bdnews24.com - Home http://bangla.bdnews24.com/ The RSS feed of bdnews24.com en Bangladesh News 24 Hours Ltd. 2016-12-10 18:04:31.0 2016-12-10 18:04:31.0 Home customGroupedContent 1 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1342027 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-30 08:14:49.0 2017-05-30 11:35:40.0 স্থলভাগে উঠেছে মোরার ‘চোখ’ স্থলভাগে উঠেছে মোরার ‘চোখ’ ঘণ্টায় একশ কিলোমিটারের বেশি গতির বাতাস নিয়ে উপকূলরেখা অতিক্রম করার পর স্থলভাগে উঠে এসেছে প্রবল ঘূর্ণিঝড় মোরার কেন্দ্রভাগ বা চোখ। ঘণ্টায় একশ কিলোমিটারের বেশি গতির বাতাস নিয়ে উপকূলরেখা অতিক্রম করার পর স্থলভাগে উঠে এসেছে প্রবল ঘূর্ণিঝড় মোরার কেন্দ্রভাগ বা চোখ। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1342027.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0035.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0035.jpg
এর প্রভাবে কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম অঞ্চলে বৃষ্টির সঙ্গে চলছে প্রচণ্ড ঝড়ো হাওয়া। দুর্যোগপূর্ণ এই আবহওয়া আরও ১২ ঘণ্টা অব্যাহত থাকতে পারে বলে আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন।   

প্রাথমিকভাবে কুতুবদিয়া, কক্সবাজার, টেকনাফ ও সেন্টমার্টিনে বেশ কিছু কাঁচা ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত এবং গাছপালা ভেঙে পড়েছে বলে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব গোলাম মোস্তাফা জানিয়েছেন। তবে প্রাণহানির কোনো তথ্য আসেনি।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ জানান, মঙ্গলবার ভোর ৬টার দিকে ঘূর্ণিঝড়টি কক্সবাজার-চট্রগ্রাম উপকূল অতিক্রম শুরু করে।

“ওই সময় বাতাসের গতিবেগ কোথাও কোথাও ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটারের বেশি ছিল। ঘূর্ণিঝড়টি উপকূল অতিক্রম করে পুরোপুরি স্থলভাগে আসতে কয়েক ঘণ্টা সময় লাগতে পারে।”

আবহাওয়া অফিস চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত এবং মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে।

উপকূলীয় জেলা কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলো ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় রয়েছে।

ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর ক্ষেত্রে ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেত প্রযোজ্য হবে।

 

মোরার প্রভাবে উপকূলীয় জেলাগুলোর নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪ থেকে ৫ ফুট বেশি উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে বলে আভাস দিয়ে রেখেছে আবহাওয়া অফিস। তবে ভাটার সময় ঝড়টি উপকূল অতিক্রম শুরু করায় জলোচ্ছ্বাস ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারেনি বলে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের এনডিসি তাহমিদুর রহমান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “সকাল থেকে প্রবল বেগে ঝড়ো হাওয়া বইছে। সঙ্গে প্রচর বৃষ্টি। রাস্তাঘাটে মানুষ নেই। বেশ কিছু কাঁচাঘর ও গাছপালা বিধ্বস্ত হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকালেও লোকজনকে আশ্রয় কেন্দ্রে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।”

সাগর উত্তাল থাকায় সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে চট্টগ্রাম বন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে। বিআইডব্লিউটিএ সোমবার বিকাল থেকেই সারা দেশে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ রেখেছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে চট্টগ্রামের শাহ আমানত ও কক্সবাজার বিমানবন্দরে উড়োজাহাজ ওঠা-নামাও বন্ধ।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের কর্মকর্তা জলিল উদ্দিন ভুঁইয়া জানান, ছয় জেলায় ৩ লাখ ১৭ হাজারের বেশি লোককে রাতেই নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। বেলা ১০টা পর্যন্ত হতাহতের কোনো তথ্য তারা পাননি।

গতিপথ

জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান খান জানান, ঘূর্ণিঝড়টির অগ্রভাগ ভোর ৬টার দিকে সেন্টমার্টিন-টেকনাফ উপকূল স্পর্শ করে। সে সময় ওই এলাকায় বইতে শুরু করে তীব্র ঝড়ো হাওয়া।

রাতভর থেমে থেমে দমকা হাওয়ার পর সকাল সাড়ে ৭টার দিকে কুতুবদিয়া উপজেলায় ঝড়ের ধাক্কা লাগে।

আবহওয়ার সর্বশেষ বুলেটিনে বলা হয়, ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৬৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ঘন্টায় ৮৯ কিলোমিটার, যা দমকা বা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ১১৭ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছিল।

তবে আবদুর রহমান জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানার পর টেকনাফে বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১৩৫ কিলোমিটার।

কক্সবাজারে ১১৪ কিলোমিটার, চট্টগ্রামে ১২৮ কিলোমিটার এবং কুতুবদিয়ায় ৮৪ কিলোমিটার পর্যন্ত বাতাসের গতি রেকর্ড করা হয়েছে।

তিনি বলেন, “চট্টগ্রাম-কক্সবাজারের মাঝখান দিয়ে সাতকানিয়া ও আশপাশ এলাকা হয়ে পার হওয়ার সময় প্রচুর বৃষ্টি ঝরিয়ে যাবে এই ঘূর্ণিঝড়। উপকূল অতিক্রম শেষ করে তা স্থল নিম্নচাপে পরিণত হলে ধীরে ধীরে দুর্বল হয়ে পড়বে।”

বর্তমানে মোরার যে গতিপথ, তাতে বাংলাদেশ পার হয়ে ত্রিপুরা, মনিপুর, মেঘালয় পর্যন্ত এর প্রভাব থাকতে পারে। আবার বাংলাদেশের সীমানার ভেতরেও দুর্বল হয়ে পড়তে পারে।  

ঘূর্ণিঝড়টি স্থল নিম্নচাপে পরিণত হলে মহাবিপদ সংকেত নামিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত হবে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ জানান।

“ঘূর্ণিঝড় কেটে গেলেও সাগর উত্তাল থাকবে, সেজন্য সমুদ্রবন্দরের সতর্কবার্তা থাকবে। তবে আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।”

ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টা নাগদ ঘূর্ণিঝড়টি দুর্বল হয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। আর মধ্যরাতের মধ্যেই তা পরিণত হতে পারে লঘুচাপে।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ভারতের আসাম, মিজোরাম, মেঘালয় ও ত্রিপুরাতেও বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে।

প্রবল বৃষ্টি ঝরাবে মোরা

বুয়েটের ইন্সটিটিউট অব ওয়াটার অ্যান্ড ফ্লাড ম্যানেজমেন্ট (আইডব্লিউএফএম)-এর পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে মঙ্গলবার সকাল থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজার ও আশপাশের এলাকায় ১২৮ মিলিমিটার থেকে ২৫৬ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টি হতে পারে।

ইনস্টিটিউটের সিনিয়র রিসার্চ ফেলো মোহন কুমার দাস বলেন, “সাগরে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ু কার্যকর রয়েছে। সেই সঙ্গে ভারি জলীয় বাষ্প নিয়ে ঘূর্ণিঝড়টি উপকূল অতিক্রম করার পথে অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে।”

৬৫ থেকে ১১৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাতকে তাকে ‘ভারি বর্ষণ’, ১১৫ থেকে ২০৫ মিলিমিটার পর্যন্ত ‘অতি ভারি বর্ষণ’ এবং ২০৫ মিলিমিটারের বেশি হলে তাকে ‘চরম ভারি বর্ষণ’ বলেন আবহাওয়াবিদরা।

প্রতিজেলায় ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব গোলাম মোস্তাফা জানান, ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় রাতভর ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

ভোর রাত পর্যন্ত তিন লাখের বেশি মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। দুযোগ পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রতি জেলায় ১০ লাখ টাকা করে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ সবসময় পরিস্থিতি জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছে এবং স্বেচ্ছ্বাসেবক দলের কাজ তদারক করছে।

“কোনোভাবেই জীবনের যাতে ক্ষতি না হয় সে চেষ্টা করছি আমরা। সাময়িকভাবে মালামালের ক্ষতি হলেও তা পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হবে।”

 

]]>
1342093 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0035.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0035.jpg 1342114 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/mora-jtwc.jpg/ALTERNATES/w300/MORA+JTWC.jpg 1342094 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0036.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0036.jpg 1342095 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0038.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0038.jpg 1342096 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0041.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0041.jpg 1342097 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0046.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0046.jpg 1342098 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0001.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0001.jpg 1342099 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0006.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0006.jpg 1342101 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0009.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0009.jpg 1342102 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0012.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0012.jpg 1342103 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0017.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0017.jpg 1342104 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0021.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0021.jpg 1342105 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/01_mora_cox-s-bazaar_storm_mm_30052017_0033.jpg/ALTERNATES/w300/01_Mora_Cox%27s+Bazaar_Storm_MM_30052017_0033.jpg 1342033 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/mora-coxbazar-01.jpg/ALTERNATES/w300/Mora-Coxbazar-01.jpg 1342034 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/mora-coxbazar-03.jpg1/ALTERNATES/w300/Mora-Coxbazar-03.jpg 1342026 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/mora-chandpur.jpg/ALTERNATES/w300/MORA-Chandpur.jpg 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1342005 2017-05-29 23:57:43.0 ঘূর্ণিঝড় মোরার সর্বশেষ 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341970 2017-05-29 22:26:32.0 আশ্রয়কেন্দ্রে কয়েক লাখ মানুষ
2 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1342030 কক্সবাজার প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম কক্সবাজার প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-30 08:46:09.0 2017-05-30 11:17:57.0 মোরায় কক্সবাজারে দুই শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত মোরায় কক্সবাজারে দুই শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত ঘূর্ণিঝড় মোরা উপকূলে আঘাত করায় দুই শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত হওয়ার পাশাপাশি বেশ কিছু গাছপালা উপড়ে গেছে। ঘূর্ণিঝড় মোরা উপকূলে আঘাত করায় দুই শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত হওয়ার পাশাপাশি বেশ কিছু গাছপালা উপড়ে গেছে। false http://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1342030.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/05/30/mora-coxbazar-03.jpg/ALTERNATES/w300/Mora-Coxbazar-03.jpg
ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটারের বেশি গতির বাতাস নিয়ে মঙ্গলবার ভোর ৬টার দিকে কুতুবদিয়ার কাছ দিয়ে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম শুরু করে ঘূর্ণিঝড়টি।

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নূর আহম্মদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “এ ইউনিয়নে দেড় শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। অনেক জায়গায় গাছপালা উপড়ে গেছে।

