bdnews24.com - Home http://bangla.bdnews24.com/ The RSS feed of bdnews24.com en Bangladesh News 24 Hours Ltd. 2017-09-13 09:34:43.0 2017-09-13 09:34:43.0 Home customGroupedContent 1 2 Home world_bn বিশ্ব news-bn 200 1398884 নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 14:28:32.0 2017-09-24 23:20:19.0 জার্মানিতে ভোট: চতুর্থ দফায় ‘জয়ের পথে’ মের্কেল জার্মানিতে ভোট: চতুর্থ দফায় ‘জয়ের পথে’ মের্কেল জার্মানির সাধারণ নির্বাচনে জয়ী হয়ে চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল চতুর্থ দফায় দেশটির নেতৃত্ব দিতে চলেছেন বলে বুথফেরত জরিপে আভাস মিলেছে। জার্মানির সাধারণ নির্বাচনে জয়ী হয়ে চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল চতুর্থ দফায় দেশটির নেতৃত্ব দিতে চলেছেন বলে বুথফেরত জরিপে আভাস মিলেছে। false http://bangla.bdnews24.com/world/article1398884.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/merkel3.jpg/ALTERNATES/w300/Merkel3.jpg
মের্কেলের দল ক্রিশ্চিয়ান ডেমোক্রেটির পার্টি (সিডিইউ) গত এক দশকের বেশি সময় ধরে জার্মানির পার্লামেন্ট বুন্দেস্টাগের সংখ্যাগরিষ্ঠতা ধরে রেখেছে।

রোববারের ভোটে তার নেতৃত্বাধীন জোট ৩২ দশমিক ৫ শতাংশ ভোট পেয়ে পার্লামেন্টের সংখ্যাগরিষ্ঠতা ধরে রাখছে বলে একটি বুথফেরত জরিপের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে।

(বিস্তারিত আসছে)

]]>
1399170 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/merkel3.jpg/ALTERNATES/w300/Merkel3.jpg 1399171 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/merkel4.jpg/ALTERNATES/w300/Merkel4.jpg 1398883 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/germany-for-merkel.jpg/ALTERNATES/w300/Germany-for-Merkel.jpg 1398882 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/social-democratic-party-spd.jpg/ALTERNATES/w300/Social-Democratic-Party-SPD.jpg
2 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1399063 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 20:10:20.0 2017-09-24 20:59:50.0 উল্টোপথে গাড়ি নিয়ে প্রতিমন্ত্রী-সচিবরা ধরা উল্টোপথে গাড়ি আসায় প্রতিমন্ত্রী-সচিবদের জরিমানা ঢাকায় উল্টোপথে গাড়ি নিয়ে আসায় একজন প্রতিমন্ত্রীসহ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জরিমানা করা হয়েছে, যাদের মধ্যে সচিব পর্যায়ের কর্মকর্তারাও রয়েছেন। ঢাকায় উল্টোপথে গাড়ি নিয়ে আসায় একজন প্রতিমন্ত্রীসহ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জরিমানা করা হয়েছে, যাদের মধ্যে সচিব পর্যায়ের কর্মকর্তারাও রয়েছেন। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1399063.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/01_wrong-side_ministers-car_hare-road_240917_0002.jpg/ALTERNATES/w300/01_Wrong+Side_Ministers+Car_Hare+Road_240917_0002.jpg
ঢাকার হেয়ার রোডে রোববার বিকাল ৪টা থেকে ঘণ্টা দুয়েকের এই অভিযানে উল্টোপথে আসা ৫০টি গাড়িকে জরিমানা করা হয় বলে ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) আশরাফ হোসেন জানিয়েছেন।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “অভিযান চলাকালে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদের গাড়ি উল্টোপথে আসার কারণে আটকে জরিমানা করা হয়।

“এ সময় উল্টোপথে আসা সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, রাজউক, ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ কর্মকর্তা এবং সাংবাদিকের গাড়ি আটকে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়।”

এগুলোর মধ্যে তিনটি গাড়িকে ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয় জানিয়ে তিনি বলেন, “হেয়ার রোডে ভিআইপি গাড়ি বেশি আসে এবং তারা উল্টোপথে গাড়ি চালায়।”

ট্রাফিক পুলিশের মহানগর দক্ষিণের উপ-কশিনার রিফাত রহমান শামীম অভিযানের সময় উপস্থিত ছিলেন বলে জানান আশরাফ হোসেন।

তীব্র যানজটের ঢাকা শহরে মন্ত্রী-এমপিসহ প্রভাবশালীদের উল্টোপথে গাড়ি চালানো বন্ধ করতে বিভিন্ন সময় আহ্বান জানিয়ে আসছেন সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ বিষয়ে পুলিশের পক্ষ থেকেও বিভিন্ন সময় সতর্ক করা হয়েছে।

ঢাকার পুলিশ কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া গত মাসে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, পরিচয় যাই হোক, কেউ ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করে উল্টোপথে গাড়ি নিয়ে গেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

]]>
1399076 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/01_wrong-side_ministers-car_hare-road_240917_0002.jpg/ALTERNATES/w300/01_Wrong+Side_Ministers+Car_Hare+Road_240917_0002.jpg 1399078 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/01_wrong-side_ministers-car_hare-road_240917_0001.jpg/ALTERNATES/w300/01_Wrong+Side_Ministers+Car_Hare+Road_240917_0001.jpg
3 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1399149 ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 21:59:46.0 2017-09-24 21:59:46.0 ধূমপানে নিষেধ করায় দোকানিকে ধরে নিয়ে ‘লাখ টাকা’ দাবি ধূমপানে নিষেধ করায় দোকানিকে ধরে নিয়ে ‘লাখ টাকা’ চাঁদা দাবি রাজধানীর চানখাঁরপুলে একটি মিষ্টির দোকানে বসে ধূমপানে নিষেধ করায় এক কর্মচারীকে মারধরে করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে নিয়ে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া গেছে ছাত্রলীগের দুই নেতার বিরুদ্ধে। রাজধানীর চানখাঁরপুলে একটি মিষ্টির দোকানে বসে ধূমপানে নিষেধ করায় এক কর্মচারীকে মারধরে করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে নিয়ে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া গেছে ছাত্রলীগের দুই নেতার বিরুদ্ধে। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1399149.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/03/17/fazlul-haq-hall.jpg/ALTERNATES/w300/Fazlul-Haq-hall.jpg
এই নেতারা হলেন- ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-সম্পাদক মো. আরিফুল ইসলাম জিসান ও ফজলুল হক মুসলিম হলের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম রাকিব।

চানখাঁরপুলের ‘বনফুল মিষ্টি ও বেকারী’ নামের ওই দোকানের মালিক আল আমিন কর্মচারীকে ছাড়িয়ে আনতে গেলে তাকেও মারধর করা হয় বলে তার শ্যালক মো. আলামিন জানিয়েছেন।

তিনি রোববার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন. “কালকে দুপুরে (শনিবার) সিগারেট নিয়ে দোকানে ঢোকেন ওই দুই ছাত্রলীগ নেতা। দোকানটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত (এসি) হওয়ায় দোকানের ম্যানেজার গিয়াস উদ্দিন তাদের বাইরে গিয়ে ধূমপানের অনুরোধ করে।

“এই নিয়ে দুইপক্ষে কথা কাটাকাটি হলে ক্ষিপ্ত হয়ে জিসান ও রাকিব এফ এইচ হল থেকে ১০-১২ জন ছাত্রলীগ কর্মীকে নিয়ে এসে গিয়াসকে মারধর করে হলে নিয়ে যায়।

“পরে দোকান মালিক আল আমিনকে এক লক্ষ টাকা নিয়ে এসে গিয়াসকে ছাড়িয়ে নেওয়ার কথা বলে ছাত্রলীগনেতা জিসান ও রাকিব। কিন্তু আল আমিন ১৫ হাজার টাকা নিয়ে ম্যানেজারকে ছাড়াতে গেলে তাকে মারধর করে।

“সিগারেটের আগুন ‍দিয়ে তাকে পুড়িয়ে দেয়।আর বলতে থাকে, ‘আমরা কি ফকির যে, ১৫ হাজার টাকা নিয়ে এসেছিস?’ পরে বিষয়টি জানাজানি হলে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে দুজনকে ছেড়ে দেয় ছাত্রলীগের ওই দুই নেতা।”

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রলীগের হল শাখার সভাপতি শাহরিয়ার সিদ্দিক সিসিম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “গতকালকে বাইরে ছিলাম। পরে খোঁজ খবর নিয়েছি। আজ দোকান মালিকপক্ষের সঙ্গে বসব, হলের কেউ যদি জড়িত থাকে তাহলে কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার সুপারিশ করব। আর কোনো ছাত্র করে থাকলে হল প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে বলব।”

ছাত্রলীগের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি আবিদ আল হাসান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “এ ঘটনার কথা শুনেছি। আজকে দোকান মালিক ও কর্মচারীকে ডেকেছি। এ ঘটনায় কারা জড়িত, তা তাদের কাছে শুনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স বলেন, “ছাত্রলীগে অপরাধীদের কোনো স্থান নেই। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর অধ্যাপক আমজাদ আলী বলেন, “ঘটনাটি জানতে পেরে রোববার সন্ধ্যার দিকে হল প্রশাসনকে অবহিত করেছি। পরে হল প্রশাসন জানায় যে, দোকানের দু্জনকে আগেই ছেড়ে দিয়েছে, ঘটনাস্থলে কাউকে পাওয়া যায়নি।”

তিনি বলেন, “হল কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি তদন্ত করে জানাতে বলা হয়েছে। তাদের প্রতিবেদনের ভিত্তিতে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

