bdnews24.com - Home http://bangla.bdnews24.com/ The RSS feed of bdnews24.com en Bangladesh News 24 Hours Ltd. 2016-12-10 18:04:31.0 2016-12-10 18:04:31.0 Home customGroupedContent 1 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1325138 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 22:48:22.0 2017-04-24 23:50:38.0 রায় প্রকাশ, যাবজ্জীবন মানে আমৃত্যু কারাবাস যাবজ্জীবন মানে আমৃত্যু কারাবাস, রায় প্রকাশ এক হত্যা মামলার চূড়ান্ত রায়ে দুই আসামির মৃত‌্যুদণ্ডের সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়ে তা আমৃত্যু কারাবাস হবে বলে দেওয়া আপিল বিভাগের রায় প্রকাশিত হয়েছে। এক হত্যা মামলার চূড়ান্ত রায়ে দুই আসামির মৃত‌্যুদণ্ডের সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়ে তা আমৃত্যু কারাবাস হবে বলে দেওয়া আপিল বিভাগের রায় প্রকাশিত হয়েছে। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1325138.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/03/27/high-court_supreme-court_hc.jpg/ALTERNATES/w300/High-Court_Supreme-Court_HC.jpg
১৬ বছর আগে গাজীপুরের জামান হত‌্যা মামলায় দুই আসামির আপিল শুনানি শেষে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা নেতৃত্বাধীন চার বিচারকের আপিল বেঞ্চ গত ১৪ ফেব্রুয়ারি রায় দিয়েছিল।

সোমবার সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে পূর্ণাঙ্গ রায়টি প্রকাশিত হয়েছে।

এতে আদালত বলেছে, দণ্ডবিধির ৫৩ ধারা ও ৪৫ ধারায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হবে আমৃত্যু কারাবাস।

এর ফলে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত সবাইকে আমৃত্যু কারাগারে থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত আসামিদের বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে এই রায়ের অনুলিপি স্বরাষ্ট্র সচিব এবং কারা মহাপরিদর্শককে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

ফৌজদারি কার্যবিধিতে বলা হয়েছে, ‘দণ্ডের মেয়াদসমূহের ভগ্নাংশসমূহ হিসাব করার ক্ষেত্রে যাবজ্জীবন কারাবাসকে ৩০ বছর মেয়াদী কারাবাসের সমতুল্য বলে গণ্য হবে।’

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি রায়ের পর আসামি পক্ষের আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছিলেন, তিনি প্রধান বিচারপতিকে বলেছিলেন যে পূর্ণাঙ্গ রায়ে যেন আমৃত্যু কারাবাসের বিষয়ে মন্তব্য না থাকে।

“আমি বলেছি, প্রধান বিচারপতির এ মন্তব্য যেন মূল রায়ে না থাকে। যদি থাকে, তাহলে সব মামলার আসামিদের ক্ষেত্রে এটা প্রযোজ্য হবে।”

সেদিন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছিলেন, আদালত বলেছে যে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড অর্থ ৩০ বছর নয়, বরং আমৃত্যু। স্বাভাবিক মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত জেলে থাকতে হবে।

“প্রধান বিচারপতি বলেছেন, রায়ে এ বিষয়টি ব্যাখ্যা করা হবে। উনার মতামত দেবেন যে আদালত যদি মনে করেন যে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেওয়া হবে, তাহলে তাকে মৃত্যু অবধি জেলে থাকতে হবে।”

ব্রিটিশ আমলে করা আইন ও কারাবিধির বর্তমান প্রেক্ষাপটে নানা অসঙ্গতির কথা তুলে ধরতে গিয়ে বিচারপতি এস কে সিনহা আদালতের বাইরে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড নিয়ে বিভ্রান্তির কথা বলে আসছিলেন।

গত বছরের ২৬ জুন গাজীপুরে এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেছিলেন, “যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি বলতে আপনারা মনে করেন ৩০ বছর। ধরে নেয়, সব জায়গায়। প্রকৃত পক্ষে এটার অপব্যাখ্যা হচ্ছে। যাবজ্জীবন অর্থ হল একেবারে যাবজ্জীবন, রেস্ট অফ দ্য লাইফ।”

এরপর আদালতে দেওয়া রায়েও একই মত প্রকাশ করেন তিনি।

আদালত তার অভিমতে বলেছে, দণ্ডবিধির ৫৩ ধারা অনুযায়ী যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের অর্থ ৪৫ ধারার সঙ্গে মিলিয়ে পড়তে হবে। সেক্ষেত্রে দেখা যায় যাবজ্জীবন মানে আমৃত্যু কারাদণ্ড।

পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের পর অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সোমবার রাতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আদালত তো এখানে নতুন আইন করছে না। আইনের একটা ব্যাখ্যা দিচ্ছে। এই আইনটা যদি এতদিন সবাই না বুঝে থাকে, এখন আদালত যে ব্যাখ্যা দেয় সেটা মানতে হবে।”

“এখন যারা জেলে আছে, সবার ক্ষেত্রেই এটা প্রযোজ্য হবে,” বলেন তিনি।

তবে তিনি একইসঙ্গে বলেন, পূর্ণাঙ্গ রায় ভালোভাবে পড়ে এবিষয়ে বিস্তারিত বলা যাবে।

“এর মধ্যে কেউ বের হয়ে গিয়ে থাকলে তাকে তো আবার জেলে ঢোকানো যাবে না। তবে সর্বোচ্চ আদালতের ব্যাখ্যা মানতে হবে।”

কারাবিধিতে আসামি রেয়াত পেলে দণ্ড আরও কমে আসে। কিন্তু আমৃত্যু সাজা হলে রেয়াত খাটবে না।

অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, “সাধারণ কয়েদিদের ক্ষেত্রে তো আবার জেল কোড প্রযোজ্য। সেখানে যদি কেউ রেয়াত পায়, সেটার কী হবে- সেটা পুরো রায় পড়ে বুঝতে হবে।”

রায়ের পর্যবেক্ষণে সর্বোচ্চ আদালত বলেছে, দণ্ডবিধির ৫৭ ধারা সেখানেই প্রযোজ্য হবে, যেখানে সর্বোচ্চ দণ্ড হিসেবে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এ ধরনের বিধান যদি করা না হয়, তখন সাজার ভগ্নাংশ গণনা করাটা অসম্ভব হয়ে পড়বে। সাজা কমানোর (রেয়াত প্রদান) ক্ষেত্রে কারবিধি প্রশাসনিক আদেশ হিসেবে বিবেচিত।

২০০১ সালে গাজীপুরে জামান নামের এক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যার মামলার চূড়ান্ত রায়ে সর্বোচ্চ আদালতের এই পর্যবেক্ষণ আসে।

ওই ঘটনায় নিহতের বাবা সিরাজুল ইসলাম গাজীপুর মডেল থানায় এই হত্যা মামলা দায়ের করেন।

দ্রুত বিচার আদালত ২০০৩ সালে এ মামলার রায়ে তিন আসামি আনোয়ার হোসেন, আতাউর রহমান ও কামরুল ইসলামকে মৃত‌্যুদণ্ড দেয়। হাই কোর্টেও সর্বোচ্চ সাজার রায় বহাল থাকে।

এরপর আসামি আনোয়ার ও আতাউর সাজা কমানোর জন‌্য আপিল বিভাগে আবেদন করেন। কামরুল পলাতক থাকায় আপিলের সুযোগ পাননি। 

দুই আসামির আপিল শুনানি করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায় দেয় আপিল বিভাগ, যা আমৃত্যু কারাবাস হিসেবে গণ্য হবে।

]]>
1126693 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/03/27/high-court_supreme-court_hc.jpg/ALTERNATES/w300/High-Court_Supreme-Court_HC.jpg 2 news-district সমগ্র বাংলাদেশ 9945 1174390 2016-06-26 18:20:50.0 যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের ব্যাখ্যা দিলেন প্রধান বিচারপতি 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1288567 2017-02-14 17:34:41.0 দুই আসামির জন‌্য যাবজ্জীবন মানে আমৃত্যু কারাবাস
2 2 Home business_bn বাণিজ্য news-bn 213 1324891 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 17:57:21.0 2017-04-24 20:36:50.0 বাংলাদেশ ছাড়ছে শেভরন চীনা কোম্পানিকে ব্যবসা দিয়ে বাংলাদেশ ছাড়ছে শেভরন চীনের হিমালয় এনার্জি কোম্পানি লিমিটেডের হাতে ব্যবসা ছেড়ে দিয়ে বাংলাদেশ ছাড়ছে যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিতীয় বৃহত্তম তেল-গ্যাস কোম্পানি শেভরন। চীনের কনসোর্টিয়াম হিমালয় এনার্জি কোম্পানি লিমিটেডের হাতে ২ বিলিয়ন ডলারের ব্যবসা ছেড়ে দিয়ে বাংলাদেশ ছাড়ছে যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিতীয় বৃহত্তম তেল-গ্যাস কোম্পানি শেভরন। false http://bangla.bdnews24.com/business/article1324891.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/bibiyana-gas-plant.jpg/ALTERNATES/w300/Bibiyana+Gas+Plant.jpg বিবিয়ানা গ্যাসক্ষেত্র
সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তারা জানিয়েছে, শেভরন করপোরেশন বাংলাদেশে তাদের তিনটি গ্যাসক্ষেত্র বিক্রি করে দেওয়ার বিষয়ে হিমালয় এনার্জির সঙ্গে সমঝোতায় পৌঁছেছে। 

তবে কত টাকায় এই ব্যবসা হাতবদল হচ্ছে, সে বিষয়ে কোনো তথ্য দেওয়া হয়নি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

পেট্রোবাংলার সঙ্গে উৎপাদন-বণ্টন চুক্তির আওতায় বাংলাদেশে তিনটি ব্লকে বিবিয়ানা, মৌলভীবাজার ও জালালাবাদ ক্ষেত্র থেকে গ্যাস উত্তোলন করে আসছে শেভরন। 

তাদের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, ওই তিন ক্ষেত্রে থেকে প্রতিদিন গড়ে ৭২ কোটি ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করা হয়, যা বাংলাদেশের প্রতিদিনের গ্যাস সরবরাহের প্রায় ৫৫ শতাংশ।

এছাড়া রাষ্ট্রায়ত্ত বিভিন্ন কোম্পানি এবং বিদেশি কোম্পানি তাল্লো ২৩টি ক্ষেত্রে থেকে বাকি ৪৫ শতাংশ গ্যাসের যোগান দেয়।  

গ্যাস ছাড়াও তিনটি ক্ষেত্র থেকে উপজাত হিসেবে প্রতিদিন তিন হাজার ব্যারেল তরল হাইড্রোকার্বন উৎপাদন করে আসছে শেভরন।  

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই তিন গ্যাসক্ষেত্রের সম্পদমূল্য প্রায় দুই বিলিয়ন ডলার। শেভরনের সঙ্গে হিমালয়ের চুক্তি চূড়ান্ত হলে এটাই হবে বাংলাদেশে চীনের প্রথম বড় কোনো বিনিয়োগ।  

গত দুই বছরে বিশ্ব বাজারে জ্বালানি তেলের দাম পড়ে যাওয়ায় লোকসান সামাল দিতে শেভরন বাংলাদেশে তাদের ব্যবসা গুটিয়ে নিচ্ছে বলে বেশ কিছুদিন ধরে খবর আসছিল সংবাদমাধ্যমে।  

এর মধ্যে গত বছর অক্টোবরে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক এই কোম্পানি জানায়, ২০১৭ সালে প্রায় হাজার কোটি ডলারের সম্পদ তারা বিক্রি করে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে, যার মধ্যে বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপিন্সের বেশ কয়েকটি প্রকল্প থাকছে। 

রয়টার্স গত ফেব্রুয়ারিতে এক প্রতিবেদনে জানায়, চায়না ঝেনহুয়া অয়েল বাংলাদেশে শেভরনের গ্যাসক্ষেত্র কিনে নিতে প্রাথমিক চুক্তি করেছে।

এই ঝেনহুয়া অয়েল এবং ইনভেস্টমেন্ট ফার্ম সিএনআইসি করপোরেশনের কনসোর্টিয়ামই হিমালয় এনার্জি কোম্পানি লিমিটেড।

চায়না নিংবো ইন্টারন্যাশনাল কোঅপারেশন কোম্পানি লিমিডেট- সিএনআইসি একটি রাষ্ট্রয়াত্ত বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান, যার যাত্রা শুরু হয়েছিল ২০১২ সালে, হংকংয়ে। মূলত বিদেশে চীনা বিনিয়োগের বিষয়টি দেখাই এ কোম্পোনির কাজ।

ঝেনহুয়া অয়েলের একজন মুখপাত্রের করাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, শেভরনের সঙ্গে হিমালয় এনার্জির চুক্তি চূড়ান্ত করার আগে তাদের চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেতে হবে। 

এদিকে জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদকে উদ্ধৃত করে রয়টার্স লিখেছে, শেভরনের সম্পদ কিনে নেওয়া বাংলাদেশের জন্য লাভজনক হবে কি না, তা এখনও যাচাই করে দেখছে ব্রিটিশ পরামর্শক প্রতিষ্ঠান উড ম্যাকেঞ্জি।

“পরামর্শকের প্রতিবেদন হাতে আসার আগে আমরা তো তাড়াহুড়া করে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারি না। আমরা আশা করব, আমাদের অনুরোধ শেভরন রাখবে,” বলেন নসরুল হামিদ।

শেভরণ গত বছর তাদের সম্পদ বিক্রির প্রাথমিক ঘোষণা দেওয়ার পর বাংলাদেশ সরকার তা কিনে নেওয়ার আগ্রহ দেখায় এবং মার্চে  উড ম্যাকেঞ্জিকে পরামর্শক নিয়োগ করে।  

]]>
1324889 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/bibiyana-gas-plant.jpg/ALTERNATES/w300/Bibiyana+Gas+Plant.jpg বিবিয়ানা গ্যাসক্ষেত্র 1324915 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/chevron.jpg/ALTERNATES/w300/Chevron.jpg
3 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1325097 মঈনুল হক চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম মঈনুল হক চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 21:46:15.0 2017-04-24 21:52:22.0 ৩৫ বছরের মধ্যে বৃষ্টিবহুল এপ্রিল ৩৫ বছরের মধ্যে বৃষ্টিবহুল এপ্রিল এবার এপ্রিল মাসে স্বাভাবিকের চেয়ে ১২০ শতাংশ বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে, এর চেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছিল ১৯৮১ সালে। এপ্রিল মাসে বাংলাদেশে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ৪ হাজার ৫৩ মিলিমিটার। এবার  সপ্তাহ বাকি থাকতেই রেকর্ড হয়ে গেছে ৮ হাজার ৯০৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাতের। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1325097.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/03/05/33_rain_tsc_050317_0011.jpg/ALTERNATES/w300/33_Rain_TSC_050317_0011.jpg রাজধানীতে বৃষ্টির ছবিটি তুলেছেন আব্দুল মান্নান
৩৫ বছরের মধ্যে এপ্রিল মাসে এবারের চেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত আর হয়নি বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। এর চেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছিল ১৯৮১ সালে, তখন ১০ হাজার মিলিমিটার ছাড়িয়েছিল।

এবার বৈশাখ শুরুর আগে থেকে বৃষ্টি হচ্ছে প্রায় সারাদেশে। এপ্রিলে কালবৈশাখী ঝড় স্বাভাবিক চিত্র হলেও এবার যতক্ষণ বৃষ্টি হচ্ছে ততক্ষণ মুষলধারে ঝরছে, যা সাধারণত বর্ষাকালেই দেখা যায়।