“আশপাশে যতদূর দেখেছি তাতে কমপক্ষে ৭০ ভাগ কাঁচা ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে বলে আমার মনে হচ্ছে। অগণিত সংখ্যক গাছপালা ভেঙে গেছে। আমার নিজের সেমিপাকা বাড়িটিরও আংশিক ভেঙে গেছে।”

ভোর ৬টার দিকে ঘূর্ণিঝড়টি সেন্টমার্টিনে আঘাত হানে জানিয়ে তিনি সকাল ৮টায় বলেন, এখানে এখন প্রচণ্ড ঝড়ো বাতাসের সঙ্গে মাঝারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে।

তবে ঝড়ের আগেই সবাই আশ্রয়কেন্দ্রসহ উঁচু ভবনগুলোয় আশ্রয় নিয়েছে বলে তিনি জানান। সকাল ৮টা পর্যন্ত তিনি কোনো হতাহতের খবর পাননি বলেও জানান।

টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়ন এলাকায়ও বেশ কিছু বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে, উপড়ে গেছে কিছু গাছপালা। এছাড়া কিছু লোক আহত হয়েছে বলে শুনেছেন সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নূর হোসেন। তবে তিনি আহতদের সম্পর্কে নির্দিষ্ট কোনো তথ্য দিতে পারেননি।

কক্সবাজার আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ এ কে এম নাজমুল হক বলেন, ভোর ৬টার দিকে কক্সবাজার উপকূলে আঘাত হানে মোরা। তার আগে থেকেই হালকা বৃষ্টিপাত হচ্ছে। এখানে বেশ কিছু গাছপালা উপড়ে গেছে।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম জয় জানান, এ জেলায় ৫৩৮টি আশ্রয়কেন্দ্রে দুই লাখের অধিক মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। তাদের পর্যাপ্ত খাবার সরবরাহ করা হয়েছে।

“মোরা কক্সবাজারের টেকনাফ ও সেন্টমার্টিনে আঘাত হেনেছে। এতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ঘরবাড়ি ও গাছপালার। তবে কোনো ধরনের হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।”

কক্সবাজার জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, উপকূলীয় এলাকার দুই লক্ষাধিক মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। খুলে দেওয়া হয়েছে জেলার ৫৩৮টি আশ্রয়কেন্দ্র। গঠন করা হয়েছে ৮৮টি মেডিকেল টিম। প্রস্তুত রাখা হয়েছে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মসূচির আওতায় ৪১৪টি ইউনিটের ছয় হাজার স্বেচ্ছাসেবক ও রেড ক্রিসেন্টের ১৫ হাজার স্বেচ্ছাসেবক। আশ্রয়কেন্দ্রে আসা লোকজনের নিরাপত্তার পাশাপাশি নেওয়া হয়েছে খাদ্য সরবরাহেরও ব্যবস্থা।

]]>
1342029 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/05/30/mora-coxbazar-03.jpg/ALTERNATES/w300/Mora-Coxbazar-03.jpg 1342028 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/2017/05/30/mora-coxbazar-02.jpg/ALTERNATES/w300/Mora-Coxbazar-02.jpg 1342044 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/bangla-media/article1342044.bdnews/ALTERNATES/w300/MORA-Coxbazar.jpg
3 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341626 নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 14:17:08.0 2017-05-29 14:17:08.0 বিচার বিভাগকে বিক্ষুব্ধ করবেন না: প্রধান বিচারপতি বিচার বিভাগকে বিক্ষুব্ধ করবেন না: প্রধান বিচারপতি আইন মন্ত্রণালয়কে আইনের ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়ে প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা বলেছেন, এমন কিছু করা নির্বাহী বিভাগের উচিৎ হবে না, যাতে বিচার বিভাগ বিক্ষুব্ধ হয়। আইন মন্ত্রণালয়কে আইনের ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়ে প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা বলেছেন, এমন কিছু করা নির্বাহী বিভাগের উচিৎ হবে না, যাতে বিচার বিভাগ বিক্ষুব্ধ হয়। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341626.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/08/high-court_mm_180516_0008.jpg/ALTERNATES/w300/High+Court_MM_180516_0008.jpg
বিচারকদের চাকরিবিধির গেজেট প্রকাশ নিয়ে সোমবার আপিল বিভাগের শুনানিতে সুপ্রিম কোর্টের পরামর্শ ছাড়া প্রেষণে থাকা বিচারকের বিদেশযাত্রা প্রসঙ্গে প্রধান বিচারপতির এ বক্তব্য আসে।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমকে তিনি বলেন, “আপনারা যদি আইন না জানেন, তাহলে আমাদের কাছে ব্যাখ্যা চাইবেন।… সংবিধান অনুসারে ব্যাখ্যা আমরা দেব। নির্বাহী নয়। এগুলো মনে করে চলবেন।

অধস্তন আদালতের বিচারকদের চাকরির শৃঙ্খলা ও আচরণ সংক্রান্ত বিধিমালার গেজেট প্রকাশ না করে সোমবার আবারও সময়ের আবেদন করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

আড়াই বছরের বেশি সময় ধরে আটকে থাকা ওই গেজেট প্রকাশে সরকার আরও সময় চাওয়ায় প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন ৭ বিচারকের আপিল বেঞ্চ উষ্মা প্রকাশ করে এবং শুনানি শেষে আরও দুই সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়।

শুনানির শুরুতে অ্যাটর্নি জেনারেল সময়ের আবেদন জমা দিলে প্রধান বিচারপতি জানতে চান, “এটা কী?”

অ্যাটর্নি জেনারেল তখন বলেন, “সময়।”

তখন প্রধান বিচারপতি বলেন, “কারণটা কী?”

অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, “প্রসেস চলছে।”

প্রধান বিচারপতি বলেন, “আমরা হাসব না কাঁদব? হাসতে গেলেওতো কষ্ট হয়। যাই হোক, আমি কিছু বলছি না। স্বাধীনতার ৪৫ বছর পার হয়ে গেছে। কিছু ত্রুটি রয়ে গেছে। কিছু অনিয়ম আছে। এগুলো নিয়ে সারাজীবন নয়। আমরা চাচ্ছি একটা সিস্টেমে চলে আসতে। প্রধান বিচারপতি অনিয়ম থেকে নিয়মে আসতে গেলে বলে, গেল গেল।”

এরপর প্রেষণে থাকা বিচারকদের প্রেষণে প্রশিক্ষণ নিতে বিদেশে পাঠানো নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট আর আইন মন্ত্রণালয়ের সাম্প্রতিক টানাপড়েনের প্রসঙ্গ আসে প্রধান বিচারপতির কথায়। 

“পত্রিকায় বলা হয়, প্রধান বিচারপতির সঙ্গে সরকারের দ্বন্দ্ব। আপনার মিনিস্ট্রিকে (আইন মন্ত্রণালয়) বলবেন, জেনারেল ক্লজ অ্যাক্টের ২১ পড়তে। সরকারকে বলবেন, যেসব বিচারক প্রেষণে আছে, তারা সরকারি কর্মচারী না। সুপ্রিম কোর্ট জানতে চেয়েছিল প্রেষণে থাকাদের মধ্যে কারা বিদেশে যায় তাদের নাম।”

নিম্ন আদালতের বিচারকদের প্রশিক্ষণ দিতে গত ২৮ র্মাচ আইন ও বিচার বিভাগের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ার ওয়েস্টার্ন সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়। এর প্রথম ধাপে প্রেষণে ১৭ জন বিচারককে বিভিন্ন মেয়াদে অস্ট্রেলিয়া পাঠানোর জন্য ৩ মে একটি অফিস আদেশ জারি করে আইন মন্ত্রণালয়।

এরপর ৯ মে ‘বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাগণের বিদেশ গমনের ক্ষেত্রে আবশ্যিকভাবে সুপ্রিম কোর্টের পরামর্শ গ্রহণ সংক্রান্ত’ একটি সার্কুলার জারি করে সুপ্রিম কোর্ট। প্রেষণে থাকা বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের সুপ্রিম কোর্টের পরামর্শ ছাড়া বিদেশে না যেতে নির্দেশ দেওয়া হয় সেখানে। এই নির্দেশ না মানলে শৃঙ্খলা ভঙ্গের জন্য বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সেখানে হুঁশিয়ার করা হয়।

এরপর গত ১৬ মে আইন মন্ত্রণালয় থেকে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলের কাছে একটি চিঠি পাঠানো হয়। রাষ্ট্রপতির অনুমোদন নিয়ে গতবছর মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা একটি পত্রের বরাতে সেখানে বলা হয়, অধস্তন আদালতের বিচারকরা প্রেষণে থাকলে তাদের বিদেশযাত্রার ক্ষেত্রে সুপ্রিম কোর্টের পরামর্শ নেওয়ার আবশ্যকতা নেই।

আইন মন্ত্রণালয় রাষ্ট্রপতির অনুশাসনের কথা বললেও সুপ্রিম কোর্ট ২৩ মে আরেকটি পরিপত্র জারি করে ওই ১৭ জনকে বিদেশ না পাঠানোর নির্দেশনাই বহাল রাখে।

সোমবারের শুনানিতে সেই প্রসঙ্গে প্রধান বিচারপতি বলেন, “যত বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তা ডেপুটেশনে দিয়েছি, যদি তাদের প্রত্যাহার করি, তাহলে কারও কিছু করার নেই। বিচারকদের ডেপুটেশনে দিয়ে নির্বাহী বিভাগের সঙ্গে সুষ্ঠুভাবে কাজ করার জন্য হাত বাড়িয়ে দিয়েছি। ১৮৯৭ সালের সেকশন জেনারেল ক্লজ অ্যাক্ট ২১ দেখেন। যদি না হয় এটা ডিলিট করে দেন। এটা এতো দিন ধরে চলে আসছে।”

অ্যাটর্নি জেনারেলকে তিনি বলেন, “আপনারা বিচার বিভাগকে বিক্ষুব্ধ করবেন না, রাষ্ট্রপতির অনুশাসন বলে এমন কিছু করতে পারেন না। রাষ্ট্রপতির কাছে কোনো ফাইল পাঠিয়ে যদি করতে বলা হয় তখন তিনি করেন, আর ‘না’ বললে ‘না’ বলেন। তাই বলছি ভুল ব্যাখ্যা দেওয়া হয়।

“তারা মনে করে সুপ্রিম কোর্টকে আদেশ করবে, তা ভুল করবে। তারা আইন না জেনে একের পর এক ব্যবধান সৃষ্টি করছে। রাষ্ট্র এ রকম করতে পারে না। সুপ্রিম কোর্টের প্রত্যোকটা সিদ্ধান্ত সিনিয়র বিচারকরা চিন্তা করে নেয়। তারা (আইন মন্ত্রণালয়) যদি মনে করে যে, আইনের একটা ব্যাখ্যা দাঁড় করিয়ে দিবে তাহলে খুব ভুল করবে।”

