24.com/economy/article1425138.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/energy-regulatory-commissio.jpg/ALTERNATES/w300/Energy-Regulatory-Commissio.jpg
প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম গড়ে ৩৫ পয়সা বা ৫ দশমিক ৩ শতাংশ বাড়ানোর ঘোষণা দিয়ে বৃহস্পতিবার বিইআরসি বলেছে, নতুন এ হার কার্যকর হবে আগামী ডিসেম্বর থেকে।

দাম বাড়ানো হয়েছে কেবল খুচরা পর্যায়ে; পাইকারিতে বিতরণ কেন্দ্রেগুলোর জন্য বিদ্যুতের দাম তাতে বাড়ছে না।

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর ২০১০ সালের ১ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত আটবার বাড়ানোর হল বিদ্যুতের দাম।

সর্বশেষ ২০১৫ সালের ১ সেপ্টেম্বর বিদ্যুতের দাম গড়ে ২ দশমিক ৯৩ শতাংশ বাড়িয়েছিল সরকার। তাতে মাসে ৭৫ ইউনিট পর্যন্ত ব্যবহারকারীদের খরচ বাড়ে ২০ টাকা; ৬০০ ইউনিটের বেশি ব্যবহারে খরচ বাড়ে কমপক্ষে ৩০ টাকা।

চলতি বছর মার্চে বিভিন্ন খাতে গ‌্যাসের দাম ৫০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ানোর পর জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেছিলেন, বিদ্যুৎ খাতে গ্যাসের দাম বাড়ায় বিদ্যুতের দামও সমন্বয় করা প্রয়োজন।

এরপর এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন গত সেপ্টেম্বরে বিতরণ কোম্পানিগুলোর প্রস্তাব যাচাই-বাছাই করে শুনানির আয়োজন করে। সেখানে পাইকারিতে প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম প্রায় ১৫ শতাংশ এবং গ্রাহক পর্যায়ে ৬ থেকে সাড়ে ১৪ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব আসে।

এর মধ্যে ডিপিডিসি গ্রাহক পর্যায়ে ৬.২৪ শতাংশ, ডেসকো ৬.৩৪ শতাংশ, ওজোপাডিকো ১০.৩৬ শতাংশ, আরইবি ১০.৭৫ শতাংশ এবং পিডিবি ১৪.৫ শতাংশ দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দেয়। নিয়ম অনুযায়ী, গণশুনানি করার পর ৯০ কার্যদিবসের মধ্যে কমিশনের সিদ্ধান্ত জানাতে হয়।

এবারও শুনানিতে বিতরণ সংস্থাগুলোর দাম বৃদ্ধির প্রস্তাবের বিরোধিতা করা হয় ভোক্তাদের পক্ষ থেকে। ব্যতিক্রমী এক উদ্যোগে কনজ্যুমার্স অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের (ক্যাব) পক্ষ থেকে দাম কমানোর একটি প্রস্তাব নিয়েও শুনানি হয়।

বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হলে হরতাল দিয়ে তার প্রতিবাদ জানানো হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছিল বাম দলগুলো। কিন্তু তারপরও নিয়ন্ত্রক সংস্থার পক্ষ থেকে গ্রাহক পর্যায়ে দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত এল।

বিইআরসির সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, খুচরা পর্যায়ে গড়ে ৫ দশমিক ৩ শতাংশ দাম বাড়ানো হলেও বিদ্যুতের ন্যূনতম চার্জ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। ফলে মাসে ৫০ ইউনিটের কম ব্যবহার করেন এমন প্রায় ৩০ লাখ গ্রাহকের (মোট গ্রাহকের ১৩ শতাংশ) বিদ্যুৎ বিল কমবে।

এই দাম বৃদ্ধির ফলে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের প্রায় ৬০ লাখ গ্রাহকের ( মোট গ্রাহকের ৩৮ শতাংশ) মাসিক বিল মোটেও বৃদ্ধি পাবে না বলেও বিইআরসির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়।

বিস্তারিত আসছে

এ সম্পর্কিত খবর

বিদ্যুতের দাম বাড়ালে হরতাল, হুঁশিয়ারি বামদের

এই প্রথম বিদ্যুতের দাম কমানোর প্রস্তাবে গণশুনানি

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি নয়, কমাতে বললেন ভোক্তারা

বিদ্যুতের দাম ১৪.৫% বাড়াতে চায় পিডিবি

বিদ্যুতের দাম ৬.২৪% বাড়াতে চায় ডিপিডিসি

বছর ঘুরতেই বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব নেসকোর

বিদ্যুতের দাম ৬.৩৪% বাড়ানোর প্রস্তাব ডেসকোর

বিদ্যুৎ খরচ বাড়লে উৎপাদন ব্যয় বাড়বে ৮-১০%: ডিসিসিআই

বিদ্যুতের দাম কমানো সম্ভব, মানছে পিডিবিও

বিদ‌্যুতের দামও বাড়বে: জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী বেড়েছে গ্যাস-বিদ্যুতের দাম  

 

]]>
1425231 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/energy-regulatory-commissio.jpg/ALTERNATES/w300/Energy-Regulatory-Commissio.jpg 1425137 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/berc.jpg/ALTERNATES/w300/BERC.jpg
3 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1425133 নিজস্ব প্রতিবেদক, নিজস্ব প্রতিবেদক, 2017-11-23 15:09:55.0 2017-11-23 18:57:26.0 দুই মাসের মধ্যে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর সম্মতিপত্র সই দুই মাসের মধ্যে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর সম্মতিপত্র সই রাখাইনে সেনাবাহিনীর দমন-পীড়নের মুখে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের ঘরে ফেরার পথ তৈরি করতে সমঝোতা স্মারকে সই করেছে দুই দেশ। রাখাইনে সেনাবাহিনীর দমন-পীড়নের মুখে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের ঘরে ফেরার পথ তৈরি করতে সমঝোতা স্মারকে সই করেছে দুই দেশ। false https://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1425133.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/arrangement-signing-01.jpg/ALTERNATES/w300/Arrangement-signing-01.jpg
রাখাইনে সেনাবাহিনীর দমন-পীড়নের মুখে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের ঘরে ফেরার পথ তৈরি করতে সমঝোতায় পৌঁছেছে দুই দেশ।

বৃহস্পতিবার নেপিদোতে বাংলাদেশের পক্ষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এবং মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অং সান সু চির পক্ষে তার দপ্তরের মন্ত্রী কিয়া তিন্ত সোয়ে এ বিষয়ে একটি সম্মতিপত্রে (অ্যারেঞ্জমেন্ট) সই করেন।

পরে মাহমুদ আলী সময় টেলিভিশনকে বলেন, এ ‘প্রথম পদক্ষেপ’, দুই দেশকে এখন ‘পরের স্টেপে’ যেতে হবে।

“এখন কাজটা শুরু করতে হবে। সব ডিটেইল এর (অ্যারেঞ্জমেন্ট) মধ্যে আছে। আমরা ঢাকায় ফিরে বিস্তারিত জানাব।”

সেনাবাহিনীর দমন-পীড়নের মুখে পালিয়ে আসা চার লাখের মত রোহিঙ্গা গত কয়েক দশক ধরে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়ে আছে। আর গত ২৫ অগাস্ট রাখাইনে নতুন করে দমন অভিযান শুরুর পর আরও সোয়া ছয় লাখ রোহিঙ্গা সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে ঢুকেছে।

জাতিসংঘ ওই অভিযানকে ‘জাতিগত নির্মূল অভিযান’ বলে আসছে। আর আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এই রোহিঙ্গা সঙ্কটকে এশিয়ার এ অঞ্চলে সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে বড় শরণার্থী সমস্যা হিসেবে দেখা হচ্ছে। 

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তিন সপ্তাহের মধ্যে একটি ‘জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ’ গঠন করে দুই মাসের মধ্যে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু এবং তিন মাসের মধ্যে সুনির্দিষ্ট চুক্তি স্বক্ষরের লক্ষ্য ঠিক করা হয়েছে সম্মতিপত্রে।

অবশ্য এ বিষয়ে সময় টিভির প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “তিন মাসের মধ্যে ফেরত না তো, এখন যেটা হচ্ছে এই কাজটা শুরু করতে হবে। ওখানে বাড়িঘরগুলোতো জ্বালিয়ে দিয়েছে… সমান করে দিয়েছে। এগুলো, বাড়িঘরতো তৈরি করতে হবে।”

অন্যদিকে মিয়ানমারের শ্রম, অভিবাসন ও জনসংখ্যা বিষয় দপ্তরের পার্মানেন্ট সেক্রেটারি মিন্ট চিং বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, “বাংলাদেশে ফরম (রোহিঙ্গাদের ব্যক্তিগত তথ্যের নিবন্ধন ফরম) পূরণ করে আমাদের ফেরত পাঠালেই যত দ্রুত সম্ভব আমরা তাদের (রোহিঙ্গা) ফিরিয়ে আনতে চাই।” 

মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলরের দপ্তরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, রাখাইনের বাস্তুচ্যুত নাগরিকদের ফিরিয়ে নিতে ওই সম্মতিপত্র তৈরি করা হয়েছে ১৯৯২ সালে দুই দেশের যৌথ ঘোষণার ভিত্তিতে, যেখানে সনাক্তকরণ ও প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ার সাধারণ নীতিমালা ঠিক করা হয়েছিল।

রাখাইনে কয়েকশ বছর ধরে রোহিঙ্গা মুসলমানদের বসবাসের ইতিহাস থাকলেও  ১৯৮২ সালে আইন করে তাদের নাগরিকত্ব থেকে বঞ্চিত করা হয়। মিয়ানমারের সেনাবাহিনী এবং ক্ষমতাসীন দলের অনেক নেতাই রোহিঙ্গাদের বর্ণনা করে আসছেন ‘বাঙালি সন্ত্রাসী’ ও ‘অবৈধ অভিবাসী’ হিসেবে। স্টেট কাউন্সিলরের দপ্তরের এক বিবৃতিতেও ‘রোহিঙ্গা’ শব্দটি উল্লেখ করা হয়নি।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের সামরিক সরকার ও বাংলাদেশের মধ্যে বেশ কিছুদিন কূটনৈতিক আলোচনার পর ১৯৯২ সালে ওই যৌথ ঘোষণা আসে। সেখানে রোহিঙ্গাদের ‘মিয়ানমার সমাজের সদস্য’ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