অনেক বছর পর এ ধরনের ভারি বর্ষণকে ‘ক্লাইমেট ভ্যারিয়েবিলি’ বলছেন আবহাওয়াবিদরা। বঙ্গোপসাগরে উচ্চচাপ বলয় বেশি দুর্বল থাকায় পুবালি ও পশ্চিমা লঘুচাপের সক্রিয়তাকে অতি বর্ষণের কারণ দেখাচ্ছেন তারা।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, সাধারণত এপ্রিল মাসে স্বাভাবিকের চেয়ে কম বৃষ্টি হয়ে থাকে। মাঝে মাঝে বৃষ্টি হলেও তা স্বাভাবিকের চেয়ে ৪৭-৭৬ শতাংশ বেশি। কিন্তু এবার স্বাভাবিকের চেয়ে ১১৯ দশমিক ৭ শতাংশ বেশি বৃষ্টি হচ্ছে।

এপ্রিলের বিভিন্ন দিনে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড ঘেঁটে দেখা যায়, ২ এপ্রিল সিলেটে ৭১ মিলিমিটার, ৩ এপ্রিল সিলেটে ৮১ মিলিমিটার, ৪ এপ্রিল চট্টগ্রামে ৫৮ মিলিমিটার, ৫ এপ্রিল শ্রীমঙ্গলে ১২২ মিলিমিটার, ৭ এপ্রিল সিলেটে ৬২ মিলিমিটার, ৮ এপ্রিল নেত্রকোণায় ২১ মিলিমিটার, ১৫ এপ্রিল দিনাজপুরে ৩৬ মিলিমিটার, ১৮ এপ্রিল তেঁতুলিয়ায় ৩৩ মিলিমিটার, ১৯ এপ্রিল মাদারীপুরে ১১৪ মিলিমিটার, ২০ এপ্রিল শ্রীমঙ্গলে ১৯৪ মিলিমিটার,  ২১ এপ্রিল দিনাজপুরে ৯৭ মিলিমিটার, ২২ এপ্রিল মাইজদীতে ৯৮ মিলিমিটার ও ২৩ এপ্রিল রাঙ্গামাটিতে ১১৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সোমবার পর্যন্ত চলতি মাসে সারা দেশে স্বাভাবিকের চেয়ে ১১৯.৭ শতাংশ বেশি বৃষ্টি হয়েছে।

“এটা বেশ ব্যতিক্রম বলতে হবে। পশ্চিমা ও পুবালি লঘুচাপের সংমিশ্রণের ফলে এবার বৃষ্টি বেশি হয়েছে।”

রেকর্ড ঘেঁটে তিনি জানান, ১৯৮১ সালে স্বাভাবিকের চেয়ে ১৬৮ শতাংশ বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছিল। ১৯৮২, ১৯৮৩, ১৯৮৭, ১৯৯৮, ২০১১, ২০১২ ও ২০১৫ সালেও স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি বৃষ্টি হলেও তা এবারের চেয়ে কম।

বৃষ্টির আগে মেঘের ঘনঘটা

বৃষ্টির আগে মেঘের ঘনঘটা

এবারের এপ্রিল মাসের ব্যতিক্রমী আবহাওয়াকে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব বলে মনে করছেন না আবহাওয়া অধিদপ্তরের সাবেক পরিচালক সমরেন্দ্র কর্মকার।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “২০-৩০ বছরের ব্যবধানে আবহাওয়ার এমন রূপ থাকে। এবার বঙ্গোপসাগরে উচ্চচাপ বলয় দুর্বল থাকায় জলীয় বাষ্প বেশি থেকেছে টানা কিছুদিন, এতে ভারি বর্ষণ হয়েছে। এটাকে ক্লাইমেট ভ্যারিয়েবিলিটি বা জলবায়ু বৈচিত্র্য বলা যায়।”

এ আবহাওয়াবিদ বলেন, উচ্চচাপ বলয় যত শক্তিশালী হয় কালবৈশাখী ঝড় তত কম হয়। এবার দুর্বল থাকার কারণে পুবালি-পশ্চিমা লঘুচাপের সংমিশ্রণ বাংলাদেশের উপর বেশি সক্রিয় হয়েছে বলে বর্ষণ বেশি হচ্ছে।

তবে উচ্চচাপ বলয়ের দুর্বলতা কেটে যাওয়ায় আগামী দু-একদিনের মধ্যে বৃষ্টি কমে আসবে বলে মনে করেন সমরেন্দ্র কর্মকার।

তবে জলীয় বাষ্প বেশি থাকায় তাপমাত্রা বাড়লে তা উপরে উঠে মেঘ হয়ে ফের মাঝারি থেকে ভারি বর্ষণের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না তিনি।

অসময়ের ভারি বর্ষণের সঙ্গে হাওর অঞ্চলের আকস্মিক বন্যায় ক্ষয়ক্ষতিতে এবার জনদুর্ভোগ শুরু হয়েছে বর্ষার আগেই।

সুনামগঞ্জে তলিয়ে যাওয়া হাওর

সুনামগঞ্জে তলিয়ে যাওয়া হাওর

বুয়েটের পানি ও বন্যা ব্যবস্থাপনা ইনস্টিটিউটের সিনিয়র রিসার্চ ফেলো মোহন কুমার দাস বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এপ্রিল মাসে এর আগে ২০০০, ২০০২, ২০০৪, ২০১০, ২০১৬ সালে হাওর অঞ্চলসহ কিছু এলাকা প্লাবিত হয়েছিল।

এবার সিলেট, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ ও নেত্রকোনার হাওর এলাকায় বোরো ধান তলিয়ে যাওয়ায় সব হারিয়েছেন কয়েক লাখ কৃষক।

গত ২০ বছরের পরিসংখ্যান তুলে ধরে সোমবার পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, এবার হাওর তলিয়ে যাওয়ার বিষয়টি অপ্রত্যাশিত। ২৯ মার্চ ওইসব এলাকা প্লাবিত হওয়ার নজির নেই।

এই ধরনের পরিস্থিতি মোকাবেলায় আগাম প্রস্তুতি রাখার পরামর্শ দেন মোহন দাস।

“সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে দুর্যোগ মোকাবেলায় আগাম প্রস্তুতি নিতে হবে, আগাম পূর্বাভাসকে কাজে লাগাতে হবে। সেই সঙ্গে টেকসই উন্নয়নে সমন্বত কর্মপরিকল্পনা নেওয়ারও সময় এসেছে।”

]]>
1298487 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/03/05/33_rain_tsc_050317_0011.jpg/ALTERNATES/w300/33_Rain_TSC_050317_0011.jpg রাজধানীতে বৃষ্টির ছবিটি তুলেছেন আব্দুল মান্নান 1314833 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/05/34_football_rain_mohakhali_050417_0002.jpg/ALTERNATES/w300/34_Football_Rain_Mohakhali_050417_0002.jpg চৈত্রের বৃষ্টিতে পানিতে ডুবে যাওয়া মাঠে ফুটবল নিয়ে কিশোরদের এই দুরন্তপনা। ছবি: আব্দুল মান্নান 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1324775 2017-04-24 13:58:04.0 বিরূপ আবহাওয়ায় নৌ চলাচলে সতর্কতা 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1324702 2017-04-24 13:07:17.0 আবহাওয়ার উন্নতি হতে পারে বুধবার 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1324449 2017-04-23 22:18:03.0 ঢাকার আকাশে নিচে নেমে এল মেঘ
4 2 Home glitz গ্লিটজ news-bn 203 1325167 নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-25 00:21:01.0 2017-04-25 00:28:45.0 শাকিব খানকে বয়কটের ঘোষণা নির্মাতাদের শাকিব খানকে বয়কটের ঘোষণা নির্মাতাদের নায়িকা অপু বিশ্বাসের সঙ্গে প্রেম-বিয়ে নিয়ে লুকোছাপায় বিতর্কের পর গণমাধ্যমে চলচ্চিত্র নির্মাতাদের নিয়ে ‘কটূক্তি ও মানহানিকর’ বক্তব্যের অভিযোগে শাকিব খানকে নিয়ে সিনেমা নির্মাণে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি। নায়িকা অপু বিশ্বাসের সঙ্গে প্রেম-বিয়ের লুকোছাপায় বিতর্কের পর গণমাধ্যমে নির্মাতাদের নিয়ে ‘কটূক্তি ও মানহানিকর’ বক্তব্যের অভিযোগে চলচ্চিত্র সংক্রান্ত সব কাজে শাকিব খানকে সাময়িক বয়কটের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি। false http://bangla.bdnews24.com/glitz/article1325167.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/19/sakib-khan.jpg/ALTERNATES/w300/sakib+khan.jpg
সোমবার বিকালে সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ ঘোষণা আসে।

এতে বলা হয়, সম্প্রতি শাকিব খান জাতীয় পত্রিকা ও মিডিয়াতে চলচ্চিত্র পরিচালকদের উদ্দেশ্য করে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ায় সমিতির ভাবমূর্তি ও সদস্যদের সম্মান রক্ষায় কার্যনির্বাহী পরিষদের সিদ্ধান্তে তার বিরুদ্ধে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

এর ‘সম্মানজনক’ সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত তাকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ সংক্রান্ত সব ধরনের কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার জন্য চলচ্চিত্র নির্মাতাদের প্রতি অনুরোধ করা হয়েছে।

পরে বদিউল আলম খোকন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “শাকিব একের পর এক গণমাধ্যমে আমাদের নামে আজেবাজে কথা বলা যাচ্ছে। আমরাই শাকিবকে আজকের অবস্থানে এনেছি। শাকিব এখন আমাদের বিরুদ্ধেই কথা বলছে। আমাদের মানহানি হয়েছে। আমরা শাকিবকে নিয়ে আপাতত সিনেমা বানাচ্ছি না।”

নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকাকালীন সময়ে পরিচালকদের কেউ তাকে নিয়ে সিনেমা সংশ্লিষ্ট কোনো কাজ করলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবেও জানান বদিউল আলম খোকন।

নোটিশের বিষয়ে শাকিব খান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমি উকিল নোটিশের জবাব দেব। পরিস্থিতি ওরা জটিল করতে চাইছে।”

পরে এ নিয়ে আর মন্তব্য করতে রাজি হননি ঢাকাই সিনেমার এ তারকা।

চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসের সঙ্গে প্রেম-বিয়ে ও সন্তানের বিষয়ে গোপনীয়তা বিষয়টি এপ্রিলের প্রথমার্ধে গণমাধ্যমের আলোচনায় আসার পর এক সাক্ষাৎকারে পরিচালকদের নিয়ে মন্তব্য করেন শাকিব খান।

এফডিসিতে অনেক পরিচালক কাজ না করে আড্ডা দেন বলে শাকিবের মন্তব্যে পরিচালক সমিতির ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানানোর পর এক সংবাদ সম্মেলনে শাকিব বলেছিলেন, “একটি দৈনিক পত্রিকায় সাক্ষাৎকার দিয়েছি। সেখানে আমি খারাপ কিছু বলিনি। আর এরকম কথা এর আগেও অনেকে বলেছেন। পরিচালক সমিতি শিল্পীকে উকিল নোটিশ দিতে পারে না।”

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি শাকিব খান ‘পেশীশক্তি’র প্রভাবে শিল্পী সমিতির নির্বাচনকে পণ্ড করতে চাইছেন বলে চলচ্চিত্রপাড়ায় অভিযোগ রয়েছে।

এসব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে শাকিব বলেছেন, পরিচালক সমিতির সঙ্গে তার সুরাহা হয়ে গেলে ৫ মে শিল্পী সমিতির নির্বাচনটি অনুষ্ঠিত হবে।

]]>
1322403 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/19/sakib-khan.jpg/ALTERNATES/w300/sakib+khan.jpg 1325170 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/25/directors-counsil-screensho.jpg/ALTERNATES/w300/Directors-counsil-Screensho.jpg 2 news-bn গ্লিটজ 203 1322974 2017-04-20 18:59:38.0 শাকিব খানের বিরুদ্ধে উকিল নোটিশ পাঠানোর প্রস্তুতি 2 news-bn গ্লিটজ 203 1323921 2017-04-22 19:40:27.0 সমঝোতা হলে নির্বাচন হবে : শাকিব খান
5 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1325119 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 22:12:15.0 2017-04-24 23:38:03.0 বিএনপির কাছে হাওর দূষণের প্রমাণ চাইলেন শেখ হাসিনা বিএনপির কাছে হাওর দূষণের প্রমাণ চাইলেন প্রধানমন্ত্রী  “বিএনপির কোন এক নেতা মহাজ্ঞানী, মহাবিজ্ঞানী বলে দিলেন, ভারত থেকে ইউরেনিয়াম এসে এই অঞ্চলের মাছ মেরে ফেলছে।” সুনামগঞ্জে হাওরের পানিতে তেজষ্ক্রিয় দূষণে মাছ ও জলজ প্রাণী মারা যাচ্ছে বলে বিএনপির দাবির সপক্ষে প্রমাণ চেয়েছেন  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1325119.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/pm--4--ed.jpg/ALTERNATES/w300/PM-%284%29-ed.jpg স্থানীয় সরকার নির্বাচন মনোনয়ন বোর্ড বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
সোমবার সন্ধ্যায় গণভবনে স্থানীয় সরকার নির্বাচন মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, “আমি বলব, তারা যে কথাটা বলছে; সেটার প্রমাণ নিয়ে উপস্থিত হোক।

“এটা বৈজ্ঞানিক বিষয়, এটা বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণ হবে। ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষা করা হবে। তারা ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষা করে এভাবে দেখাতে পারলে; জনগণ বিশ্বাস করবে। না হলে, তাদের এই মিথ্যা অপপ্রচারে জনগণ কখনো কান দেবে না। অযথা মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে।”

সম্প্রতি অসময়ের ঢলে তলিয়ে যায় সিলেট অঞ্চলের বিভিন্ন হাওর। হাওরে মাছ ও হাঁসের মরে ভেসে থাকার খবর আসার পর ইউরেনিয়াম দূষণের সন্দেহের কথাও আসে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে পরমাণু শক্তি কমিশনের একটি দল সুনামগঞ্জের হাওরের পানি পরীক্ষা করে রোববার জানায়, সেখানে ইউরেনিয়াম  দূষণের কোনো প্রমাণ তারা পায়নি। পানিতে তেজষ্ক্রিয়তার মাত্রাও স্বাভাবিকের চেয়ে কম।

সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আনবিক শক্তি কমিশনের তদন্ত নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলেন, “হাওর অঞ্চলে অকাল বন্যার পানির সাথে উজানের ইউরোনিয়াম খনির বর্জ্য ভেসে আসার ফলে জলজ প্রাণীর মড়ক ধরেছে। গণমাধ্যমসহ ফেইসবুকে এই বিষয়টি এসেছে। সরকার যে তদন্ত করেছে, তাতে সেখাকার পানি পরীক্ষা ছাড়াই বলা হচ্ছে যে, কোনো তেজষ্ক্রিয়তা নেই।”

তদন্তে অনাস্থা জানিয়ে রিজভী বলেন, “এই সরকারের কোনো তদন্তই জনগণ বিশ্বাস করে না। পার্শ্ববর্তী দেশের সরকার বাংলাদেশের বর্তমান সরকারের এতই অকৃত্রিম বন্ধু যে বাংলাদেশের প্রতি ভারতের যে কোনো অন্যায়কে এরা অন্যায় বলে মনে করে না।”

বিএনপির বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, “কিছু লোক আছে, জ্ঞানপাপী। তারা দেখেও, না দেখেও বা উদ্দেশ্যমূলকভাবে নানা কথা বলে বেড়াবে।”

প্রধানমন্ত্রী আবহাওয়ার বিরূপ আচরণের কথা তুলে ধরে তার বক্তব্যে বলেন, “আমরা দেখতে পাচ্ছি; কিছু আগাম বন্যা ও বর্ষা শুরু হয়ে গেছে। ফলে, হাওর অঞ্চলে মানুষের দুর্ভোগ.. সেখানে বাঁধ ভেঙে গেছে, সেখানে ক্ষেতের ফসল নষ্ট হচ্ছে।”