নির্বাহী বিভাগকে আইনের ব্যাখ্যা না দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে প্রধান বিচারপতি বলেন, “অল্প বিদ্যা ভয়ঙ্কর! মারাত্মক হয়ে যাবে! তারা যদি আইনের ব্যাখ্যা দিয়ে বলে এটাই কারেক্ট, খুব ভুল হবে।”

]]>
1331518 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/08/high-court_mm_180516_0008.jpg/ALTERNATES/w300/High+Court_MM_180516_0008.jpg 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1331520 2017-05-08 11:01:21.0 সুপ্রিম কোর্ট থেকে বঙ্গভবন-গণভবন কত দূর: আপিল বিভাগ
4 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341729 নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 17:18:09.0 2017-05-29 17:18:09.0 মঙ্গলবার শুরু বাজেট অধিবেশন মঙ্গলবার শুরু বাজেট অধিবেশন জাতীয় সংসদের ষোড়শ অধিবেশন বসছে মঙ্গলবার। এই অধিবেশনেই আগামী ১ জুন ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব উত্থাপন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। জাতীয় সংসদের ষোড়শ অধিবেশন বসছে মঙ্গলবার। এই অধিবেশনেই আগামী ১ জুন ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব উত্থাপন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341729.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2012/11/19/parlament-tm.jpg/ALTERNATES/w300/Parlament-tm.jpg
মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সংসদের বৈঠক বসার আগে কার্য উপদেষ্টা কমিটিতে অধিবেশনের মেয়াদ ঠিক হবে। এছাড়া বাজেটের ওপর আলোচনার সময় নির্ধারণ করা হবে।

আগামী অর্থবছরের বাজেটের সম্ভাব্য আকার ৪ লাখ কোটি টাকার ওপর হবে বলে অর্থমন্ত্রী এরইমধ্যে জানিয়েছেন। ২৯ জুন বাজেট পাস হওয়ার কথা রয়েছে। ৩০ জুনের মধ্যে বাজেট পাসের বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

বাজেট অধিবেশন সাধারণত দীর্ঘ সময় হয়ে থাকে। গত বছর বাজেট অধিবেশন ৩২ কার্যদিবসের ছিল।

সংসদের অন্যান্য অধিবেশন বিকালে বসলেও রোজার মাস হওয়ায় এ অধিবেশনের কার্যক্রম দিনের প্রথমভাগে শুরু হবে।

বাজেট পেশের আগে সংসদ ভবনে মন্ত্রিসভার বৈঠকে অর্থবিলের অনুমোদন দেওয়া হবে। পরে তাতে সই করবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। ওই সময় সংসদ ভবনেই অবস্থান করবেন তিনি। এছাড়া অর্থমন্ত্রীর বাজেট বক্তব্য নির্ধারিত গ্যালারিতে বসে দেখবেন আবদুল হামিদ।

গত ১৪ মে সংসদের শুরু হতে যাওয়া অধিবেশন আহ্বান করেন রাষ্ট্রপতি। এর আগে গত ৮ মে শেষ হয় সংসদের পঞ্চদশ অধিবেশন। সংবিধানের নিয়ম রক্ষায় বসা ওই অধিবেশনের মেয়াদ ছিল পাঁচ কার্যদিবস।

]]>
5 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341978 সুমন মাহবুব, ভিয়েনা থেকে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম সুমন মাহবুব, ভিয়েনা থেকে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 22:35:37.0 2017-05-30 00:32:02.0 ভিয়েনা থেকে সার্বক্ষণিক যোগাযোগে প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড় মোরা: ভিয়েনা থেকে সার্বক্ষণিক যোগাযোগে প্রধানমন্ত্রী ভিয়েনায় অবস্থানরত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘূর্ণিঝড় মোরার সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে দেশের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন। ভিয়েনায় অবস্থানরত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘূর্ণিঝড় মোরার সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে দেশের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341978.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/pm-reached-viena--4-.jpg/ALTERNATES/w300/PM-Reached-Viena-%284%29.jpg http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/101_cyclone_mora_chittagong_290517_3.jpg/ALTERNATES/w300/101_Cyclone_Mora_Chittagong_290517_3.jpg ভিয়েনায় বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভ্যর্থনা- ছবি: পিআইডি
১০ নম্বর মহাবিপদ সঙ্কেত নিয়ে আসা ঘূর্ণিঝড়টি মোকাবেলায় তিনি সংশ্লিষ্টদের নির্দেশও দিচ্ছেন বলেও তার প্রেসসচিব ইহসানুল করিম জানিয়েছেন।

আন্তর্জাতিক আনবিক শক্তি সংস্থার (আইএইএ) ৬০ বছর পূর্তির সম্মেলনে যোগ দিতে সোমবার সকালে অস্ট্রিয়ার ভিয়েনায় রওনা হন শেখ হাসিনা।

তার রওনা হওয়ার পর এই ঝড়ের জন্য চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরে ৭ নম্বর বিপদ সঙ্কেত জারি করে আবহাওয়া অধিদপ্তর। সন্ধ্যা ৬টায় সঙ্কেত ১০ নম্বরে উন্নীত হয়। এটি মঙ্গলবার সকালে উপকূলে আঘাত হানার কথা।

বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী ভিয়েনায় পৌঁছে তার সফরকালীন আবাসস্থল ইম্পেরিয়াল হোটেলে যাওয়ার পরপরই ঝড়ের সতর্কতামূলক প্রস্তুতি নিয়ে দেশে কথা বলেন।

প্রেস সচিব ইহসানুল করিম প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী সাংবাদিকদের বলেন, “ঝড়ের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকার সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন। ঝড় মোকাবেলায় প্রশাসনকে সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিয়ে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।”

সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে এবং সবাইকে নিজ নিজ দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী দিয়েছেন।

পরে ভিয়েনার গ্রান্ড হোটেলে অস্ট্রিয়া আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেও ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় সব প্রস্ততি গ্রহণের কথা জানান শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, “১০ নম্বর সিগন্যাল দিয়েছে, আমরা অনবরত খবর রাখছি। সব মানুষকে শেল্টারে নেওয়া হয়েছে। নৌবাহিনীর সকল জাহাজ এবং বিমানবাহিনীর সকল উড়োজাহাজ সরানো হয়েছে।”

ঘূর্ণিঝড় মোরার প্রভাবে উত্তাল হয়ে উঠছে সাগর; সোমবার বিকালে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সৈকতে এমন করে আছড়ে পড়ছিল ঢেউ

ঘূর্ণিঝড় মোরার প্রভাবে উত্তাল হয়ে উঠছে সাগর; সোমবার বিকালে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সৈকতে এমন করে আছড়ে পড়ছিল ঢেউ

দুদিনের সফর শেষে বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা রয়েছে; ঘূর্ণিঝড়টি তার ২৪ ঘণ্টা আগেই আঘাত হানতে যাচ্ছে।

এদিকে সোমবার ঢাকায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ে এক বৈঠকে ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলার সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা হয়।

সভা থেকে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটিকে দ্রুত সভা করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বলা হয়। সব আশ্রয়কেন্দ্রগুলো তৈরি করতেও নির্দেশ দেওয়া হয়।

মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব গোলাম মোস্তফা জানান, ঝড় পরবর্তী সময়ে ত্রাণ কার্যক্রম চালানোর জন্য প্রত্যেক জেলায় প্রয়োজনীয় চাল ও নগদ অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছে।

]]>
1341887 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/pm-reached-viena--4-.jpg/ALTERNATES/w300/PM-Reached-Viena-%284%29.jpg ভিয়েনায় বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভ্যর্থনা- ছবি: পিআইডি 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341867 2017-05-29 20:17:27.0 আইএইএ সম্মেলনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী ভিয়েনায় 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341780 2017-05-29 18:27:01.0 মোরায় মহাবিপদ সংকেত 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341970 2017-05-29 22:26:32.0 আশ্রয়কেন্দ্রে কয়েক লাখ মানুষ
6 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341970 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 22:26:32.0 2017-05-30 01:47:53.0 আশ্রয়কেন্দ্রে কয়েক লাখ মানুষ ঘূর্ণিঝড় মোরা: আশ্রয়কেন্দ্রে কয়েক লাখ মানুষ প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ ধেয়ে আসতে থাকায় মহাবিপদ সংকেত জারির পর দেশের উপকূলীয় জেলাগুলোর নিচু এলাকায় ঝুঁকিতে থাকা মানুষদের সরানো হল নিরাপদ আশ্রয়ে। প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ ধেয়ে আসতে থাকায় মহাবিপদ সংকেত জারির পর দেশের উপকূলীয় জেলাগুলোর নিচু এলাকায় ঝুঁকিতে থাকা মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে চলছে মরিয়া চেষ্টা। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341970.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/coxsbazar-cyclone-mora-10-.jpg/ALTERNATES/w300/CoxsBazar-Cyclone+Mora+%2810%29.jpg কক্সবাজারে বাসে করে উপকূলীয় বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে আশ্রয়কেন্দ্রে
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব গোলাম মোস্তফা জানিয়েছেন, উপকূলীয় ১৯ জেলার মধ্যে দশটি জেলাকে তারা এই ঝড়ের ক্ষেত্রে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ বলে বিবেচনা করছেন।

সোমবার রাত ৯টা পর্যন্ত এসব জেলার প্রায় তিন লাখ মানুষকে তারা আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নিতে পেরেছেন এবং প্রতিটি এলাকায় মাইকিং করে সবাইকে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যেতে বলা হচ্ছে। 

প্রায় ২০০ কিলোমিটার ব্যাসের এই ঘূর্ণিঝড় সোমবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ উপকূলের ৩০০ কিলোমিটারের মধ্যে পৌঁছে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হলে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরের জন্য ১০ নম্বর এবং পায়রা ও মোংলা বন্দরের জন্য ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেত জারি করে আবহওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়া অধিদপ্তরেরর পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ জানান, ঘণ্টায় ৮৯ থেকে ১১৭ কিলোমিটার শক্তির ঝড়ো হাওয়া নিয়ে ঘূর্ণিঝড় মোরা মঙ্গলবার সকাল ৬টা নাগাদ কক্সবাজার-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় দুপুরে ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করে সন্ধ্যার মধ্যে ঝূঁকিপূর্ণ এলাকার বাসিন্দাদের আশ্রয়কেন্দ্রে আনার নির্দেশ দেয়। জেলায় জেলায় মাইকিং করে স্থানীয় বাসিন্দাদের সরে যাওয়ারও পরামর্শ দেওয়া হয় সে সময় থেকেই।

কিন্তু তখন সংকেত কম থাকায় এবং আবহাওয়া ততটা প্রতিকূল না হওয়ায় অনেকেই ঘরবাড়ি ছেড়ে আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার আগ্রহ দেখাননি বলে আমাদের জেলা প্রতিনিধিরা জানান।