]]>
4 2 Home politics_bn রাজনীতি news-bn 198 1399122 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 21:35:59.0 2017-09-24 22:10:19.0 রোহিঙ্গাদের জন্য ‘সেইফ জোনে’ বিএনপির আপত্তি রোহিঙ্গাদের জন্য ‘সেইফ জোনে’ বিএনপির আপত্তি রাখাইন রাজ্যে দমন-পীড়নের মুখে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের জন্য মিয়ানমারে সুরক্ষা বলয় (সেইফ জোন) গড়ার যে প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘে দিয়েছেন তাতে আপত্তি জানিয়েছে বিএনপি। রাখাইন রাজ্যে দমন-পীড়নের মুখে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের জন্য মিয়ানমারে সুরক্ষা বলয় (সেইফ জোন) গড়ার যে প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘে দিয়েছেন তাতে আপত্তি জানিয়েছে বিএনপি। false http://bangla.bdnews24.com/politics/article1399122.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/03/09/khandaker_mosharraf_bnp.jpg/ALTERNATES/w300/KHANDAKER_MOSHARRAF_BNP.jpg খন্দকার মোশাররফ হোসেন (ফাইল ছবি)
রোববার রাজধানীর একটি হোটেলে ‘মিয়ানমারের গণহত্যা ও বাংলাদেশের ভূমিকা’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন দলের এই অবস্থানের কথা জানান।

তিনি বলেন, “আমরা উদ্বেগ প্রকাশ করছি যে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে গিয়ে সেইফ জোন সম্পর্কে একটা কথা বলেছেন। এটাকে তিনি পরিষ্কার করেননি। এটা হবে আমাদের বাংলাদেশের জন্য এবং রোহিঙ্গাদের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর, ভয়ংকর, বিপদজনক ও স্বার্থবিরোধী। এই সেইফ জোন কনসেপ্টকে সম্পূর্ণভাবে আমরা প্রত্যাখ্যান করছি।

“আমরা অনুরোধ জানাব, রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সেইফ জোন সম্বন্ধে যেন আর কোনো ধরনের কথা-বার্তা না হয়। আমরা একে ষড়যন্ত্রমূলক শব্দ হিসেবে আখ্যায়িত করতে চাই।”

মিয়ানমারে উৎপীড়নের হাত থেকে রোহিঙ্গাদের রক্ষায় শেখ হাসিনা শুক্রবার জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে ছয় দফা প্রস্তাব তুলে ধরেন, যাতে রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নিয়ে তাদের জন্য সুরক্ষা বলয় (সেইফ জোন) গড়ার প্রস্তাবও রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাবের পাল্টা বিএনপির পক্ষ থেকে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে চার দফা প্রস্তাবনা তুলে ধরেন খন্দকার মোশাররফ।

>> রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিজ দেশে (মিয়ানমার) প্রত্যাবর্তনের জন্যে চাপ সৃষ্টি; রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলা ও সমাধানে জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করতে হবে।

>> ভিটে-মাটি, সহায়-সম্বল ছেড়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের শরণার্থী হিসেবে স্বীকৃতি দিতে হবে।

>> রোহিঙ্গাদের সসম্মানে ফিরিয়ে নিয়ে নাগরিকত্ব দিতে জাতিসংঘসহ সকলকে নিয়ে মিয়ানমার সরকারের ওপর যথাযথ কূটনৈতিক চাপ সৃষ্টি করতে হবে।

>> বিএনপি সরকারের আমলে ১৯৭৮ সালে ও ১৯৯২ সালের ‘রিপাট্রিয়েশন অ্যাগ্রিমেন্টের’ আলোকে রোহিঙ্গাদের সমস্যা সমাধান করতে হবে।

আলোচনায় যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, স্পেন, সোদি আরব, অস্ট্রেলিয়া, মালদ্বীপ, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, পাকিস্তান, নেপাল, শ্রীলংকা ও নেদারল্যান্ডের কূটনীতিকরা অংশ নেন। এছাড়া ইউএনডিপি ও ডেমোক্রেটিক ইন্টারন্যাশনালের প্রতিনিধিরাও ছিলেন।

এই গোলটেবিল আলোচনায় শিরোনাম প্রবন্ধ পড়েন সাবেক রাষ্ট্রদূত সিরাজুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য দেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, “জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রী যে সেইফ জোনের কথা বলেছে, এটা একটা ফ্যালাসি। আমরা সবাই জানি সেইফ জোন বসনিয়াতে কাজ করে নাই, রুয়ান্ডায় কাজ করে নাই, শ্রীলংকায় কাজ করে নাই, ইরাকে কাজ করে নাই।”

কোফি আনান কমিশনের প্রতিবেদনের আলোকে প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান চাওয়ায় তারও সমালোচনা করেন তিনি।

“বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কোফি আনান রিপোর্ট প্রধানমন্ত্রীকে ব্রিফ করেছেন কিনা আমার সন্দেহ হচ্ছে। যদি ব্রিফ করতো তাহলে প্রধানমন্ত্রী এই রিপোর্ট বাস্তবায়নের প্রস্তাব করতেন না। ওই রিপোর্টে কোথাও রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠীর কথাই লেখা নেই।”

এই অঞ্চলের বৃহৎ দেশগুলো রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী নিধনে মিয়ানমারের কর্মকাণ্ডকে সমর্থন দিয়ে ‘উগ্র জাতীয়বাদ’ উসকে দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন খসরু।

সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহর পরিচালনায় আলোচনায় নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, মানবাধিকার কর্মী অ্যাডভোকেট এলিনা খান, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মাহবুবুর রহমান, আবদুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান এম মোরশেদ খান, জয়নাল আবেদীন, অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য রিয়াজ রহমান, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নওশাদ জমির ও যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের পলিটিক্যাল অফিসার জ্যাকব লেভিন বক্তব্য দেন।

নাগরিক প্রতিনিধিদের মধ্যে অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহ, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্ণর সালেহউদ্দিন আহমেদ, সাবেক পররাষ্ট্র সচিব হেমায়েত উদ্দিন আহমেদ, সাবেক সচিব মোফাজ্জল করীম, খান মো. ইব্রাহিম, সাবেক রাষ্ট্রদূত ইফতেখারুল করীম, মাহমুদ হাসান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক দিলারা চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক হাসান তালুকদার, অধ্যাপক আসিফ নজরুল, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক সাইদুজ্জামান প্রমূখ রোহিঙ্গা পরিস্থিতির ওপর তাদের পর্যবেক্ষন তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে বিএনপি জ্যেষ্ঠ নেতা নজরুল ইসলাম খান, নিতাই রায় চৌধুরী, সাবিহ উদ্দিন আহমেদ, আবদুস সালাম, আবদুল হালিম, গোলাম আকবর খন্দকার, ইসমাইল জবিউল্লাহ, আবদুল কাইয়ুম, নাজমুল হক নান্নু, মজিবুর রহমান সারোয়ার, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব উন নবী খান সোহেল, আসাদুজ্জামান রিপন, শ্যামা ওবায়েদ, সাখাওয়াত হোসেন সায়ন্থ, আসাদুজ্জামান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সদরুল আমিন, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের মহাসচিব এম আবদুল্লাহ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সভাপতি আবদুল হাই শিকদার প্রমূখ ছিলেন।

]]>
1300645 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/03/09/khandaker_mosharraf_bnp.jpg/ALTERNATES/w300/KHANDAKER_MOSHARRAF_BNP.jpg খন্দকার মোশাররফ হোসেন (ফাইল ছবি)
5 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1399164 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 22:42:44.0 2017-09-24 22:42:44.0 রোহিঙ্গাদের জন্য ৭০০ টন ত্রাণ পাঠাচ্ছে ভারত রোহিঙ্গাদের জন্য ৭০০ টন ত্রাণ পাঠাচ্ছে ভারত মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য নতুন করে ত্রাণ পাঠাচ্ছে ভারত। মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য নতুন করে ত্রাণ পাঠাচ্ছে ভারত। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1399164.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/22/rohingya-2.jpg/ALTERNATES/w300/Rohingya-2.jpg
ভারতীয় হাই কমিশন জানিয়েছে, এই দফায় প্রায় ৭০০ টন ত্রাণ সামগ্রী আসছে। অন্ধ্রপ্রদেশের একটি বন্দরে আইএনএস ঘারিয়াল নামের একটি জাহাজে এসব ত্রাণ সামগ্রী উঠানো হচ্ছে।

সেগুলো নিয়ে জাহাজটি ২৯ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম বন্দরে পৌঁছাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ত্রাণ সামগ্রীর মধ্যে চাল, ডাল, চিনি, লবণ, ভোজ্য তেল, নুডলস, চা, বিস্কুট ও মশারিসহ অন্যান্য জিনিস রয়েছে।

ভারতীয় হাই কমিশন বলছে, তাদের এই দফার ত্রাণ দিয়ে প্রায় ৬৮ হাজার পরিবারকে সহায়তা করা যাবে।

গত মাসে বাংলাদেশ অভিমুখে রোহিঙ্গাদের ঢল নামার পর প্রায় ১০০ টন ত্রাণ পাঠিয়েছে ভারত।

]]>
1398199 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/22/rohingya-2.jpg/ALTERNATES/w300/Rohingya-2.jpg
6 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1399015 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 18:35:41.0 2017-09-24 19:12:43.0 মালিতে ৩ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত মালিতে বিদ্রোহীদের হামলায় ৩ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মালিতে বিদ্রোহীদের হামলায় তিন বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত এবং চারজন আহত হয়েছেন। পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মালিতে বিদ্রোহীদের হামলায় তিন বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত এবং চারজন আহত হয়েছেন। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1399015.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/un.jpg/ALTERNATES/w300/UN.jpg
রোববার বিদ্রোহীদের সঙ্গে শান্তিরক্ষীদের সংঘর্ষের মধ্যে বোমার বিস্ফোরণে হতাহতের এই ঘটনা ঘটে বলে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

নিহতরা হলেন- সার্জেন্ট আলতাফ, ইএমই (দিনাজপুর), ল্যান্স কর্পোরাল জাকিরুল, আর্টিলারি (নেত্রোকোণা) ও সৈনিক মনোয়ার, ইস্ট বেঙ্গল (বরিশাল)।

আহত হয়েছেন মেজর জাদিদ, পদাতিক (ঢাকা), কর্পোরাল মহিম, পদাতিক (নোয়াখালী), সৈনিক সবুজ, পদাতিক (নওগাঁ) ও সৈনিক সরোয়ার, পদাতিক (যশোর)।

উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের গাঁও শহরে নেওয়া হয়েছে বলে আইএসপিআর জানিয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, মালিতে শান্তিরক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার সময় শনিবার বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের সঙ্গে সন্ত্রাসীদের সংঘর্ষ হয়।