“হাওর অঞ্চলে এটা সব সময় হয়ে থাকে। তবে, ২০০৯-এ সরকার গঠনের পর থেকে এত খারাপ পরিস্থিতি হয়নি। এটা প্রকৃতির নিয়ম, প্রাকৃতিকভাবে এ ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে।”

বন্যার্তদের সহায়তায় সরকারের নেওয়া ব্যবস্থার কথা মনে করিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন,  “আমরা এ ব্যাপারে চুপ করে বসে নেই। প্রত্যেকের জন্য ৩০ কেজি করে চাল ও ৫০০ করে টাকা নির্দিষ্ট করে দিয়েছি।  প্রশাসনের কর্মকর্তারা সেখানে যথেষ্ট সজাগ এবং তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা সেখানে নিচ্ছে।”

সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী হাওরাঞ্চলে ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণ ও পুর্নবাসনে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোর তৎপরতা বাড়ানোর নির্দেশ দেন।

হঠাৎ এই বন্যা নিয়ে বিরূপ প্রচারণার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, “তবে, কিছু প্রচার-প্রপাগান্ডা আমরা দেখতে পাচ্ছি।

“বিএনপির কোন এক নেতা মহাজ্ঞানী, মহাবিজ্ঞানী বলে দিলেন, ভারত থেকে ইউরেনিয়াম এসে এই অঞ্চলের মাছ মেরে ফেলছে।”

পরমাণু শক্তি কমিশনের একটি দলের সুনামগঞ্জের হাওরের পানি পরীক্ষা করার বিষয়টি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “অভিযোগটা যখন আসলো.. আমরা কিন্তু বসে ছিলাম না। অ্যাটমিক এনার্জি থেকে বিশেষজ্ঞ পাঠিয়ে সেখানকার পানি পরীক্ষা করা হলো। তারা বললো, এখানে এ ধরনের কিছু পাওয়া যায় নাই।”

বিএনপির সংবাদ সম্মেলন প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এই কথা শোনার পরও তারা প্রেস কনফারেন্স করে এই কথাটা বলে বেড়াচ্ছে। এর অর্থটা কী দাঁড়াচ্ছে? তাদের কী প্রমাণ আছে ?” 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “যখন একটা ফ্লাশ ফ্লাড হয়, তখন মাছ বা জলজ প্রাণী মারা যায়। এটাও কেন মারা যাচ্ছে; সে বিষয়টাও আমরা খবর নিচ্ছি।”

প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যের শুরুতেই নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে দেওয়ার কথা উল্লেখ করে বলেন, “আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় নির্বাচন যে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয়; সেটা আমরা প্রমাণ করতে পেরেছি। যে কারণে.. পৌরসভা, মেয়র বা সিটি করপোরেশন ইলেকশনে আমাদের প্রার্থী হেরে গেছে, বিএনপি প্রার্থী জিতেছে, কোথাও আমরা জিতেছি। কিন্তু, কোথাও অস্বাভাবিক ঘটনা আমরা ঘটতে দিইনি।”

]]>
1325154 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/pm--4--ed.jpg/ALTERNATES/w300/PM-%284%29-ed.jpg স্থানীয় সরকার নির্বাচন মনোনয়ন বোর্ড বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা 2 news-bn রাজনীতি 198 1324909 2017-04-24 18:13:00.0 হাওরে দূষণের তদন্তে অনাস্থা বিএনপির
6 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1325162 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-25 00:03:26.0 2017-04-25 00:55:22.0 কওমির ১৪ লাখ শিক্ষার্থীর স্বার্থেই সনদের স্বীকৃতি: প্রধানমন্ত্রী কওমির ১৪ লাখ শিক্ষার্থীর স্বার্থেই সনদের স্বীকৃতি: প্রধানমন্ত্রী সমালোচনার জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১৪ লাখ শিক্ষার্থীর কথা ভেবেই কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ সনদকে সাধারণ শিক্ষার স্নাতকোত্তর ডিগ্রির সমান স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। সমালোচনার জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১৪ লাখ শিক্ষার্থীর কথা ভেবেই কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ সনদকে সাধারণ শিক্ষার স্নাতকোত্তর ডিগ্রির সমান স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1325162.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/25/pm--6--ed.jpg/ALTERNATES/w300/PM-%286%29-ed.jpg
সম্প্রতি সরকার কওমি মাদ্রাসার দায়েরায়ে হাদিসকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রির সমান মর্যাদা দেওয়ার পর তা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা চলছে।

গণভবনে সোমবার আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার নির্বাচন মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকের শুরুতে শেখ হাসিনা কওমির সনদের স্বীকৃতির প্রসঙ্গ তুলে বলেন, “তাদের কী মূল স্রোতধারায় নিয়ে আসব না?

“তারা যে কারিকুলামেই পড়ুক না কেন; তারা যেন জীবন-জীবিকার সুযোগটা পায়, সেটা তো আমাদের দেখতে হবে, তাদের অধিকারটা আমাদের সংরক্ষণ করতে হবে।”

বাংলাদেশের প্রায় ৭৫ হাজার কওমি মাদ্রাসা থেকে প্রতি বছর ১৪ লাখ শিক্ষার্থী বের হচ্ছে। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এই ১৪ লাখ শিক্ষার্থী এখান থেকে বেরুচ্ছে; তাদের সার্টিফিকেটের কোনো মূল্য নেই, কোথাও তারা কাজ পায় না। না দেশে পায়, না বিদেশে পায়। কোনো কিছু করে খেতে পারে না।

“তাদের জীবনটা কি আমরা ভাসিয়ে দেব? তারা কি এদেশের নাগরিক না? তারা কি এদেশের মানুষ না? তাদের জীবনের কি কোনো মূল্য নাই ? তাদের কি আমরা অন্ধকারে ঠেলে দেব? তাদের কি আমরা আলোর পথ দেখাব না?”

এনিয়ে সমালোচকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “কথায় কথায় তো সবাই ‘ইনক্লুসিভ-ইনক্লুসিভ’ এই শব্দ খুব ব্যবহার করে। আমিও বলব, কওমি মাদ্রাসার ১৪ লাখ শিক্ষার্থী বাইরে পড়ে ছিল; তাদের আমরা ইনক্লুসিভ শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে আনতে চাই।” 

প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার পর গত ১১ এপ্রিলের ঘোষণার পর কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ সনদকে সাধারণ শিক্ষার স্নাতকোত্তর ডিগ্রির স্বীকৃতি দিয়ে আদেশ জারি করেছে সরকার।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে প্রকাশিত গেজেটে বলা হয়, “কওমি মাদ্রাসার বৈশিষ্ট্য বজায় রেখে ও দারুল উলুম দেওবন্দের মূলনীতিসমূহকে ভিত্তি ধরে কওমি মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্স (ইসলামিক স্টাডিজ এবং আরবি) এর সমমান দান করা হল।”

প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণাকে হেফাজতে ইসলামের মতো ইসলামী দলগুলোর কাছে নতি স্বীকার হিসেবে দেখছে বিভিন্ন দল। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, শেখ হাসিনা ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করছেন।

শেখ হাসিনা বলেন, “আমি না কি হেফাজতের সাথে সন্ধি করে ফেলেছি। চুক্তি করে ফেলেছি। চুক্তিটা কী করলাম? হেফাজতের সাথে আমাদের তো কোনো চুক্তি হয়নি। চুক্তির প্রশ্নই ওঠে না।” 

বাংলাদেশে শিক্ষার ক্ষেত্রে কওমি মাদ্রাসার অবদান রয়েছে উল্লেখ করে দেওবন্দীদের ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের কথা তুলে ধরেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী।

“দেওবন্দ .. যে কওমি মাদ্রাসা, ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে যারা প্রথম .. ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন শুরু করে; এই দেওবন্দ কওমি মাদ্রাসাটা কিন্তু তাদের হাতে তৈরি।” 

ভারতের মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “সেখানকার যে কারিকুলাম, ভারত কিন্তু গ্রহণ করে। ভারতে যদি আপনারা খবর নেন, দেখবেন.. সেখানে কলকাতার মাদ্রাসাগুলি আছে, সেখানে হিন্দু-মুসলমান সকলেই কিন্তু পড়াশোনা করে। অন্তত ৪০ ভাগ হিন্দু শিক্ষার্থী সেখানে আছে। এরকমও মাদ্রাসা সেখানে আছে।” 

বাংলাদেশের কওমি মাদ্রাসাগুলোতে আরবি, পারসি, উর্দু শেখানোর পাশাপাশি কম্পিউটার শিক্ষাও রয়েছে বলে জানান তিনি।

“একবার চিন্তা করে দেখেন; ১৪ লাখ শিক্ষার্থী ৭৫ হাজার কওমি মাদ্রাসায় শিক্ষা গ্রহণ করে। তাদের কারিকুলাম কী, কী তারা শিখছে- এর কোনো কিছু কেউ সঠিকভাবে বলতেই পারে না।”

কওমি মাদ্রাসায় পড়েও যেন এই শিক্ষার্থীরা চাকরি পেতে পারে, সেজন্য এই উদ্যোগ বলে জানান তিনি।

২০০৯ সালে সরকার গঠনের পরই এই উদ্যোগ গ্রহণের কথা মনে করিয়ে দিয়ে শেখ হাসিনা ওলামাদের নিয়ে কমিশন গঠন এবং সনদ দেওয়ার জন্য আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার কথাও উল্লেখ করেন।

“দীর্ঘদিন পর ছয়টা কওমি মাদ্রাসা এক হয়েছে, তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তারা নীতিগতভাবে সিদ্ধান্তে এসেছে; তারা কারিকুলামটা গ্রহণ করবে। তারা যখন এই সিদ্ধান্তে উপনীত হলেন, তখনই আমরা ঘোষণা দিলাম সনদ দেব।”

দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্সের সমমান দেওয়ার লক্ষ্যে কওমি মাদ্রাসা বোর্ডগুলো কর্তৃক গঠিত মান বাস্তবায়ন কমিটির উপর ‘আস্থাভাজনপূর্বক’ কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান শাহ আহমদ শফীকে চেয়ারম্যান করে একটি কমিটিও গঠন করে দিয়েছে সরকার।

এই কমিটির অধীনে ও তত্ত্বাবধানে দাওরায়ে হাদিসের পরীক্ষা হবে।

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষা সংক্রান্ত খবর

উচ্চ শিক্ষার পথ হারাচ্ছে কওমীর শিক্ষার্থীরা  

কওমীর ইতিহাসে বঙ্গবন্ধু নেই  

জাতীয় পতাকায় ‘আপত্তি’ কওমীর  

]]>
1325161 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/25/pm--6--ed.jpg/ALTERNATES/w300/PM-%286%29-ed.jpg 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1318242 2017-04-11 23:23:03.0 কওমির সর্বোচ্চ সনদ পাবে স্নাতকোত্তরের স্বীকৃতি 2 news-bn রাজনীতি 198 1318616 2017-04-12 18:51:35.0 প্রধানমন্ত্রীর পদক্ষেপ মদদ জোগাবে জঙ্গিদের: ছাত্র ইউনিয়ন 2 news-bn চট্টগ্রাম 10023 1318822 2017-04-12 23:15:57.0 কওমির স্বীকৃতিতে জেঁকে বসবে জঙ্গিরা: আহলে সুন্নাত 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1319375 2017-04-13 22:21:53.0 কওমির সনদের স্বীকৃতির গেজেট প্রকাশ
7 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1324734 নেত্রকোনা ও মৌলভীবাজার প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নেত্রকোনা ও মৌলভীবাজার প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 13:22:30.0 2017-04-25 00:40:09.0 বন্যার পর ভারি বর্ষণে ক্ষতি বাড়ছে হাওরে বন্যার পর ভারি বর্ষণে ক্ষতি বাড়ছে হাওরে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের হাওরে অকালবন্যায় ফসল ডুবি, মাছের মড়ক ও কাজ হারিয়ে মানুষ যখন দিশেহারা, তখন ভারি বর্ষণ ক্ষয়ক্ষতির সঙ্গে বাড়াচ্ছে দুর্ভোগ। দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের হাওরে অকালবন্যায় ফসল ডুবি, মাছের মড়ক ও কাজ হারিয়ে মানুষ যখন দিশেহারা, তখন ভারি বর্ষণ ক্ষয়ক্ষতির সঙ্গে বাড়াচ্ছে দুর্ভোগ। false http://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1324734.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/04/24/moulviar-flood-5-.jpg/ALTERNATES/w300/moulviar-flood+%285%29.jpg মৌলভীবাজার
মাঠের পর এবার গ্রামেও ঢুকেছে পানি; ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সহস্রাধিক পরিবার; বাতিল করা হয়েছে কমপক্ষে দুটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম সাময়িক পরীক্ষা।

নেত্রকোনা

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাসান ইমাম জানান, উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের সব কটিতেই কমবেশি ক্ষতি হয়েছে। মোজাফরপুর ইউনিয়নের প্রায় ৮০ শতাংশ ফসল তলিয়ে গেছে।

নেত্রকোনা

নেত্রকোনা

হাওরে পানি বাড়ায় বৃষ্টির পানি নামতে পারছে না। অপরদিকে দুই দিন ধরে চলছে টানা বর্ষণ। এ কারণে জলাবদ্ধতা সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুহাম্মদ মুতাসিমুল ইসলাম বলেন, জেলা ও উপজেলা প্রশাসন পরিস্থিতি মোকাবেলায় সার্বক্ষণিক কাজ করছে। ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২৬ মেট্রিকটন চাল ও এক লাখ টাকা ইতোমধ্যেই দেওয়া হয়েছে।

মৌলভীবাজার

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জুয়েল আহমদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, ধলাই নদীর গোপালনগর ও করিমপুর গ্রামে আগেই ভাঙন দেখা দেয়। শনিবার ভারী বর্ষণে কোনাগাঁও এলাকা দিয়ে নতুন করে আরেকটি ভাঙন দেখা দিয়েছে।

“তিনটি ভাঙন দিয়ে আসা পানি কমলগঞ্জ-মৌলভীবাজার সড়কের গোপালনগর ও বাসুদেবপুর এলাকার সড়ক উপচে গ্রামাঞ্চল তলিয়ে যাচ্ছে। শমশেরনগর, মুন্সীবাজার, পতনঊষার ইউনিয়নের প্রায় ৩০টি গ্রাম তলিয়ে গেছে। গ্রামীণ রাস্তাঘাট ও বিস্তীর্ণ এলাকা তলিয়ে যাওয়ায় যাতায়াত ও গো-খাদ্য সংকটসহ চরম দুর্ভোগে পড়েছে মানুষ।”

মৌলভীবাজার

মৌলভীবাজার

পৌরসভা ও যুবলীগের পক্ষ থেকে কয়েক শ পরিবারে শুকনা খবার বিতরণ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

কমলগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা গোকুলচন্দ্র দেবনাথ বলেন, পানিতে রাস্তাঘাট ও বিদ্যালয়ের আঙিনা নিমজ্জিত হওয়ায় করিমপুর ও বাসুদেবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম সাময়িক পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে।

কমলগঞ্জ পৌরসভা, কমলগঞ্জ ইউনিয়ন, মুন্সীবাজার ইউনিয়ন, পতনউষার ও শমশেরনগর ইউনিয়নের প্রায় দেড় হাজার পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন কমলগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান।

ক্ষতিগ্রস্ত এসব পরিবারের জন্য প্রাথমিকভাবে ২০ মেট্রিকটন চাল বরাদ্দ করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

মৌলভীবাজার

মৌলভীবাজার

কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, ধলাই নদীর ভাঙন দিয়ে তৃতীয় দফা পানি আসায় ক্ষয়ক্ষতি বাড়ছে।

“উপজেলা প্রশাসন সেদিকে সার্বক্ষণিক নজর রাখছে। বৃষ্টিপাত বন্ধ না হলে অবস্থার আরও অবনতি হতে পারে।”