সন্ধ্যায় মহাবিপদ সংকেত জারি হলে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলো থেকে বাসিন্দারা ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে শুরু করেন। রাত ৮টার পর স্থানীয় প্রশাসনের তৎপরতায় বসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়ার কাজ আর গতি পায়।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক তপন কুমার বিশ্বাস জানান, রাত ১০টা নাগাদ শরণখোলা এবং মোংলা উপজেলার ১৫ হাজার মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে নিতে পেরেছেন তারা। এর মধ্যে শরণখোলার ৮২টি আশ্রয়কেন্দ্রে ১৩ হাজার এবং মোংলার ৩৪টি আশ্রয়কেন্দ্রে দুই হাজার মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন।

 

 >> দেশের ১৯ জেলার ১৪৭টি উপজেলার ১৩ হাজার ৫০০ বর্গকিলোমিটার এলাকা উপকূলীয় এলাকা হিসেবে চিহ্নিত; সেখানে প্রায় ১ কোটি ৮০ লাখ মানুষের বসবাস।

>> এর মধ্যে কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল ও পিরোজপুর- এই ১০ জেলাকে চিহ্নিত করা হয়েছে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে।

>>  দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের কর্মকর্তা উপ পরিচালক ইশান আলী রাজা বাঙালি জানান, ঝুঁকিপূর্ণ এই দশ জেলার ২৫ লাখেরও বেশি লোকের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত উপজেলাগুলোর কয়েক লাখ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে কাজ চলছে। প্রচার করা হচ্ছে সতর্কবার্তা।

>> উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কমিটির (সিপিপি) ৫৫ হাজার স্বেচ্ছাসেবক ছাড়াও রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, রোভার স্কাউট ও আনসার ভিডিপির কর্মীরা এই দুর্যোগ মোকাবিলায় কাজ করছেন একসঙ্গে।

>> দেশে সব মিলিয়ে সাইক্লোন শেল্টার রয়েছে সাড়ে ৩ হাজারের বেশি। এছাড়া আরও কয়েক হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকেও প্রস্তুত রাখা হয়েছে আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারের জন্য।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের পরিচালক অতিরিক্ত সচিব আবু সৈয়দ মোহাম্মদ হাশিম বলেন, সম্ভাব্য দুর্যোগ মোকাবেলায় ‘সব ধরনের প্রস্তুতি’ তারা রেখেছেন। লোকজনকে সরিয়ে নিতে স্বেচ্ছাসেবীদের পাশাপাশি আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্য ও জনপ্রতিনিধিদেরও কাজে লাগানো হচ্ছে।

উপকূলীয় এলাকার বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকদের শুকনো খাবার ও খাবার পানি প্রস্তুত রাখতে বলা হয়েছে। তাদের চাহিদা অনুযায়ী খাদ্যও বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ।

জেলা-উপজেলা-ইউনিয়ন পর্যায়ের দুর্যোগ মোকাবেলা সংক্রান্ত কমিটিকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দিতে কর্মকর্তাদের নিজ নিজ কর্মস্থলে থাকার নির্দেশনা দিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। চিকিৎসা কর্মকর্তাদের ছুটি বাতিল করে উপকূলীয় জেলাগুলোতে প্রস্তুত রাখা হয়েছে মেডিকেল টিম।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মন্ত্রণালয়ের সঙ্গ জেলা-উপজেলার সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষার জন্য মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে। উপকূলীয় এলাকায় উদ্ধার তৎপরতা চালানোর জন্য পর্যাপ্ত নৌযান প্রস্তত রাখতে বলা হয়েছে জেলা প্রশাসকদের।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের সংকেত অনুযায়ী সমুদ্রে থাকা সব জাহাজ ও ট্রলারকে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে আসতে বলা হয়েছে।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মাসুকুর রহমান সিকদার জানান, তার জেলার ১৪টি উপজেলার সব কটিতেই মাইকিং করা হচ্ছে; খুলে দেওয়া হয়েছে ৪৭৯টি আশ্রয়কেন্দ্র।

এছাড়া স্থানীয় চার শতাধিক স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা এবং উপজেলা ও ইউনিয়ন কমপ্লেক্স ভবনও প্রস্তুত রাখতে বলা হয়েছে। প্রয়োজনে সেখানেও মানুষ আশ্রয় নিতে পারবে।

“স্থানীয় ব্যবসায়ীদেরও বলা হয়েছে প্রয়োজনে দ্রুত খাদ্য পণ্য সরবরাহ করতে। আমরা মূল্য পরিশোধ করব। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।”

মোট ৬ হাজার ৬০০ জন স্বেচ্ছাসেবীকে চট্টগ্রামের উপকূলীয় উপজেলাগুলোতে উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

জানিয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মাসুকুর রহমান সিকদার বলেন, আশাকরি যত লোক আশ্রয় কেন্দ্রে আসবে তাদের আশ্রয়ের ব্যবস্থা করা সম্ভব হবে।

কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. আলী হাসান জানান, তার জেলাতেও রেড ক্রিসেন্টের ১৫ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর পাশাপাশি বিভিন্ন  বাহিনীর সদস্যদের উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। আশ্রয়কেন্দ্রে যাওয়া মানুষের জন্য পর্যাপ্ত শুকনো খাবারের ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

[আমাদের চট্টগ্রাম ব্যুরো ও সংশ্লিষ্ট জেলা প্রতিনিধিরা তথ্য দিয়ে এ প্রতিবেদন তৈরিতে সহযোগিতা করেছেন]

]]>
1341961 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/coxsbazar-cyclone-mora-10-.jpg/ALTERNATES/w300/CoxsBazar-Cyclone+Mora+%2810%29.jpg কক্সবাজারে বাসে করে উপকূলীয় বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে আশ্রয়কেন্দ্রে 1341962 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/coxsbazar-cyclone-mora-1-.jpg/ALTERNATES/w300/CoxsBazar-Cyclone+Mora+%281%29.jpg 1341966 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/noakhali-mora-1.jpg/ALTERNATES/w300/noakhali-mora-1.jpg 1341963 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/coxsbazar-cyclone-mora-5-.jpg/ALTERNATES/w300/CoxsBazar-Cyclone+Mora+%285%29.jpg 1341964 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/coxsbazar-cyclone-mora-6-.jpg/ALTERNATES/w300/CoxsBazar-Cyclone+Mora+%286%29.jpg 1341783 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/05_mora_bhola_290517_0001.jpg/ALTERNATES/w300/05_Mora_Bhola_290517_0001.jpg 1341965 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/coxsbazar-cyclone-mora-8-.jpg/ALTERNATES/w300/CoxsBazar-Cyclone+Mora+%288%29.jpg 1341967 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/noakhali-mora-5.jpg/ALTERNATES/w300/noakhali-mora-5.jpg 1341968 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/101_cyclone_mora_chittagong_290517_13.jpg/ALTERNATES/w300/101_Cyclone_Mora_Chittagong_290517_13.jpg 1341969 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/101_cyclone_mora_chittagong_290517_16.jpg1/ALTERNATES/w300/101_Cyclone_Mora_Chittagong_290517_16.jpg 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341780 2017-05-29 18:27:01.0 মোরায় মহাবিপদ সংকেত 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341935 2017-05-29 21:50:29.0 ঘূর্ণিঝড় মোরা: শাহ আমানতে বিমান ওঠা-নামা বন্ধ 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341677 2017-05-29 16:11:04.0 ঘূর্ণিঝড় মোরা: সন্ধ্যার আগেই জনগণকে আশ্রয়কেন্দ্রে নেওয়ার নির্দেশ 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341641 2017-05-29 14:56:47.0 সারা দেশে নৌ চলাচল বন্ধ 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1155085 2016-05-20 22:07:20.0 ঘূর্ণিঝড়ে কী করবেন
7 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1155085 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2016-05-20 22:07:20.0 2017-05-29 20:34:25.0 ঘূর্ণিঝড়ে কী করবেন ঘূর্ণিঝড়ে কী করবেন বাংলাদেশ উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’; দুর্যোগ মোকাবেলায় ইতোমধ্যে আশ্রয়কেন্দ্র তৈরি রাখাসহ বিভিন্ন প্রস্তুতি নেওয়ার কথা জানিয়েছে সরকার। বাংলাদেশ উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’; দুর্যোগ মোকাবেলায় ইতোমধ্যে আশ্রয়কেন্দ্র তৈরি রাখাসহ বিভিন্ন প্রস্তুতি নেওয়ার কথা জানিয়েছে সরকার। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1155085.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/mora-globe.jpg/ALTERNATES/w300/Mora+globe.jpg
আবহাওয়াবিদ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মীরা বলছেন, ঘূর্ণিঝড়ের প্রকৃতি ও এর বিপদ সম্পর্কে যথাযথ ধারণা রাখার পাশাপাশি ঝড় আঘাত আনার সময়ের করণীয় সম্পর্কে উপকূলের বাসিন্দাদের সতর্ক করা হতে পারে ক্ষয়ক্ষতি এড়ানোর সবচেয়ে কার্যকর উপায়।

# ঝড়-জ্বলোচ্ছ্বাস প্রবণ বাংলাদেশে মূলত এপ্রিল-মে এবং অক্টোবর থেকে ডিসেম্বরের প্রথমার্ধে ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানে।

# এ সময়ে উপকূলীয় এলাকায় ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ঝড় ও প্রচুর বৃষ্টিপাত হতে পারে। ব্যাপক বৃষ্টিপাতের কারণে পাহাড়ি ঢল, আকষ্মিক বন্যা ও ভূমিধস ঘটতে পারে।

# ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় বিকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির খবর পাওয়া গেছে। ভারতের আসাম ও মেঘালয়ের পাশাপাশি ত্রিপুরা, মিজোরাম, মনীপুর, নাগাল্যান্ড ও অরুনাচল প্রদেশে ভারি বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে দেশটির আবহওয়া দপ্তর। শ্রীলঙ্কায় গত সপ্তাহ থেকে বন্যা ও ভূমিধসে ইতোমধ্যে দেড় শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’র প্রভাবে সেখানে আগামী কয়েক দিনও ভারি বৃষ্টি হতে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে।

 

ঘূর্ণিঝড়ে জানমালের ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে জনসচেনতা তৈরির পাশাপাশি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা, আবহাওয়ার সতর্ক বার্তা প্রচার, নিচু এলাকার বাসিন্দাদের সরিয়ে আনা, স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী গড়ে তোলা এবং উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব গোলাম মোস্তফা সোমবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ঘূর্ণিঝড় মোরা যেহেতু সকালের দিকে উপকূল অতিক্রম করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে, সেহেতু উপকূলীয় জেলাগুলোর নিচু এলাকা থেকে বাসিন্দাদের সন্ধ্যার মধ্যে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