“আমাদের শান্তিরক্ষীরা সফলভাবে তাদের প্রতিহত করে।”

দায়িত্ব পালন শেষে রোববার ক্যাম্পে ফেরার পথে বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের ওপর ফের হামলা হয়।

“সাহসিকতা ও সফলতার সাথে তারা পুনরায় সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করে। তবে সংঘর্ষের এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীদের পুঁতে রাখা ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি) বিস্ফোরণে তিনজন বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত এবং চারজন আহত হয়।”

২০১৩ সালে মালির উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন শহর থেকে বিদ্রোহী জঙ্গি ও বিচ্ছিন্নতাবাদী তুয়ারেগদের হটিয়ে দেয় ফরাসি বাহিনী। এরপর ওই বছরই দেশটিতে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মোতায়েন করা হয়।

জাতিসংঘের এই মিশন ‘মিনুসমা’ নামে পরিচিত। এটাই জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে।

]]>
1399014 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/un.jpg/ALTERNATES/w300/UN.jpg
7 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1399110 নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 21:19:20.0 2017-09-24 22:44:19.0 আনিসুল হকের অবস্থা ‘স্থিতিশীল’ আনিসুল হকের অবস্থা ‘স্থিতিশীল’ লন্ডনের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের অবস্থা স্থিতিশীল বলে তার ঘনিষ্ঠ একজন জানিয়েছেন। লন্ডনের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের অবস্থা স্থিতিশীল বলে তার ঘনিষ্ঠ একজন জানিয়েছেন। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1399110.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/07/14/06_mayor-annisul-huq_md-pramanik_140717__0017.jpg/ALTERNATES/w300/06_Mayor+Annisul+Huq_Md+Pramanik_140717__0017.jpg মেয়র আনিসুল হক। (ফাইল ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক)
মেয়রের মালিকানাধীন নাগরিক টিভির পরিচালক আবদুন নূর তুষার রোববার সন্ধ্যায় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আনিসুল হক ভেন্টিলেশন ছাড়াই স্বাভাবিকভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে পারছেন। তার কিডনি, লিভার ও ফুসফুস স্বাভাবিকভাবে কাজ করছে।

সেরিব্রাল ভাসকুলাইটিসে (মস্তিষ্কের রক্তনালির প্রদাহ) আক্রান্ত আনিসুল গত ৪ অগাস্ট থেকে লন্ডনের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে।

“উনাকে ওষুধ দিয়ে ঘুম পাড়িয়ে রাখা হয়েছে। ঘুম পাড়িয়ে চিকিৎসার এই পর্যায় শেষ হলে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে পরবর্তী চিকিৎসার দিকে যাওয়ার বিষয় বোঝা যাবে,” বলেন তুষার।

আনিসুল হকের স্ত্রীর রুবানা হক তার সঙ্গে লন্ডনের হাসপাতালে আছেন। তিনি দেশবাসীর কাছে স্বামীর সুস্থতার জন্য দোয়া চেয়েছেন বলে তুষার জানিয়েছেন।

মেয়ের সন্তান হওয়া সামনে রেখে গত ২৯ জুলাই লন্ডনে যান আনিসুল হক। সেখানে অসুস্থ বোধ করায় হাসপাতালে গেলে গত ৪ অগাস্ট পরীক্ষা চলার মধ্যেই তিনি সংজ্ঞা হারান।পরে তার সেরিব্রাল ভাসকুলাইটিস শনাক্ত করেন চিকিৎসকরা।

আনিসুল হকের পরিবারের ঘনিষ্ঠ একজন সে সময় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেছিলেন, বেশ কিছুদিন ধরেই মেয়রের মাথা ঘোরার সমস্যা দেখা যাচ্ছিল। কিছুক্ষণ খারাপ লাগার পর আবার ঠিক হয়ে যেত।

ঢাকার চিকিৎসরা তাকে বিশ্রাম নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। পরে সিঙ্গাপুরে গেলে সেখানেও চিকিৎসকরা একই কথা বলেছিলেন।

ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি আনিসুল হক ২০১৫ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হন।

]]>
1364155 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/07/14/06_mayor-annisul-huq_md-pramanik_140717__0017.jpg/ALTERNATES/w300/06_Mayor+Annisul+Huq_Md+Pramanik_140717__0017.jpg মেয়র আনিসুল হক। (ফাইল ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক)
8 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1399090 কক্সবাজার প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম কক্সবাজার প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 21:00:29.0 2017-09-24 21:15:57.0 রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান মিয়ানমারে: ইউএনএইচসিআর রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান মিয়ানমারে: ইউএনএইচসিআর রোহিঙ্গাদের সমস্যা মিয়ানমারকেই সমাধান করতে হবে বলে মনে করেন জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর হাইকমিশনার ফিলিপ্পো গ্র্যান্ডি। রোহিঙ্গাদের সমস্যা মিয়ানমারকেই সমাধান করতে হবে বলে মনে করেন জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর হাইকমিশনার ফিলিপ্পো গ্র্যান্ডি। false http://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1399090.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/cox-unhcr-filippo-grandi.jpg/ALTERNATES/w300/Cox-UNHCR-Filippo-Grandi.jpg সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন ফিলিপ্পো গ্র্যান্ডি
রোববার দুপুরে কক্সবাজারে ইউএনএইচসিআর কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের প্রধান কারণ মিয়ানমারে। তাই এর সমাধানও মিয়ানমারেই।

“সবার আগে সেখানে অবশ্যই সন্ত্রাস বন্ধ করতে হবে। সন্ত্রাসের কারণে সেখান থেকে মানুষ পালিয়ে আসছে।”

মানবাধিকার সংস্থাগুলোর রাখাইনের উত্তরাঞ্চলে প্রবেশের জন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা পুনঃপ্রতিষ্ঠা করার উপরও তিনি জোর দেন।

“আপনারা জানেন ইউএনইএচসিআর ও ডব্লিউএফও সেখানে এখনও অবস্থান করছে, কিন্তু আমাদের চলাচলে বিধিনিষেধ রয়েছে। এখানে নিরাপত্তা পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে হবে, কারণ এখনও যারা সেখানে রয়ে গেছে আমরা তাদের জন্য কাজ করছি।

নৌকায় চড়ে শাহপরীর দ্বীপ থেকে টেকনাফের উদ্দেশ্যে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা। ছবি: মোস্তাফিজুর রহমান

নৌকায় চড়ে শাহপরীর দ্বীপ থেকে টেকনাফের উদ্দেশ্যে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা। ছবি: মোস্তাফিজুর রহমান

“আর মানুষগুলো যাতে ফিরে যাওয়ার প্রস্তুতি নিতে পারে সেজন্য আমাদের অবশ্যই কাজ করতে হবে।”

তিনি শনিবার এখানে আসা রোহিঙ্গাদের সঙ্গে অনেকের সঙ্গে কথা বলেছেন বলে জানান।

তাদের অপরিমেয় সমস্যার ভয়াবহতা দেখে তিনি স্তম্ভিত হন বলে মন্তব্য করেন।

তাদের জন্য খাবার, পরিষ্কার পানি, আশ্রয়, যথাযথ স্বাস্থ্যসেবা জরুরি। তবে সম্ভবত সবচেয়ে জরুরি প্রয়োজন তাদের থাকার জায়গা, বলেন তিনি।

গত ২৫ অগাস্টে আবার হামলার ঘটনার পর সেনাবাহিনী পাল্টা কঠোর দমন অভিযান চালাচ্ছে, যেটাকে ‘রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী নির্মূলকরণ’ বলছে জাতিসংঘ।

এর পর থেকে সোয়া চার লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশের সীমান্ত জেলা কক্সবাজারের আশ্রয় নিয়েছে।

]]>
1399088 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/cox-unhcr-filippo-grandi.jpg/ALTERNATES/w300/Cox-UNHCR-Filippo-Grandi.jpg সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন ফিলিপ্পো গ্র্যান্ডি 1395520 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/16/02_rohingya-refugees_16092017__0025.jpg/ALTERNATES/w300/02_Rohingya+Refugees_16092017__0025.jpg নৌকায় চড়ে শাহপরীর দ্বীপ থেকে টেকনাফের উদ্দেশ্যে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা। ছবি: মোস্তাফিজুর রহমান
9 2 Home neighbour_bn প্রতিবেশী news-bn 9517 1398945 নিউজ ডেস্ক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিউজ ডেস্ক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 16:19:27.0 2017-09-24 19:57:43.0 ‘রোহিঙ্গা নির্মূলে’ ধর্ষণও মিয়ানমার সেনাদের অস্ত্র ‘রোহিঙ্গা নির্মূলে’ ধর্ষণও মিয়ানমার সেনাদের অস্ত্র মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ‘জাতিগতভাবে নির্মূল করার’ অভিযানে সেনাবাহিনী নারী ধর্ষণকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে বলে আলামত মিলছে। মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ‘জাতিগতভাবে নির্মূল করার’ অভিযানে সেনাবাহিনী নারী ধর্ষণকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে বলে আলামত মিলছে। false http://bangla.bdnews24.com/neighbour/article1398945.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/09/24/rohingya-women-for-aid.jpg/ALTERNATES/w300/ROHINGYA-women+for+aid.JPG কক্সবাজারে ত্রাণের আশায় বিধ্বস্ত এক রোহিঙ্গা নারী। ছবি: রয়টার্স
জাতিসংঘের চিকিৎসক ও অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীদের বরাত দিয়ে রয়টার্স বলছে, সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে সহিংসতার মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলিমদের মধ্যে এমন কয়েক ডজন নারী চিকিৎসা নিয়েছেন, যাদের আঘাতগুলো নৃশংস যৌন হামলার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ।  

মিয়ানমারের সশস্ত্র বাহিনীর বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু এই মুসলিম নারীরা বার বার বলাৎকার ও দলবদ্ধ ধর্ষণের যে অভিযোগ এনেছেন, সেগুলোকেই জোরালোভাবে সামনে এনেছেন এই চিকিৎসরা। কিছু ক্ষেত্রে রয়টার্সের পর্যালোচনা করা মেডিকেল নথির সঙ্গেও এগুলো মিলে যায়।