শনিবার থেকে এখানে টানা বৃষ্টি হচ্ছে।

তিন দিনের ভারি বর্ষণে জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলারও বিভিন্ন এলাকার সহস্রাধিক বাড়িঘরে পানি ঢুকেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

সবুজবাগ আবাসিক এলাকার বাসিন্দা চিকিৎসক আশীষ চক্রবর্তী জানান, তার ঘরের ভেতরে প্রায় ৩ ফুট পানি উঠেছে।

মৌলভীবাজার

মৌলভীবাজার

“হঠাৎ আসা পানিতে ফ্রিজ, টেবিল ফ্যান, কম্পিউটার, আইপিএস, গ্যাসের চুলা, সোফাসহ সব বিছানা ও আসবাবপত্র পানিতে ডুবে কয়েক লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।”

শ্রীমঙ্গল শহরতলির সবুজবাগ, লালবাগ, রূপসপুর, সন্ধানী, শাহীবাগ, সুরভী পাড়া, মুসলিমবাগ, বিরামপুর, শাপলাবাগ, শান্তিবাগ, জেটিরোড, উত্তর ভাড়াউড়া, পশ্চিম ভাড়াউড়া এলাকার অধিকাংশ বাড়িতে একই রকম ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান।

এলাকার চার-পাঁচটি পাহাড়ি ছড়ার দু পাড় দখল করে স্থাপনা তৈরি করায় ছড়ার নাব্যতা কমে যাওয়াকে এ বন্যার জন্য দায়ী করেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ভানু লাল রায়।

শহরতলির ধানী জমিতে অপরিকল্পিত বাড়িঘর নির্মাণকেও এর প্রধান কারণ বলে মনে করেন ভুক্তভোগীরা।

সরজমিনে দেখা গেছে, বিভিন্ন রাস্তা সম্পূর্ণ ভেঙে গেছে। পিচ উঠে গেছে বিভিন্ন জায়গায়।

]]>
1324726 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/04/24/moulviar-flood-5-.jpg/ALTERNATES/w300/moulviar-flood+%285%29.jpg মৌলভীবাজার 1324727 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/04/24/moulviar-flood-6-.jpg/ALTERNATES/w300/moulviar-flood+%286%29.jpg মৌলভীবাজার 1324728 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/04/24/moulviar-flood-7-.jpg/ALTERNATES/w300/moulviar-flood+%287%29.jpg মৌলভীবাজার 1324729 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/04/24/netrokon-flood.jpg/ALTERNATES/w300/Netrokon-flood.jpg নেত্রকোনা 1324730 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/04/24/moulviar-flood-1-.jpg/ALTERNATES/w300/moulviar-flood+%281%29.jpg মৌলভীবাজার 1324731 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/04/24/moulviar-flood-2-.jpg/ALTERNATES/w300/moulviar-flood+%282%29.jpg মৌলভীবাজার 1324732 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/04/24/moulviar-flood-3-.jpg/ALTERNATES/w300/moulviar-flood+%283%29.jpg মৌলভীবাজার 1324733 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/04/24/moulviar-flood-4-.jpg/ALTERNATES/w300/moulviar-flood+%284%29.jpg মৌলভীবাজার 2 news-district সমগ্র বাংলাদেশ 9945 1324759 2017-04-24 13:35:53.0 পাকনার হাওরের বাঁধও ভাঙলো 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1324958 2017-04-24 18:59:50.0 হাওরে ‘জাতীয় দুর্যোগ’ ঘোষণার দাবি বিশিষ্টজনদের 2 news-bn বাণিজ্য 213 1325012 2017-04-24 20:08:43.0 হাওরের কৃষকদের ঋণ আদায় স্থগিত
8 2 Home world_bn বিশ্ব news-bn 200 1324947 নিউজ ডেস্ক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিউজ ডেস্ক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 18:47:54.0 2017-04-24 18:52:50.0 বিয়ে করলে ধর্ষণের অপরাধ আর মাফ হবে না জর্ডানে বিয়ে করলে ধর্ষণের অপরাধ আর মাফ হবে না জর্ডানে ধর্ষিতের সামাজিক সম্মান রক্ষার কারণ দেখিয়ে জর্ডানে যে আইনের আওতায় ধর্ষণকারীর মাফ পাওয়ার সুযোগ ছিল, তা রদ হয়েছে। ধর্ষিতকে বিয়ে করে ধর্ষণের অপরাধ থেকে আর পার পাওয়া যাবে না জর্ডানে। false http://bangla.bdnews24.com/world/article1324947.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/women_at_petra_jordan_-6147624879-.jpg/ALTERNATES/w300/Women_at_Petra%2C_Jordan_%286147624879%29.jpg
যে আইনের আওতায় ধর্ষণকারীর মাফ পাওয়ার সুযোগ ছিল, তা মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির মন্ত্রিসভা রদ করেছে বলে সোমবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ধর্ষিতর সামাজিক সম্মান রক্ষার কারণ দেখিয়ে জর্ডানে ওই আইনটি রাখা হয়েছিল।

আইনটির আওতায় ধর্ষণকারী ধর্ষিতকে বিয়ে করে তিন বছর একসঙ্গে থাকলেই জেল খাটা এড়াতে পারত।

ধর্ষণকারীকে বিয়ে করতে বাধ্য হওয়ার পর ধর্ষিত নারীর আত্মহত্যার ঘটনাও ঘটেছে দেশটিতে।

এরপর জর্ডানের মানবাধিকার কর্মীরা এই আইনটি বিলোপের দাবি তুললে গত বছর আইনে সংশোধনী আনা হয়। তাতে আইনটি দাঁড়ায় এরকম- ধর্ষিতের বয়স যদি ১৫ থেকে ১৮ বছর হয় এবং যৌণ সম্পর্কে যদি তার সম্মতি ছিল বলে ধরে নেওয়া যায়, তবেই ধর্ষণকারী বিয়ের সুযোগ নিয়ে জেল এড়াতে পারবে।

বিয়ে করলে ধর্ষণের অপরাধ মাফের আইনটি বাতিলের দাবি ছিল জর্ডানের নারীদের

বিয়ে করলে ধর্ষণের অপরাধ মাফের আইনটি বাতিলের দাবি ছিল জর্ডানের নারীদের

কিন্তু তাতেও সন্তুষ্ট ছিল না মানবাধিকারকর্মীরা। এরপর গত ফেব্রুয়ারিতে সরকারি একটি কমিটি আইনটি বিলোপের পক্ষে মত দেয়।  

তার পরিপ্রেক্ষিতে রোববার মন্ত্রিসভার বৈঠকে আইনটি বিলোপের সিদ্ধান্ত হয়।

সরকারের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে মানবাধিকারকর্মী লায়লা নাফা জর্ডান টাইমসকে বলেছেন, অবশেষে আমাদের স্বপ্ন সত্যি হল।

মধ্যপ্রাচ্যের অন্য মুসলিম দেশগুলোতেও এই ধরনের আইন রয়েছে এবং তার বিরোধিতাও রয়েছে। লেবাননেও এই ধরনের আইন আগামী মে মাসে রদ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

]]>
9 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1324883 নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 17:26:33.0 2017-04-24 21:18:44.0 রানা প্লাজার কোনো শ্রমিক বেকার নেই: বিজিএমইএ রানা প্লাজার আহত কোনো শ্রমিক বেকার নেই: বিজিএমইএ রানা প্লাজা ধসে আহত পোশাককর্মীদের ৪৪ শতাংশ এখনও বেকার বলে যে দাবি একশন এইড তুলেছে, তা প্রত্যাখ্যান করেছে মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ। রানা প্লাজা ধসে আহত পোশাককর্মীদের ৪৪ শতাংশ এখনও বেকার বলে যে দাবি একশন এইড তুলেছে, তা প্রত্যাখ্যান করেছে মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1324883.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/21_jurain_rana-plaza_240417_0003.jpg/ALTERNATES/w300/21_Jurain_Rana+Plaza_240417_0003.jpg জুরাইন কবরস্থানে সভাপতি সিদ্দিকুর রহমানসহ বিজেএমইএ নেতারা
পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠনের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বলেছেন, কর্মহীন থাকার প্রমাণ নিয়ে কেউ হাজির হলে তারা চাকরিরর ব্যবস্থা করবেন।

২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল সাভারে রানা প্লাজা ধসে পড়লে সেখানে থাকা পাঁচটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিকসহ ১১০০ জনের বেশি প্রাণ হারায়। আহত হন হাজারের বেশি শ্রমিক।

একশন এইড গত ২২ এপ্রিল এক গবেষণা প্রতিবেদনে জানায়, আহত শ্রমিকদের ৪২ শতাংশ চার বছর পরও বেকার আছেন। এর ২৬ শতাংশ জীবিকার জন্য কোনো পরিকল্পনা করতে পারছেন না।

সোমবার জুরাইন কবরস্থানে নিহত শ্রমিকদের কবরে ফুল দিয়ে বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর একশন এইডের তথ্যের সঙ্গে দ্বিমত প্রকাশ করে বলেন, প্রমাণ নিয়ে আসলে শ্রমিকদের চাকরি দিতে প্রস্তুত তারা।

“ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ ও চাকরির ব্যবস্থা করা হয়েছে। ফান্ডে এখনও মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার পড়ে আছে। আমরা প্রমাণের অভাবে বিতরণ করতে পারছি না। অনেকে আসেন, কিন্তু পর্যাপ্ত প্রমাণ তাদের কাছে নেই। সে কারণে টাকাও বিতরণ করতে পারি না।”

রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর ২০১৪ সালে বিদেশি ক্রেতা ও কয়েকটি আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংগঠন হতাহতদের পরিবারকে সহায়তা দিতে ৪ কোটি ডলারের একটি তহবিল গঠনের ঘোষণা দিয়েছিল।

পরে রানা প্লাজার ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতায় আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) গঠিত ‘ডোনার ট্রাস্ট ফান্ডে’ এক কোটি ৭০ লাখ ডলার অনুদান দেয় বিশ্বের বিভিন্ন ক্রেতা প্রতিষ্ঠান, যার কিছু অংশ বিতরণ করা হয়েছে।

রানা প্লাজার ধ্বংসস্তূপ

রানা প্লাজার ধ্বংসস্তূপ

রানা প্লাজার আহত এক হাজার ৪০৩ জন শ্রমিকের ওপর জরিপ চালিয়ে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করে একশন এইড। গবেষণায় ৬০৭ জন মৃত শ্রমিকের পরিবারকেও নমুনা হিসেবে নেওয়া হয়।

সিদ্দিকুর বলেন, “এই প্রতিবেদনের সঙ্গে আমি সম্পূর্ণরূপে দ্বিমত পোষণ করছি। রানা প্লাজায় আহত কোনো শ্রমিক এখনও বেকার নেই। যদি কেউ প্রমাণ দিতে পারে যে সে রানা প্লাজা দুর্ঘটনায় আহত, তাহলে তার পুনর্বাসনের ব্যবস্থা বিজিএমইএ করবে।

“বিজিএমইএর পক্ষ থেকে আমরা আগেও বলেছি, এখনও বলছি, অনেকে এসেছে, তাদের চাকরির ব্যবস্থা করা হয়েছে। এখনও কেউ আসলে চাকরির ব্যবস্থা করার প্রতিশ্রুতি আমরা দিচ্ছি।”

জুরাইন কবরস্থানে বিজিএমইএ সভাপতির সঙ্গে সহ-সভাপতি এস এম মান্নান কচি, মাহমুদ হাসান খান বাবু, পরিচালক মনির হোসেন, আ ন ম সাইফুদ্দিন, আনোয়ার কামাল পাশাসহ সংগঠনটির নেতারা ছিলেন।

]]>
1324801 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/21_jurain_rana-plaza_240417_0003.jpg/ALTERNATES/w300/21_Jurain_Rana+Plaza_240417_0003.jpg জুরাইন কবরস্থানে সভাপতি সিদ্দিকুর রহমানসহ বিজেএমইএ নেতারা 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1323724 2017-04-22 15:44:31.0 ‘রানা প্লাজার ৪২ শতাংশ শ্রমিক এখনো বেকার’
10 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1324872 নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 17:06:04.0 2017-04-24 17:06:04.0 রমেল চাকমার মৃত্যু: বিচার ও ক্ষতিপূরণ চেয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি রমেল চাকমার মৃত্যু: বিচার ও ক্ষতিপূরণ চেয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের নেতা রমেল চাকমার মৃত্যুর প্রতিবাদে উত্তেজনার মধ্যে ঘটনার বিচারিক তদন্তে কমিটি গঠন ও জড়িতদের শাস্তির দাবিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালকে চিঠি দিয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম কমিশন। বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের নেতা রমেল চাকমার মৃত্যুর প্রতিবাদে উত্তেজনার মধ্যে ঘটনার বিচারিক তদন্তে কমিটি গঠন ও জড়িতদের শাস্তির দাবিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালকে চিঠি দিয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম কমিশন। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1324872.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/20/rangamati-protest-edit-.jpg/ALTERNATES/w300/Rangamati-Protest-edit-.jpg রমেল চাকমাকে হত্যা করা হয়েছে তার প্রতিবাদে পিসিপির বিক্ষোভ মিছিল
চিঠিতে রমেলের পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণ নিশ্চিতেরও আহ্বান জানানো হয়েছে।

সোমবার কমিশনের কো-চেয়ারপারসন সুলতানা কামাল ও এলসা স্টামাতোপৌলৌ স্বাক্ষরিত চিঠিতে সেনাবাহিনীর হাতে আটকের পর পুলিশের হেফাজতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রমেলের মৃত্যুর ঘটনায় উদ্বেগ জানানো হয়েছে।

রমেলের মৃত্যুতে পাহাড়ে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। এই মৃত্যুর প্রতিবাদে রোববার রাঙামাটিতে সকাল-সন্ধ্যা সড়ক ও নৌ-পথ অবরোধ পালিত হয়। এছাড়া এই ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়েছে বাম ছাত্র সংগঠনগুলো।

রমেল চাকমা ইউপিডিএফ সমর্থিত ছাত্র সংগঠন বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের (পিসিপি) নানিয়ারচর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

গত ৫ এপ্রিল জেলার নানিয়ারচর উপজেলা সদর থেকে তাকে আটক করে সেনাবাহিনী। পরে অসুস্থ হয়ে পড়লে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ভর্তি করানো হয়। সেখানে ১৯ এপ্রিল তার মৃত্যু হয়। তবে আটকের পর নিজেদের হেফাজতে নির্যাতনে রমেলের মৃত্যুর অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে সেনাবাহিনী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে দেওয়া পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশনের চিঠিতে বলা হয়, “অভিযোগ রয়েছে যে, আটকের পরে তার ওপর নির্মমভাবে শারীরিক নির্যাতন চালানো হয়।”

নির্যাতনে অসুস্থ রমেলকে প্রথম স্থানীয় পুলিশ এবং উপজেলা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ গ্রহণ করতে চায়নি বলেও চিঠিতে অভিযোগ করা হয়।

“নির্যাতনের পরে অসুস্থ রমেল চাকমাকে স্থানীয় থানায় হস্তান্তর করতে চাইলে পুলিশও তাকে গ্রহণ করেনি। এমনকি স্থানীয় উপজেলা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও তাকে সেখানে ভর্তি না করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে প্রেরণের পরামর্শ প্রদান করে।”

রমেল চাকমাকে আটকের পর নির্যাতন এবং তার মৃত্যু ঘটনায় পার্বত্য চট্টগ্রাম কমিশন উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