>> ঘূর্ণিঝড়ের শক্তি ও গতিপথ অনুযায়ী বন্দরগুলোতে জারি করা হয়েছে মহাবিপদ সংকেত।

>> আগের দিন থেকেই আবহাওয়ার সতর্ক বার্তায় সাগর ও নদীতে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি থাকতে বলা হয়েছে।

>> মাছধরা নৌকা ও ট্রলার এবং মালবাহী লঞ্চের মাঝিমাল্লা ও মালিকদের পাশাপাশি উপকূলীয় এলাকায় বসবাসরতদের নিয়মিত ঘূর্ণিঝড়ের সতর্ক বার্তা জেনে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

>> ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানতে পারে এমন সম্ভাব্য এলাকা স্বাভাবিকের বেশি উচ্চতার জলোচ্ছ্বসে প্লাবিত হয়। সুতরাং নিচু এলাকায় পাকা দালানে থেকেও বিপদ হতে পারে। সুতরাং কর্তৃপক্ষ সংকেত দেওয়ার পর সরে যেতে বললে দেরি না করে আশ্রয়কেন্দ্রে চলে যাওয়া উচিৎ।

>> উপকূলীয় এলাকার বাসিন্দাদের আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে বৃদ্ধ, প্রতিবন্ধী, শিশু ও গর্ভবতী নারীদের আগে পাঠাতে হবে।

>> আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার সময় টর্চ লাইট, দেশলাইসহ মোমবাতি, শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধ পানি সঙ্গে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

>> ঘূর্ণিঝড়ের ‘চোখ’ বা কেন্দ্র উপকূলীয় এলাকা দিয়ে অতিক্রমের সময় কিছুটা সময় সব শান্ত হয়ে আসে। তখন ঝড় শেষ ভেবে আশ্রয়কেন্দ্র ছেড়ে যাওয়া যাবে না, কারণ ‘চোখ’ পেরিয়ে গেলে আবারও আগের শক্তি নিয়ে তাণ্ডব চালায় ঝড়। সুতরাং ঝড় সরে যাওয়ার বা থেমে যাওয়ার আগ পর্যন্ত আশ্রয় কেন্দ্র ত্যাগ করা উচিৎ হবে না।

>> ঘূর্ণিঝড় প্রচুর বৃষ্টি ঝরায়। প্রবল বৃষ্টিতে পাহাড়ি এলাকায় মাটি সরে গিয়ে সৃষ্টি হতে পারে ভূমিধস, সেই সঙ্গে পাহাড়ি ঢল। এ কারণে পাহাড়ি এলাকায় বেশ কয়েকটি সতর্কতা বজায় রাখতে হবে। 

 

ঘূর্ণিঝড়ের প্রকৃতি

ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রকে ‘চোখ’ বলে। আবহাওয়া সবচেয়ে বেশি দুর্যোগপূর্ণ থাকে ওই ‘চোখ’ এর চারদিকের এলাকায়। ওই এলাকাকে বলে ‘চক্ষুপ্রাচীর’।

যে মেঘবলয় কুণ্ডলী হয়ে ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রের দিকে ধাবিত হয় তাকে কুণ্ডলীগত বৃষ্টিবলয় বলা হয়। এগুলো ঘূর্ণিঝড়ের সামনে ডান-চতুর্থাংশে অতি ভারি বৃষ্টিপাত ও প্রচণ্ড ঝড়ো হাওয়া এবং এমনকি কি টর্নেডোও সৃষ্টি করে থাকে।

ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রের যেখানে কম মেঘ থাকে, সেখানে অনেক সময় ১০ থেকে ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত বিস্তৃত ঝড়ের ‘চোখ’ দেখা যায়। এ ‘চোখ’ অতিক্রমকালে সাময়িকভাবে অতি হালকা বৃষ্টিপাত ও সামান্য বাতাসসহ আবহাওয়া শান্ত থাকার সম্ভাবনা থাকে।

নিয়ন্ত্রণ কক্ষ

সম্ভাব্য দুর্যোগ মোকাবেলায় উপকূলীয় ১৯ জেলায় মেডিকেল টিম গঠন এবং বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে উদ্ধার কার্যক্রমের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এর বাইরে প্রস্তুত রাখা হয়েছে প্রায় ৫০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীকে।

প্রত্যেক জেলা-উপজেলায় সার্বক্ষণিক নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা রাখা হয়েছে। যে কোনো তথ্যের জন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ৯৫৪০৪৫৪, ৯৫৪৫১১৫, ৯৫৪৯১১৬ ও ০১৭১৫১৮০১৯২ নম্বরে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

]]>
1341567 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/mora-globe.jpg/ALTERNATES/w300/Mora+globe.jpg 865112 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2014/10/11/108_rough_sea_beach_ctg_111014.jpg/ALTERNATES/w300/108_Rough_Sea_Beach_Ctg_111014.jpg 1341732 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/cyclone-1.jpg/ALTERNATES/w300/Cyclone+1.jpg 1341733 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/cyclone-2.jpg/ALTERNATES/w300/Cyclone+2.jpg 1341734 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/cyclone-3.jpg/ALTERNATES/w300/Cyclone+3.jpg 1341735 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/cyclone-4.jpg/ALTERNATES/w300/Cyclone+4.jpg 1341736 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/cyclone-5.jpg/ALTERNATES/w300/Cyclone+5.jpg 1341731 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/cyclone-6.jpg/ALTERNATES/w300/Cyclone+6.jpg 1155084 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/05/20/cyclone.jpg/ALTERNATES/w300/Cyclone.jpg 1155083 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/05/20/cyclone_.jpg/ALTERNATES/w300/Cyclone_.jpg 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1154946 2016-05-20 19:14:48.0 রোয়ানু: সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে সাড়ে ২১ লাখ লোক 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1154928 2016-05-20 19:06:45.0 কোন সংকেতের কী মানে 2 news-bn বাংলাদেশ 199 626242 2013-05-16 13:41:46.0 ঝুঁকি এক কোটি মানুষের 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1039364 2015-10-13 09:12:57.0 কাজ চলে যাচ্ছে, তাই বদলাচ্ছে না দুর্যোগের সঙ্কেত
8 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1342022 সুমন মাহবুব, ভিয়েনা থেকে, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম সুমন মাহবুব, ভিয়েনা থেকে, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-30 01:35:27.0 2017-05-30 09:41:25.0 বিএনপির নাশকতার কথা সবাইকে জানান: প্রবাসীদের হাসিনা বিএনপির নাশকতার কথা সবাইকে জানান: প্রবাসীদের হাসিনা বিএনপির নেতিবাচক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে প্রবাসীদের সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। বিএনপির নেতিবাচক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে প্রবাসীদের সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1342022.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/pm-vienna-austria-02.jpg/ALTERNATES/w300/PM-Vienna-Austria-02.jpg ছবি-পিআইডি
সোমবার ভিয়েনায় অস্ট্রিয়া প্রবাসীদের দেওয়া এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, “বিদেশিদের কাছে তুলে ধরতে হবে, কীভাবে তারা আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মারল।”

আইএইএ র ৬০ বছর পূর্তির অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সোমবার ভিয়েনা পৌঁছনোর পরপরই গ্র্যান্ড হোটেলে অস্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের দেওয়া গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন শেখ হাসিনা।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঠেকাতে ২০১৪ সালে বিএনপি-জামায়াতের লাগাতার হরতাল-অবরোধে গাড়িতে আগুন দেওয়ায় শতাধিক মানুষ মারা যায়।

পরের বছরও সরকার হটাতে বিএনপি-জামায়াত জোটের তিন মাসের কর্মসূচিতে পেট্রোল বোমা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় দগ্ধ হয়ে দুই শতাধিক মানুষের মৃত্যুর কথা প্রবাসীদের বলেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, “আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মারল, আর তাদের বিরুদ্ধে কোনো মামলা করা যাবে না?

“যারা পরিকল্পিতভাবে হত্যাকাণ্ড চালিয়েছে; অবশ্যই এর বিচার হবে। শত শত মানুষ যে পুড়িয়ে মেরেছে; এর বিচার করব। হুকুমের আসামির বিচার করব।”

প্রবাসীদের এই অনুষ্ঠানে বক্তব্যে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সরকারের অবস্থানের বিষয়টি তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “নিরীহ মানুষকে হত্যা করা, আত্মঘাতী হওয়া… আত্মহত্যা মহাপাপ… আত্মহত্যা করা একটা ফ্যাশন হয়ে গেছে।”

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রবাসীদের সম্পৃক্ত হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, “আপনাদের সহযোগিতা চাই। আপনাদের দায়িত্ব রয়েছে দেশের প্রতি। এই অশুভ অসুস্থ প্রক্রিয়া থেকে আমাদের দেশের মানুষকে সরিয়ে আনা।”

জঙ্গিবাদকে আন্তর্জাতিক সমস্যা হিসাবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সারা বিশ্বে ঘটনা ঘটছে। এটা একটা দেশের না। এটা একটা আন্তর্জাতিক সমস্যা।

“এই সমস্যা বাংলাদেশের মানুষকে যেনো ক্ষতি করতে না পারে, সেটা আমাদের সবাইকে দেখতে হবে। সকলের জন্য এটা একটা বিরাট দায়িত্ব।”

সংবর্ধনায অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান, সর্ব ইউরোপ আওয়ামী লীগের সভাপতি অনীল দাসগুপ্ত, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান মোহাম্মদ শরীফও বক্তব্য রাখেন।

]]>
1342041 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/pm-vienna-austria-02.jpg/ALTERNATES/w300/PM-Vienna-Austria-02.jpg ছবি-পিআইডি 1342043 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/pm-vienna-austria-04.jpg/ALTERNATES/w300/PM-Vienna-Austria-04.jpg ছবি-পিআইডি 1342042 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/pm-vienna-austria-03.jpg/ALTERNATES/w300/PM-Vienna-Austria-03.jpg ছবি-পিআইডি 1342040 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/pm-vienna-austria-01.jpg/ALTERNATES/w300/PM-Vienna-Austria-01.jpg ছবি-পিআইডি 1342039 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/pm-vienna-austria-05.jpg/ALTERNATES/w300/PM-Vienna-Austria-05.jpg ছবি-পিআইডি 1341887 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/pm-reached-viena--4-.jpg/ALTERNATES/w300/PM-Reached-Viena-%284%29.jpg ভিয়েনা বিমানবন্দরে নামার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভ্যর্থনা- ছবি: পিআইডি
9 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341844 নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 19:43:33.0 2017-05-29 19:43:33.0 এক বছরে জনসংখ্যা বেড়েছে সাড়ে ২৮ লাখ এক বছরে জনসংখ্যা বেড়েছে সাড়ে ২৮ লাখ: বিবিএস এক বছরে জনসংখ্যা ২৮ লাখ ৫০ হাজার বেড়ে বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬ কোটি ১৭ লাখ ৫০ হাজারে। এক বছরে জনসংখ্যা ২৮ লাখ ৫০ হাজার বেড়ে বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬ কোটি ১৭ লাখ ৫০ হাজারে। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341844.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/crowd-in-dhaka.jpg/ALTERNATES/w300/Crowd+In+Dhaka.jpg
এর আগে ২০১৫ সালের নমুনা জরিপ অনুযায়ী দেশের মোট জনসংখ্যা ছিল ১৫ কোটি ৮৯ লাখ।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সর্বশেষ নমুনা জরিপে এ তথ্য বেরিয়ে এসেছে।