ওই চুক্তির আওতায় মিয়ানমার সে সময় দুই লাখ ৩৬ হাজার ৫৯৯ জন রোহিঙ্গাকে দেশে ফিরিয়ে নেয়। চুক্তি নির্ধারিত যাচাই প্রক্রিয়ায় আরও ২৪১৫ জন শরণার্থীকে সে সময় মিয়ানমার থেকে আসা বলে চিহ্নিত করা হলেও মিয়ানমার তাদের আর ফিরিয়ে নেয়নি। 

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সমালোচনার মধ্যে এর ধারাবাহিকতায় সু চির দপ্তরের মন্ত্রী কিয়া তিন্ত সোয়ে অক্টোবরের শুরুতে ঢাকায় এলে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া এগিয়ে নিতে দুই দেশ একটি ‘জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ’ গঠনের বিষয়ে সম্মত হয়। সেখানে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে নতুন একটি দ্বিপক্ষীয় চুক্তির প্রস্তাব করা হয়, যেখানে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্বের বিষয়টিও থাকবে।

বাংলাদেশের পক্ষ থেকে সে সময় বলা হয়, যে প্রেক্ষাপটে ১৯৯২ সালের চুক্তির নীতিমালা ও যাচাইয়ের প্রক্রিয়াগুলো ঠিক করা হয়েছিল, বর্তমান পরিস্থিতি তার তুলনায় অনেকটাই আলাদা। সুতরাং ওই চুক্তি অনুসারে এবার রোহিঙ্গাদের পরিচয় শনাক্ত করার প্রস্তাব বাস্তবসম্মত নয়। কিন্তু মিয়ানমারের সাড়া না পাওয়ায় বিষয়টি আটকে থাকে দেড় মাস।

এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও জাতিসংঘের পক্ষ থেকে মিয়ানমারের ওপর চাপ বাড়তে থাকে। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ রাখাইনে সহিংসতা বন্ধ করে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে একটি বিবৃতিও দেয়।  

]]>
1425178 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/arrangement-signing-01.jpg/ALTERNATES/w300/Arrangement-signing-01.jpg 1425177 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/arrangement-signing-and-exc.jpg/ALTERNATES/w300/Arrangement-signing-and-exc.jpg 1424178 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/20/27_rohingya-children_balukhali-camp_201117_0006.jpg/ALTERNATES/w300/27_Rohingya+children_Balukhali+Camp_201117_0006.jpg কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প 1425132 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/mahmud-ali-suu-kyi.jpg/ALTERNATES/w300/Mahmud+ALi-Suu+Kyi.jpg
4 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1425205 নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 17:57:59.0 2017-11-23 18:29:55.0 বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে হরতাল বামদের বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে হরতাল বামদের আগামী ৩০ নভেম্বর সারাদেশে আধাবেলা হরতাল ডেকেছে বাম দলগুলো। বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে আগামী ৩০ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সারাদেশে আধাবেলা হরতাল ডেকেছে বাম দলগুলো। false https://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1425205.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/22/cpb-basod.jpg/ALTERNATES/w300/CPB-BaSod.JPG বুধবার বামদের এই সমাবেশ থেকে হরতালের হুমকি দেওয়া হয়েছিল
বৃহস্পতিবার বিইআরসির ঘোষণার পর এই কর্মসূচি দেয় সিপিবি, বাসদ ও গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা।

বুধবার এক সমাবেশ থেকে বাম দলগুলো হুমকি দিয়েছিল, বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হলে হরতাল দেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম গড়ে ৩৫ পয়সা বা ৫ দশমিক ৩ শতাংশ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত জানায়, যা আগামী ডিসেম্বর থেকে কার্যকর হবে।

গণশুনানির পর বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর উদ্যোগের প্রতিবাদে আগের দিন জেলায় জেলায় সমাবেশ করেছিল বাম দলগুলো। 

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে কেন্দ্রীয় কর্মসূচিতে সিপিবির সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম বলেছিলেন, “গণশুনানির নামে প্রহসন হয়েছে। বিদ্যুতের দাম যদি আবার বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়া হয়, তাহলে হরতাল ছাড়া আমাদের বিকল্প কিছু করার থাকবে না।”

আট বছর আগে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় যাওয়ার পর এনিয়ে আটবার বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হল।

বৃহস্পতিবার বিইআরসি দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়ার পর বাম দলগুলোর নেতারা জরুরি বৈঠকে বসেন। ওই বৈঠকের পর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ৩০ নভেম্বর সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত হরতাল আহ্বানের কথা জানানো হয়।

সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “এটা একটি গণবিরোধী সিদ্ধান্ত। আমরা এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানাই। সেই প্রতিবাদের অংশ হিসেবেই ৩০ নভেম্বর সারা দেশে আমরা হরতাল ডেকেছি।”

এবার বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবের পাশাপাশি দাম কমানোর একটি প্রস্তাব নিয়েও গণশুনানি করেছিল বিইআরসি, যাতে বাম নেতারা দাম কমানোর যুক্তি দেখিয়েছিলেন।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর গণশুনানিতে আয়-ব্যয় সমন্বয়ের জন্য দাম না বাড়িয়ে বরং এক পয়সা থেকে ৬ পয়সা পর্যন্ত দাম কমানো যেতে পারে বলে হিসাব দেখিয়েছিলেন তারা।

সেলিম বলেন, “গণশুনানিতে আমার প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছিলাম, এই মুহূর্তে বিদ্যুতের দাম কমানো সম্ভব। কিন্তু সেটা না করে উল্টো দাম বাড়ানো হয়েছে। যেটা কোনোভাবেই কাম্য নয়।”

হরতাল আহ্বানের এই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক। উপস্থিত ছিলেন সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, বাসদ সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, বাসদ (মার্কসবাদী)’র কেন্দ্রীয় নেতা শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক, সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য আব্দুস সাত্তার, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য বহ্নিশিখা জামালী, সিপিবির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুল্লাহ আল ক্বাফী রতন, বাসদ (মার্কসবাদী)’র কেন্দ্রীয় নেতা মানস নন্দী, ফখরুদ্দিন কবির আতিক, গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়ক মনির উদ্দিন পাপ্পু।

]]>
1425011 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/22/cpb-basod.jpg/ALTERNATES/w300/CPB-BaSod.JPG বুধবার বামদের এই সমাবেশ থেকে হরতালের হুমকি দেওয়া হয়েছিল
5 2 Home politics_bn রাজনীতি news-bn 198 1425171 নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 16:52:39.0 2017-11-23 17:25:09.0 আমি সম্পূর্ণ নির্দোষ: খালেদা জিয়া আমি সম্পূর্ণ নির্দোষ: খালেদা জিয়া জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে নিজেকে ‘সম্পূর্ণ নির্দোষ’ দাবি করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে নিজেকে ‘সম্পূর্ণ নির্দোষ’ দাবি করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। false https://bangla.bdnews24.com/politics/article1425171.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/41_khaleda-zia_231117_0001.jpg/ALTERNATES/w300/41_Khaleda+Zia_231117_0001.jpg দুর্নীতি মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে বক্তব্য দিতে বৃহস্পতিবার ঢাকার বকশিবাজারে বিশেষ জজ আদালতে হাজির হন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।
বৃহস্পতিবার বকশিবাজারে ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. আখতারুজ্জামানের জিজ্ঞাসার জবাবে এ দাবি করেন তিনি।

এ মামলার সাক্ষীদের জবানবন্দি ও মামলার অভিযোগ পড়ে শুনিয়ে বিচারক খালেদা জিয়ার কাছে জানতে চান- তিনি দোষী না নির্দোষ।

জবাবে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া বলেন, “আমি সম্পূর্ণ নির্দোষ।”

এ  মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে খালেদা জিয়া কোনো কাগজপত্র জমা দেবেন কী না– তা জানতে চান বিচারক। জবাবে বিএনপিনেত্রী বলেন, ‘প্রয়োজন মনে করলে’ তিনি কাগজপত্র জমা দেবেন; একইসঙ্গে সাফাই সাক্ষীও দেবেন। 

বৃহস্পতিবার খালেদার নিজেকে নির্দোষ দাবি করার মধ্য দিয়ে জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দ্বিতীয়বারের মত খালেদা জিয়ার আত্মপক্ষ সমর্থনের প্রক্রিয়া শুরু হয়।

পরে একই আদালতে তিনি জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থন করে ষষ্ঠ দিনের মত প্রায় এক ঘণ্টা বক্তব্য দেন।

আত্মপক্ষ সমর্থনে খালেদা জিয়ার বাকি বক্তব্য শোনার জন্য আগামী ৩০ নভেম্বর দিন রেখেছেন বিচারক আখতারুজ্জামান।

খালেদার অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে তার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন এ দুই মামলায় তার স্থায়ী জামিনের আবেদন করলে বিচারক তা খারিজ করে দেন।

জিয়া দাতব্য ট্রাস্টের নামে আসা তিন কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ২০১০ সালের ৮ অগাস্ট তেজগাঁও থানায় এই মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

তদন্ত কর্মকর্তা হারুন অর রশিদ ২০১২ সালের ১৬ জানুয়ারি খালেদা জিয়াসহ চার জনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন। পরের বছরের ১৯ মার্চ অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে আসামিদের বিচার শুরু হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে গত ১ ডিসেম্বর আদালতে উপস্থিত হয়ে আত্মপক্ষ সমর্থনে নিজের বক্তব্য উপস্থাপন শুরু করেন খালেদা। সেদিনও তিনি নিজেকে নির্দোষ দাবি করে আদালতের কাছে সুবিচার চান।

অবশ্য পরে উচ্চ আদালত থেকে তিনি নতুন করে আত্মপক্ষ সমর্থনের বক্তব্য উপস্থাপনের অনুমতি পান। খালেদার আবেদনে এর মধ্যে এ মামলার বিচারকও বদলে যায়।