চিঠিতে বলা হয়, “অধিকতর উদ্বেগের বিষয় এই যে, আটকাবস্থায় রমেল চাকমার ওপর নির্যাতন ও পরবর্তীতে মৃত্যুর সংবাদ প্রকাশের প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিজেদের দায় অস্বীকার করে একে অন্যের ওপর দায় চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। একটা স্বাধীন রাষ্ট্রে বিনাবিচারে একদিকে এভাবে একজন শিক্ষার্থীর জীবন অকালে কেড়ে নেয়া ও অন্যদিকে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর উল্লেখিত আচরণ কোনভাবে গ্রহণযোগ্য হতে পারে না।

“তাই পার্বত্য চট্টগ্রাম কমিশন রমেল চাকমার হত্যার তদন্তের জন্য অনতিবিলম্বে একটি উচ্চ পর্যায়ের নিরপেক্ষ বিচারিক তদন্ত কমিটি গঠনের জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে জোর দাবি জানায় এবং এ ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করারও আহ্বান জানায়।”

পাশাপাশি রমেল চাকমার পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণ নিশ্চিতেরও আহ্বান জানানো হয় চিঠিতে।

]]>
1323076 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/20/rangamati-protest-edit-.jpg/ALTERNATES/w300/Rangamati-Protest-edit-.jpg রমেল চাকমাকে হত্যা করা হয়েছে তার প্রতিবাদে পিসিপির বিক্ষোভ মিছিল 2 news-district সমগ্র বাংলাদেশ 9945 1324385 2017-04-23 19:58:55.0 রমেল চাকমার মৃত্যু: রাঙামাটিতে অবরোধ
11 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1325115 কুমিল্লা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম কুমিল্লা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 22:01:18.0 2017-04-25 00:41:29.0 কুমিল্লায় বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে নিহত ৪ কুমিল্লায় বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে নিহত ৪ কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলায় বাসের সঙ্গে অটোরিকশার সংঘর্ষে নারীসহ চার জন নিহত হয়েছে; আহত হয়েছে এক শিশুসহ দুইজন। কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলায় বাসের সঙ্গে অটোরিকশার সংঘর্ষে নারীসহ চার জন নিহত হয়েছে; আহত হয়েছে এক শিশুসহ দুইজন। false http://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1325115.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2016/12/30/comilla-map.jpg/ALTERNATES/w300/Comilla-map.jpg
সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার বাগমারার বরল এলাকায় কুমিল্লা-নোয়াখালী সড়ক এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে হাইওয়ে পুলিশের লালমাই ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. ইব্রাহিম  খলিল জানান।

নিহতরা হলেন কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার গন্ডামারা গ্রামের আবদুর রাজ্জাক (৪৫), তার স্ত্রী ঝরনা বেগম (৩৫), রাজ্জাকের শাশুড়ি জেবুন নেছা (৬৫) ও সিএনজিচালক বাচ্চু মিয়া (৩০)। দুর্ঘটনায় নিহত রাজ্জাকের ছেলে রাজু এবং নিকটাত্মীয় ইসহাককে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

ইব্রাহিম খলিল জানান, কুমিল্লা-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কের কুমিল্লা সদর  দক্ষিণ উপজেলার বাগমারা দক্ষিণ ইউনিয়নের বরল এলাকায় রাত সাড়ে ৮টায় সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ইকোনো বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে সিএনজিতে থাকা নারীসহ তিন যাত্রী নিহত হন।

“খবর পেয়ে লালমাই হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে। আহতদের মধ্যে দুই জনকে মুমূর্ষু অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে রাত সাড়ে ১০টায় সিএনজিচালক বাচ্চু মিয়া মারা যান।”

]]>
1265093 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2016/12/30/comilla-map.jpg/ALTERNATES/w300/Comilla-map.jpg
12 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1324590 ওবায়দুর মাসুম, নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ওবায়দুর মাসুম, নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 08:59:49.0 2017-04-24 14:06:59.0 বৃষ্টি হলে রিকশাও ডুবে যায় মৌচাকে বৃষ্টি হলে রিকশাও ডুবে যায় মৌচাকে ফ্লাইওভার নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান ও সিটি করপোরেশন পরস্পরকে দুষে চলছে; মাঝে মৌচাক-মগবাজার এলাকায় গত তিন মাস ধরে সড়কে জলাবদ্ধতার দুর্ভোগ পোহাচ্ছে নগরবাসী। রোববার দুপুরে রিকশায় করে মালিবাগ থেকে মৌচাকের দিকে যাচ্ছিলেন দুই নারী। লিলি প্লাজার সামনে এসে রিকশা উল্টে পানিতে পড়ে গেলেন দুজনই। জামাকাপড় ভিজে গেল নোংরা কাদাপানিতে। একজনের পায়ের একটি জুতা তলিয়ে গেল পানিতে। অনেকক্ষণ খুঁজলেন রিকশাচালক, কিন্তু পেলেন না। শেষে একপায়ের জুতা ছাড়াই রওনা হলেন। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1324590.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0005.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0005.jpg জলে ঢাকা মৌচাক মোড়ের এই রাস্তা খানাখন্দে ভরা-এরমধ্যে চলতে গিয়ে অনেক সময় উল্টে পড়েন রিকশা ও মটরসাইকেল আরোহীরা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক
ওই নারীদের একজন জানালেন, মালিবাগের এক আত্মীয়ের বাসায় গিয়েছিলেন তারা। লালবাগের বাসায় ফেরার পথেই এ বিপত্তি।

মৌচাক-মগবাজার ফ্লাইওভার প্রকল্প এলাকায় গত তিন মাস ধরে শান্তিনগর চৌরাস্তা থেকে মালিবাগ, মৌচাক হয়ে আবুল হোটেল পর্যন্ত সড়কে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়েছে। গত তিন দিনের বৃষ্টিপাতের পর সড়কে পানি আরও বেড়েছে। সেইসঙ্গে সড়কে তৈরি হয়েছে অসংখ্য খানাখন্দ, যাতে প্রায়ই যানবাহন বিকল হচ্ছে, ঘটছে দুর্ঘটনা।

জলে ঢাকা মৌচাক মোড়ের এই রাস্তা খানাখন্দে ভরা-এরমধ্যে চলতে গিয়ে অনেক সময় উল্টে পড়েন রিকশা ও মটরসাইকেল আরোহীরা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

জলাবদ্ধ মৌচাক মোড়ের এই ছবি রোববার দুপুরের। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

রোববার ঘুরে দেখা গেছে, শান্তিনগর থেকে মালিবাগ চৌরাস্তা পর্যন্ত সড়কের দুপাশে কোনো কোনো অংশে হাঁটু পানি জমে আছে। পানি আছে মালিবাগ চৌরাস্তা থেকে মৌচাক পর্যন্ত। এছাড়া মৌচাক থেকে মালিবাগ রেলক্রসিং হয়ে আবুল হোটেল পর্যন্ত সড়কের কোথাও কোথাও হাঁটু পানি।

শনিবার পুরো সড়কে হাঁটু পানি ছিল বলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানালেন রিকশাচালক এমদাদুল।

“কাইলকা পর্যন্ত রাস্তায় হাঁটুপানি আছিল। রিকশার বডি পর্যন্ত ডুইবা গ্যাছে। এইখানি রিকশা চালান খুব কঠিন। গাড়া-গোড়ায় রিকশা পইড়া যায়, পল্টি খায়।”

জলাবদ্ধ মৌচাক মোড়ের এই ছবি রোববার দুপুরের। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

মৌচাক মোড় থেকে মালিবাগ রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের একপাশে পয়োঃনিষ্কাশনের পাইপ বসানোর কাজ করছে দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। গর্ত খুঁড়ে রাস্তায় মাটি ফেলে রাখায় সড়কের এই অংশে বন্ধ রয়েছে চলাচল। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

ইঞ্জিনে পানি ঢুকে বিকল হয়ে যাওয়া একটি অটোরিকশা নিয়ে বসেছিলেন চালক মো. জাকির হোসেন। তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, দয়াগঞ্জ থেকে মালিবাগ রেল গেইট যাচ্ছিলেন তিনি। ইঞ্জিন বিকল হওয়ায় যাত্রীরা নেমে চলে গেছে।

“রাস্তা এইরম জানলে জিন্দেগিতে এইদিকে আইতাম না। রাস্তায় অনেক গর্ত। কিন্তু পানির লাইগ্যা দেখা যায় না। গর্তে পইড়া ইঞ্জিনে পানি ঢুকছে।”

অটোরিকশা চালকের সঙ্গে কথা বলার সময়ই ওই সড়কেই আরেকটি প্রাইভেটকার বিকল হয়ে পড়ে।

ফ্লাইওভারের কাজ শুরু হওয়ার পর থেকেই এ এলাকার বাসিন্দাদের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে বলে অভিযোগ করেন মগবাজার ওয়্যারলেসগেট এলাকার বাসিন্দা শারমিন জাহান। কয়েকদিন আগে রিকশা উল্টে তিনিও পড়ে গিয়েছিলেন।

এখানে ওখানে ফ্লাইওভার নির্মাণের সরঞ্জাম, তার উপরে সড়কের গর্তে জমেছে জল-এরমধ্যেই চলছে চলাচল। ছবিটি রোববার দুপুরে রাজধানীর মালিবাগ মোড় থেকে তোলা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

একপাশে জল-কাদা, অন্যপাশে ফ্লাইওভারের নির্মাণ সামগ্রী-এর মধ্যেই কোনোভাবে চলছে পথচারীদের এগিয়ে যাওয়া। ছবিটি রোববার দুপুরে মৌচাক থেকে মালিবাগ চৌরাস্তামুখী সড়কের। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

“ভাগ্য ভালো যে হাত-পা ভাঙেনি। কিন্তু প্রতিদিনই দুর্ভোগ সয়ে যাতায়াত করতে হয়। নোংরা পানি মাড়িয়ে পথ চলতে চলতে পায়ে এলার্জি হয়ে গেছে। স্বামীর অফিস কাছে বলে বাধ্য হয়ে এ এলাকায় থাকছি।”

ভাঙাচোরা এই সড়কে পানি জমে থাকায় প্রতিদিন যানজট হচ্ছে বলে জানান মৌচাকে দায়িত্ব পালনকারী ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট নূরতাজুল ইসলাম।

“সামনে গর্ত আছে এই ভয়ে অনেক গাড়ি সামনে এগুতে চায় না। এছাড়া প্রায়ই গাড়ি বিকল হয়ে যায়। ফলে পেছনে গাড়ির লম্বা লাইন তৈরি হয়ে যায়।”

সড়কে পানি জমে থাকায় ফুটপাতের দোকানগুলোও খোলা যাচ্ছে বলে জানালেন ফুটপাতের দোকানি ইদ্রিস বেপারী।

মালিবাগ চৌরাস্তা থেকে মৌচাক মোড় হয়ে মালিবাগ রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের একপাশে পয়োঃনিষ্কাশনের পাইপ বসানোর কাজের জন্য নেই ফুটপাত ব্যবহারের সুযোগ, অপরদিকে ফ্লাইওভারের নির্মাণ সামগ্রী রাস্তার উপরে এলোমেলোভাবে ফেলে রাখায় বিপাকে পথচারীরা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

মালিবাগ চৌরাস্তা থেকে মৌচাক মোড় হয়ে মালিবাগ রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের একপাশে পয়োঃনিষ্কাশনের পাইপ বসানোর কাজের জন্য নেই ফুটপাত ব্যবহারের সুযোগ, অপরদিকে ফ্লাইওভারের নির্মাণ সামগ্রী রাস্তার উপরে এলোমেলোভাবে ফেলে রাখায় বিপাকে পথচারীরা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

“আইজ ২-৩ দিন ধইর্যাট দোহান খুলতে পারি না। রাস্তায় জইম্যা থাহা পানি ফুটপাতে উইড্যা আহে।”

মালিবাগ চৌরাস্তা থেকে মৌচাক হয়ে রামপুরা যেতে এ সড়কের এক পাশে পানি জমে আছে। সড়কে তৈরি হয়েছে ছোটবড় অসংখ্য গর্ত। দুর্ভোগ এড়াতে খিলগাঁও হয়ে আসা রামপুরাগামী যানবাহন খিলগাঁও কমিউনিটি সেন্টারের সামনের সড়ক হয়ে আবুল হোটেল পর্যন্ত যাতায়াত করে। কিছু বাস চললেও ছোট যানবাহন চলতে দেখা যায়নি। সড়কের এ অংশে কোনো রিকশা চলে না।

মালিবাগ রেলক্রসিংয়ে পরিবহনের কাউন্টার থাকায় এ সড়কে আসতে হয় বলে জানান তরঙ্গ প্লাস পরিবহনের চালক মনিরুল ইসলাম। তিনি বলেন, এ সড়কটুকু পার হতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

"ভাই এইটুকু রাস্তা পার হইতে কী যে কষ্ট হয় তা বুঝাইতে পারুম না। গাড়ির চাক্কা পাংচার হয়। স্প্রিং ভাইঙ্গা যায়। অন্য গাড়িতো ওইদিক দিয়া যায় গা, আমাগো আসতে হয়।"

মালিবাগ চৌরাস্তা থেকে মৌচাক মোড় হয়ে মালিবাগ রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের একপাশে পয়োঃনিষ্কাশনের পাইপ বসানোর কাজের জন্য নেই ফুটপাত ব্যবহারের সুযোগ, অপরদিকে ফ্লাইওভারের নির্মাণ সামগ্রী রাস্তার উপরে এলোমেলোভাবে ফেলে রাখায় বিপাকে পথচারীরা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

এখানে ওখানে ফ্লাইওভার নির্মাণের সরঞ্জাম, তার উপরে সড়কের গর্তে জমেছে জল-এরমধ্যেই চলছে চলাচল। ছবিটি রোববার দুপুরে রাজধানীর মালিবাগ মোড় থেকে তোলা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

মৌচাক মোড় থেকে মালিবাগ চৌরাস্তা এবং মালিবাগ রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের একপাশে নিষ্কাশন নালা বসানোর কাজ করছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

মৌচাক থেকে মালিবাগ রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের একপাশে গর্ত খুড়ে মাটি তুলে রাস্তায় ফেলে রাখা হয়েছে। রাস্তায় রাখা হয়েছে পাইপসহ নির্মাণসামগ্রী। ফলে সড়কের ওই অংশে পথচারী ও যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। মৌচাক থেকে মালিবাগ চৌরাস্তা পর্যন্ত সড়কের একপাশেও রাস্তা খুঁড়ে রাখায় লোকজনের চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে।

এক সঙ্গে একাধিক উন্নয়নকাজ এবং কাজের ধীরগতির কারণে স্থানীয় বাসিন্দাদের ভোগান্তি হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন মালিবাগের বাসিন্দা আফসার আহমেদ।

জলাবদ্ধ মালিবাগ মোড়ের এই ছবি রোববার দুপুরের। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

জলাবদ্ধ আর খানাখন্দের কারণে রাজধানীর মৌচাক এলাকায় ঝুঁকি নিয়ে পথচলা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

“একই সময়ে একই রাস্তায় তিনটি উন্নয়নকাজ করা হচ্ছে। ফলে এই অস্বাভাবিক ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে আমাদেরকে। এসব কাজ ধাপে ধাপে করলেও তো ভোগান্তিটা আমাদের কম হত। এছাড়া দ্রুত কাজ শেষ করার জন্য বেশি যন্ত্রপাতি ও লোকবল নিয়োগ করলেও উন্নয়নের নামে এই নিগ্রহ থেকে আমরা রেহাই পেতাম।”

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নিষ্কাশন নালার জন্য এলাকায় খোড়াখুঁড়ি করছে বলেই জলাবদ্ধতা হয়েছে- এমন দাবি করেন ফ্লাইওভার নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান তমা কনস্ট্রাকশন লিমিটেডের প্রকল্প ব্যবস্থাপক মো. শরীফুল ইসলাম। তার ভাষ্য, জলাবদ্ধতা নিরসনে তাদের কিছুই করার নেই।

“আমাদের পক্ষ থেকে এইখানে ব্যবস্থা নেওয়ার কিছু নাই। কারণ ড্রেন কাটতেছে বলে সবকিছু বন্ধ করে রাখছে। আমরা কিভাবে পানি নিষ্কাশন করব?”