সোমবার শেরে বাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কেন্দ্রে আনুষ্ঠানিকভাবে এ জরিপের তথ্য উপাত্ত তুলে ধরেন এর প্রকল্প পরিচালক এ কে এম আশরাফুল হক।

তিনি বলেন, “সারা দেশে নিদির্ষ্ট কিছু এলাকায় নির্দিষ্ট কিছু জরিপ কর্মী দিয়ে এ জরিপের তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। প্রতি বছরই এ জরিপ পরিচালনা করা হয়। সারা দেশের ২ হাজার ১২টি এলাকায় এ নমুন জরিপের তথ্য সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে এক হাজার ৭৭টি পল্লী এলাকার আর ৯৩৫টি শহর এলাকা থেকে এ তথ্য সংগ্রহ করা হয়।”

জরিপের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৭ সালের ১ জানুয়ারী পর্যন্ত হিসাবে দেশের মোট জনসংখ্যা ১৬ কোটি ১৭ লাখ ৫০ হাজার। এর মধ্যে ৮ কোটি ১০ লাখ পুরুষ আর ৮ কোটি ৭ লাখ ৫০ হাজার নারী।

তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬ সালের জুন পর্যন্ত দেশের মোট জনসংখ্যা ছিল ১৬ কোটি ৮ লাখ। এর মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ৮ কোটি ৫ লাখ আর নারীর সংখ্যা ৮ কোটি ৩ লাখ।

এক বছর আগে বা ২০১৫ সালে মোট জনসংখ্যা ছিল ১৫ কোটি ৮৯ লাখ। ওই বছর পুরুষের সংখ্যা ছিল ৭ কোটি ৯৬ লাখ আর নারীর সংখ্যা ছিল ৭ কোটি ৯৩ লাখ।

নমুনা জরিপ সাধারণ দুটি আদমশুমারির মধ্যবর্তী সময়ে করা হয়েছে। আদমশুমারিতে প্রতিটি বাড়ি ও ঘর থেকে জনসংখ্যার তথ্য সংগ্রহ করা হলেও নমুনা জরিপে তা করা হয় না।

নমুনা জরিপে দুটি পদ্ধতিতে নির্দিষ্ট এলাকার তথ্য সংগ্রহ করা হয়। দুই পদ্ধতিতে সংগ্রহ করা এসব তথ্য মিলিয়ে যাচাই-বাছাইয়ের পর জরিপের ফল নির্ধারণ করা হয়।

আদমশুমারিতে জনসংখ্যার প্রকৃত তথ্য বের হয়ে আসলেও নমুনা জরিপে তা নয়।

বাংলাদেশে সবর্শেষ আদমশুমারি হয়েছিল ২০১১ সালে। পঞ্চম ওই আদমশুমারি প্রতিবেদনে জনসংখ্যা ছিলো ১৪ কোটি ২৩ লাখ ১৯ হাজার।

ওই আদমশুমারির তথ্যের সঙ্গে সর্বশেষ নুমনা জরিপের তথ্যের তুলনা করলে গত ছয় বছরে জনসংখ্যা বেড়েছে প্রায় দুই কোটি।

]]>
1341843 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/crowd-in-dhaka.jpg/ALTERNATES/w300/Crowd+In+Dhaka.jpg
10 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341875 নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 20:33:35.0 2017-05-29 22:49:26.0 ষোড়শ সংশোধন বিচার বিভাগকে ঝুঁকিতে ফেলেছে: কামাল হোসেন ষোড়শ সংশোধন বিচার বিভাগকে ঝুঁকিতে ফেলেছে: কামাল হোসেন সংবিধানের ষোড়শ সংশোধন বাতিল করে হাই কোর্টের দেওয়া রায়কে সমর্থন জানিয়েছেন কামাল হোসেন। সংবিধানের ষোড়শ সংশোধন বাতিল করে হাই কোর্টের দেওয়া রায়কে সমর্থন জানিয়েছেন কামাল হোসেন। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341875.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/sc-dr-kamal-hossain.jpg/ALTERNATES/w300/SC-Dr+Kamal+Hossain.jpg
তিনি বলেছেন, এই সংশোধনীর মধ্য দিয়ে স্বাধীন বিচার বিভাগকে ঝুঁকি ও অবৈধ হস্তক্ষেপের মধ্যে ফেলে দেওয়া হয়েছে, যা আইনের শাসনকে বিপন্ন করেছে।

উচ্চ আদালতের বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে নেওয়া অবৈধ ঘোষণা করে হাই কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের শুনানিতে অ্যামিকাস কিউরিয়া হিসেবে একথা বলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী কামাল হোসেন।

দুই বছর আগে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনের মাধ্যমে এই পরিবর্তন আনার পর নয়জন আইনজীবী এর বিরুদ্ধে রিট আবেদন করেন। গত বছর হাই কোর্টের দেওয়া রায় এই সংশোধন বাতিল করা হয়।

এর আপিলের শুনানিতে সর্বোচ্চ আদালত কামাল হোসেনসহ ১২ জন জ্যেষ্ঠ আইনজীবীকে অ্যামিচি কিউরি নিয়োগ দেয়।

রাষ্ট্র ও আবেদনকারী পক্ষের যুক্তি উপস্থাপনের পর গত সপ্তাহে অ্যামিচি কিউরিদের বক্তব্য শোনা শুরু করে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ।

সোমবার নবম দিনের শুনানিতে কামাল হোসেন ছাড়াও বক্তব্য রাখেন এ এফ হাসান আরিফ, আব্দুল ওয়াদুদ ভূইয়া ও আজমালুল হোসেন কিউসি।

কামাল হোসেনের মতো হাসান আরিফ ও ওয়াদুদ ভূঁইয়াও মনে করেন, ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে বিচার বিভাগের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করা হয়েছে। 

এই সংশোধনীটি আইনত বৈধ বলেছেন আজমালুল হোসেন। তার বক্তব্য অসমাপ্ত থাকার মধ্যে মঙ্গলবার পর্যন্ত শুনানি মুলতবি হয়েছে।

কামাল হোসেন শুনানিতে বলেন, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা সংবিধানের মৌলিক কাঠামোর অংশ। সুপ্রিম কোর্ট বেশ কয়েকটি রায়ে তা বলে দিয়েছে। এর মধ্যে অষ্টম সংশোধনী, মাসদার হোসেন ও ইদ্রিসুর রহমান মামলার রায়ে এ বিষয়ে বলা হয়েছে।

“হাই কোর্ট ষোড়শ সংশোধনীকে বাতিল ও অবৈধ বলে যে রায় দিয়েছে অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে এ রায়কে আমি পুরোপুরিভাবে সমর্থন করছি।”

হাই কোর্ট বিভাগের এক বিচারক ষোড়শ সংশোধনী মামলার মূল রায়ে দ্বিমত পোষণ করে একমাত্র পাকিস্তানে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের বিধান থাকার যে কথা বলেছিলেন, তা সম্পূর্ণ ভুল ধারণাপ্রসূত বলে মন্তব্য করেন কামাল হোসেন।

তিনি বলেন, আমেরিকা, ইংল্যান্ড, কানাডা, হংকং, জার্মানি, সুইডেন, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ইসরাইল, জাম্বিয়া, ত্রিনিদাদ ও টোবাকোসহ বিভিন্ন দেশে বিচারক অপসারণের সংক্রান্ত সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল অথবা অনুরূপ পদ্ধতি রয়েছে।

কামাল হোসেন

কামাল হোসেন

আপিল আদালতকে ষোড়শ সংশোধনীকে অবৈধ ও অসাংবিধানিক হিসেবে বাতিল করে দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে কামাল হোসেন বলেন, ১৯৭২ সালে প্রণীত সংবিধানের ২২ অনুচ্ছেদকে বলা হয়েছে সংবিধানের মৌলিক নীতির একটি। এখানে বিচার বিভাগের স্বাধীনতার কথা বলা হয়েছে, যা থাকবে রাষ্ট্রের অন্য দুটি অঙ্গের হস্তক্ষেপমুক্ত, যা সংবিধানের ৯৪ (৪), ১৬ (ক), ১৪৭ অনুচ্ছেদেও গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

“এখানে (বাংলাদেশে) বিচার বিভাগের স্বাধীনতার জন্য জনগণের একটি ঐতিহাসিক সংগ্রামের নজির রয়েছে।”

সংবিধানের অষ্টম সংশোধনী বাতিল করে সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া রায়ের উল্লেখ করেন তিনি; ওই রায়ে বলা হয়েছে, গণতন্ত্র, প্রজাতান্ত্রিক সরকার ক্ষমতার পৃথকীকরণ, স্বাধীন বিচার বিভাগ, মৌলিক অধিকার হল সংবিধানের মৌলিক কাঠামো।

স্বাধীনতার পর বাংলাদেশের সংবিধানে বিচারক অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতেই ছিল, যে সংবিধান প্রণয়ন কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন কামাল হোসেন।

বঙ্গবন্ধু আমলে ১৯৭৫ সালে সংবিধানের চতুর্থ সংশোধনের সময় ওই ক্ষমতা রাষ্ট্রপতির হাতে ন্যস্ত হয়, তখন কামাল হোসেন ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পরে জিয়াউর রহমান ক্ষমতায় বসে সংবিধানে পঞ্চম সংশোধনী এনে সুপ্রিম জুডিসিয়াল কাউন্সিল গঠন করেন।

কামাল হোসেন বঙ্গবন্ধুর আমলেই বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতাটি সংসদ থেকে প্রত্যাহার করার বিষয়টি তুলে ধরে বলেন, পঞ্চম সংশোধনী বাতিল করে রায় দেওয়া হলেও এই ব্যবস্থা রেখে দেওয়া হয়েছে। ওই রায়ে বলা হয়েছে, সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল একটি স্বচ্ছ পদ্ধতি।

“ষোড়শ সংশোধনী স্বাধীন বিচার বিভাগকে ক্ষুণ্ন করার সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছে, যা দেশের বিচার বিভাগকে ঝুঁকি ও অবৈধ হস্তক্ষেপের মুখে ফেলেছে। আইনের শাসনকে বিপন্ন করেছে।”

এই প্রসঙ্গে সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী সংসদ সদস্যদের দলের বিপক্ষে ভোট দিতে না পারার অক্ষমতার বিষয়টিও তুলে ধরেন সাবেক মন্ত্রী কামাল হোসেন।