এসব অভিযোগকে সেনাবাহিনীকে কলংকিত করার সাজানো প্রপাগান্ডা বলে উড়িয়ে দিয়ে পাল্টা মিয়ানমারের কর্মকর্তারা বলছেন, তার সন্ত্রাস দমনের বৈধ অভিযান চালাচ্ছে এবং বেসামরিক মানুষের জীবন রক্ষা করা আদেশ পালন করছে।

অভিযোগ নিয়ে কেউ তাদের কাছে গেলে তারা তদন্ত করে দেখবেন বলে মিয়ানমারের নেতা অং সান সু চির মুখপাত্র জ তেই জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “ওইসব ধর্ষিতারা আমাদের কাছে আসুক, আমরা তাদের পূর্ণ নিরাপত্তা দেব। আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থাও নেব।”

তবে গত বছরের শেষ দিকে রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ করার অনেক অভিযোগ প্রকাশ্য হলেও সেগুলো নিয়ে সু চি নিজে কোনো মন্তব্য করেননি।

গত অক্টোবরে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যে নিরাপত্তা বাহিনীর উপর রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার ঘটনার পর সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। ২৫ অগাস্টে আবার হামলার ঘটনার পর সেনাবাহিনী পাল্টা কঠোর দমন অভিযান চালাচ্ছে, যেটাকে ‘রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী নির্মূলকরণ’ বলছে জাতিসংঘ।

এর পর থেকে সোয়া চার লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশের সীমান্ত জেলা কক্সবাজারের আশ্রয় নিয়েছে।

রয়টার্স এমন আটজন স্বাস্থ্যকর্মীর সঙ্গে কথা বলেছে, যারা অগাস্টের শেষ সপ্তাহ থেকে ২৫ জনের বেশি ধর্ষিতা নারীকে চিকিৎসা দিয়েছেন।

ওই চিকিৎসকরা বলছেন, তাদের রোগীদের নিয়ে কি করা হয়েছিল তা সুনির্দিষ্টভাবে বের করার চেষ্টা তারা করেননি। কিন্তু ওই ঘটনাগুলোতে তারা ‘নির্ভূল ছাঁচ’ দেখতে পেয়েছেন। অনেক নারীর শরীরে তারা আঘাতের নমুণা দেখেছেন, যেগুলোর জন্য তারা একবাক্যে মিয়ানমারের সেনাদেরকে দায়ী করেন।

স্পশর্কাতর হওয়ায় কোনো রাষ্ট্রের সশস্ত্র বাহিনীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগের বিষয়ে জাতিসংঘ ও সাহায্য সংস্থাগুলোর চিকিৎসকদের মুখ খোলার ঘটনা বিরল।

‘অমানবিক হামলা’

কক্সবাজারের লেদা শরণার্থী শিবিরে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) পরিচালিত স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিৎসকরা বলছেন, তারা শত শত জখমি রোহিঙ্গা নারীকে চিকিৎসা দিয়েছেন, যারা গত অক্টোবর ও নভেম্বরে রাখাইনে সেনা অভিযানে নৃশংস যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছেন।

স্বাস্থ্যকেন্দ্রটির সমন্বয়ক ড. নিরন্ত কুমার বলছেন, অগাস্ট থেকে আসা রোহিঙ্গা ঢলের মধ্যে এখন পর্যন্ত ধর্ষণের খবর আগের তুলনায় কম পাওয়া গেলেও এর মধ্যে যারাই চিকিৎসা নিয়েছেন তাদের জখমগুলি ‘বেশি সহিংস’ হামলার নজির বহন করে।

বেশ কয়েকজন স্বাস্থ্যকর্মী বললেন, অক্টোবরের অভিযানের সময় অনেক শুরুতে অনেক নারী গ্রামে রয়ে গিয়েছিলেন এটা ভেবে যে, সেনাবাহিনী শুধু রোহিঙ্গা পুরুষদের খুঁজছে। কিন্তু এবার মিয়ানমার সেনাদের চিহ্ন দেখামাত্র তাদের বেশিরভাগ ঘর ছেড়ে পালান।

লেদা ক্লিনিকের চিকিৎসকরা পরিচয় গোপন রেখে তিন রোগীর নথি দেখিয়েছেন রয়টার্স প্রতিবেদককে। তাদের মধ্যে ২০ বছর বয়সী এক নারী ১০ সেপ্টেম্বর চিকিৎসা নেওয়ার এক সপ্তাহ পর বলেন, যে তাকে এক মিয়ানমার সেনা ধর্ষণ করেছিল।

হাতে লেখা ওই নথিতে বলা হয়েছে, তাকে ধর্ষণের আগে মিয়ানমার সেনারা তার ‘চুল ধরে টেনেছিল’ এবং তাকে ‘বন্দুক দিয়ে পেটান’।

চিকিৎসকরা বলছেন, অনেক পরীক্ষায় এমন ক্ষত পাওয়া গেছে, যেগুলোতে বলপূর্বক যোনিকে পুরুষাঙ্গ ঢোকানো, পেটানো এবং কোনো কেনো ক্ষেত্রে উদ্দেশ্যমূলকভাবে নারীর যৌনাঙ্গ কেটে ফেলার চেষ্টা হয়েছে বলে ধরা পড়েছে।

টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ হয়ে হাড়িয়াখালী থেকে দলে দলে শরণার্থীরা প্রবেশ করছে বাংলাদেশে। ছবি: মোস্তাফিজুর রহমান

টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ হয়ে হাড়িয়াখালী থেকে দলে দলে শরণার্থীরা প্রবেশ করছে বাংলাদেশে। ছবি: মোস্তাফিজুর রহমান

আইওএমের চিকিৎসা কর্মকর্তা ড. তাসনুবা নওরিন বলেন, “আমরা চামড়ায় এমন দাগ দেখেছি, যেগুলো খুবই জোরালো আঘাত, অমানবিক আঘাত।”

নতুন আসা এসব রোহিঙ্গা নারীর মধ্যে অন্তত পাঁচজনকে তিনি চিকিৎসা দিয়েছেন, যাদের সম্প্রতি ধর্ষণ করা হয়েছে তার মনে হয়েছে। তাদের সবার ক্ষেত্রে ঘটনার বর্ণনার সঙ্গে তাদের শরীরে আঘাতের আলামতের মিল পাওয়া গেছে।

‘অনেক ঘটনার খণ্ডাংশমাত্র’

উখিয়ায় জাতিসংঘের সহায়তায় পরিচালিত সরকারি ক্লিনিকগুলোর চিকিৎসকরা ধর্ষিত ১৯ নারীকে চিকিৎসা দেওয়ার খবর দিয়েছেন বলে নারী চিকিৎসকদের উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছেন সেখানকার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান ড. মিসবাহ উদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেন, “যেসব আলামত পাওয়া গেছে, তার মধ্যে আছে, কামড়ের দাগ, যোনিমুখ ছিঁড়ে ফেলা… এই ধরনের চিহ্ন।”

১৪ সেপ্টেম্বর একদিনে একই ক্লিনিকে ছয় নারী এসেছিলেন, যাদের সবাই বলেছেন, তাদের উপর যৌন নিপীড়ন চালানো হয়েছে।

“তারা সবাই বলেছে, মিয়ানমারের সেনারা এসব করেছে।”

কুতুপালং শরণার্থী শিবিরের কাছের এক ক্লিনিকে কর্মরত এক আইওএমের এক চিকিৎসক বলেন, অগাস্টের শেষে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা এক নারী বলেছেন, তাকে অন্তত সাতজন সৈনিক মিলে ধর্ষণ করেছে।

“ওই নারী ছিল মারাত্মক দুর্বল এবং সন্ত্রস্ত এবং ক্লিনিকে আসতে তার খুব কষ্ট হয়েছে। তার যৌনাঙ্গ কাটা ছিল।”

ওই চিকিৎসক ১৫ থেকে ১৯ জন নারীর চিকিৎসা দিয়েছেন যারা ধর্ষিত হয়েছেন বলে তার মনে হয়েছে এবং শারিরীকভাবে লাঞ্ছিত আরও আট নারী কার কাছ থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন।

ওই চিকিৎসক বলেন, তাদের কাউকে জরুরি ভিত্তিতে জন্মনিয়ন্ত্রণ ওষুধ দেওয়া হয়েছে, এইচআইভি ছড়ানোর ঝুঁকি কমাতে সবাইকে চিকিৎসা এবং হেপাটাইটিসের প্রতিষেধক দেওয়া হয়েছে।

“তাদের হাতে ও পিঠে কামড়ের দাগ, যৌনাঙ্গে কাটা-ছেঁড়া ও যৌনাঙ্গে রক্তক্ষরণ হচ্ছিল।”

কক্সবাজারের সাহায্য সংস্থাগুলোর তৈরি আভ্যন্তরীণ প্রতিবেদনে ২৯ থেকে ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত চার দিনে ৪৯ জন ‘এসজিবিভি সারভাইভর’ নথিবদ্ধ হয়েছে। শুধুমাত্র ধর্ষণের ক্ষেত্রেই জাতিসংঘের চিকিৎসকরা ‘এসজিবিভি বা যৌনতা ও লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতা’ শব্দগুচ্ছ ব্যবহার করে থাকেন। অন্য দিনগুলোর ধর্ষণের ঘটনা নথিবদ্ধ হওয়ার তথ্য পাওয়া যায়নি।

সাহায্য সংস্থাগুলোর একটি হালনাগাদ প্রতিবেদন বলছে, ২৫ অগাস্টের পর থেকে ৩৫০ জনের ক্ষেত্রে লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতা সম্পর্কিত ‘প্রাণরক্ষার সেবা’ দেওয়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতা শব্দগুচ্ছ সাধারণভাবে ব্যবহার করা হয় লিঙ্গের ভিত্তিতে ধর্ষণ, ধর্ষণের চেষ্টা ও বলাৎকারের পাশাপাশি মানসিক যন্ত্রণা ও সুযোগের বঞ্চনার ক্ষেত্রে।

তবে প্রতিবেদনে ঘটনাগুলোর জন্য দায়ী কারা তা উল্লেখ করা হয়নি।

কক্সবাজারে মেডিসিন্স সন্স ফ্রঁতিয়েসের (এমএসএফ) জরুরি চিকিৎসা সমন্বয়ক কেইট হোয়াইট বলেন, ২৫ অগাস্টের পর তারা অন্তত ২৩ নারীকে তারা পেয়েছেন, যারা দলবদ্ধ ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নসহ যৌনতা ও লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতার শিকার হয়েছেন।