জলাবদ্ধতার এই ছবি রাজধানীর শান্তিনগর এলাকা থেকে রোববার তোলা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

তিন দিনের বৃষ্টিতে রাজধানীর মৌচাক মার্কেটের প্রবেশ পথসহ মার্কেট সংলগ্ন গলিতে সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা; ভোগান্তিতে দোকানিরা। রোববারের ছবি। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

এ অভিযোগ অস্বীকার করে দক্ষিণ সিটি করপোরেশন অঞ্চল-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হানিফ পাটোয়ারী বলেন, এ এলাকার দুর্ভোগের জন্য সিটি করপোরেশন দায়ী নয়। ফ্লাইওভার নির্মাণকাজের জন্যই লোকজনের দুর্ভোগ হচ্ছে।

“আমরা সেখানে কাজ শুরু করেছি ছয় মাস আগে। আর ওই ফ্লাইওভারের নির্মাণকাজ আরও দুই বছর আগে শেষ হওয়ার কথা। সেটা ঠিক সময়ে শেষ হলে আমাদের প্রজেক্টের সঙ্গে কনফ্লিক্ট করত না। মূল ব্যাপার হল দীর্ঘদিন ধরে তারা নির্মাণকাজ করছে। এ কাজ করার সময় ওয়াসার নিষ্কাশন নালা ভরাট হয়ে পানি চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এ কারণে সড়কে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়েছে।”

রাজধানীর মৌচাক মার্কেট সংলগ্ন এই গলির কিছু দোকান রোববার খুললেও জলাবদ্ধবতায় ক্রেতার অভাবে অলস সময় কাটান বিক্রেতারা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

রাজধানীর মৌচাক মার্কেট সংলগ্ন এই গলির কিছু দোকান রোববার খুললেও জলাবদ্ধবতায় ক্রেতার অভাবে অলস সময় কাটান বিক্রেতারা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

সিটি করপোরেশনের নিষ্কাশন নালা তৈরি হয়ে গেলে মৌচাক ও মালিবাগ এলাকার জলাবদ্ধতা থাকবে না বলে জানান হানিফ পাটোয়ারি। তবে এই বছর কোনো সুসংবাদ দিতে পারছেন না তিনি।

“এ বছর আমাদের কাজ চলায় একটু কষ্ট হবে। আশা করি আগামী বছর থেকে এ এলাকায় আর জলাবদ্ধতা হবে না।”

 

ছবিঘর দেখতে ক্লিক করুন

]]>
1324589 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0005.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0005.jpg জলে ঢাকা মৌচাক মোড়ের এই রাস্তা খানাখন্দে ভরা-এরমধ্যে চলতে গিয়ে অনেক সময় উল্টে পড়েন রিকশা ও মটরসাইকেল আরোহীরা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324591 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/05_sufferings_water-logging_mouchak-market_ap_230417_0007.jpg/ALTERNATES/w300/05_Sufferings_Water+Logging_Mouchak+Market_AP_230417_0007.jpg রাজধানীর মৌচাক মার্কেট সংলগ্ন এই গলির কিছু দোকান রোববার খুললেও জলাবদ্ধবতায় ক্রেতার অভাবে অলস সময় কাটান বিক্রেতারা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324592 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0004.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0004.jpg জলাবদ্ধ মৌচাক মোড়ের এই ছবি রোববার দুপুরের। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324593 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0007.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0007.jpg জলাবদ্ধ মৌচাক মোড়ের এই ছবি রোববার দুপুরের। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324594 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0010.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0010.jpg মৌচাক মোড় থেকে মালিবাগ রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের একপাশে পয়োঃনিষ্কাশনের পাইপ বসানোর কাজ করছে দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। গর্ত খুঁড়ে রাস্তায় মাটি ফেলে রাখায় সড়কের এই অংশে বন্ধ রয়েছে চলাচল। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324595 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0013.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0013.jpg জলে ঢাকা মৌচাক মোড়ের এই রাস্তা খানাখন্দে ভরা-এরমধ্যে চলতে গিয়ে অনেক সময় উল্টে পড়েন রিকশা ও মটরসাইকেল আরোহীরা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324596 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0015.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0015.jpg একপাশে জল-কাদা, অন্যপাশে ফ্লাইওভারের নির্মাণ সামগ্রী-এর মধ্যেই কোনোভাবে চলছে পথচারীদের এগিয়ে যাওয়া। ছবিটি রোববার দুপুরে মৌচাক থেকে মালিবাগ চৌরাস্তামুখী সড়কের। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324597 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0019.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0019.jpg মালিবাগ চৌরাস্তা থেকে মৌচাক মোড় হয়ে মালিবাগ রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের একপাশে পয়োঃনিষ্কাশনের পাইপ বসানোর কাজের জন্য নেই ফুটপাত ব্যবহারের সুযোগ, অপরদিকে ফ্লাইওভারের নির্মাণ সামগ্রী রাস্তার উপরে এলোমেলোভাবে ফেলে রাখায় বিপাকে পথচারীরা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324598 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0021.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0021.jpg মালিবাগ চৌরাস্তা থেকে মৌচাক মোড় হয়ে মালিবাগ রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের একপাশে পয়োঃনিষ্কাশনের পাইপ বসানোর কাজের জন্য নেই ফুটপাত ব্যবহারের সুযোগ, অপরদিকে ফ্লাইওভারের নির্মাণ সামগ্রী রাস্তার উপরে এলোমেলোভাবে ফেলে রাখায় বিপাকে পথচারীরা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324599 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0029.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0029.jpg মালিবাগ চৌরাস্তা থেকে মৌচাক মোড় হয়ে মালিবাগ রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের একপাশে পয়োঃনিষ্কাশনের পাইপ বসানোর কাজের জন্য নেই ফুটপাত ব্যবহারের সুযোগ, অপরদিকে ফ্লাইওভারের নির্মাণ সামগ্রী রাস্তার উপরে এলোমেলোভাবে ফেলে রাখায় বিপাকে পথচারীরা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324600 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0035.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0035.jpg এখানে ওখানে ফ্লাইওভার নির্মাণের সরঞ্জাম, তার উপরে সড়কের গর্তে জমেছে জল-এরমধ্যেই চলছে চলাচল। ছবিটি রোববার দুপুরে রাজধানীর মালিবাগ মোড় থেকে তোলা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324601 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0036.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0036.jpg জলাবদ্ধ মালিবাগ মোড়ের এই ছবি রোববার দুপুরের। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324602 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0037.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0037.jpg জলাবদ্ধ আর খানাখন্দের কারণে রাজধানীর মৌচাক এলাকায় ঝুঁকি নিয়ে পথচলা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324603 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0038.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0038.jpg এখানে ওখানে ফ্লাইওভার নির্মাণের সরঞ্জাম, তার উপরে সড়কের গর্তে জমেছে জল-এরমধ্যেই চলছে চলাচল। ছবিটি রোববার দুপুরে রাজধানীর মালিবাগ মোড় থেকে তোলা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324604 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0043.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0043.jpg এখানে ওখানে ফ্লাইওভার নির্মাণের সরঞ্জাম, তার উপরে সড়কের গর্তে জমেছে জল-এরমধ্যেই চলছে চলাচল। ছবিটি রোববার দুপুরে রাজধানীর মালিবাগ মোড় থেকে তোলা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324605 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/04_sufferings_water-log_mouchak_malibagh_flyover_ap_230417_0045.jpg/ALTERNATES/w300/04_Sufferings_Water+Log_Mouchak_Malibagh_Flyover_AP_230417_0045.jpg জলাবদ্ধতার এই ছবি রাজধানীর শান্তিনগর এলাকা থেকে রোববার তোলা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324606 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/05_sufferings_water-logging_mouchak-market_ap_230417_0002.jpg/ALTERNATES/w300/05_Sufferings_Water+Logging_Mouchak+Market_AP_230417_0002.jpg তিন দিনের বৃষ্টিতে রাজধানীর মৌচাক মার্কেটের প্রবেশ পথসহ মার্কেট সংলগ্ন গলিতে সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা; ভোগান্তিতে দোকানিরা। রোববারের ছবি। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক 1324607 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/05_sufferings_water-logging_mouchak-market_ap_230417_0005.jpg/ALTERNATES/w300/05_Sufferings_Water+Logging_Mouchak+Market_AP_230417_0005.jpg রাজধানীর মৌচাক মার্কেট সংলগ্ন এই গলির কিছু দোকান রোববার খুললেও জলাবদ্ধবতায় ক্রেতার অভাবে অলস সময় কাটান বিক্রেতারা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক
13 2 Home sport_bn খেলা news-bn 210 1324903 স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 18:05:58.0 2017-04-24 22:25:29.0 পরিসংখ্যানে মেসির পাঁচশ পরিসংখ্যানে মেসির পাঁচশ লিওনেল মেসির অনন্য কীর্তি গড়ার পথে কিছু পরিসংখ্যান। রেকর্ড ভাঙাগড়ার খেলায় লিওনেল মেসির ক্যারিয়ারে যোগ হয়েছে নতুন আরেকটি, ছুঁয়েছেন এক অনন্য মাইলফলক। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের মাঠে শ্বাসরুদ্ধকর লড়াইয়ের অন্তিম মুহূর্তে বল জালে পাঠিয়ে দলকে জয় এনে দেওয়ার পাশাপাশি ক্লাব ফুটবলে ৫০০ গোল করেছেন বার্সেলোনা তারকা। প্রমাণ করেছেন কেন বলা হয় তাকে বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার। false http://bangla.bdnews24.com/sport/article1324903.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/1-messi-celebrates-scoring-their-third-goal.jpg/ALTERNATES/w300/1+Messi+celebrates+scoring+their+third+goal.JPG
রোববার সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে কাসেমিরোর গোলে পিছিয়ে পড়ার পাঁচ মিনিটের মধ্যে দারুণ পায়ের কাজে নিজের প্রথম গোলটি করেন মেসি। দলকে সমতা ফেরানো এই গোলে রিয়ালের কিংবদন্তি আলফ্রেদো দি স্তেফানোকে ছাড়িয়ে লা লিগায় হওয়া ক্লাসিকোতে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ডটি নিজের করে নেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার।

আর ম্যাচের শেষ মুহূর্তে দূরপাল্লার শটে রিয়ালের গোলরক্ষক কেইলর নাভাসকে ফাঁকি দিয়ে ৫০০তম গোলটি করে মূল্যবান তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করেন মেসি।

দেখে নেওয়া যাক মেসির এই অনন্য কীর্তি গড়ার পথে কিছু পরিসংখ্যান।

কোন প্রতিযোগিতায় কত গোল

ক্লাব ক্যারিয়ারে পাঁচশ গোলের ৩৪৩টি মেসি করেছেন স্পেনের শীর্ষ লিগে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে করেছেন ৯৪টি।

এছাড়া কোপা দেল রেতে ৪৩, স্প্যানিশ সুপার কাপে ১২, ক্লাব বিশ্বকাপে ৫ ও ইউরোপিয়ান সুপার কাপে ৩ গোল করেছেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার।

বাঁ-পায়ের জাদু

৫০০ গোলের ৪০২টিই করেছেন মেসি তার মূল অস্ত্র বাঁ-পা দিয়ে। রোববার রাতেও দেখা মিলল বল নিয়ে তার দু-পায়ের দারুণ কাজ এবং প্রতিটির শেষেই বিধ্বংসী ওই বাঁ-পা।

বাঁ-পা থেকে: ৪০২ গোল

ডান পা থেকে: ৭৪ গোল

হেড থেকে: ২২ গোল

অন্যান্য: ২ গোল

কাম্প নউয়ের পর বেশি গোল সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে

বার্সেলোনার জার্সিতে স্বাভাবিকভাবেই সবচেয়ে বেশি গোল করেছেন ঘরের মাঠ কাম্প নউয়ে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোল রিয়ালের মাঠ বের্নাবেউয়ে।

কাম্প নউয়ে: ২৮৪

রিয়ালের মাঠ সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে: ১৪

আতলেতিকো মাদ্রিদের মাঠ ভিসেন্তে কালদেরনে: ১৩

দেপোর্তিভো লা করুনার মাঠ রিয়াসোরে: ১০

ভালেন্সিয়ার মাঠ মেস্তালায়: ৯

গোলের সঙ্গী আলভেস

মেসির গোলে সবচেয়ে বেশি অবদান রেখেছেন ব্রাজিলিয়ান রাইট-ব্যাক দানি আলভেস। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্পেনের তারকা মিডফিল্ডার ও বার্সেলোনা অধিনায়ক আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা।

দানি আলভেস: ৪২টি

আন্দ্রেস ইনয়েস্তা: ৩৪টি

চাভি: ৩১টি

পেদ্রো: ২৫টি

লুইস সুয়ারেস: ২৫টি।

কার জালে বেশি গোল

দল হিসেবে মেসি সবচেয়ে বেশি গোল করেছেন সেভিয়ার বিপক্ষে, ২৯টি। তবে গোলরক্ষক বিবেচনায় তার বড় শিকার ভালেন্সিয়ার দিয়েগো আলভেস।

দিয়েগো আলভেস: ২১টি 

গোরকা ইরাসিওস: ১৮টি

ইকের কাসিয়াস: ১৭টি

আন্দ্রেস ফের্নান্দেস: ১৫টি

আন্দ্রেস পালোপ: ১২টি

মেসির গোল মানেই বার্সার জয়

৫০০টি গোল করতে ৫৭৭ ম্যাচ খেলেছেন মেসি। ম্যাচ প্রতি গোলের অনুপাত ০.৮৬। আর ম্যাচে তার জালের দেখা পাওয়া মানেই অধিকাংশ ক্ষেত্রে বার্সেলোনা জয় পেয়েছে।

মেসি গোল করেছেন, এমন ২৭৫টি ম্যাচ জিতেছে বার্সেলোনা। শতকরা হিসেবে যা ৮৬.৭০ ভাগ। ড্র হয়েছে ৩০টি বা ৯.৫ শতাংশ আর হার ১২টি বা ৩.৮ শতাংশ।

লা লিগার রাজা

চলতি মৌসুমে লিগে এখন পর্যন্ত ৩১টি গোল করেছেন মেসি। ২০১৩ সালের পর আবারও ‘ইউরোপিয়ান গোল্ডেন সু’ জয়ের পথে আছেন তিনি। ২০১০ ও ২০১২ সালেও এই পুরস্কার জিতেছিলেন মেসি।

একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে টানা নয়বার প্রতি মৌসুম ক্লাবের হয়ে ৪০ বা তার বেশি গোল করার এবং ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের মধ্যে সবচেয়ে কম সময়ে ৩০০ গোলের রেকর্ডও মেসির দখলে।

চলতি মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এখন পর্যন্ত মেসির গোল ৪৭টি।

মাইলফলক ছোঁয়া পথচলার স্মরণীয় কিছু মুহূর্ত

প্রথম গোল: ১ মে ২০০৫: লা লিগায় আলবাসেতের বিপক্ষে ম্যাচের শেষ দিকে বদলি নেমে প্রথম গোলটি করেন মেসি।

১৪তম গোল: ৩ মার্চ, ২০০৭: বার্সেলোনা বনাম রিয়াল মাদ্রিদ: ক্লাব ক্যারিয়ারে মেসির চতুর্দশ গোলটি ক্লাসিকোয় তার প্রথম। ওই ম্যাচের ৯০তম মিনিটে সমতাসূচক গোল করার পাশাপাশি হ্যাটট্রিক করেছিলেন তিনি।