তিনি বলেন, “বিচারক অপসারণের ক্ষেত্রে সংসদ সদস্যরা নিরপেক্ষ ও উন্মুক্তভাবে ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারবেন কি না, সে প্রশ্ন ওঠে। রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ ও চাপের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে সংসদের মাধ্যমে বিচারক অপসারণের ক্ষমতা দেওয়া বিচার বিভাগকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে।”

আব্দুল ওয়াদুদ ভূঁইয়া

সুপ্রিম জুডিসিয়াল কাউন্সিলকে সমর্থন জানিয়ে ওই কাউন্সিল গঠনের ক্ষমতাও প্রধান বিচারপতির হাতে রাখার পক্ষে অবস্থান জানিয়েছেন আব্দুল ওয়াদুদ ভূঁইয়া।

শুনানিতে তিনি বলেছেন, “সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল গঠনের ক্ষমতা প্রধান বিচারপতির হাতে থাকতে হবে। যদি এটা সংসদের হাতে দিয়ে দেওয়া হয়, তাহলে ভারসাম্য নষ্ট হবে।

“ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে দুটি জিনিস করা হয়েছে। এক. বিচার বিভাগের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করা হয়েছে। দুই. সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৭ (২) লঙ্ঘন করে এ সংশোধনী করা হয়েছে। ফলে ষোড়শ সংশোধনীটি অবৈধ।”

সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৭ (২) এ বলা হয়েছে- জনগণের অভিপ্রায়ের পরম অভিব্যক্তিরূপে এই সংবিধান প্রজাতন্ত্রের সর্বোচ্চ আইন এবং অন্য কোন আইন যদি এই সংবিধানের সহিত অসমঞ্জস্য হয়, তাহা হইলে সেই আইনের যতখানি অসামঞ্জস্যপূর্ণ, ততখানি বাতিল হইবে৷

ওয়াদুদ ভূঁইয়া বলেন, “পঞ্চদশ সংশোধনীর পর সংবিধানে কিছু মার্শাল ল ইনস্ট্রমেন্ট থেকে থাকলেও সংসদে পাশ হওয়ার পর এটি সংসদেরই আইন হয়ে গেছে। আর পঞ্চম সংশোধনীর কারণে সংসদে আইন পরিবর্তন করার ক্ষমতা সীমিত।”

হাসান আরিফ

সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল হাসান আরিফ শুনানিতে বলেন, শুধু বিচারকদের প্রয়োজনে নয়, জনগণের অধিকার সুরক্ষার জন্য বিচার বিভাগের স্বাধীনতা প্রয়োজন।

এ এফ হাসান আরিফ

এ এফ হাসান আরিফ

সুপ্রিম কোর্টের একাধিক রায়ে স্বাধীন বিচার বিভাগকে সংবিধানের ‘বেসিক স্ট্রাকচার (মৌলিক কাঠামো)’ বলার নজির তুলে তিনি বলেন, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা মৌলিক অধিকারও বটে।

“কেউ যদি আদালতের সামনে উপস্থিত হয়, আদালত যেন স্বাধীনভাবে বিচার করতে পারে। সংসদ বা নির্বাহী বিভাগের চাপে পড়ে যেন জনগণের অধিকার ক্ষুণ্ন না হয়।”

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে বিচার বিভাগের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করা হয়েছে মন্তব্য করে হাসান আরিফ বলেন, “এর ফলে বিচার বিভাগকে সংসদের কাছে জবাবদিহি করতে হয়। আজকে সংসদ এবং সরকার এক। যেহেতু একই সদস্য দিয়ে কেবিনেট ফর্ম করেছে। সুতরাং সেক্ষেত্রে সেপারেশন অব পাওয়ার পুরোপুরি এখানে লঙ্ঘন ঘটছে।

“একমাত্র বিচার বিভাগকে যদি আমরা এর বাইরে রাখি, তবেই একমাত্র সেপারেশন অব পাওয়ারটা থাকে। আর সেপারেশন অব পাওয়ারটা যদি না থাকে, তাহলে জনগণের মৌলিক অধিকার রক্ষা হবে না।”

বিচারক অপসারণের পদ্ধতির ক্রমবিকাশ নিয়ে তিনি বলেন, “সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল আসল পার্লামেন্টের যে ক্ষমতা সেটিকে সরিয়ে দিয়ে নয়; রাষ্ট্রপতিকে যে ক্ষমতা দেওয়া হয়েছিল, সেটা বাতিল করে।

“এটা একটা ভুল ধারণা যে পার্লামেন্টের ইমপিচমেন্টের ক্ষমতা মার্শাল ল এসে সরিয়ে দিয়েছে, এটা ঠিক না। চতুর্থ সংশোধনীর মাধ্যমে রাষ্ট্রপতিকে ক্ষমতা দেওয়া হয়েছিলো বিচারকদের অপসারণের। মার্শাল ল এসে সেই ক্ষমতাটা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের কাছে দিয়েছে।”

আদালতের রায়ে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল বহাল রাখার বিষয়টি তুলে ধরে হাসান আরিফ বলেন, “যে বিষয়টি দুই বার আদালতের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল, সেটিকে সংশোধন করার এখতিয়ার তাদের (সংসদ) নেই।”

আজমালুল হোসেন কিউসি

আজমালুল হোসেন কিউসি শুনানিতে বলেন, সংসদের হাতে বিচারক অপসারণের ক্ষমতা দিয়ে যে সংশোধনী আনা হয়েছে এটি কার্য়কর সংশোধনী এবং একইসঙ্গে এটি বৈধ আইন হিসেবে বিবেচিত।

আজমালুল হোসেন কিউসি

আজমালুল হোসেন কিউসি

ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে যে প্রশ্ন উঠেছে তা বিচার বিভাগকে উপলব্ধি করার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, এর সঙ্গে তাদের স্বার্থের বিষয়টি সরাসরি জড়িত।

তখন প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা বলেন, বিচার বিভাগ কখনও বিচারকদের স্বার্থে রায় দেয় না। রায় দেওয়া হয় জনগণ ও বিচার বিভাগের স্বার্থে। সংবিধান ও আইনের শাসনকে সমুন্নত রাখতেই রায় দেওয়া হয়।

“এখানে বিচারকদের ব্যক্তিগত কোনো স্বার্থ নেই। তবে এই মামলার রায় কী হবে, আমরা জানি না। এখনও সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।”

আজমালুল হোসেন বলেন, “কীভাবে বিচারক অপসারণ করা হবে সে বিষয়টি এই মামলার সঙ্গে জড়িত। একটি মৌলিক প্রশ্ন হল-বিচারক অপসারণের পদ্ধতি কে নির্ধারণ করবে? উত্তর হচ্ছে, অবশ্যই সংসদ। আরেকটি প্রশ্ন হচ্ছে, কে এই পদ্ধতির আইনগত বৈধতা দেবে? উত্তর, অবশ্যই সুপ্রিম কোর্ট।

“স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন জাগে, একজন বিচারক নিজের মামলার বিচার কি নিজেই করবেন? অথচ এই মামলায় বিচার বিভাগের স্বার্থ জড়িত। তাই এ মামলায় সিদ্ধান্ত দেওয়ার ক্ষেত্রে খুবই সতর্ক থাকতে হবে।”

ষোড়শ ষংশোধনীর মাধ্যমে আদি সংবিধানে ফিরে যাওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, “এই সংশোধনী অবশ্যই আইনত বৈধ। কানাডায় এ ধরনের পদ্ধতিতে বিচারক অপসারণ করা হয়।”

আজমালুল হোসেন বলেন, বিচারক অপসারণটা সংবিধানের মৌলিক কাঠামোর অংশ কিন্তু অপসারণের পদ্ধতিটা মৌলিক কাঠামোর অংশ না।

“সংসদের হাতে বিচারক আপসারণের যে ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে, তা পরিবর্তনের দরকার নেই।”

]]>
2 news-bn বাংলাদেশ 199 1337948 2017-05-21 17:55:14.0 ষোড়শ সংশোধনী: ‘রাজনৈতিক বক্তব্য’ না দিতে আহ্বান 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1339108 2017-05-23 21:16:02.0 সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদ কেন: প্রধান বিচারপতি 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1339594 2017-05-24 22:33:00.0 বিচার বিভাগে আস্থা এখন বেশি: প্রধান বিচারপতি 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1339992 2017-05-25 18:45:46.0 প্রধান বিচারপতির দুশ্চিন্তা 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341466 2017-05-28 21:37:21.0 পার্লামেন্টের মাধ্যমে বিচারক অপসারণ সফল হয়নি: ব্যারিস্টার আমীর
11 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1342020 পাবনা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম পাবনা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-30 01:18:22.0 2017-05-30 01:18:22.0 পাবনায় মুক্তিযোদ্ধা লাঞ্ছনায় ছাত্রলীগ নেতা বাবার নাম তালিকায় ঢোকাতে মুক্তিযোদ্ধা লাঞ্ছনায় ছাত্রলীগ নেতা পাবনার সুজানগর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শামীম আদম লিটন তার বাবার নাম মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় ঢোকাতে উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের ডেপুটি কমান্ডারকে লাঞ্ছিত করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পাবনার সুজানগর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শামীম আদম লিটন তার বাবার নাম মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় ঢোকাতে উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের ডেপুটি কমান্ডারকে লাঞ্ছিত করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। false http://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1342020.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/30/shamim-adom-liton.jpg/ALTERNATES/w300/Shamim-Adom-Liton.jpg
সোমবার রাতে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল কার্যালয়ে মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল হাইকে লাঞ্ছিত করার এ ঘটনা ঘটে।

এসময় সুজানগর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের রোকন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল অফিসের একটি কক্ষ থেকে ডেপুটি কমান্ডার হাইকে উদ্ধার করেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে উপজেলা চেয়ারম্যান রোকন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ছাত্রলীগ নেতা শামীম তার বাবার নাম মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করাকে কেন্দ্র করে মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল হাইকে লাঞ্ছিত করে।

শামীম আদম লিটন। ছবি: ফেইসবুক পাতা থেকে সংগৃহীত

শামীম আদম লিটন। ছবি: ফেইসবুক পাতা থেকে সংগৃহীত

তিনি বলেন, “আমাদের জানা মতে ইতোপূর্বে মুক্তিযোদ্ধাদের যেসব তালিকা হয়েছিল, তাতে শামীমের বাবার নাম নেই। আজ সে তার বাবার নাম অন্তর্ভুক্ত করতে চাইলে আব্দুল হাই তাকে বাঁধা দেয়। পরে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আব্দুল হাইকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে শামীম।”

এ বিষয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল হাই বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে আক্ষেপ করে বলেন, “বিষয়টি নিয়ে আমার কিছু বলার নেই। আমি এ ঘটনায় খুবি লজ্জিত।