“সেখানে এধরণের যত ঘটনা ঘটেছে এগুলি তার একটি অংশমাত্র।”

‘অস্ত্র হিসেবে ধর্ষণ’

রোহিঙ্গা নারীদের গণধর্ষণের শিকার হওয়ার অভিযোগের খবর রয়টার্স প্রথম প্রকাশ করে অক্টোবরে রাখাইনে নিরাপত্তা বাহিনীর ক্যাম্পে হামলার কয়েকদিনের মধ্যে। পরে জানুয়ারিতে জাতিসংঘের তদন্ত দল জানুয়ারিতে বাংলাদেশ সফরের সময়ও একই অভিযোগ শোনেন।

কক্সবাজারে ত্রাণের আশায় বিধ্বস্ত এক রোহিঙ্গা নারী। ছবি: রয়টার্স

কক্সবাজারে ত্রাণের আশায় বিধ্বস্ত এক রোহিঙ্গা নারী। ছবি: রয়টার্স

এপ্রিলে জাতিসংঘ মহাসচিবের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, দৃশ্যত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে হেয় ও সন্ত্রস্ত করতেই পদ্ধতিগতভাবে যৌন নিপীড়নকে ব্যবহার করা হচ্ছে।

এমনকি সু চিও গত বছর ক্ষমতায় যাওয়ার আগে দেশটির জাতিগত দ্বন্দ্বের মধ্যে ধর্ষণকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে বলে সোচ্চার হয়েছিলেন।

সু চি সেই বক্তব্য এখনও ধারণ করে কি না জানতে চাইলে তার মুখপাত্র বলেন, “কিছুই বলার নাই। সবকিছুই আইন অনুযায়ী হবে। সেনা নেতৃত্বও বলেছে, তারা ব্যবস্থা নেবে।”

]]>
1399043 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/09/24/rohingya-women-for-aid.jpg/ALTERNATES/w300/ROHINGYA-women+for+aid.JPG কক্সবাজারে ত্রাণের আশায় বিধ্বস্ত এক রোহিঙ্গা নারী। ছবি: রয়টার্স 1398944 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/09/24/myanmar-rohingya-bangladesh.jpg/ALTERNATES/w300/MYANMAR-ROHINGYA-BANGLADESH.JPG 1399055 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/09/24/myanmar-rohingya-bangladesh-2-.jpg/ALTERNATES/w300/MYANMAR-ROHINGYA-BANGLADESH+%282%29.JPG 1399038 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/09/24/myanmar-rohingya-bangladesh.jpg1/ALTERNATES/w300/MYANMAR-ROHINGYA-BANGLADESH.JPG 1395509 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/16/02_rohingya-refugees_16092017__0008.jpg/ALTERNATES/w300/02_Rohingya+Refugees_16092017__0008.jpg টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ হয়ে হাড়িয়াখালী থেকে দলে দলে শরণার্থীরা প্রবেশ করছে বাংলাদেশে। ছবি: মোস্তাফিজুর রহমান 1398889 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/rohingya---1.jpg/ALTERNATES/w300/Rohingya+-+1.JPG 1398890 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/rohingya---3.jpg/ALTERNATES/w300/Rohingya+-+3.JPG
10 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1399163 যশোর প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম যশোর প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 22:41:45.0 2017-09-24 22:41:45.0 যশোরে আ. লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা যশোরে আ. লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা যশোরের ঝিকরগাছায় এক আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে অজ্ঞাতরা। যশোরের ঝিকরগাছায় এক আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে অজ্ঞাতরা। false http://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1399163.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/09/24/jessore-murder-photo-24.09..jpg/ALTERNATES/w300/jessore-murder-photo-24.09..jpg
রোববার উপজেলার বাঁকড়া-দিগদানা সড়কের অতুলের মোড়ে এ ঘটনা ঘটে বলে বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই শিকদার মতিয়ার রহমান জানান।

নিহত ছিদ্দিক হোসেন (৬৫) বাঁকড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি। উপজেলার বালিয়াডাঙ্গায় তার বাড়ি।

নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে এসআই শিকদার বলেন,  সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ছিদ্দিক হোসেন সাইকেলে করে বাঁকড়া বাজার থেকে বাড়িতে আসছিলেন। এ সময় অতুলের মোড়ে অজ্ঞাতরা তাকে কুপিয়ে পালিয়ে যায়।

পরে এলাকাবাসী ও স্বজনরা যশোর সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয় বলে জানান তিনি।

ছিদ্দিকের মাথার পেছনে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে তার ভাইয়ের ছেলে মাহাবুর রহমান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন।

]]>
1399162 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/09/24/jessore-murder-photo-24.09..jpg/ALTERNATES/w300/jessore-murder-photo-24.09..jpg
11 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1399060 আদালত প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম আদালত প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 20:02:54.0 2017-09-24 22:02:15.0 জামায়াত সমর্থক সাত চিকিৎসক রিমান্ডে জামায়াত সমর্থক সাত চিকিৎসক রিমান্ডে সরকারবিরোধী ‘ধ্বংসাত্মক’ কর্মকাণ্ডের পরিকল্পনার অভিযোগে গ্রেপ্তার জামায়াতে ইসলামীর সমর্থক সাতজন চিকিৎসককে একদিন পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছে আদালত। সরকারবিরোধী ‘ধ্বংসাত্মক’ কর্মকাণ্ডের পরিকল্পনার অভিযোগে গ্রেপ্তার জামায়াতে ইসলামীর সমর্থক সাতজন চিকিৎসককে একদিন পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছে আদালত। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1399060.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/euro-bangla-hospital.jpg/ALTERNATES/w300/Euro+Bangla+Hospital.jpg
এই চিকিৎসকরা হলেন- ডা. আনোয়ারুল আজিম (৫৫), ডা. মো. আলী আশরাফ খান (৫৫), ডা. মো. তৌহিদ আলী বেরুনী (৪২), ডা. জহির উদ্দিন মাহমুদ (৫৬), মো. সাইফুল আমিন (৫৪), ডা. সাহাবুদ্দীন আহমেদ চৌধুরী (৫৯) ও ডা. মো. ফজলুর রহমান মজুমদার (৫৯)।

শনিবার লালমাটিয়া থেকে গ্রেপ্তারের পর বিশেষ ক্ষমতা আইনের একটি মামলায় রোববার তাদের আদালতে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। তাদের জামিন

শুনানি নিয়ে ঢাকার মহানগর হাকিম এস এম মাসুদ তাদের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলে আদালতের সংশ্লিষ্ট পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এসআই নিজাম উদ্দিন জানান।

রিমান্ড আবেদনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদপুর থানার পরির্দশক মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম বলেন, “আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিরোধিতাসহ ধ্বংসাত্মক ও নাশকতামূলক কাজের জন্য গোপন বৈঠকের সময় শনিবার দুপুর দেড়টায় মোহাম্মদপুর থানা পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডা. কামরুল আহসানসহ আট-১০ জন পালিয়ে যায়।”                                                            

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এই পুলিশ কর্মকর্তা রোববার রাতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, শনিবার দুপুরে লালমাটিয়ার ইউরো-বাংলা হার্ট হাসপাতালের ৫০১ নম্বর কক্ষ থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এই হাসপাতাল বায়োফার্মা নামে একটি ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচালিত হয়।

ডা. আনোয়ারুল আজিম ওই হাসপাতাল ও বায়োফার্মার ব্যবস্থাপনা পরিচালক। অন্যরা হাসপাতালের পরিচালক বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা শরীফ।

দুপুরে তাদের গ্রেপ্তারের পর রাতে মোহাম্মদপুর থানার উপ-পরিদর্শক মারুফ হোসেন বাদী হয়ে এই চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় অজ্ঞাত পরিচয় আরও আট থেকে ১০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ জানিয়ে হাসপাতালের একজন কর্মচারী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “পুলিশ যখন অভিযান চালায় তখন হাসপাতালের একটি প্রজেক্ট নিয়ে তারা সভা করছিল। সেখানে কোনো রাজনৈতিক সভা হচ্ছিল না।”

আসামিদের কাছে কোনো রাজনৈতিক কাগজপত্র বা অন্য কোনো নথি পাওয়া যায়নি বলে

মামলার বাদী মারুফ হোসেন জানিয়েছেন।

]]>
1399059 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/euro-bangla-hospital.jpg/ALTERNATES/w300/Euro+Bangla+Hospital.jpg
12 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1399045 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 19:39:20.0 2017-09-24 19:39:20.0 বাড়তি তাপমাত্রার সঙ্গে বেশি আর্দ্রতায় অস্বস্তিকর গরম বাড়তি তাপমাত্রার সঙ্গে বেশি আর্দ্রতায় অস্বস্তিকর গরম বাড়তি তাপমাত্রার সঙ্গে বাতাসে আর্দ্রতা বেশি থাকায় রাজধানীসহ দেশজুড়ে অস্বস্তিকর গরম অনুভূত হচ্ছে। বাড়তি তাপমাত্রার সঙ্গে বাতাসে আর্দ্রতা বেশি থাকায় রাজধানীসহ দেশজুড়ে অস্বস্তিকর গরম অনুভূত হচ্ছে। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1399045.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/22/101_hot_weather_chittagong_100517_10.jpg/ALTERNATES/w300/101_Hot_Weather_Chittagong_100517_10.jpg ফাইল ছবি
ভ্যাপসা গরমের এমন আবহাওয়া আরও দুয়েকদিন থাকতে পারে বলে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।

শরতের মাঝামাঝিতে এই আবহাওয়াকে স্বাভাবিক বলছেন আবহাওয়াবিদরা।

রোববার রাজধানীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিন দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয় যশোরে ৩৬ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় বাতাসে আর্দ্রতা ছিল ৮৮ শতাংশ।

এখন মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর কম সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে দুর্বল অবস্থায় বিরাজ করছে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য।

আবহাওয়াবিদ মো. শাহীনুর ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “বাতাসে আর্দ্রতা বেশি, দুদিন ধরে তাপমাত্রাও বাড়তি রয়েছে। তাই গরম বেশি অনুভূত হচ্ছে।”