]]>
1425119 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/41_khaleda-zia_231117_0001.jpg/ALTERNATES/w300/41_Khaleda+Zia_231117_0001.jpg দুর্নীতি মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে বক্তব্য দিতে বৃহস্পতিবার ঢাকার বকশিবাজারে বিশেষ জজ আদালতে হাজির হন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।
6 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1425222 দিনাজপুর প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম দিনাজপুর প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 18:38:18.0 2017-11-23 18:38:28.0 দিনাজপুরে পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিনাজপুরে পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত রাখার ঘোষণা হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও শ্রমিকদের সংঘর্ষের জেরে দিনাজপুরে শুরু হওয়া পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন মালিক ও শ্রমিকরা। হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও শ্রমিকদের সংঘর্ষের জেরে দিনাজপুরে শুরু হওয়া পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন মালিক ও শ্রমিকরা। false https://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1425222.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/dinajpur-bus-3.jpg/ALTERNATES/w300/Dinajpur-bus-3.jpg
বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসনের সঙ্গে সমঝোতা বৈঠকে সমাধান না হওয়ায় তারা এ সিদ্ধান্ত নেন বলে মোটর মালিক গ্রুপের সভাপতি জাহিদ হোসেন ও মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ফজলে রাব্বি জানান।

হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি বাসকে সাইড দেওয়াকে কেন্দ্র করে বুধবার সন্ধ্যায় ছাত্রদের সঙ্গে পরিবহন শ্রমিকদের সংঘর্ষ হয়।

এরপর বাস টার্মিনাল এলাকায় শিক্ষার্থীরা শ্রমিকদের ওপর হামলাসহ দুটি বাসে আগুন দেয় বলে অভিযোগ তুলে শ্রমিকরা ধর্মঘটের ডাক দেন।

এ ব্যাপারে সমঝোতার উদ্দেশ্যে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম বৈঠকের আয়োজন করেন যেখানে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, মোটর পরিবহন শ্রমিক ও মালিক এবং পুলিশ সুপার হামিদুল আলম উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে মোটর মালিক গ্রুপের সভাপতি জাহিদ হোসেন ও মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ফজলে রাব্বি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আগুনে জ্বালিয়ে দেওয়া দুটি গাড়ির ক্ষতিপূরণের বিষয়ে সুস্পষ্ট ঘোষণা দেওয়া ছাড়া পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হবে না। 

জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে আজকের মধ্যে (২৩ নভেম্বর) সংশ্লিষ্ট সকল প্রতিষ্ঠানের সদস্য সমন্বয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে এবং তিন দিনের মধ্যে কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

এছাড়া ধর্মঘট প্রত্যাহারের বিষয়ে প্রশাসনের উদ্যোগও অব্যাহত থাকবে বলে জেলা প্রশাসক জানান। 

দুপর দেড়টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলা বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম।

বৈঠকে দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে রেজিস্ট্রার সফিউল আলম, শ্রমিকদের পক্ষে দিনাজপুর মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. রফিক ও সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী, মালিক গ্রুপের সভাপতি জাহিদ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম সেলুসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

]]>
1425219 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/dinajpur-bus-3.jpg/ALTERNATES/w300/Dinajpur-bus-3.jpg 1425220 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/dinajpur-bus.jpg/ALTERNATES/w300/Dinajpur-bus.jpg 1425221 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/dinajpur-bus-2.jpg/ALTERNATES/w300/Dinajpur-bus-2.jpg 1425070 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/11/23/dinajpur-students-workers-c.jpg/ALTERNATES/w300/Dinajpur-students-workers-c.jpg
7 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1425185 কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 17:28:08.0 2017-11-23 17:29:06.0 কুড়িগ্রামে মুক্তিযোদ্ধা হত্যা: এক মামলার বিচার শুরু কুড়িগ্রামে মুক্তিযোদ্ধা হত্যা: এক মামলার বিচার শুরু কুড়িগ্রামে খ্রিস্ট ধর্মে ধর্মান্তরিত মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলী হত্যার এক মামলায় তিন জঙ্গির বিচার শুরু হয়েছে। কুড়িগ্রামে খ্রিস্ট ধর্মে ধর্মান্তরিত মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলী হত্যার এক মামলায় তিন জঙ্গির বিচার শুরু হয়েছে। false https://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1425185.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/kurigram-jmb.jpg/ALTERNATES/w300/kurigram-jmb.jpg
বৃহস্পতিবার কুড়িগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ ওএইচএম ইলিয়াস হোসাইন বিস্ফোরক আইনের মামলায় অভিযোগ গঠন করে তিন আসামির বিচার শুরুর নিদের্শন দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এসএম আব্রাহাম লিংকন বলেন, বিচারক আসামিদের বিরুদ্ধে ১৯০৮ সালের বিস্ফোরক আইনের ৩, ৪ ও ৬ ধারায় অভিযোগ গঠন করে আগামী ২৩ ও ২৪ জানুয়ারি সাক্ষ্যগ্রহণের দিন রেখেছেন। এ সময় গ্রেপ্তার দুই আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আসামিরা হলেন জাহাঙ্গীর ওরফে রাজিব ওরফে রাজিব গান্ধী ও গোলাম রব্বানী ও রিয়াজুল ইসলাম ওরফে মেহেদী।

এদের মধ্যে মেহেদী পলাতক রয়েছেন।

২০১৬ সালের ২৩ মার্চ কুড়িগ্রাম শহরের গাড়িয়াল পাড়া এলাকার বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলীকে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা করে হাতবোমা ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় তার ছেলে রাহুল আমিন আজাদ বাদী হয়ে হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে পৃথক দুটি মামলা করেন।

বিস্ফোরক আইনের সাত আসামির মধ্যে চার জঙ্গি দেশের বিভিন্ন স্থানে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়।

অভিযোগ গঠনের দিন আসামি পক্ষে আইনজীবী না থাকায় তাদের আবেদনে জেলা লিগ্যাল এইড কমিটি হুমায়ুন কবির ও সফিকুল ইসলামকে তাদের আইনজীবী হিসেবে নিয়োগ দেন। তারা মামলা পরিচালনা করেন।

হুমায়ুন কবির বলেন, “জাহাঙ্গীর ওরফে রাজিব ওরফে রাজিব গান্ধীর আবেদনে জেলা লিগ্যাল এইড কমিটি আমাকে এবং আসামি গোলাম রব্বানীর আবেদনে অ্যাডভোকেট সফিকুল ইসলামকে আইনজীবী হিসেবে নিযুক্ত করেছে।”

]]>
1425184 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/kurigram-jmb.jpg/ALTERNATES/w300/kurigram-jmb.jpg
8 2 Home business_bn বাণিজ্য news-bn 213 1425165 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 16:26:03.0 2017-11-23 16:29:53.0 ভ্রাম্যমাণ বিদ্যুৎকেন্দ্র: পানগাঁওয়ে জমি পেল যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি ভ্রাম্যমাণ বিদ্যুৎকেন্দ্র: পানগাঁওয়ে জমি পেল যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি ঢাকায় ৩০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার ভ্রাম্যমাণ বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে যুক্তরাষ্ট্রের একটি কোম্পানিকে ২৪ একর জমি দিয়েছে সরকার। ঢাকায় ৩০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার ভ্রাম্যমাণ বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে যুক্তরাষ্ট্রের একটি কোম্পানিকে ২৪ একর জমি দিয়েছে সরকার। false https://bangla.bdnews24.com/business/article1425165.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/us-company-pangao-land-01.jpg/ALTERNATES/w300/US-Company-Pangao-Land-01.jpg যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটের সঙ্গে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এই বৈঠকের পর এপিআর এনার্জিকে জমি লিজ দেওয়ার কথা সাংবাদিকদের জানান নৌমন্ত্রী।
আগামী পাঁচ বছরের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের এপিআর এনার্জি নামে ওই কোম্পানির অনুকূলে কেরাণীগঞ্জের পানগাঁওয়ে ওই জমি ইজারা দেওয়া হয়েছে বলে নৌমন্ত্রী শাজাহান খান জানিয়েছেন।

ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটের সঙ্গে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এক বৈঠকের পর জমি লিজ দেওয়ার কথা সাংবাদিকদের জানান নৌমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “৩০০ মেগাওয়াট মোবাইল বিদ্যুৎকেন্দ্র করতে পানগাঁওয়ে তারা (যুক্তরাষ্ট্র) জায়গা চেয়েছিল। দ্রুত বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য তাদের এই জায়গাটা আমরা পাঁচ বছরের জন্য লিজ দিয়েছি।”

এপিআর এনার্জি নামে একটি কোম্পানি ওই বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করবে জানিয়ে নৌমন্ত্রী বলেন, পাঁচ বছর পর তারা এখান থেকে অন্য জায়গায় নিয়ে যাবে।

যুক্তরাষ্ট্রকে ইজারা দেওয়া পানগাঁওয়ের অভ্যন্তরীণ কন্টেইনার টার্মিনালের (আইসিটি) পাশের জমিটি অব্যবহৃত ছিল জানিয়ে শাজাহান খান বলেন, খুব শিগিগির সেটা ডেভেলপ করব।

জমি ইজারা দিয়ে বাংলাদেশের লাভ কী হবে- সেই প্রশ্নে নৌমন্ত্রী বলেন, “৩০০ মেগাওয়ার্ট বিদ্যুৎ আমরা পাব। এটা হল ভ্রাম্যমাণ, এটা ডক্সের মত বড় বড় কন্টেইনার। এই কন্টেইনারের মত ৫০০ কন্টেইনার এখানে বসবে। বিদ্যুৎ আমাদের গ্রিডে চলে আসবে।”

এপিআর এনার্জির অনুকুলে পানগাঁও ইনল্যান্ড কন্টেইনার টার্মিনালকে ২৪ একর জমি পাঁচ বছরের জন্য লিজ দিতে গত ১৯ নভেম্বর নৌ সচিবকে চিঠি দেয় বিদ্যুৎ ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়।

যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটের সঙ্গে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এই বৈঠকের পর এপিআর এনার্জিকে জমি লিজ দেওয়ার কথা সাংবাদিকদের জানান নৌমন্ত্রী।

যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটের সঙ্গে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এই বৈঠকের পর এপিআর এনার্জিকে জমি লিজ দেওয়ার কথা সাংবাদিকদের জানান নৌমন্ত্রী।

ওই চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে কেরাণীগঞ্জের পানগাঁও-এ ৩০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার এইচএসডি ভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের জন্য কোম্পানিটিকে ওই জায়গা বরাদ্দ দেওয়া হল।

‘প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে আগামী গ্রীষ্মে বিদ্যুতের চাহিদা মেটানোর জন্য অত্যন্ত উপযোগী হবে’ বলে বিদ্যুৎ ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে বলা হয়েছিল।

এপিআর অল্প সময়ের মধ্যেই বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম হবে বলে আশা করেন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট।

বাংলাদেশের বিভিন্ন সমুদ্র বন্দরের নিরাপত্তা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে বলেও জানান নৌমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “পোর্টের সকল কর্মকাণ্ড নিয়ে- বিশেষ করে নিরাপত্তার দিকটিতে তারা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। আরও কিছু প্রস্তাব করেছেন, সেগুলো আমরা দেখব।”

নৌসচিব আবদুস সামাদ বলেন, বন্দরের নিরাপত্তার বিষয়টি প্রতি বছরই যাচাই করা হয়। আইএমও থেকে ইউএস কোস্ট গার্ডকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন বন্দর ঘুরে সেগুলো কতটুকু কমপ্লায়েন্স- সেই পরিস্থিতি যাচাই করার। ২০১৫ সালে ইউএস কোস্ট গার্ড বাংলাদেশে এসেছিল।

নৌমন্ত্রী বলেন, “মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের উপর যে নির্যাতন-তাণ্ডব চালিয়েছে এবং চালাচ্ছে এ ব্যাপারে আমেরিকার যে ভূমিকা এজন্য আমরা তাদের প্রশংসা করেছি। আমরা আশা করি এই সমস্যা সমাধানে তারা বাংলাদেশের পাশে দাঁড়িয়েছে এবং বাংলাদেশের পাশে থেকে আরও ভূমিকা রাখবে।”

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ার জন্য বাংলাদেশেকে ধন্যবাদ জানান যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত।

]]>
1425164 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/us-company-pangao-land-01.jpg/ALTERNATES/w300/US-Company-Pangao-Land-01.jpg যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটের সঙ্গে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এই বৈঠকের পর এপিআর এনার্জিকে জমি লিজ দেওয়ার কথা সাংবাদিকদের জানান নৌমন্ত্রী। 1425163 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/us-company-pangao-land-02.jpg/ALTERNATES/w300/US-Company-Pangao-Land-02.jpg ভ্রাম্যমাণ বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানিকে জমি বরাদ্দ দেওয়া নিয়ে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বৈঠক করেন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট ও নৌমন্ত্রী শাজাহান খান।
9 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1425179 হবিগঞ্জ প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম হবিগঞ্জ প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 17:19:41.0 2017-11-23 17:19:41.0 হবিগঞ্জে মাইক্রোবাস-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ৩ হবিগঞ্জে মাইক্রোবাস-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ৩ হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে মাইক্রোবাসের সঙ্গে সংঘর্ষে একটি মোটরসাইকেলের তিন আরোহী নিহত হয়েছেন। হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে মাইক্রোবাসের সঙ্গে সংঘর্ষে একটি মোটরসাইকেলের তিন আরোহী নিহত হয়েছেন। false https://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1425179.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/03/10/habigonj-map.jpg/ALTERNATES/w300/habigonj-map.jpg
বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার উবাহাটা হাইওয়ে সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি জসিম উদ্দিন জানান।

নিহতরা হলেন হবিগঞ্জ সদরের নুরপুর ইউনিয়নের পুরাসুন্দা গ্রামের মনু মিয়া তালুকদারের ছেলে ময়না তালুকদার (২৫), একই উপজেলার জিতু মিয়ার ছেলে মন্নান মিয়া (১৮) ও ভাটি শৈইলজুড়া গ্রামের জলিল মিয়ার ছেলে সোহেল মিয়া (১৯)।

দুর্ঘটনার পর শায়েস্তাগঞ্জ থানা ও হাইওয়ে থানা প্রায় এক ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে স্থানীয়রা।

ওসি জসিম উদ্দিন জানান, বিকাল ৩টার দিকে শায়েস্তাগঞ্জগামী একটি মোটরসাইকেল ও ঢাকাগামী একটি মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মোটরসাইকেলটি দুমড়েমুচড়ে যায়।

“ঘটনাস্থলে দুইজন মারা যান। হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যান ময়না তালুকদার।”

ওসি জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে। মাইক্রোবাসটি আটক করা হলেও চালক পালিয়ে গেছে।

]]>
1300915 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/03/10/habigonj-map.jpg/ALTERNATES/w300/habigonj-map.jpg
10 2 Home cricket_bn ক্রিকেট news-bn 212 1425084 স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 11:30:45.0 2017-11-23 16:03:46.0 হাথুরুসিংহেকে চেয়ে লঙ্কান বোর্ড প্রধানের চিঠি হাথুরুসিংহেকে চেয়ে লঙ্কান বোর্ড প্রধানের চিঠি পদত্যাগপত্র দেওয়া বাংলাদেশ কোচকে নিয়ে আগ্রহের কথা প্রথমবার আনুষ্ঠানিকভাবে জানাল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট। চন্দিকা হাথুরুসিংহেকে নিয়ে আগ্রহের কথা প্রথমবার আনুষ্ঠানিকভাবে জানাল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি)। পদত্যাগপত্র দেওয়া বাংলাদেশের প্রধান কোচকে নিজেদের প্রধান কোচ করতে চেয়ে বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসানকে চিঠি দিয়েছেন লঙ্কান বোর্ডের প্রধান থিলাঙ্গা সুমাথিপালা। false https://bangla.bdnews24.com/cricket/article1425084.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/hathuru.jpg/ALTERNATES/w300/hathuru.jpg
বুধবার এক বিবৃতিতে এসএলসি জানিয়েছে, হাথুরুসিহের আইনজীবীর সঙ্গে আলোচনা করছে তারা। বাংলাদেশ হাথুরুসিংহেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ছেড়ে দিলেই তাকে প্রস্তাব দেবে লঙ্কান বোর্ড।

বাংলাদেশের সঙ্গে চুক্তির বাধ্যবাধকতাই এখন হয়ে আছে বাধা। তাই নিজেদের চাওয়া জানিয়ে বিসিবি প্রধানের কাছে চিঠি দিয়েছেন লঙ্কান বোর্ডের প্রধান।

“কোনো সংশয় নেই যে স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদী, দুটি লক্ষ্য পূরণেই হাথুরুসিংহে আমাদের জন্য দারুণ মানিয়ে যাবে। আমাদের চাওয়ার কথা জানিয়ে আমি বিসিবি সভাপতিকে ব্যক্তিগতভাবে লিখেছি। আমাদের নির্বাহী কমিটি নিশ্চিত ও আত্মবিশ্বাসী যে হাথুরুসিংহেই এই কাজের জন্য যোগ্যতম। আমরা তাকে আনতে চাই পেশাদারীভাবে ও স্বচ্ছতার সঙ্গে।”

হাথুরুসিংহের সঙ্গে ২০১৯ বিশ্বকাপ পর্যন্ত চুক্তি আছে বাংলাদেশের। তবে গত দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের মাঝেই বিসিবির কাছে পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দেন অস্ট্রেলিয়ায় থিতু হওয়া শ্রীলঙ্কান এই কোচ। গুঞ্জন ছিল শ্রীলঙ্কা চায় তাকে, যা এখন আনুষ্ঠানিকভাবে জানাল লঙ্কান বোর্ড।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফর শেষের পর থেকেই হাথুরুসিংহের ফেরার অপেক্ষায় আছে বোর্ড। বিসিবি প্রধান কিছুদিন আগে বলেছেন, কোচ চলে যেতে চাইলে তাকে জোর করে রাখা হবে না। তবে তাকে সামনাসামনি জিজ্ঞেস করা হবে পদত্যাগের কারণ।

বিসিবির আশা ছিল, আনুষ্ঠানিকভাবে সম্পর্ক ছিন্ন করার জন্য হলেও ১৫ নভেম্বরের মধ্যে বাংলাদেশে আসবেন হাথুরুসিংহে। কিন্তু তিনি আসেননি। তার আসার সম্ভাবনাও ক্ষীণ। তবে আসতে পারেন আগামী জানুয়ারিতেই, শ্রীলঙ্কার কোচ হয়ে! লঙ্কানদের দায়িত্ব পেলে হাথুরুসিংহের প্রথম সিরিজি বাংলাদেশেই। ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ, টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট সিরিজ খেলতে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে বাংলাদেশে আসবে শ্রীলঙ্কা।

]]>
1425083 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/hathuru.jpg/ALTERNATES/w300/hathuru.jpg
11 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1425180 নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 17:21:42.0 2017-11-23 17:21:42.0 রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি কক্সবাজারের কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির পরিদর্শনে যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। কক্সবাজারের কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির পরিদর্শনে যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। false https://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1425180.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/20/27_rohingya-children_balukhali-camp_201117_0007.jpg/ALTERNATES/w300/27_Rohingya+children_Balukhali+Camp_201117_0007.jpg নিজেরাই শিশু, এখন রূঢ় বাস্তবে এসে পরিবারে ছোটদের সামলাতে হচ্ছে তাদের। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি
রোববার বিকালে আবদুল হামিদ ঢাকা থেকে কক্সবাজারে যাবেন বলে রাষ্ট্রপতির প্রেস উইং থেকে জানানো হয়েছে।

ওই দিন রাষ্ট্রপতি শরণার্থী শিবিরে রোহিঙ্গাদের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করবেন।

মিয়ানমারে নির্যাতনের মুখে গত তিন মাসে পালিয়ে আসা ৬ লাখের বেশি রোহিঙ্গা কক্সবাজারে শরণার্থী শিবিরে রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত সেপ্টেম্বরে শরণার্থী শিবির পরিদর্শন করেন। বিভিন্ন মন্ত্রী ও রাজনৈতিক দলের নেতারাও কক্সবাজার ঘুরে এসেছেন।