১৯তম গোল: ১৮ এপ্রিল ২০০৭- বার্সেলোনা বনাম গেতাফে: বল পায়ে ড্রিবল করে গেতাফের পুরো রক্ষণ ভেঙে এগিয়ে গিয়ে চমৎকার এক গোল করেন মেসি। ঠিক যেমনটা ১৯৮৬ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে করেছিলেন দিয়েগো মারাদোনা। গেতাফের বিপক্ষে ওই গোলের পর থেকেই আর্জেন্টাইন কিংবদন্তির সঙ্গে মেসির তুলনা শুরু হয়।

৮০তম গোল: ২৮ মে ২০১১-ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড বনাম বার্সেলোনা: চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে প্রিমিয়ার লিগ জায়ান্টদের ৩-১ ব্যবধানে হারানোর ম্যাচে দ্বিতীয় গোলটি করেছিলেন মেসি।

২২৮তম গোল: ৭ মার্চ ২০১২-বার্সেলোনা বনাম বায়ার লেভারকুসেন: প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এক ম্যাচে পাঁচ গোল করেন মেসি।

২৫২তম গোল: ৫ মে ২০১২-বার্সেলোনা বনাম এসপানিওল: এই ম্যাচে চার গোল করে প্রথম খেলোয়াড় হিসেব লা লিগার এক মৌসুমে গোলের অর্ধশতক পূণ করেন মেসি।

৩১৩তম গোল: ৫ মে ২০১৩-বার্সেলোনা বনাম রিয়াল বেতিস: ৪-২ ব্যবধানে জেতা ওই ম্যাচের শেষ গোলটি করে টানা ২১ ম্যাচে গোল করার কীর্তি গড়েন মেসি- যা লা লিগার একটি রেকর্ড। 

৩৪৭তম গোল: ২৩ মার্চ ২০১৪-রিয়াল মাদ্রিদ বনাম বার্সেলোনা: মেসির আরেকটি ক্লাসিকো হ্যাটট্রিক। এই ম্যাচেই ক্লাসিকোয় আগের সর্বোচ্চ গোলদাতা আলফ্রেদো দি স্তেফানোকে ছাড়িয়ে যান এই তারকা।

৫০০তম গোল: ২৩ মার্চ ২০১৪-রিয়াল মাদ্রিদ বনাম বার্সেলোনা: শেষ মুহূর্তে মেসির মাইলফলক ছোঁয়া গোলেই লা লিগার শিরাপা লড়াইয়ে টিকে থাকল বার্সেলোনা।

]]>
1324896 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/1-messi-celebrates-scoring-their-third-goal.jpg/ALTERNATES/w300/1+Messi+celebrates+scoring+their+third+goal.JPG 1324897 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/2-messi.jpg/ALTERNATES/w300/2+Messi.JPG 1324898 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/3-messi.jpg/ALTERNATES/w300/3+Messi.JPG 1324899 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/4-messi.jpg/ALTERNATES/w300/4+Messi.JPG 1324900 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/5-messi.jpg/ALTERNATES/w300/5+Messi.JPG 1324901 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/6-messi.jpg/ALTERNATES/w300/6+Messi.JPG 1324902 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/7-messi.jpg/ALTERNATES/w300/7+messi.JPG 2 news-bn খেলা 210 1324780 2017-04-24 14:17:28.0 ‘রিয়ালের দ্বিতীয় গোলটি ছিল বড় ধাক্কা’ 2 news-bn খেলা 210 1324803 2017-04-24 14:58:43.0 রোনালদোদের সুযোগ নষ্টে হতাশ জিদান 2 news-bn খেলা 210 1324541 2017-04-24 02:41:27.0 মেসি জেতালেন রোমাঞ্চকর ক্লাসিকো, শীর্ষে বার্সা 2 news-bn খেলা 210 1324849 2017-04-24 16:19:23.0 ‘রামোসের লাল কার্ডের জন্য হেরেছে রিয়াল’ 2 news-bn খেলা 210 1324713 2017-04-24 13:11:47.0 মেসি ইতিহাসের সেরা: এনরিকে 2 news-bn খেলা 210 1324774 2017-04-24 13:54:05.0 মেসিকে আঘাত করতে চাইনি: রামোস 2 news-bn খেলা 210 1324963 2017-04-24 19:03:29.0 ‘ইতিহাসের সেরা’ মেসিকে সুয়ারেসের অভিনন্দন 2 news-bn খেলা 210 1324974 2017-04-24 19:26:17.0 রামোসের লাল কার্ড ঠিকই ছিল: পিকে 2 news-bn খেলা 210 1324831 2017-04-24 15:45:41.0 মেসির খেলা দেখে আজও বিস্মিত হন ইনিয়েস্তা 2 news-bn খেলা 210 1324864 2017-04-24 16:46:09.0 শিরোপা-ভাগ্য রিয়ালের হাতেই: জিদান 2 news-bn খেলা 210 1324892 2017-04-24 17:58:04.0 মেসি কাণ্ডে আর অবাক হন না রাকিতিচ 2 news-bn খেলা 210 1324903 2017-04-24 18:05:58.0 পরিসংখ্যানে মেসির পাঁচশ
14 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1324759 সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 13:35:53.0 2017-04-24 16:59:08.0 পাকনার হাওরের বাঁধও ভাঙলো সুনামগঞ্জের পাকনার হাওরের বাঁধও ভাঙলো তিন সপ্তাহ ধরে আপ্রাণ চেষ্টা করেও সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলার পাকনার হাওরের বাঁধ রক্ষা করতে পারলেন না কৃষকরা। তিন সপ্তাহ ধরে আপ্রাণ চেষ্টা করেও সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলার পাকনার হাওরের বাঁধ রক্ষা করতে পারলেন না কৃষকরা। false http://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1324759.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/pakhnar_haor_1.jpg/ALTERNATES/w300/Pakhnar_Haor_1.jpg http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/20170424_134939.jpg/ALTERNATES/w300/20170424_134939.jpg
সোমবার ভোর রাতে এই হাওরের উড়াবন বাঁধ ভেঙে প্রায় ২২ হাজার একর বোরো ধানের ক্ষেত তলিয়ে গেছে বলে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জাহেদুল হক।

আগের দিনই তাহিরপুর উপজেলার শনির হাওরের বাঁধ ভেঙে সমপরিমাণ জমির ফসল তলিয়ে যায়। 

জাহেদুল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “পাহাড়ি ঢল ও বৃষ্টির কারণে হাওরটি ঝুঁকির মধ্যে ছিল। পানি বেড়ে যাওয়ায় হাওরের বাঁধটি ভেঙে যায়।

হাওরটিতে প্রায় ৯ হাজার হেক্টর বোরো ফসল আবাদ হয়েছিল বলে জানান তিনি।

হাওরের কৃষক আলী আজম জানান, এ মাসের শুরু থেকেই হাওরের বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে পানি ঢুকতে শুরু করলে কৃষকরা স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ করছিলেন।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, উড়াবন বাঁধসহ ঝুঁকিপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে বাঁশ, বালুর বস্তা ও মাটি ফেলে কৃষকরা হাওরটি রক্ষা করার চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না।

৪০ হাজার টাকা ধার করে বোরো চাষ করেছিলেন কৃষক আনসার মিয়া, তার কণ্ঠে ঝরে পড়লো হাহাকার।

আনসার বলেন, “আর কয়েক দিন হারওটি টিকে থাকলে ধান কাটা যেত। ভোর রাতে ধান পানিতে তলিয়ে গেছে। এখন কী করে ঋণের টাকা দিব আর কী করে বউ-বাচ্চাকে খাওয়াবো, বুঝতে পারছি না।”

এ মাসের শুরুতেই পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জ, সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, নেত্রকোনা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হাওরের বিস্তীর্ণ এলাকার বোরো ধান তলিয়ে যায়। হাওরের বাঁধগুলো মেরামত ও নতুন করে নির্মাণে দুর্নীতির কারণেই এ ফসলহানি হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে।

গত দুই বছরে সুনামগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে হাওরের ২৮টি বাঁধ নির্মাণের জন্য ১১৬টি প্যাকেজে দরপত্র আহ্বান করে পানি উন্নয়ন বোর্ড। কিন্তু সুনামগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী ও অন্যান্যরা ঠিকাদাররা যোগসাজশ করে কোনো কাজ না করেই দুর্নীতি ও অনিয়মের মাধ্যমে ২৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন।

‘হাওর অ্যাডভোকেসি’ নামে একটি সংগঠন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের এক পরিসংখ্যান উল্লেখ করে জানায়, এবার সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জে এক লাখ ৭১ হাজার ১১৫ হেক্টর জমির ধান পানিতে ডুবে গেছে। এর মধ্যে সুনামগঞ্জেরই এক লাখ ৩০ হাজার হেক্টর ধানের জমি পানিতে তলিয়ে গেছে।

]]>
1324807 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/pakhnar_haor_1.jpg/ALTERNATES/w300/Pakhnar_Haor_1.jpg 1324806 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/20170424_134939.jpg/ALTERNATES/w300/20170424_134939.jpg 1324808 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/pakhnar_haor_2.jpg/ALTERNATES/w300/Pakhnar_Haor_2.jpg 1324809 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/pakhnar_haor_3.jpg/ALTERNATES/w300/Pakhnar_Haor_3.jpg 1324810 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/pakhnar_haor_4.jpg/ALTERNATES/w300/Pakhnar_Haor_4.jpg 1324757 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/18111073_10212943104315064_.jpg/ALTERNATES/w300/18111073_10212943104315064_.jpg 1324758 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/18120394_10212943105035082_.jpg/ALTERNATES/w300/18120394_10212943105035082_.jpg
15 2 Home world_bn বিশ্ব news-bn 200 1325064 নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 20:46:17.0 2017-04-24 21:08:34.0 ছত্তিশগড়ে মাওবাদী হামলায় ২৬ জওয়ান নিহত ছত্তিসগড়ে মাওবাদী হামলায় ২৬ জওয়ান নিহত ভারতের ছত্তিশগড়ের সুকমা জেলায় মাওবাদী বিদ্রোহীদের হামলায় সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআইরপিএফ) ২৬ সদস্য নিহত এবং ছয়জন আহত হয়েছে। ভারতের ছত্তিসগড়ের সুকমা জেলায় মাওবাদী বিদ্রোহীদের হামলায় সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআইরপিএফ) ২৬ সদস্য নিহত এবং ছয়জন আহত হয়েছে। false http://bangla.bdnews24.com/world/article1325064.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/india.jpg/ALTERNATES/w300/India.jpg
স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়, ৭৪ ব্যাটেলিয়নের সদস্যরা সুকমা জেলায় সড়ক নির্মাণ কাজে নিয়োজিত শ্রমিকদের সুরক্ষার দায়িত্ব পালন করছিল। স্থানীয় সময় সোমবার দুপুর ১টার দিকে তাদের উপর হামলা শুরু হয়।

গৃহমন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, আহতদের হেলিকপ্টারে করে রাইপুর এবং জগদলপুরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এখন পর্যন্ত দুইটি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

হামলায় বেঁচে যাওয়া একজন সাংবাদিকদের বলেন, “মাওবাদীরা প্রথমে স্থানীয়দের ঘটনাস্থলে পাঠিয়ে সিআরপিএফ সদস্যদের অবস্থান সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করে।”

“তারপর প্রায় ৩০০ জনের একটি দল আমাদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে..... ওই দলে গ্রামবাসী, নারী এবং কালো পোশাক পরা লোকজন ছিল। তারা স্বয়ংক্রিয় আগ্নেয়াস্ত্র, একে৪৭ এবং রাইফেল নিয়ে হামলা করে।”

এনডিটিভ’র খবরে বলা হয়, নিকটস্থ ক্যাম্প থেকে সিআরপিএফ সদস্যরা ঘটনাস্থলে রওয়ানা হয়েছে।

 

হামলার পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এক টুইটে বলেন, “ছত্তিসগড়ে সিআরপিএফ সদস্যদের উপর হামলা কাপুরুষোচিত এবং দুখঃজনক। আমরা গভীরভাবে পরিস্থিতির উপর নজর রাখছি।”

২০১০ সালের ৬ এপ্রিলের পর এটিই মাওবাদীদের সবচে রক্তক্ষয়ী হামলা। সেবার দান্তেওয়াদা এলাকায় মাওবাদীদের হামলায় ৭৬ সিআরপিএফ সদস্য নিহত হয়।

এবারের হামলার পর ছত্তিসগড়ের মুখ্যমন্ত্রী রমণ সিং দিল্লি সফর বাতিল করেছেন এবং জরুরি বৈঠকের জন্য রাইপুর রওয়ানা হয়েছেন।

দক্ষিণ বাস্তার অংশ সুকমায় মাওবাদীরা খুবই সক্রিয়। সুকমায় গত ১১ মার্চ মাওবাদীদের হামলায় ১২ সিআরপিএফ সদস্য নিহত এবং চারজন আহত হয়। তারাও একটি সড়ক নির্মাণের সময় শ্রমিকদের সুরক্ষা দিচ্ছিল।

হামলার পর ইউনিয়ন গৃহমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, এ হামলা মাওবাদীদের ‘হতাশ হয়ে পড়ার’ ইঙ্গিত। তাদের বিরুদ্ধে সেনা অভিযানে ‘অভূতপূর্ব সাফল্য’ পাওয়ার কারণেই তারা হতাশ হয়ে পড়েছে।

গত বছর লোকসভায় এক বিবৃতিতে রাজনাথ বলেছিলেন, সেনা অভিযানে ১৩৫ মাওবাদী নিহত, ৭০০ জন আটক এবং ১১৯৮ জন আত্মসমর্পণ করেছে। মাওবাদীদের হামলার হারও ১৫ শতাংশ কমে গেছে।

]]>
1325063 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/india.jpg/ALTERNATES/w300/India.jpg
16 2 Home stocks অর্থ ও পুঁজিবাজার news-bn 9835 1325017 নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 20:11:14.0 2017-04-24 20:20:19.0 ডিএসইতে লেনদেন ৫০০ কোটি টাকার নিচে ডিএসইতে লেনদেন ৫০০ কোটির নিচে সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে বাংলাদেশের দুই পুঁজিবাজারেই মূল্যসূচক এবং লেনদেন কমেছে। সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে বাংলাদেশের দুই পুঁজিবাজারেই মূল্যসূচক এবং লেনদেন কমেছে। false http://bangla.bdnews24.com/stocks/article1325017.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/dse.jpg/ALTERNATES/w300/DSE.jpg
সোমবার প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২ পয়েন্টের বেশি কমেছে। এর সাথে কমেছে লেনদেন ।

অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই কমেছে প্রায় ২৪ পয়েন্ট। লেনদেন ও কমেছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, রোববার ডিএসইতে ৪৯৯ কোটি ৯৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের তুলনায় ৬ কোটি ২৯ লাখ টাকা কম।

এ নিয়ে প্রায় সাড়ে পাঁচ মাস পরে ডিএসইতে লেনদেন ৫০০ কোটির নিচে নেমেছে, এর আগে ৫০০ কোটির নিচে লেনদেন হয়েছিল ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর।  

সেদিন লেনদেন হয়েছিল ৪৬৮ কোটি ৬৮ লাখ টাকা।

রোববার ডিএসইতে ৫০৬ কোটি ২২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল।

সোমবার ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩২৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১০টির, কমেছে ১৭৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির শেয়ার দর।

ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্যসূচক ২ দশমিক ৬১ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৪৩৫ দশমিক ৬৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৩ দশমিক ২৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ২৫৯ পয়েন্টে। আর ডিএস৩০ সূচক ৪ দশমিক ৮০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে দুই হাজার ১৯ পয়েন্টে।

অন্যদিকে সোমবার সিএসইতে ৩৩ কোটি ৬৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। রোববার এই বাজারে ৩৪ কোটি ৩২ লাখ টাকার শেয়ার হাতবদল হয়েছিল।

সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৪ দশমিক ৩১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৮১৭ দশমিক ৬৭ পয়েন্টে।

লেনদেন হয়েছে ২৪০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬৯টির। কমেছে ১৪১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টির দর।