ঢাকার বাইরে কোথাও কোথাও বৃষ্টি হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, সপ্তাহের শেষ দিকে বৃষ্টির প্রবণতা বাড়বে।

গত ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় সর্বোচ্চ ১০৫ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

সোমবারের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি বর্ষণ হতে পারে। সারা দেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

]]>
1338417 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/22/101_hot_weather_chittagong_100517_10.jpg/ALTERNATES/w300/101_Hot_Weather_Chittagong_100517_10.jpg ফাইল ছবি
13 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1399079 ফরিদপুর প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ফরিদপুর প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 20:37:17.0 2017-09-24 21:27:27.0 মামলা প্রত্যাহার না করায় ধর্ষিতাকে কুপিয়ে জখম মামলা প্রত্যাহার না করায় ধর্ষিতাকে কুপিয়ে জখম ফরিদপুরের সালথায় ধর্ষণের মামলা প্রত্যাহার না করায় ‘ধর্ষিতা’ কিশোরীকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফরিদপুরের সালথায় ধর্ষণের মামলা প্রত্যাহার না করায় ‘ধর্ষিতা’ কিশোরীকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। false http://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1399079.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/08/14/faridpur_map.jpg/ALTERNATES/w300/Faridpur_Map.jpg
শনিবার রাতে উপজেলার বল্লভদী ইউনিয়নের ফুলবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনায় আহত কিশোরীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আবুল কালাম আজাদ বলেন, মেয়েটিকে হাসপাতালের মহিলা সার্জারি ওয়ার্ডে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তার মাথা, হাত ও পিঠে অন্তত ১০ টি কোপের চিহ্ন রয়েছে। 

সালথা থানার ওসি কে এম আমিনুল হক বলেন, “ধর্ষণ মামলাটির তদন্ত প্রায় শেষ পর্যায়। এর মধ্যে আসামিরা ধর্ষিতাকে কুপিয়ে জখম করেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে খোঁজ-খবর নেওয়া হয়েছে।”

ওই কিশোরীর পরিবার জানায়, গত ১৫ মে রাতে মেয়েটিকে বাড়ির পাশে একটি বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে কয়েক ব্যক্তি। এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে গত ১৬ মে ছয়জনকে আসামি করে সালথা থানায় ধর্ষণের মামলা করেন।

কিশোরীর বাবা বলেন, মামলার পর থেকে আসামিরা মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল। তা না করায় শনিবার রাতে মামলার প্রধান আসামি দিপু মোল্লা, তার সহযোগী মাহফুজ মিয়া, মারকুজ মিয়া, ফারুক মিয়া ও মিলন মিয়াসহ ১৫-১৬ জন তাদের বাড়ি গিয়ে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মেয়েকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে।

বল্লভদী ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম বলেন, ঘটনার সময় ওই কিশোরী, তার ছোট ভাই, ছোট বোন ও মা বাড়িতে ছিলেন। আসামিরা বাড়িতে চড়াও হয়ে ওই মেয়েটিকে কুপিয়ে জখম করে।

ওসি বলেন, মামলার আসামি মিন্টু মোল্লাকে কয়েক দিন আগে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তবে দিপু মোল্লাসহ বাকি আসামিরা পলাতক থাকায় তাদের ধরা সম্ভব হয়নি।

]]>
1379214 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/08/14/faridpur_map.jpg/ALTERNATES/w300/Faridpur_Map.jpg
14 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1399077 মৌলভীবাজার প্রতিনিধি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম মৌলভীবাজার প্রতিনিধি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 20:32:51.0 2017-09-24 20:32:51.0 মৌলভীবাজারে ধরা পড়ল ‘দলছুট’ রোহিঙ্গা শিশু মৌলভীবাজারে ধরা পড়ল ‘দলছুট’ রোহিঙ্গা শিশু মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ‘দলছুট’ এক রোহিঙ্গা শিশুকে আটক করেছে পুলিশ। মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ‘দলছুট’ এক রোহিঙ্গা শিশুকে আটক করেছে পুলিশ। false http://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1399077.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/09/24/moulvibazar.jpg/ALTERNATES/w300/Moulvibazar.jpg
শ্রীমঙ্গল থানা ওসি কেএম নজরুল ইসলাম জানান, রোববার শ্রীমঙ্গলের মুসলিমবাগ আবাসিক এলাকার একটি বাসা থেকে জিহাদুল ইসলাম (১১) নামে ওই শিশুকে আটক করা হয়।    

জিহাদুলের বাবা জসিম উদ্দিন ও মা শাহিনা আক্তার। তার বাড়ি মিয়ানমারের আরাকান রাজ্যের মন্ডু গ্রামে।

ওসি নজরুল বলেন, “শিশুটি কয়েকদিন আগে শ্রীমঙ্গলে আসে। স্থানীয় ইউপি সদস্যের কাছে শিশুটির বিষয়ে সংবাদ পাই। পরে তাকে ওই বাড়ি থেকে আটক করে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

“জিহাদুলের বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। তাদের নির্দেশ অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

জিহাদুল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলে, গত ১৭ সেপ্টেম্বর সে টেকনাফ থেকে ২০ রোহিঙ্গার একটি দলের সঙ্গে খাবারের সন্ধানে বাসে সিলেটের উদ্দেশে রওনা হয়।  আসার পথে  ফেনীতে সঙ্গীরা ধরা পড়লেও সে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

এরপর সে ফেনী রেল স্টেশনে আসে। পরে এক লোকের সহায়তায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় এসে ট্রেনে করে শ্রীমঙ্গলে আসে। ওই লোকই তাকে মুসলিমবাগ আবাসিক এলাকার সামছুল হকের বাসায় যাওয়ার ব্যবস্থা করেন।

]]>
1399073 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/09/24/moulvibazar.jpg/ALTERNATES/w300/Moulvibazar.jpg
15 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1399064 নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 20:11:32.0 2017-09-24 20:11:32.0 ‘ঘুষ’ নেওয়ার সময় গ্রেপ্তার সার্ভেয়ার ‘ঘুষ’ নেওয়ার সময় গ্রেপ্তার সার্ভেয়ার নারাণগঞ্জের রূপগঞ্জের ভূমি অফিসে বসে ঘুষ নেওয়ার সময় অফিসের সার্ভেয়ায় মো. আব্দুল হালিমকে গ্রেপ্তার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক। নারাণগঞ্জের রূপগঞ্জের ভূমি অফিসে বসে ঘুষ নেওয়ার সময় অফিসের সার্ভেয়ায় মো. আব্দুল হালিমকে গ্রেপ্তার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1399064.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2013/01/14/dudok.jpg2/ALTERNATES/w300/Dudok.jpg
রোববার ৬০ হাজার টাকা ঘুষ নেওয়ার সময় তাকে হাতে-নাতে গ্রেপ্তার করা হয় বলে কমিশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য জানিয়েছেন।

এ সময় আব্দুল হালিমের অফিসের আলমারি ও ড্রয়ার তল্লাশি করে আরও দুই লাখ ১০ হাজার টাকা পাওয়া যায়, যে টাকার কোনো উৎস সম্পর্কে জানাতে পারেননি তিনি।

দুদক কর্মকর্তা প্রণব বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “রূপগঞ্জে ২৯ শতাংশ ভূমির মালিক স্থানীয় সাইফুল ইসলামের পক্ষে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য আব্দুল হালিম এক লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেন। বিষয়টি সাইফুল দুদককে জানালে আইনানুগ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে ফাঁদ পেতে দুদকের বিশেষ দলের মাধ্যমে হালিমকে গ্রেপ্তার করা হয়।”

তাকে গ্রেপ্তারে বিশেষ দলের নেতৃত্ব দেন ঢাকা বিভাগের দুদক পরিচালক নাসিম আনোয়ার।

প্রণব কুমার জানান, সাইফুল ইসলাম বিভিন্ন দাগে ২৯ শতাংশ ভূমি রফিকুল ইসলামের কাছ থেকে কিনেছিলেন। গত বছরের ৮ অগাস্ট ভূমির ক্রেতার বিরুদ্ধে ভূমি অফিসে এক ব্যক্তি মামলা করেন। এই ঘটনায় সার্ভেয়ার আব্দুল হালিমকে তদন্তের জন্য দায়িত্ব দেন এসি ল্যান্ড।

“হালিম সরেজমিন জমি ক্রেতার দখলে দেখতে পান এবং ক্রেতাকে তার অফিসে যেতে বলেন। সার্ভেয়ার তখন সাইফুল ইসলামের কাছে ‘চা-নাস্তা বাবদ’ কিছু খরচ চাইলে তিনি এক হাজার টাকা দিতে চান। কিন্তু তিনি ১০ হাজার টাকা দাবি করলে সাইফুল ইসলামের শ্বশুরের মাধ্যমে বাধ্য হয়ে সেই টাকা সার্ভেয়ারের কাছে পাঠান।”

প্রণব জানান, সার্ভেয়ার ১০ হাজার টাকা নিয়েও সাইফুলের বিপক্ষে প্রতিবেদন দেওয়ার হুমকি দেন এবং এক লাখ টাকা পেলে পক্ষে প্রতিবেদন দেবেন বলে জানান। এরপর সাইফুল গত ১৪ সেপ্টেম্বর আরও ৩০ হাজার টাকা দেন। বাকী ৬০ হাজার টাকা দেওয়ার আগে তিনি কমিশনকে বিষয়টি জানান।

এই ঘটনায় দুদকের ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. রেজাউল করিম রূপগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন।