সোমবার কক্সবাজারে রাষ্ট্রপতি ইন্ডিয়ান ওশান নেভাল সিম্পোজিয়ামের ‘মাল্টিলেটারাল মেরিটাইম সার্চ অ্যান্ড রেসকিউ এক্সসারসাইজ’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।

ওই দিন তার ঢাকার ফেরার কথা রয়েছে।

]]>
1424181 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/20/27_rohingya-children_balukhali-camp_201117_0007.jpg/ALTERNATES/w300/27_Rohingya+children_Balukhali+Camp_201117_0007.jpg নিজেরাই শিশু, এখন রূঢ় বাস্তবে এসে পরিবারে ছোটদের সামলাতে হচ্ছে তাদের। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি
12 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1425167 মাদারীপুর প্রতিনিধি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম মাদারীপুর প্রতিনিধি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 16:29:06.0 2017-11-23 17:20:14.0 আসিফ নজরুলের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা লস্কর নিয়োগ নিয়ে ফেইসবুক পোস্ট: আসিফ নজরুলের বিরুদ্ধে মামলা চট্টগ্রাম বন্দরে লস্কর নিয়োগ নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের শিক্ষক-কলামনিস্ট আসিফ নজরুল ফেইসবুকে যে স্ট্যাটাস দিয়েছেন তাতে নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের মানহানি হয়েছে বলে অভিযোগ তুলে মাদারীপুরের আদালতে মামলা হয়েছে। চট্টগ্রাম বন্দরে লস্কর নিয়োগ নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের শিক্ষক-কলামনিস্ট আসিফ নজরুল ফেইসবুকে যে স্ট্যাটাস দিয়েছেন তাতে নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের মানহানি হয়েছে বলে অভিযোগ তুলে মাদারীপুরের আদালতে মামলা হয়েছে। false https://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1425167.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/asif-nazrul.jpg/ALTERNATES/w300/asif-nazrul.jpg
মামলার বাদী মন্ত্রীর চাচাত ভাই মাদারীপুর জেলা পরিষদ সদস্য ফারুক খান।

বাদীর আইনজীবী গোলাম কিবরিয়া বলেন, “নজরুল ইসলাম ওরফে আসিফ নজরুল তার ফেইসবুক আইডিতে দেওয়া স্ট্যাটাসে উল্লেখ করেছেন, ‘চট্টগ্রাম বন্দরের নিয়োগ পরীক্ষায় ৯২ জন উত্তীর্ণ হয়েছে, যার মধ্যে ৯০ জন নৌপরিবহনমন্ত্রীর এলাকা মাদারীপুরের বাসিন্দা। অথচ উনি চাইলে ৯২ জনই উনার এলাকার লোক হতে পারত। দুইজন ভিন্ন এলাকার লোক নিয়োগ দিয়ে উনি সততার যে দৃষ্টান্ত দেখালেন তা ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে’। এতে নৌমন্ত্রীর সম্মানহানি হয়েছে উল্লেখ করে ফারুক খান তার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।”

কলামনিস্ট আসিফ নজরুল

কলামনিস্ট আসিফ নজরুল

আদালত মামলাটি গ্রহণ করে সমন জারি করেছেন বলে জানান গোলাম কিবরিয়া।

তিনি বলেন, ৫০০ ও ৫০১ ধারায় মামলাটি দায়ের করেছেন ফারুক খান।

সম্প্রতি চট্টগ্রাম বন্দরে লস্কর পদে নিয়োগে নৌমন্ত্রীর জেলা মাদারীপুরের বেশি চাকরিপ্রার্থী নিয়োগ পেয়েছে বলে ইন্টারনেটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা ওঠে। এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হন চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের অনেক নেতা-কর্মীও।

‘আমরা চট্টলবাসী’র ব্যানারে আয়োজিত এক সমাবেশ থেকে এ নিয়োগ বাতিলের দাবিও জানানো হয়।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে মন্ত্রী শাজাহান বলেছেন, মেধার ভিত্তিতে ওই পদে চাকরি পেয়েছেন তার জেলার প্রার্থীরা।

গত বৃহস্পতিবার বন্দরে লস্কর নিয়োগের ফল ঘোষণা করা হয়। তখন থেকে শুরু হয় আলোচনা।

নিয়োগের বিষয়টি সংসদে তুলে ধরে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রামের দুই সংসদ সদস্য জাসদের মঈন উদ্দীন খান বাদল ও জাতীয় পার্টির জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু।

এ ঘটনায় গত ১৮ নভেম্বর আসিফ নজরুল তার ফেইসবুক পাতায় স্ট্যাটাসটি দেন।

]]>
13 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1425097 ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 13:00:41.0 2017-11-23 13:12:13.0 স্বপ্না হত্যা দলীয় কোন্দলে, ধারণা পুলিশের আ. লীগ নেতা স্বপ্না হত্যা দলীয় কোন্দলে, ধারণা পুলিশের ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আওয়ামী লীগনেতা স্বপ্না আক্তারকে হত্যার ঘটনায় দলীয় প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে; এ ঘটনায় পুলিশ এক অটোরিকশাচালককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আওয়ামী লীগনেতা স্বপ্না আক্তারকে হত্যার ঘটনায় দলীয় প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে; এ ঘটনায় পুলিশ এক অটোরিকশাচালককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। false https://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1425097.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/11/22/b.-baria-shopna.jpg/ALTERNATES/w300/b.-Baria-Shopna.jpg স্বপ্না আক্তার
জেলার পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বলেন, বুধবার মধ্যরাতে স্বপ্নার বড় ভাই আমির হোসেন বাদী হয়ে সাতজনের বিরুদ্ধে নবীনগর থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

“আমরা ধারণা করছি, দলের আভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়ে থাকতে পারে। আসামিদের ব্যাপারে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে।”

স্বপ্না  (৪০) নবীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। উপজেলার সাতমোড়া ইউনিয়নের ভাঙ্গুরায় বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

পুলিশ সুপার বলেন, “যাদের সঙ্গে স্বপ্নার রাজনৈতিক ও ব্যক্তিগত বিরোধ রয়েছে তাদেরই এ মামলায় আসামি করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে জাহাঙ্গীর নামের এক অটোরিকশাচালককে আটক করেছে পুলিশ।”

তবে ‘তদন্তের স্বার্থে’ আসামিদের নাম-ঠিকানা প্রকাশ করেনি পুলিশ।

স্বপ্না উপজেলার জিনোদপুর ইউনিয়নের চারপাড়া গ্রামের খলিল মিয়ার মেয়ে। উপজেলার সাতমোড়া ইউনিয়নের দশমৌজা এলাকায় বুধবার রাতে দলীয় সভা শেষে একটি অটোরিকশায় করে চারপাড়া গ্রামের বাড়ি ফিরছিলেন।

পথে ভাঙ্গুরা উত্তর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়র সামনে রাত ৯টার দিকে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

]]>
1425016 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/11/22/b.-baria-shopna.jpg/ALTERNATES/w300/b.-Baria-Shopna.jpg স্বপ্না আক্তার
14 2 Home cricket_bn ক্রিকেট news-bn 212 1425136 ক্রীড়া প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ক্রীড়া প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 15:19:17.0 2017-11-23 15:19:17.0 চোট কাটিয়ে বিপিএলে ফিরছেন মুস্তাফিজ চোট কাটিয়ে বিপিএলে ফিরছেন মুস্তাফিজ কোনো সমস্যা ছাড়াই পূর্ণ গতিতে বল করছেন রাজশাহী কিংসের বাঁহাতি এই পেসার। চোট কাটিয়ে সম্পূর্ণ প্রস্তুত মুস্তাফিজুর রহমান। কোনো সমস্যা ছাড়াই বল করছেন পূর্ণ গতিতে। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে ম্যাচে এবারের বিপিএলে প্রথমবারের মতো মাঠে নামতে পারেন রাজশাহী কিংসের বাঁহাতি এই পেসার। false https://bangla.bdnews24.com/cricket/article1425136.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/mustafizurofrajkingsplayer.jpg/ALTERNATES/w300/MustafizurOfRajKingsPlayer.jpg
চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার অনুশীলন থেকে ফেরার সময় মুস্তাফিজ নিজেই জানালেন, ক্রিকেটে ফিরতে তিনি প্রস্তুত।

“কোনো সমস্যা নেই। সব কিছু ঠিকঠাক।”

বোলিংয়ে একদমই সমস্যা অনুভব করেননি মুস্তাফিজ। অনুশীলনের সময় নেটে পূর্ণ গতিতে বোলিং করেন ৫ ওভার। দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে তার সঙ্গে কাজ করা রাজশাহীর ফিজিও বায়েজিদুল ইসলাম খান আশাবাদী, কুমিল্লার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বল হাতে দেখা যাবে মুস্তাফিজকে।

“ফিজিওর দৃষ্টিকোণ থেকে আমি আত্মবিশ্বাসী। সহায়তা যতটুকু দিতে হয় সবটুকু দিয়েছি, আমরা যতগুলো পরীক্ষা করি তার সবগুলোতেই ও উতরে গেছে। আর শারীরিক দিক থেকে ওর কোনো অভিযোগ নাই। আমরা বুঝতে পারছি ও মোটামুটি ঠিক আছে।”

দক্ষিণ আফ্রিকায় কিম্বার্লিতে ১৪ অক্টোবর ওয়ার্মআপে ফুটবল খেলার সময় অ্যাঙ্কেলে চোট পান মুস্তাফিজ। এরপর থেকে চলছে তার পুনর্বাসন প্রক্রিয়া। বিপিএলের সিলেট অংশ শেষে বাঁহাতি পেসারকে দলে পেয়েছে রাজশাহী। বায়েজিদ জানান, মুস্তাফিজের খেলার ব্যাপারে এখন সিদ্ধান্ত নেবে টিম ম্যানেজমেন্ট।

“দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ফেরার পর থেকে আমরা মুস্তাফিজকে দেখছি। ৮ তারিখের পর থেকে আমরা ওকে রাজশাহীর দলের সঙ্গে রেখেছি। আমরা ওর পুনর্বাসনের পুরো কাজটা শেষ করেছি। আজ নিয়ে চার সেশন ধরে ও কোনো অভিযোগ ছাড়াই পূর্ণ গতিতে বল করছে। আজ রানিং, ফিল্ডিংসহ সব পুরোপুরি করেছে। এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ নেই। দেখা যাক… বাকিটা এখন টিম ম্যানেজমেন্ট ঠিক করবে।”

চোটের জন্য গতবার বিপিএলে কোনো ম্যাচ খেলতে পারেননি মুস্তাফিজ। তার আগের বছর ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে ১০ ম্যাচ খেলে নিয়েছিলেন ১৪ উইকেট।

]]>
1425134 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/mustafizurofrajkingsplayer.jpg/ALTERNATES/w300/MustafizurOfRajKingsPlayer.jpg
15 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1425111 নেত্রকোণা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নেত্রকোণা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 13:54:46.0 2017-11-23 13:54:58.0 নেত্রকোণায় কৃষক হত্যায় একজনকে ফাঁসির রায় নেত্রকোণায় কৃষক হত্যায় একজনকে ফাঁসির রায় নেত্রকোণার আটপাড়া উপজেলায় এক কৃষককে কুপিয়ে হত্যার দায়ে একজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। নেত্রকোণার আটপাড়া উপজেলায় এক কৃষককে কুপিয়ে হত্যার দায়ে একজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। false https://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1425111.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/09/25/justice-tm.jpg2/ALTERNATES/w300/justice-tm.jpg
নেত্রকোণার জেলা ও দায়রা জজ কে এম রাশেদুজ্জামান বৃহস্পতিবার দুপুরে পাঁচ বছর আগের এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

এছাড়া আসামিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে আদালত।

সাজাপ্রাপ্ত - রুবেল মিয়া (২৭) আটপাড়া উপজেলার মোগলহাট্টা গ্রামের মো. হেরিমের ছেলে।

রায় ঘোষণার সময় রুবেল আদালতের কাঠগড়ায় ছিলেন।

আদালতের ভারপ্রাপ্ত পিপি সাইফুল ইসলাম প্রদীপ মামলার নথির বরাতে জানান, ২০১২ সালের ৮ অক্টোবর স্থানীয় গণেশ হাওরে আবুল মনসুরকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

এরপর ১০ অক্টোবর তার বাবা সিদ্দিক মিয়া তিনজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। পরের বছর ২১ মে শুধু রুবেলকে দায়ী করে আদারতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ।

পিপি সাইফুল বলেন, “রুবেল মিয়ার সঙ্গে একই গ্রামের আবুল মনসুরের জমির বিরোধ ছিল। এর জেরে রুবেল তাকে হত্যা করেন বলে আদালতে প্রমাণিত হয়েছে।”

]]>
1399350 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/09/25/justice-tm.jpg2/ALTERNATES/w300/justice-tm.jpg
16 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1425106 নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 13:45:06.0 2017-11-23 13:45:06.0 মেয়রকে নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণা ভিত্তিহীন: ডিএনসিসি মেয়রকে নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণা ভিত্তিহীন: ডিএনসিসি লন্ডনে চিকিৎসাধীন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আনিসুল হকের শারীরিক অবস্থার আরো উন্নতি হয়েছে বলে জানিয়েছে করপোরেশন কর্তৃপক্ষ। লন্ডনে চিকিৎসাধীন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আনিসুল হকের শারীরিক অবস্থার আরো উন্নতি হয়েছে বলে জানিয়েছে করপোরেশন কর্তৃপক্ষ। false https://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1425106.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/05/15/10_bangladesh-mahila-parishad_discussion_20160515_0038.jpg1/ALTERNATES/w300/10_Bangladesh+Mahila+Parishad_Discussion_20160515_0038.jpg মেয়র আনিসুল হক (ফাইল ছবি)
প্রায় চার মাস ধরে দেশের বাইরে চিকিৎসাধীন থাকা মেয়রের শারীরিক অবস্থা নিয়ে সম্প্রতি কয়েকটি গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভ্রান্তিমূলক খবর আসার পর তার অবস্থা নিয়ে প্রথমবারের মতো কোনো বিবৃতি দিল ডিএনসিসি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিএনসিসির প্রধান জনসংযোগ কর্মকর্তা এ এস এম মামুনের পাঠানো ওই বিবৃতিতে বলা হয়, লন্ডনে চিকিৎসাধীন মেয়র আনিসুল হকের শারীরিক অবস্থার ক্রমান্বয়ে উন্নতি হচ্ছে। গত ৩১ অক্টোবর তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) থেকে রিহ্যাবিলিটেশনে স্থানান্তর করা হয়েছে।

আনিসুল হকের শারীরিক অবস্থা নিয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে বিভ্রান্তি ছড়ানোর অভিযোগ এনে বিবৃতিতে বলা হয়, “কোনো কোনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল মেয়র আনিসুল হক এবং তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণা করে চলছে, যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও বিভ্রান্তিকর।”

এ ধরনের নেতিবাচক প্রচারণার বিষয়ে সবাইকে সচেতন থাকতে মেয়রের পরিবারের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে বলে বিবৃতিতে জানানো হয়।

নাতির জন্ম উপলক্ষে গত ২৯ জুলাই সপরিবারে লন্ডনে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন মেয়র আনিসুল হক। অসুস্থ বোধ করায় গত ৪ অগাস্ট লন্ডনের একটি হাসপাতালে গেলে সেখানে পরীক্ষা চলার মধ্যেই সংজ্ঞা হারান তিনি। পরে তার মস্তিস্কের রক্তনালীতে প্রদাহজনিত সেরিব্রাল ভাসকুলাইটিস শনাক্ত করেন চিকিৎসকরা।

লন্ডনে যাওয়ার কয়েক মাস আগে থেকেই মেয়র আনিসুল অসুস্থবোধ করছিলেন জানিয়ে ডিএনসিসির বিবৃতিতে বলা হয়, তার চিকিৎসা দীর্ঘমেয়াদী এবং আশানুরূপ আরোগ্য লাভ করতে কয়েক মাস সময় লাগতে পারে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

আনিসুল হকের রোগমুক্তির জন্য দোয়া চেয়ে ডিএনসিসির পক্ষ থেকে সবার প্রতি আহ্বানও জানানো হচ্ছে বলেও বিবৃতিতে জানানো হয়।

তৈরি পোশাক ব্যবসায়ী আনিসুল হক ২০১৫ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হন।

সেনা নিয়ন্ত্রিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে তিনি এফবিসিসিআইর সভাপতি ছিলেন। তার আগে বিজিএমইএর সভাপতিও ছিলেন তিনি।

]]>
1152453 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/05/15/10_bangladesh-mahila-parishad_discussion_20160515_0038.jpg1/ALTERNATES/w300/10_Bangladesh+Mahila+Parishad_Discussion_20160515_0038.jpg মেয়র আনিসুল হক (ফাইল ছবি)
17 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1425115 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 14:17:22.0 2017-11-23 16:22:33.0 আপনাদের নাগরিক ফিরিয়ে নিন: মিয়ানমারকে হাসিনা আপনাদের নাগরিক ফিরিয়ে নিন: মিয়ানমারকে হাসিনা বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের নাগরিকদের ফেরত নিতে আবারও দেশটির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের নাগরিকদের ফেরত নিতে আবারও দেশটির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। false https://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1425115.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/us-company-pangao-land-04.jpg/ALTERNATES/w300/US-Company-Pangao-Land-04.jpg
সাভার সেনানিবাসে বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, “আমরা চাই, মিয়ানমারের প্রতি আমাদের আহ্বান, তাদের নাগরিক তারা যেন দ্রুত ফেরত নিয়ে যায়।”

কয়েক যুগ ধরে ৪ লাখের বেশি রোহিঙ্গার বাংলাদেশে অবস্থানের মধ্যে গত অগাস্টে রাখাইন রাজ্যে নতুন করে সহিংসতা শুরু হলে বাংলাদেশ সীমান্তে রোহিঙ্গাদের ঢল নামে। প্রায় তিন মাসে নতুন করে আসা রোহিঙ্গার সংখ্যা ইতোমধ্যে সোয়া ৬ লাখ ছাড়িয়েছে।

বাংলাদেশ দীর্ঘদিন ধরে পুরনো শরণার্থীদের ফেরত নিতে মিয়ানমারকে আহ্বান জানিয়ে আসছিল। তবে মুসলিম এই জনগোষ্ঠীকে নাগরিক হিসেবে মানতে নারাজ মিয়ানমার তাতে গা না করে নানা অপপ্রচার চালিয়ে আসছিল, যা নানা সময়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলীর বক্তব্যেও আসে।

রাখাইনে নির্যাতনের মুখে নতুন করে শরণার্থীদের ঢল নামার পর বিভিন্ন দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থা মিয়ানমারে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা নিয়ে সরব হয়। বাংলাদেশও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে বিষয়টি তোলে।

এর মধ্যে দুই দেশের মধ্যে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রশ্নে আলোচনা শুরু হয়। বৃহস্পতিবার সাভার সেনানিবাসে সিএমপি সেন্টার অ্যান্ড স্কুলকে ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী যখন বক্তব্য দিচ্ছিলেন, সে সময়ই নেপিদোতে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে প্রত্যাবাসন বিষয়ে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের প্রক্রিয়া চলছিল।

সাভারের অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা বলেন, “আপনারা জানেন, আমাদের ওপর একটি বোঝা এসেছে। আমাদের প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমার থেকে প্রায় ছয় থেকে সাত লাখের মত শরণার্থী আমাদের দেশে আশ্রয় নিয়েছে।”

মানবিক কারণে মিয়ানমারের এই নাগরিকদের বাংলাদেশে আশ্রয় দেওয়া হলেও তাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশ দ্বিপক্ষীয় আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “মিয়ানমারের সঙ্গে আমরা দ্বিপক্ষীয় আলোচনা চালাচ্ছি, যাতে এই মানুষগুলো তাদের দেশে ফিরে যেতে পারে।”

কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া এই রোহিঙ্গাদের জরুরি সহায়তা দিতে সশস্ত্র বাহিনী, সীমান্তরক্ষী বাহিনী, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী থেকে শুরু করে স্থানীয় প্রশাসন ও জনগণ যে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছে, সে কথাও অনুষ্ঠানে বলেন সরকারপ্রধান।

তিনি বলেন, ‘সকলের সাথে বন্ধুত্ব, কারও সাথে বৈরিতা নয়’ এই নীতিকে সামনে রেখেই বাংলাদেশে এগিয়ে যাচ্ছে।

“আমরা আমাদের প্রতিবেশী দেশসহ বিশ্বের সকল দেশের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছি। যে কারণে সমগ্র বিশ্ববাসী আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে।”

সরকার দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ‘নিরলসভাবে’ কাজ করে যাওয়ার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা, “দেশের সার্বিক উন্নয়ন সাধনে আমরা সফলতা অর্জন করেছি।

“বাংলাদেশ আজ বিশ্ব দরবারে উন্নয়নের রোল মডেল হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছে। এখন আর আমাদের কেউ হেয় চোখে দেখে না। আমাদের প্রতি পুরো বিশ্ব সম্মানজনক আচরণ করে।”

২০২১ সালে মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ইতোমধ্যে আমাদের গৃহীত পদক্ষেপের ফলে বাংলাদেশ নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশ হিসাবে স্বীকৃতি অর্জন করেছে। কিন্তু বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ী দেশ, আমরা নিম্ন থাকব না, আমরা নিশ্চয় ২০২১ সালের মধ্যে এই দেশকে মধ্য আয়ের দেশ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করব।”

অর্থনৈতিক অগ্রগতির সূচকে বিশ্বের শীর্ষ পাঁচটি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থানের কথা মনে করিয়ে দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “অর্থনৈতিক উন্নয়নের যে ধারা আমরা আজকে অর্জন করেছি; বিশ্ববাসী তা অবাক চোখে দেখছে।”

প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ২৮ এবং মাথাপিছু আয় ১ হাজার ৬১০ মার্কিন ডলারে উন্নীত হওয়ার কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রী।

দারিদ্র্যের হার ২০০৫-০৬ সালে ৪১ দশমিক পাঁচ শতাংশ থাকলেও এখন তা কমে ২২ দশমিক ৪ শতাংশে হ্রাস পাওয়ার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, “আমরা চাই ২০২১ এর মধ্যে আমরা এই হার আরও কমিয়ে নিয়ে আসব।”

অতি দারিদ্র্যের হার ২৪ দশমিক ২৩ শতাংশ থেকে ১২ শতাংশে হ্রাস পাওয়ার কথা মনে করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, “পৌনে নয় বছরে দেশ-বিদেশে কমপক্ষে দেড় কোটি মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা আমরা করেছি। গ্রাম পর্যায় পর্যন্ত যেন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগে, সেজন্য আমরা উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছি।”

উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে ৯৮ ভাগ অর্থ নিজস্ব অর্থায়নে জোগান দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “কারো কাছে হাত পেতে বা মুখাপেক্ষী হয়ে যেন বাংলদেশকে চলতে না হয়; সেদিকে লক্ষ্য রেখেই আমরা প্রতিটি পদক্ষেপ নিচ্ছি।”

বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানের কথা মনে করিয়ে দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “আজ ৮০ ভাগ মানুষ বিদ্যুৎ পাচ্ছে। ইতোমধ্যে ১৫ হাজার ৮২১ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের সক্ষমতা আমরা অর্জন করেছি। ২০২১ সালের মধ্যে কোনো ঘর অন্ধকারে থাকবে না। প্রতি ঘরেই আমরা আলো জ্বালতে সক্ষম হব।”

গভীর সমুদ্র বন্দর ও পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ, কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প, মেট্রোরেল প্রকল্প, আন্তঃদেশীয় রেল প্রকল্প এবং এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণসহ অবকাঠামোগত উন্নয়নের কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, “দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, ইনশাল্লাহ এগিয়ে যাবে। দেশের অর্থনীতি আজকে মজবুত। এই অথনীতি আরো শক্তিশালী হবে। এর সুফল বাংলাদেশের জনগণই পাবে।”

আধুনিকায়ন ও পেশাদারিত্ব বৃদ্ধির জন্য সেনাবাহিনীতে প্রশিক্ষণ ও উন্নয়নে ধারা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে বলে আশাপ্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এসব প্রশিক্ষণ সেনাসদস্যদের আরও নিষ্ঠার সাথে দেশমাতৃকার কাজে উদ্বুদ্ধ করবে।

উপস্থিত সব সেনা সদস্যের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আত্মবিশ্বাস নিয়ে দেশের সেবা এবং জনগণের সেবা করে যেতে হবে। দেশের উন্নয়নে সকলকে আন্তরিকতার সাথে কাজ করতে হবে, যেন বাংলাদেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারি।”

]]>
1425161 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/us-company-pangao-land-04.jpg/ALTERNATES/w300/US-Company-Pangao-Land-04.jpg 1425160 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/us-company-pangao-land-03.jpg/ALTERNATES/w300/US-Company-Pangao-Land-03.jpg 1425159 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/pmsavar-cantonment-03.jpg/ALTERNATES/w300/PMSavar-Cantonment-03.jpg 1425162 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/11/23/us-company-pangao-land-05.jpg/ALTERNATES/w300/US-Company-Pangao-Land-05.jpg
18 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1425081 গাজীপুর প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম গাজীপুর প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 11:08:22.0 2017-11-23 12:27:18.0 গাজীপুরে স্ত্রী হত্যায় ফাঁসির রায় গাজীপুরে স্ত্রী হত্যায় ফাঁসির রায় গাজীপুরের জয়দেবপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীকে ফাঁসির রায় দিয়েছে আদালত। গাজীপুরের জয়দেবপুরে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীকে ফাঁসির রায় দিয়েছে আদালত। false https://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1425081.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/11/23/gazipur-ainal-hauque--2-.jpg/ALTERNATES/w300/Gazipur-Ainal-Hauque-%282%29.jpg
গাজীপুরের দায়রা জজ এ কে এম এনামুল হক বৃহস্পতিবার সকালে প্রায় তিন বছর অগের এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

এছাড়া আসামিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে আদালত।

অন্য একটি ধারায় আদালত তাকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। এ জরিমানা না দিলে তাকে আরও এক মাস কারাভোগ করতে হবে।

সাজাপ্রাপ্ত মো. আয়নাল হক (৩৫) গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বাইমাইল পশ্চিমপাড়ার মো. আবদুল মান্নানের ছেলে।

রায় ঘোষণার সময় আয়নাল আদালতের কাঠগড়ায় ছিলেন।

গাজীপুর আদালতের পিপি হারিছ উদ্দিন আহম্মদ মামলার নথির বরাতে বলেন, ২০১৫ সালের ১০ জানুয়ারি রাতে আনোয়ারা বেগম পুড়ে মারা যান বলে খবর আসে। স্থানীয় কোনাবাড়ি পুলিশ ক্যাম্পের সাবেক এসআই মো. রফিকুল ইসলাম মোবাইল ফোনে খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে যান। তিনি আনোয়ারার স্বামী আয়নাল ও আনোয়ারার ভাই আমজাদ হোসেন আঞ্জুকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তাদের কথাবার্তায় গড়মিল পেয়ে দুইজনকেই আটক করেন।

বাইমাইল পশ্চিমপাড়ায় আনোয়ারা তার বাবার বাড়িতে স্বামীসহ থাকতেন।

পিপি হারিছ বলেন, হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় এসআই রফিকুল বাদী হয়ে আনোয়ারা স্বামী ও ভাই দুইজনের বিরুদ্ধেই মামলা করেন। মামলায় অভিযোগ করা হয়, পারিবারিক সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জেরে ভাই আঞ্জু ভগ্নিপতি আয়নালকে লোভ দেখিয়ে দুইজন যোগসাজশে আনোয়ারাকে গলা টিপে হত্যা করেন। পরে ঘটনা ভিন্ন খাতে নেওয়ার জন্য গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন তারা।

মামলাটি পিআইডির ছয় কর্মকর্তা তদন্ত করেন জানিয়ে পিপি হারিছ বলেন, তদন্ত শেষে পুলিশ শুধু আয়নালের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়। আদালতও শুধু আয়নালকেই দোষী সাব্যস্ত করে।

এ মামলায় মোট নয়জনের সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, মামলাটি প্রায় তিন বছর আগে দায়ের করা হলেও আদালতে ওঠে এ বছরের ৯ অগাস্ট। সেই হিসেবে মাত্র তিন মাসে মামলাটির বিচারকাজ শেষ হল।

আসামিপক্ষে মো. আব্দুস সোবহান, জেবুন্নেছা মিনা ও মোহাম্মদ আলী তারেক বুলবুল মামলাটি পরিচালনা করেন।

]]>
1425080 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/11/23/gazipur-ainal-hauque--2-.jpg/ALTERNATES/w300/Gazipur-Ainal-Hauque-%282%29.jpg
19 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1425079 নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 11:07:23.0 2017-11-23 11:07:23.0 জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাচ্চুকে দুদকে তলব জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাচ্চুকে দুদকে তলব বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় এর সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল হাই বাচ্চুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় এর সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল হাই বাচ্চুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। false https://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1425079.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2014/05/26/13_basic-bank-_260514_0002.jpg/ALTERNATES/w300/13_BASIC-Bank-_260514_0002.jpg
কমিশনের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য জানান, বাচ্চুসহ আরও কয়েকজনকে আগামী ৪ ডিসেম্বর দুদকে হাজির থাকতে বলা হয়েছে।

২০০৯ সাল থেকে ২০১২ সালের মধ্যে রাষ্ট্রায়াত্ত বেসিক ব্যাংকের গুলশান, দিলকুশা ও শান্তিনগর শাখা থেকে মোট সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা ঋণ অনিয়মের মাধ্যমে বিতরণের অভিযোগ ওঠার পর তদন্তে নামে দুদক।