]]>
1325015 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/dse.jpg/ALTERNATES/w300/DSE.jpg 1325016 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/cse.jpg/ALTERNATES/w300/CSE.jpg
17 2 Home business_bn বাণিজ্য news-bn 213 1325012 নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 20:08:43.0 2017-04-24 20:08:43.0 হাওরের কৃষকদের ঋণ আদায় স্থগিত হাওরের কৃষকদের ঋণ আদায় স্থগিত অসময়ের ভারি বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে ফসল নষ্ট হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হাওরাঞ্চলের কৃষকদের কাছ থেকে কৃষি ঋণের কিস্তি আদায় স্থগিত রাখতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। অসময়ের ভারি বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে ফসল নষ্ট হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হাওরাঞ্চলের কৃষকদের কাছ থেকে কৃষি ঋণের কিস্তি আদায় স্থগিত রাখতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। false http://bangla.bdnews24.com/business/article1325012.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/pakhnar_haor_4.jpg/ALTERNATES/w300/Pakhnar_Haor_4.jpg
সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংক এক প্রজ্ঞাপন জারি করে সব তফসিলি ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহী কর্মকর্তাদের এ নির্দেশ দিয়েছে।

‘পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের কাছ থেকে কৃষি ঋণ আদায় স্থগিত করার পাশাপাশি সহজ কিস্তি আদায়ের মাধ্যমে ঋণ নিয়মিতকরণ বা ডাউন পেমেন্টের শর্ত শিথিল করে ঋণ পুনঃতফসিলিকরণ’ করতে বলা হয়েছে।

সম্প্রতি সিলেট, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা, কিশোরগঞ্জ, হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার ও ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় পাহাড়ি ঢলের পানি ও ভারি বর্ষণে সৃষ্ট আগাম বন্যায় ফসল নষ্ট হয়ে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছেন কৃষকরা ।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, “বিশেষ করে হাওরাঞ্চলের প্রধান ফসল বোরো ধান ও অন্যান্য ফসল পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় কৃষকরা অতিশয় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। কাঁচা-পাকা ধান পানিতে পঁচে পানিদূষণ জনিত কারণে মৎস্য সম্পদেরও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।”

আকস্মিক এই বন্যা মোকাবেলায় কৃষকদের ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে সহযোগিতার জন্য ঋণ আদায় স্থগিতের সঙ্গে আরও কিছু পদক্ষেপ দ্রুত নিতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

রোপা আমনসহ অন্যান্য ফসল ও মৎস্য খাতে প্রকৃত চাহিদা ও বাস্তবতার নিরিখে নতুন ঋণ বিতরণ এবং রবি শস্য ও আমদানি বিকল্প ফসলে (ডাল, তেলবীজ, মসলা ও ভুট্টা) রেয়াতি হারে সুদে ঋণ দেওয়া বাড়াতে বলা হয়েছে নির্দেশনায়।

এই কৃষকদের বিরুদ্ধে চলমান সার্টিফিকেট মামলাগুলো বন্ধ রেখে ‘সোলেনামার’ মাধ্যমে সেগুলো নিষ্পত্তি করার এবং নতুন করে কোনো সার্টিফিকেট মামলা না করতে নির্দেশ দিয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলেছে, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা যাতে প্রকৃত চাহিদা অনুযায়ী যথাসময়ে কোনো হয়রানি ছাড়া নতুন ঋণ সুবিধা নিতে পারে সে বিষয়ে নিবিড় তদারকি করতে হবে।

এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের বসতবাড়ির আঙিনায় হাঁস-মুরগি ও গবাদি পশু পালন, গো-খাদ্য উৎপাদন ও ক্রয় খাতে ঋণ দেওয়ার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও নিতে বলেছে।

]]>
1324810 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/pakhnar_haor_4.jpg/ALTERNATES/w300/Pakhnar_Haor_4.jpg
18 2 Home ctg চট্টগ্রাম news-bn 10023 1324989 চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 19:49:56.0 2017-04-24 20:14:03.0 গাছের মগডালে অজগর, তছনছ কাকের বাসা গাছের মগডালে অজগর, তছনছ কাকের বাসা চট্টগ্রামে মাটি থেকে কমপক্ষে ৪০ ফিট উঁচুতে একটি গাছের ডালে চড়ে বসা অজগরকে উদ্ধার করেছে বন বিভাগ। চট্টগ্রামে মাটি থেকে কমপক্ষে ৪০ ফুট উঁচুতে একটি গাছের ডালে চড়ে বসা অজগরকে উদ্ধার করেছে বন বিভাগ। false http://bangla.bdnews24.com/ctg/article1324989.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/python--1-.jpg/ALTERNATES/w300/Python-%281%29.jpg
সোমবার খাবারের সন্ধানে মিরসরায় পৌরসভার ব্যস্ত জনপদে চলে আসা অজগরটিকে আট ঘণ্টা পর উদ্ধার করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সাদনান সময় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, সকাল ৮টার দিকে পৌরসভার দুই নম্বর ওয়ার্ডের মৌমিনটোলায় ‘তিন বন্ধু ভবনের’ সামনের একটি শিরিষ গাছে অজগরটি দেখতে পান এলাকার বাসিন্দারা।

গাছটির পাশের পাঁচতলা একটি ভবনের বাসিন্দারা প্রথম সাপটিকে দেখতে পান। পরে এলাকার মানুষের ভিড় জমে গাছে চড়া অজগরটি দেখতে।

সময় বলেন, “মাটি থেকে ৪০ ফুট উপরে গাছটির একটি ডালে চড়ে সাপটি কয়েকটি কাকের বাসা তছনছ করে।”

চট্টগ্রাম উত্তর বন বিভাগের মিরসরায় অঞ্চলের কর্মকর্তা রেজাউল করিম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, খবর পেয়ে দুপুর সাড়ে তিনটার দিকে অজগরটি উদ্ধার করা হয়।

তিনি বলেন, “এটির বয়স অল্প। লম্বায় সাড়ে ছয় ফুট।”  

দুই কিলোমিটার দূরের ‘রিজার্ভ ফরেস্ট’ থেকে এটি লোকালয়ে চলে আসে বলে জানান তিনি।

“রাতে ‍বৃষ্টির মধ্যে অজগরটি খাবারের সন্ধানে বের হয়ে লোকালয়ে চলে আসে। সকাল হতেই গাছের ডালে উঠে পড়ে। সাধারণত এ সাপগুলো বৃষ্টির মধ্যে বড় ব্যাঙের সন্ধানে থাকে।”

অজগরটি ‘রামগড়-সীতাকুন্ড রিজার্ভ ফরেস্টে’ ছাড়া হবে বলে জানান রেজাউল করিম।

]]>
1324987 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/python--1-.jpg/ALTERNATES/w300/Python-%281%29.jpg 1324988 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/python--4-.jpg/ALTERNATES/w300/Python-%284%29.jpg
19 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-bn 9945 1325032 পাবনা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম পাবনা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 20:15:21.0 2017-04-24 20:15:21.0 পাবনায় যুবককে কুপিয়ে হত্যা পাবনায় যুবককে কুপিয়ে হত্যা পাবনা পৌর এলাকায় এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। পাবনা পৌর এলাকায় এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। false http://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1325032.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/11/06/chapatikhun.jpg/ALTERNATES/w300/chapati%2Bkhun.jpg
সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে শহরের উত্তর শালগাড়িয়া মহল্লার রেল স্টেশন পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে বলে পাবনা সদর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান।

নিহত বকুল সরদার (৩৫) ওই মহল্লার বাগান পাড়ার আকুব্বরের ছেলে।

ওসি রাজ্জাক জানান, শহরের বাইপাস মোড় থেকে বাড়ি যাচ্ছিলেন বকুল। পথে দুর্বৃত্তরা তার গতিরোধ করে চাপাতি ও ছুরি দিয়ে কোপায়।

“এ সময় তিনি মাটিতে পড়ে গেলে তারা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া পথে মৃত্যু হয়।”

খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে।

তিনি বলেন, তবে তাৎক্ষণিকভাবে হত্যার কারণ ও হত্যাকারীদের সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

]]>
1238424 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/11/06/chapatikhun.jpg/ALTERNATES/w300/chapati%2Bkhun.jpg
20 2 Home politics_bn রাজনীতি news-bn 198 1324832 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-04-24 15:49:03.0 2017-04-24 16:54:28.0 বিএনপিকে চাঙা করার ভার ৫১ জনের ওপর বিএনপিকে চাঙা করার ভার ৫১ জনের ওপর দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে ঝিমিয়ে থাকা দলকে পুনর্গঠনে ৫১ নেতার নেতৃত্বে সাংগঠনিক দল গঠন করেছে বিএনপি। দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে ঝিমিয়ে থাকা দলকে পুনর্গঠনে ৫১ নেতার নেতৃত্বে সাংগঠনিক দল গঠন করেছে বিএনপি। false http://bangla.bdnews24.com/politics/article1324832.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/bnp-rizvi.jpg/ALTERNATES/w300/BNP-Rizvi.jpg
এই সব টিম সারাদেশে কর্মীসভা ও দলের সাংগঠনিক কার্য্ক্রম জোরদারে নির্দেশনা দেবেন বলে দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী জানিয়েছেন।

সোমবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “সারা দেশে প্রতিটি জেলায় কর্মীসভা করবেন দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। সেখানে জাতীয় রাজনীতি নিয়ে তারা আলোচনা করবেন, সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে তারা আলোচনা করবেন।

“এই ৫১টি টিমের নেতারা বিএনপির ৭৫টি রাজনৈতিক জেলায় কর্মীসভায় অংশ নেবেন।”

আগের দিন এক আলোচনা সভায় শিগগিরই ‘শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক লড়াইয়ের ডাক’ আসবে জানিয়ে সমমনা দলগুলোকে প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীসহ এই দলনেতাদের মধ্যে ৬ জন স্থায়ী কমিটির সদস্য, ১৯ জন ভাইস চেয়ারম্যান, ১০ জন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা, ৬ জন যুগ্ম মহাসচিব ও ৫ জন সাংগঠনিক সম্পাদক রয়েছেন।

এছাড়া দলের বিশেষ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি ও  ঝিনাইদহ জেলা সভাপতি মশিউর রহমানও দায়িত্ব পেয়েছেন।

রিজভী সাংবাদিকদের বলেন, এই নেতারা প্রত্যেকে নিজেদের সাংগঠনিক এলাকায় যাওয়ার সময় কয়েকজনের একটি দল নিজে বাছাই করে সঙ্গে নিয়ে যাবেন।

 

বিএনপির ৫১ টিম: কার দায়িত্বে কোন এলাকা

পদ

নেতার নাম

এলাকা

মহাসচিব

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ এবং মানিকগঞ্জ

স্থায়ী কমিটির সদস্য

খন্দকার মোশাররফ হোসেন

চট্টগ্রাম উত্তর ও দক্ষিণ জেলা ও মহানগর

স্থায়ী কমিটির সদস্য

মির্জা আব্বাস

বরিশাল উত্তর ও দক্ষিণ এবং মহানগর

স্থায়ী কমিটির সদস্য

গয়েশ্বর চন্দ্র রায়

রাজশাহী জেলা ও মহানগর

স্থায়ী কমিটির সদস্য

আবদুল মঈন খান

নোয়াখালী ও লক্ষীপুর

স্থায়ী কমিটির সদস্য

নজরুল ইসলাম খান

রংপুর জেলা ও মহানগর

স্থায়ী কমিটির সদস্য

আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী

সিলেট জেলা ও মহানগর

ভাইস চেয়ারম্যান

আবদুল্লাহ আল নোমান

ময়মনসিংহ উত্তর ও দক্ষিণ

ভাইস চেয়ারম্যান

অধ্যাপক এম এ মান্নান

নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর

ভাইস চেয়ারম্যান

হাফিজ উদ্দিন আহমেদ

নীলফামারী ও লালমনিরহাট

ভাইস চেয়ারম্যান

চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ

রাজবাড়ী ও গোপালগঞ্জ

ভাইস চেয়ারম্যান

আলতাফ হোসেন চৌধুরী

ঝালকাঠি

ভাইস চেয়ারম্যান

সেলিমা রহমান

নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জ

ভাইস চেয়ারম্যান

মোহাম্মদ শাহজাহান

মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জ

ভাইস চেয়ারম্যান

মীর মো. নাসিরউদ্দিন

চাঁদপুর ও কক্সবাজার

ভাইস চেয়ারম্যান

খন্দকার মাহবুব হোসেন

ঢাকা জেলা

ভাইস চেয়ারম্যান

রুহুল আলম চৌধুরী

কুড়িগ্রাম

ভাইস চেয়ারম্যান

ইনাম আহমেদ চৌধুরী

শেরপুর

ভাইস চেয়ারম্যান

আমিনুল হক

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

ভাইস চেয়ারম্যান

আবদুল আউয়াল মিন্টু

কুমিল্লা উত্তর ও ব্রাক্ষণবাড়ীয়া

ভাইস চেয়ারম্যান

এজেডএম জাহিদ হোসেন

সিরাজগঞ্জ ও পাবনা

ভাইস চেয়ারম্যান

শামসুজ্জামান দুদু

কুমিল্লা দক্ষিণ ও বান্দরবান

ভাইস চেয়ারম্যান

আহমেদ আজম খান

জামালপুর ও শরীয়তপুর

ভাইস চেয়ারম্যান

জয়নাল আবেদীন

গাজীপুর

ভাইস চেয়ারম্যান

নিতাই রায় চৌধুরী

বরগুনা

ভাইস চেয়ারম্যান

শওকত মাহমুদ

রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ি

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

আমান উল্লাহ আমান

টাঙ্গাইল

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

মিজানুর রহমান মিনু

পঞ্চগড় ও ঠাকুরগাঁও

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

আবুল খায়ের ভুঁইয়া

মাগুরা

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

জয়নুল আবদিন ফারুক

জয়পুরহাট

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

অধ্যাপক জয়নাল আবেদীন

ঝিনাইদহ

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

মনিরুল হক চৌধুরী

মেহেরপুর

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

ফজলুর রহমান

নরসিংদী

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

হাবিবুর রহমান হাবিব

পটুয়াখালী

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

আতাউর রহমান ঢালী

ফেনী

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

নাজমুল হক নান্নু

ফরিদপুর

জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব

রুহুল কবির রিজভী

খুলনা ও মহানগর

যুগ্ম মহাসচিব

মাহবুবউদ্দিন খোকন

মাদারীপুর

যুগ্ম মহাসচিব

মজিবুর রহমান সারোয়ার

ভোলা

যুগ্ম মহাসচিব

সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল

যশোর

যুগ্ম মহাসচিব

খায়রুল কবির খোকন

নাটোর

যুগ্ম মহাসচিব

হাবিবউন নবী খান সোহেল

বগুড়া ও গাইবান্ধা

যুগ্ম মহাসচিব

হারুন অর রশীদ

নওগাঁ

সাংগঠনিক সম্পাদক

ফজলুল হক মিলন

মুন্সীগঞ্জ

সাংগঠনিক সম্পাদক

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু

বাগেরহাট ও চুয়াডাঙ্গা

সাংগঠনিক সম্পাদক

নজরুল ইসলাম মঞ্জু

নড়াইল

সাংগঠনিক সম্পাদক

আসাদুল হাবিব দুলু

দিনাজপুর ও সৈয়দপুর

সাংগঠনিক সম্পাদক

সাখাওয়াত হোসেন জীবন

সুনামগঞ্জ

বিশেষ সম্পাদক

আসাদুজ্জামান রিপন

পিরোজপুর

প্রচার সম্পাদক

শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি

সাতক্ষীরা ও ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহ জেলা সভাপতি

মশিউর রহমান

কুষ্টিয়া

]]>
1324844 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/04/24/bnp-rizvi.jpg/ALTERNATES/w300/BNP-Rizvi.jpg