]]>
577987 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2013/01/14/dudok.jpg2/ALTERNATES/w300/Dudok.jpg
16 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1398910 সুলাইমান নিলয়, কক্সবাজার থেকে ফিরে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম সুলাইমান নিলয়, কক্সবাজার থেকে ফিরে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 15:25:18.0 2017-09-24 16:55:01.0 হিন্দু শরণার্থীদের অভিযোগ ‘রোহিঙ্গা জঙ্গিদের’ বিরুদ্ধে হিন্দু শরণার্থীদের অভিযোগ ‘রোহিঙ্গা জঙ্গিদের’ বিরুদ্ধে রাখাইন রাজ্যে হত্যা, লুটপাট, বাড়ি পোড়ানোর জন্য যখন রোহিঙ্গারা দুষছে মিয়ানরমারের সেনাবাহিনীকে; তখন পালিয়ে আসা হিন্দু শরণার্থীরা তাদের উপর হামলার জন্য দায়ী করছে ‘রোহিঙ্গা জঙ্গিদের’। রাখাইন রাজ্যে হত্যা, লুটপাট, বাড়ি পোড়ানোর জন্য যখন রোহিঙ্গারা দুষছে মিয়ানরমারের সেনাবাহিনীকে; তখন পালিয়ে আসা হিন্দু শরণার্থীরা তাদের উপর হামলার জন্য দায়ী করছে ‘রোহিঙ্গা জঙ্গিদের’। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1398910.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/15/01_kutupalong_hindu-rohingya-refugees-camp_15092017__0002.jpg/ALTERNATES/w300/01_Kutupalong_Hindu+Rohingya+Refugees+Camp_15092017__0002.jpg
রাখাইনে সাম্প্রতিক সহিংসতার পালিয়ে আসা ৪ লাখ শরণার্থীদের মধ্যে শ’ পাঁচেক হিন্দু রয়েছেন, যারা বৌদ্ধপ্রধান মিয়ানমারের বাংলাদেশ লাগোয়া রাজ্যটির বাসিন্দা।

কক্সবাজারের উখিয়ায় আশ্রয় নেওয়া এই শরণার্থীদের মধ্যে একজন হিন্দু শনিবার হত্যাকাণ্ডের শিকার হন। তাকে মুসলিম রোহিঙ্গারা খুন করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

তার আগে ওই শরণার্থী শিবির এলাকা ঘুরে কয়েকজন হিন্দু শরণার্থীর সঙ্গে কথা বললে তারা বলেন, রাখাইনে সহিংসতার মধ্যে তাদের উপর হামলা চালিয়েছিল ‘রোহিঙ্গা জঙ্গিরা’।

গত ২৫ অগাস্ট রাখাইনে সেনা ও পুলিশ ফাঁড়িতে ‘আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (এআরএসএ)’র হামলার পর শুরু হয় সেনা অভিযান। তারপর শরণার্থীদের ঢল নামে বাংলাদেশ সীমান্তে।

ওই অভিযানে রোহিঙ্গাদের নির্বিচারে হত্যা, ধর্ষণ ও বাড়ি পোড়ানো হয় বলে পালিয়ে আসা শরণার্থীরা জানান। ওই শরণার্থীর মিছিলে যোগ দেন সহিংসতায় ঘর হারানো হিন্দুরা।

হিন্দু সম্প্রদায়ের ব্যক্তিদের কাছে তাদের উপর হামলাকারীর পরিচয় জানতে চাইলে তারা সবাই ‘কালা পার্টি’র কথা বলেন। তাদের অন্তত ১০ জন বলেন, হামলকারীরা বার্মিজ, রাখাইন ভাষার পাশাপাশি রোহিঙ্গা ভাষায়ও কথা বলছিল।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন বলেন, “বার্মিজরা সাধারণত রোহিঙ্গা ভাষা জানে না। কালো কাপড়ে মুখ বাঁধা থাকলেও তাদেরকে দেখে রোহিঙ্গাই মনে হয়েছে।”

হিন্দুদের মধ্যে এক তরুণকে পাওয়া গেল, যিনি কোররবানির ঈদের আগে জীবিকার প্রয়োজনে বাংলাদেশে এসেছিলেন। সংঘাতের খবর পাওয়ার পর তার আর ফেরা হয়নি, বাংলাদেশে বসেই তিনি মা-বোন আর ভাতিজার মৃত্যুর খবর পান।

পালিয়ে আসা নিজ সম্প্রদায়ের অন্যদের দেওয়া তথ্য তুলে ধরে এই তরুণ সরাসরিই বলেন, হিন্দুদের উপর  হামলা চালিয়েছিল ‘রোহিঙ্গা জঙ্গিরা’।

“ওরা পোশাক পরেছে কালা, চোখ দুইটা দেখা যাচ্ছিল। একটা অস্ত্র, একটা বল্টু-এগুলো নিয়ে মারধর করেছে। কাডি ফেলছে।”

আক্রমণকারীরা রোহিঙ্গা এটা কীভাবে বোঝা গেল- এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “ওনারা (প্রতিবেশী) বলছে, বাড়িতে কে কে হামলা দিছিল। ওনারা বলেছে, জঙ্গিরা আছিল, রোহিঙ্গারা আছিল।”

মংডুর সাববাজারে যে এলাকায় এই তরুণের বাড়ি, সেখানে রোহিঙ্গারাই সংখ্যাগরিষ্ঠ ।

দেশে ফিরতে ভীত এই হিন্দু তরুণ বলেন, “আমার বাবা-মাকে কেটে ফেলছে, আমার ভয় লাগছে না? এত লোক পালিয়ে এসেছে এখানে, আমি একলা কীভাবে যাব?”

রোহিঙ্গারা তো চলে এসেছে- বলা হলে তিনি বলেন, “সবাই চলে আসছে, না কি সেখানে (কেউ কেউ) থাকছে সেটা বুঝতে পারছি না।”

মিয়ানমারে সহিংতার মুখে পালিয়ে আসা হিন্দু শরণার্থীদের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের কাছে হরি মন্দির ও লোকনাথ মন্দিরের পাশে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে।

মিয়ানমারে সহিংতার মুখে পালিয়ে আসা হিন্দু শরণার্থীদের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের কাছে হরি মন্দির ও লোকনাথ মন্দিরের পাশে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে।

হিন্দু শরণার্থী শিবিরে থাকা রাখাইনের চিকনছড়ির এলাকার এক প্রৌঢ় বলেন, “সেখানে (রাখাইনে) জঙ্গি পার্টি একটা ঢুকছে। সরকারের সাথে রোহিঙ্গা বলার দাবি আদায় করতে সন্ত্রাস ঢুকছে। এই সন্ত্রাসরাই আমাদেরকে নির্যাতন করতে আছে।”

তিনি বলেন, “আমি বলেছিলাম, আমরা হচ্ছি অল্প সংখ্যক। আমরা হিন্দু। (নিজেদেরকে) রোহিঙ্গা বলতে পারব না।”

হামলার বর্ণনা দিয়ে তিনি বলেন, “পাড়ার ৫০-৬০ জন মানুষকে সন্ত্রাসী-জঙ্গি পার্টিরা ৬-৭ দিন বন্দি করে রাখছে। পানিও খেতে পারব না। সাত দিন পর জঙ্গ শুরু হয়েছে, লড়াই বেঁধেছে, তখন আমরা রাস্তা পেয়েছি (পালানোর)।

“সামনে দিয়ে একটা খাল আছে, সেই খালে ঝাঁপ দিয়ে, নদীর মাঝে ঝাঁপ দিয়ে বনে ঢুকেছি। পাহাড়ে উঠে দেখি, আমাদের বাসা সব জ্বালিয়ে দিয়েছে।”

এর আগেও দুবার শরণার্থী হয়ে বাংলাদেশে এসেছিলেন এই হিন্দু ব্যক্তি। তার একবার রোহিঙ্গাদের একটি দল হামলা চালিয়েছিল বলে তার দাবি।

বাংলাদেশে আগে থেকে ৪ লাখের বেশি রোহিঙ্গা রয়েছে। তাদের জঙ্গি তৎপরতাসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ার কথা বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে।

আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি নামে যে সংগঠনটি কয়েক বছর আগে গড়ে উঠেছে, তার সঙ্গে আন্তর্জাতিক জঙ্গি গোষ্ঠীর যোগাযোগের সন্দেহও করেন অনেকে। হামলার পর সেনা অভিযানের মুখে দলটি যুদ্ধবিরতির ঘোষণা দেয়।

মিয়ানমারে বালুখালী থেকে আসা এক হিন্দু বৃদ্ধ বলেন, দুই পক্ষের লড়াই যখন শুরু হয়, তখন তাদের (হিন্দুদের) অস্তিত্বের কথা কারোরই খেয়াল থাকে না।

]]>
17 2 Home world_bn বিশ্ব news-bn 200 1398943 নিউজ ডেস্ক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিউজ ডেস্ক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 16:13:26.0 2017-09-24 17:06:26.0 খেলার মাঠে সৌদি নারীরা ‘কাচের দেয়াল’ ভেঙে খেলার মাঠে সৌদি নারীরা জাতীয় দিবসে প্রথমবারের মতো খেলার মাঠে ঢুকলেন কয়েকশ সৌদি নারী, রক্ষণশীলতার দেয়াল টপকে উপভোগ করলেন কনসার্ট, লোক নৃত্য ও আতশবাজির ঝলকানি। জাতীয় দিবসে প্রথমবারের মতো খেলার মাঠে ঢুকলেন কয়েকশ সৌদি নারী, রক্ষণশীলতার দেয়াল টপকে উপভোগ করলেন কনসার্ট, লোক নৃত্য ও আতশবাজির ঝলকানি। false http://bangla.bdnews24.com/world/article1398943.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/saudi-arabia-women-attend-a-rally-to-celebrate-the-87th-annual-national-day-of-saudi-arabia-in-riyadh.jpg/ALTERNATES/w300/Saudi+Arabia+women+attend+a+rally+to+celebrate+the+87th+annual+National+Day+of+Saudi+Arabia+in+Riyadh.jpg
শনিবার সৌদি আরবের কিং ফাহাদ স্টেডিয়াম ঐতিহাসিক এই মুহূর্তের সাক্ষী থাকলো বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে এনডিটিভি।

এর আগে স্টেডিয়ামটিতে হওয়া খেলা এবং সব অনুষ্ঠানে নারীদের প্রবেশাধিকার কঠোরভাবে নিষিদ্ধ ছিল।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এতদিন যে খেলার মাঠে কেবল পুরুষরাই যেতে পারতো সেই মাঠে প্রথমবারের মতো পরিবার পরিজন নিয়ে ঢুকে সাংস্কৃতিক আয়োজন ও নাটক উপভোগ করেছেন সৌদি নারীরা।