ঋণপত্র যাচাই না করে জামানত ছাড়া, জাল দলিলে ভুয়া ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ঋণ দানসহ নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে বিধি বহির্ভূতভাবে ঋণ অনুমোদনের অভিযোগ ওঠে ব্যাংকটির তৎকালীন পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে।

প্রায় চার বছর অনুসন্ধান শেষে এই অনিয়ম ও দুর্নীতির ঘটনায় গত বছর রাজাধানীর তিনটি থানায় ১৫৬ জনকে আসামি করে ৫৬টি মামলা করে দুদক। আসামিদের মধ্যে ২৬ জন ব্যাংক কর্মকর্তা এবং বাকিরা ঋণ গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান ও ব্যাংক জরিপ প্রতিষ্ঠানে যুক্ত।

তবে আসামির তালিকায় বাচ্চু বা ব্যাংকটির তৎকালীন পরিচালনা পর্ষদের কেউ না থাকায় দুদকের ওই তদন্ত নিয়েই প্রশ্ন ওঠে। 

এ বিষয়ে দুদকের বক্তব্য ছিল, ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় বাচ্চুর সংশ্লিষ্টতা তারা পায়নি। তাই তার নাম আসামির তালিকায় রাখা হয়নি।

কিন্তু গতবছর ফেব্রুয়ারিতে সংসদে এক প্রশ্নের উত্তরে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক ও বেসিক ব্যাংকের নিয়োগ করা নিরীক্ষকের প্রতিবেদনে অনিয়মিত ঋণ মঞ্জুর, নিয়োগ ও পদোন্নতিতে পরিচালনা পর্ষদের তৎকালীন চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাচ্চুর সংশ্লিষ্টতা ছিল।

আর চলতি বছর অগাস্টে এক মামলার শুনানিতে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ বেসিক ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতি ও অর্থ আত্মসাতের মামলায় বাচ্চু ও পরিচালনা পর্ষদকে আসামি না করায় উষ্মা প্রকাশ করে।

ব্যক্তি যেই হোক না কেন- এ ধরনের মামলায় আসামি করার ক্ষেত্রে ‘পিক অ্যান্ড চুজ’ যেন না হয় সে বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) সে সময় সতর্ক করে আদালত।

এ নিয়ে সমালোচনার মধ্যে দুদকের একজন পরিচালক সাংবাদিকদের বলেছিলেন, আসামির তালিকায় নাম না থাকলেও তদন্তের প্রয়োজনে বাচ্চুকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য বাচ্চুকে ২০০৯ সালে বেসিক ব্যাংকের চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ দেয় সরকার। ২০১২ সালে তার নিয়োগ নবায়নও হয়।

কিন্তু ঋণ কেলেঙ্কারির অভিযোগ উঠলে ২০১৪ সালে ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী ফখরুল ইসলামকে অপসারণ করার পর চাপের মুখে থাকা বাচ্চু পদত্যাগ করেন।

অর্থমন্ত্রী তখন বলেছিলেন, পদত্যাগ করলেই পার পাবেন না বাচ্চু। তদন্তে দোষ প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়ার হবে।

]]>
20 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1425082 মঈনুল হক চৌধুরী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম মঈনুল হক চৌধুরী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-11-23 11:26:37.0 2017-11-23 11:37:16.0 নিবন্ধনের শর্ত পূরণ: আরও সময় চায় বড় দলগুলো নিবন্ধনের শর্ত পূরণ: আরও সময় চায় বড় দলগুলো ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ও দশম সংসদের বাইরে থাকা বিএনপি প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য ১৫ দিন থেকে এক মাস সময় চেয়েছে। নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের কেন্দ্রীয় ও তৃণমূলের নির্বাচিত কমিটি-অফিস, দলীয় গঠনতন্ত্র অনুসরণে নির্বাচন, ৩৩ শতাংশ নারী প্রতিনিধিত্ব, পেশাজীবী-সহযোগী সংগঠনের সম্পৃক্ততা এবং তৃণমূলের মতামতে প্রার্থী নির্বাচনের শর্তগুলো পূরণে আরও সময় চায় দেশের প্রধান রাজনৈতিক দলগুলো। false https://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1425082.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/12/30/election-bhaban-new-02-ed.jpg1/ALTERNATES/w300/Election-bhaban-new-02-ed.jpg
নিবন্ধিত ৪০টি রাজনৈতিক দলের এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন ইসিতে জমার শেষ দিন ছিল মঙ্গলবার। কিন্তু ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ও দশম সংসদের বাইরে থাকা বিএনপি প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য ১৫ দিন থেকে এক মাস সময় চেয়েছে।

শর্ত অনুযায়ী ছাত্র, পেশাজীবী ও প্রবাসী শাখার সঙ্গে কাগজে-কলমে মূল দলের কোনো সম্পর্ক রাখেনি রাজনৈতিক দলগুলো সঙ্গে। কিন্তু ছাত্র সংগঠনের কমিটি অনুমোদন করছেন দলের প্রধান, প্রবাসী শাখা বহাল রয়েছে, শিক্ষকসহ পেশাজীবী সংগঠনগুলোও চলছে মূল দলের নির্দেশনায়।

এ অবস্থায় দলগুলো গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ-এর নিবন্ধন বিধিমালার শর্ত পালন করছে কিনা তার তদারকিতে নামে নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থাগুলোর একটি মোর্চা ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপ (ইডব্লিউজি) এর পরিচালক আব্দুল আলীম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আরপিও মেনে দলগুলো গঠনতন্ত্র সংশোধন করেছে এই বলে যে-ছাত্র, শিক্ষক, প্রবাসী শাখাসহ পেশাজীবি সহযোগী সংগঠন থাকবে না। কিন্তু প্রধান দলগুলোতেই আমরা দেখছি মূল দলগুলোর সঙ্গে সিদ্ধান্তেই চলছে। স্বাধীনভাবে বা স্বতন্ত্রভাবে চলার কথা থাকলেও সহযোগী সংগঠন হিসাবেই রয়েছে।”

তিনি বলেন, প্রবাসী শাখাগুলো বন্ধ রাখার কথা; কিন্তু অধিকাংশ দলেই মূল দলের শাখা বহাল রয়েছে। দলীয় প্রধানের অনুমোদন বা অবহিত করেই ছাত্র সংগঠন চলছে।

“বিশেষ করে পুরনো দলগুলোই এ শর্ত প্রতিপালন নিয়ে বিপাকে থাকবে। নতুন দলগুলোকে তাদের নির্বাচিত কমিটি, নারী প্রতিনিধিত্ব আর জেলা-উপজেলার কমিটি-অফিস ঠিক রাখতে দৌড়ঝাঁপে করতে হয়। এখন কমিশনের পক্ষ থেকে দলগুলোকে শর্ত প্রতিপালন করার জন্যে সহায়তা করতে হবে।”

২০০৮ সালে রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন চালুর পর এ পর্যন্ত আরপিও অনুসরণ করার বিষয়টি নিশ্চিত করতে দলগুলোর তেমন বড় কোনো তৎপরতা দেখা যায়নি। এটিএম শামসুল হুদা ও কাজী রকিব উদ্দিন কমিশন বরাবরই বলে এসেছে, অভিযোগ পেলেই তা খতিয়ে দেখা হবে।

আওয়ামী লীগ ও বিএনপির দুজন নেতা জানান, অঙ্গ সংগঠনসহ নিবন্ধন শর্ত পালন করা হচ্ছে কিনা- সে সংক্রান্ত প্রতিবেদন জমা দিতে অন্তত এক মাস সময় চেয়ে ইসি সচিবালয়ে চিঠি দেওয়া দিয়েছেন তারা।

আর নির্বাচন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আওয়ামী লীগ, বিএনপি ছাড়াও জাতীয় পার্টিসহ বেশ কয়েকটি দল প্রতিবেদন জমা দিতে সময় চেয়েছে।

“আমরা ১৫ দিন সময় দিয়েছি। ইতোমধ্যে কিছু দল প্রতিবেদন জমা দিয়েছে; অর্ধেকের বেশি দল জমা দেয়নি। যারা আবেদন করেছে তাদের ফের সময় দেব; যারা আবেদনই করেনি তাদের বিষয়ে কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে।”

নির্দিষ্ট কোনো দলের নাম উল্লেখ না করে সচিব বলেন, “সব কিছু একদিনেই সম্ভব হবে না; সময়ও দিতে হবে। তবে যারা শর্ত প্রতিপালনে ব্যর্থ হবে তাদেরকে কারণ দর্শাও নোটিস দেওয়া হবে।”

নিবন্ধিত ৪০টি দলের মধ্যে অন্তত দেড় ডজন দল নিবন্ধনের শর্ত প্রতিপালনের বিষয়ে ইসিকে তথ্য দিয়েছে।

জাতীয় পার্টি-জেপি জানিয়েছে, তাদের সর্বস্তরে নির্বাচিত কমিটি রয়েছে; ২০১৬ সালের এপ্রিলে কাউন্সিলের মাধ্যমে ৩ বছরের নির্বাচিত কমিটি করা হয়েছে; ২০২০ সালে ৩৩% নারী প্রতিনিধি অর্জনের প্রচেষ্টা থাকবে; দলের ছাত্র-শিক্ষক, শ্রমিক বা অন্য কোনো পেশাজীবী সংগঠন নেই এবং তৃণমুলের মতামত নিয়েই দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, জাকের পার্টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ), ইসলামী ঐক্যজোট, জাতীয় পার্টি (জেপি), লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিটি), গণফ্রন্ট, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি), বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ), কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (বাংলাদেশ ন্যাপ), খেলাফত মজলিস, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ ও বিকল্পধারা বাংলাদেশসহ ১৮টি দল গত মঙ্গলবার পর্যন্ত প্রতিবেদন দিয়েছে।

ইডব্লিউজি পরিচালক বলেন, “এখন দলগুলো যেহেতু প্রাইভেট প্রতিষ্ঠান, সেহেতু শর্ত পালনের জন্য সময় দিয়ে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিতে হবে।”

]]>
1265307 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/12/30/election-bhaban-new-02-ed.jpg1/ALTERNATES/w300/Election-bhaban-new-02-ed.jpg