দেশটির ‘অভিভাবক ব্যবস্থা’ অনুযায়ী, পরিবারের পুরুষ সদস্য যেমন বাবা, ভাই কিংবা স্বামীর অনুমতি ছাড়া নারীরা পড়াশোনা, ভ্রমণ কিংবা অন্য কোনো কার্যক্রম করতে পারে না। আগে খেলার মাঠেও তাদের ঢোকা ছিল ‘বারণ’।

ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের প্রস্তাব করা অর্থনৈতিক ও সামাজিক সংস্কারের ‘ভিশন ২০৩০’ বাস্তবায়নে সৌদি রাজতন্ত্র তাদের আগের করা কঠোর আইনগুলো শিথিলের চেষ্টা করছে; এরই অংশ হিসেবে খেলার মাঠে নারীদের এই প্রবেশাধিকার।

“আশা করছি অদূর ভবিষ্যতে মাঠে ঢুকতে আমাদের কোনো ধরনের বাধার সম্মুখীন হতে হবে না,” বলেন উৎফুল্ল উম আবদুলরহমান; প্রথমবারের মত মাঠে বসে অনুষ্ঠান দেখতে উত্তরপশ্চিমের জেলা তাবুক থেকে এসেছেন তিনি।

পুরুষদের সমান সুযোগ থাকবে নারীদের- এমন প্রত্যাশা বহুবছর ধরে লালন করে আসার কথাও জানান তিনি।

রয়টার্স বলছে, খেলার মাঠে ঢোকা নারীদের মধ্যে দেখা গেছে বাঁধভাঙা উল্লাস, অনেকের হাতে ছিল সৌদি আরবের পতাকা, কেউ কেউ বোরকার সঙ্গে জড়িয়েছেন রঙিন পরচুলা। অনুষ্ঠানের উদ্দামতার সঙ্গে পুরো মাঠজুড়ে ছিল নারীদের আনন্দ চিৎকার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও অনেক সৌদি পুরুষ ‘ঐতিহাসিক’ এই মুহুর্তকে স্বাগত জানিয়েছেন; গেয়েছেন প্রশস্তি।

“মনে হচ্ছে নারীরাই সব টিকেট কিনে নিয়েছেন,” টুইটারে এক সৌদি পুরুষের সরস মন্তব্য।

কট্টর-রক্ষণশীল সৌদি আরবেই নারীদের জন্য সবচেয়ে কঠোর নিষেধাজ্ঞা বলবৎ; এটাই বিশ্বের একমাত্র দেশ যেখানে নারীরা গাড়ি চালাতে পারেননা। তবে সৌদি সরকার সামাজিক সংস্কারের যে কর্মসূচি নিয়েছে তা বাস্তবায়িত হলে সরকারি চাকরিতে নারীদের উপস্থিতি বেড়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বান্ধবীদের নিয়ে মাঠে আসা সুলতানারও তেমনটাই প্রত্যাশা।

“প্রথমবারের মতো স্টেডিয়ামে এসেছি, মনে হচ্ছে যেন আমি সৌদি নাগরিকের চেয়েও বেশি কিছু; এখন আমি আমার দেশের যে কোনোখানে যেতে পারি।”

দুই গালে জাতীয় পতাকার সবুজ ও সাদা এঁকে সরব চিৎকারে সুলতানার মতো কয়েকশ নারী জানান দিচ্ছেন ‘কাঁচের দেয়াল’ ভাঙার অনুভূতি। স্বপ্ন তাদের আরও বড়।

“আল্লাহ চাইলে কালকেই হয়তো নারীরা গাড়ি চালাতে কিংবা ভ্রমণের মতো আরও বড়, আরও ভালো কিছুর অনুমতি পাবে,” আশাবাদ সুলতানার।

]]>
1398942 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/saudi-arabia-women-attend-a-rally-to-celebrate-the-87th-annual-national-day-of-saudi-arabia-in-riyadh.jpg/ALTERNATES/w300/Saudi+Arabia+women+attend+a+rally+to+celebrate+the+87th+annual+National+Day+of+Saudi+Arabia+in+Riyadh.jpg
18 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1398789 নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 10:39:43.0 2017-09-24 10:39:43.0 বাড্ডায় অগ্নিকাণ্ডে মায়ের মৃত্যু, দুই শিশু দগ্ধ ঢাকার বাড্ডায় অগ্নিকাণ্ডে মায়ের মৃত্যু, দুই শিশু দগ্ধ রাজধানীর বাড্ডা এলাকায় একটি টিনশেড ঘরে অগ্নিকাণ্ডে নিহত হয়েছেন এক নারী; দগ্ধ হয়েছে তার দুই শিশু সন্তান। রাজধানীর বাড্ডা এলাকায় একটি টিনশেড ঘরে অগ্নিকাণ্ডে নিহত হয়েছেন এক নারী; দগ্ধ হয়েছে তার দুই শিশু সন্তান। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1398789.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2015/07/17/burn-unit-dhaka-medical-col.jpg/ALTERNATES/w300/burn-unit-dhaka-medical-col.jpg
শনিবার ভোররাতে বৈঠাখালী এলাকায় এই অগ্নিকাণ্ড ঘটে বলে বাড্ডা থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী জানিয়েছেন।

নিহতের নাম ইয়াসমিন (৩৮)। তার সন্তান আমানুল্লাহ (১১)ও সানজিদাকে (৮) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষের কর্মকর্তা জীবন মিয়া বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, টিনশেড ওই ঘরে আসবাবপত্রের কারখানা ছিল, পাশাপাশি লোকজনও থাকতেন।

ওসি ওয়াজেদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “রাত ৩টার দিকে আগুন লাগার খবর পেয়ে পুলিশ ইয়াসমিন ও তার দুই শিশুকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।”

ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক মো.বাচ্চু মিয়া বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, শরীরের ৭০ ভাগ পুড়ে গিয়েছিল ইয়াসমিনের। হাসপাতালে আনার পর তাকে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

আমানুল্লাহর শরীরের ৩০ ভাগ এবং সানজিদার দেহের ২৮ ভাগ পুড়েছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা। তারা হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি রয়েছে।

কী কারণে এই আগুন লেগেছে, তা এখনও নিশ্চিত নয়। অগ্নি নির্বাপক বাহিনীর কর্মকর্তাদের ধারণা, বৈদ্যুতিক গোলযোগ থেকে আগুন লাগতে পারে।

]]>
998462 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2015/07/17/burn-unit-dhaka-medical-col.jpg/ALTERNATES/w300/burn-unit-dhaka-medical-col.jpg
19 2 Home ctg চট্টগ্রাম news-bn 10023 1398984 চট্টগ্রাম ব্যুরো বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম চট্টগ্রাম ব্যুরো বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 17:48:58.0 2017-09-24 17:48:58.0 ইয়াবাসহ ধরা দুই রোহিঙ্গা ইয়াবাসহ ধরা দুই রোহিঙ্গা তিন হাজার ইয়াবাসহ দুই রোহিঙ্গা যুবককে গ্রেপ্তার করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম মেট্রো উপ-অঞ্চলের সদস্যরা। তিন হাজার ইয়াবাসহ দুই রোহিঙ্গা যুবককে গ্রেপ্তার করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম মেট্রো উপ-অঞ্চলের সদস্যরা। false http://bangla.bdnews24.com/ctg/article1398984.bdnews false https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/ctg-yaba.jpg/ALTERNATES/w300/ctg-yaba.jpg
রোববার বিকালে কোতোয়ালি থানার ফিরিঙ্গী বাজার থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারদের মধ্যে মো. ইলিয়াছ (২২) উখিয়া কুতুপালং ও মো. হাসান (৩৫) টেকনাফের লেদা শরণার্থী শিবিরের বাসিন্দা।

অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম মেট্রো উপ-অঞ্চলের উপ পরিচালক শামীম আহমেদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, গ্রেপ্তার দুইজন ইয়াবা নিয়ে টেকনাফ থেকে চট্টগ্রামে এসেছেন। শাহ আমানত সেতু এলাকায় তারা বাস থেকে নেমে হেঁটে কোতোয়ালির দিকে আসছিলেন।

“তারা ইয়াবাগুলো পুটলি করে পেটের ভেতরে করে নিয়ে আসছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাদের আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে ইয়াবা রাখার কথা স্বীকার করেন।”

]]>
1398983 https://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/09/24/ctg-yaba.jpg/ALTERNATES/w300/ctg-yaba.jpg
20 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1399039 আদালত প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম আদালত প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-09-24 19:36:25.0 2017-09-24 19:57:00.0 জঙ্গি অর্থায়নের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১১ জন কারাগারে জঙ্গি অর্থায়নের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১১ জন কারাগারে জঙ্গি অর্থায়নের অভিযোগে রাজশাহী মহানগরীর হোটেল নাইস ইন্টারন্যাশনালের ব্যবস্থাপক নাহিদুদ্দোজা মিঞা ওরফে নাহিদসহ গ্রেপ্তার ১১ জনকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। জঙ্গি অর্থায়নের অভিযোগে রাজশাহী মহানগরীর হোটেল নাইস ইন্টারন্যাশনালের ব্যবস্থাপক নাহিদুদ্দোজা মিঞা ওরফে নাহিদসহ গ্রেপ্তার ১১ জনকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1399039.bdnews false
রোববার ঢাকা মহানগর হাকিম গোলাম নবী তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

অন্য আসামিরা হলেন- হেলাল উদ্দিন (২৯), আল আমিন (২৩), ফয়সাল ওরফে তুহিন (৩৭), মঈন খান (৩৩), আমজাদ হোসেন (৩৪), তাজুল ইসলাম (২৭), জাহেদুল্লাহ (২৯), আল-মামুন (২০), আল-আমিন (২৩) ও টলি নাথ (৪০)।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রূপনগর থানার পরিদর্শক মো. ইলিয়াস আসামিদের আদালতে হাজির করে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে দায়ের করা মামলার সুষ্ঠু তদন্ত এবং প্রকৃত রহস্য উদঘাটনের জন্য প্রত্যেকের দশ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

শুনানির জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকায় আদালত রিমান্ড শুনানির দিন সোমবার ধার্য করে আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

শনিবার ভোরে ঢাকা, রাজশাহী ও খুলনার বিভিন্ন এলাকা থেকে এদের গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৪ এর অপারেশন দল।

]]>