“এটা যদি আমার দলের লোক না হয়ে জামায়েত-শিবিরের লোক হত, তাহলে কোনো লজ্জার বিষয় ছিল না। কিন্তু দলের লোক হওয়াতে বিব্রত। তবে বিষয়টি জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারকে জানিয়েছি।”

এ বিষয়ে মামলা করা হবে কিনা তা এখনও ভাবেননি বলে জানান আব্দুল হাইয়ের ভাই আব্দুল আলিম যতিন।

তিনি বলেন, “ছাত্রলীগ নেতার হাতে লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় আমার ভাই নিশ্চুপ রয়েছে। তবে বিষয়টি নিন্দনীয় একটি অপরাধ করেছেন ওই ছাত্রলীগ নেতা। এ বিষয়ে মামলা করা হবে কিনা তা আমরা এখনও ভাবিনি।”

এদিকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার বিষয়টি অস্বীকার করে ছাত্রলীগ নেতা শামীম বলেন, “আমি শারীরিকভাবে তাকে লাঞ্ছিত করিনি। তবে আমি এবং আমার সঙ্গে থাকা কয়েকজন উপজেলা ছাত্রলীগ কর্মী তার ওপর চড়াও হয়েছিল।”

]]>
12 2 Home politics_bn রাজনীতি news-bn 198 1341999 ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 23:32:49.0 2017-05-30 00:58:17.0 ইমরানকে ‘কুত্তার মতো’ পেটানোর হুমকি ছাত্রলীগ নেতার ইমরানকে ‘কুত্তার মতো’ পেটানোর হুমকি ছাত্রলীগ নেতার হেফাজতে ইসলামের দাবি মেনে সুপ্রিম কোর্ট থেকে ভাস্কর্য সরানোর প্রতিবাদের মিছিল থেকে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে স্লোগান ওঠায় গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকারকে পেটানোর হুমকি দিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতারা। হেফাজতে ইসলামের দাবি মেনে সুপ্রিম কোর্ট থেকে ভাস্কর্য সরানোর প্রতিবাদের মিছিল থেকে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে স্লোগান ওঠায় গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকারকে পেটানোর হুমকি দিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতারা। false http://bangla.bdnews24.com/politics/article1341999.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/bsl-protest-ed.jpg/ALTERNATES/w300/BSL-Protest-ed.jpg http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/26/42_gonojagoron-moncho_260517_0003.jpg/ALTERNATES/w300/42_gonojagoron+moncho_260517_0003.jpg শাহবাগে সোমবার ছাত্রলীগের এই সমাবেশ থেকে ইমরান এইচ সরকারকে পেটানোর হুমকি দেওয়া হয়
সোমবার রাতে আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠনটির মিছিল থেকে শাহবাগে ইমরান সরকারকে অবাঞ্ছিতও ঘোষণা করা হয়।

শাহবাগে মিছিল শেষে সমাবেশে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বলেন, “এই ইমরান এইচ সরকারকে শাহবাগে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করছি।

“ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে যেখানে ইমরান এইচ সরকার ও সনাতনকে (সংস্কৃতিকর্মী) যেখানেই দেখা হবে, সেখানে কুত্তার মতো পেটানো হবে।”

তিন বছর আগে ছাত্রলীগের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম বিএনপির ‘বড় নেতাদের নেড়ি কুত্তার মতো’ পেটানোর হুমকি দিয়ে সমালোচনায় পড়েছিলেন।

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান ছাত্রলীগেরই রংপুর মেডিকেল কলেজ শাখার আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ছিলেন। তিনি শেখ হাসিনা সরকারের শিক্ষামন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদের জামাতা।

যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে ২০১৩ সালে শাহবাগে গণজাগরণের আন্দোলনের সূচনায় অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট হিসেবে এর আহ্বায়কের দায়িত্ব নেন ইমরান। শুরুতে ছাত্রলীগ এই মঞ্চের সঙ্গে থাকলেও পরে সরে যায়, এখন বাম ছাত্র সংগঠনগুলো ও কয়েকটি সাংস্কৃতিক সংগঠন মঞ্চে সক্রিয়।

গণজাগরণবিরোধী হেফাজতের ‘দাবি মেনে’ পাঠ্যপুস্তকে বিভিন্ন লেখা বাদ দেওয়ার পর সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্ট থেকে ভাস্কর্য সরানোর দাবিকে শেখ হাসিনা সমর্থন জানানোর পর প্রতিক্রিয়া আসে মঞ্চের কর্মীদের কাছ থেকে।

গত বৃহস্পতিবার ভাস্কর্যটি সরিয়ে নেওয়ার প্রতিক্রিয়ায় ইমরান বলেছিলেন, মৌলবাদীদের ‘তুষ্ট করতে নোংরা রাজনৈতিক খেলায়’ নেমেছে সরকার, ‘আখের গোছাতে ব্যবহার করছে’ ধর্মকে।

ভাস্কর্য সরানোর প্রতিবাদে পরদিন শাহবাগে গণজাগরণের মিছিলে ‘ছি ছি হাসিনা, লজ্জায় বাঁচি না’ স্লোগান ওঠে; ওই মিছিলে ইমরান সরকার নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।

সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে ভাস্কর্য অপসারণের প্রতিবাদে ইমরান এইচ সরকারের নেতৃত্বে গণজাগরণ মঞ্চের এই মশাল মিছিল থেকে শেখ হাসিনাকে নিয়ে ওই স্লোগান দেওয়া হয়েছিল

সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে ভাস্কর্য অপসারণের প্রতিবাদে ইমরান এইচ সরকারের নেতৃত্বে গণজাগরণ মঞ্চের এই মশাল মিছিল থেকে শেখ হাসিনাকে নিয়ে ওই স্লোগান দেওয়া হয়েছিল

ওই স্লোগানের ভিডিও ফেইসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়।

তার বহিঃপ্রকাশ ঘটাতে সোমবার রাতে মিছিল বের করেন সংগঠনটির এক দল নেতা-কর্মী।

অর্ধশত নেতা-কর্মীর ওই মিছিলে কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান রনি ও আদিত্য নন্দীও ছিলেন।

শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক রাব্বানী বলেন, “মঞ্চের নেতা-কর্মীরা প্রকাশ্যে জনসম্মুখে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে বিদ্রুপাত্মক স্লোগান দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর মানহানি করেছেন।”

প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে বিদ্রুপাত্মক স্লোগান দেওয়ায় মামলা করার হুমকিও দিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতারা।

এই মিছিলের পরই সমাবেশ হয়, যেখানে ইমরান এইচ সরকারকে শাহবাগে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়

এই মিছিলের পরই সমাবেশ হয়, যেখানে ইমরান এইচ সরকারকে শাহবাগে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়

ভাস্কর্য সরানোর পক্ষে অবস্থান জানিয়ে রাব্বানী বলেন, “পৃথিবীর কোথাও ন্যায়বিচার প্রতীক হিসেবে জাস্টিসিয়া ভাস্কর্য নেই।

“কোর্টের সামনে সেটা স্থাপন করা হয়েছে, কিন্তু জাতীয় ঈদগাহের পাশে থাকায় জামাত থেকে দেখা যায়। তাই সরানোর পরামর্শ দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। প্রধান বিচারপতি বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সরিয়েছেন, সকল ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়েছেন তিনি।”

]]>
1341998 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/bsl-protest-ed.jpg/ALTERNATES/w300/BSL-Protest-ed.jpg শাহবাগে সোমবার ছাত্রলীগের এই সমাবেশ থেকে ইমরান এইচ সরকারকে পেটানোর হুমকি দেওয়া হয় 1342000 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/bsl-protest-1-ed.jpg/ALTERNATES/w300/BSL-Protest-1-ed.jpg এই মিছিলের পরই সমাবেশ হয়, যেখানে ইমরান এইচ সরকারকে শাহবাগে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয় 2 news-bn রাজনীতি 198 900797 2014-12-25 09:51:30.0 বিএনপির ‘বড় নেতাদের’ পেটানোর হুমকি নাজমুলের 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1340424 2017-05-26 18:48:18.0 মৌলবাদীদের তুষ্ট করতেই নোংরা খেলায় সরকার: ইমরান
13 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341584 নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 12:47:42.0 2017-05-29 18:12:49.0 হাসপাতালে জাবি ছাত্রের হাতে হাতকড়া কেন: হাই কোর্ট হাসপাতালে জাবি ছাত্রের হাতে হাতকড়া কেন: হাই কোর্ট সড়ক দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ-ভাংচুরের ঘটনায় আটক এক শিক্ষার্থীকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাতকড়া পরানোর ব্যাখ্যা দিতে আশুলিয়ার ওসিকে তলব করেছে হাই কোর্ট। সড়ক দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ-ভাংচুরের ঘটনায় আটক এক শিক্ষার্থীকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাতকড়া পরানোর ব্যাখ্যা দিতে আশুলিয়ার ওসিকে তলব করেছে হাই কোর্ট। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341584.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/08/high-court_mm_180516_0008.jpg/ALTERNATES/w300/High+Court_MM_180516_0008.jpg http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/ju-student-fb-2.jpg/ALTERNATES/w300/JU-Student-FB-2.jpg
বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাই কোর্ট বেঞ্চ সোমবার স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এ আদেশ দেয়।

ওসি মহসিনুল কাদিরকে আগামী ৩১ মে হাই কোর্টে হাজির হয়ে তাকে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের নাজমুল হাসান রানা এবং মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের আরাফাত শুক্রবার ভোরে সাভারের সিঅ্যান্ডবি এলাকায় বাসের ধাক্কায় নিহত হন। এরপর পরপর দুই দিন ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় তাদের সহপাঠীরা।

শনিবার বিকালে পুলিশের হস্তক্ষেপে আন্দোলনকারীরা রাস্তা ছেড়ে দিলেও পরে উপাচার্যের বাসভবনের তালা ভেঙে ভেতরে ঢুকে পড়ে এবং সেখানে ভাংচুর চালায়।

এরপর উপাচার্য সিন্ডিকেট সভা করে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করেন এবং শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেন। সিন্ডিকেটের সভা শেষে গভীর রাতে পুলিশ উপাচার্যের বাসভবনের ভেতরে থাকা ১০ ছাত্রীসহ আন্দোলনকারী ৪২ শিক্ষার্থীকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায়।

এরপর রোববার কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে এক ছাত্রকে হাতকড়া পরিয়ে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়ার ছবি আসে। 

গণমাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, নাজমুল হোসাইন নামের ওই শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের ৪২তম ব্যাচের ছাত্র। তিনি বিশ্ববিদ্যালয় সাংস্কৃতিক জোটের ও জাহাঙ্গীরনগর থিয়েটারের সাধারণ সম্পাদক।

আন্দোলনের মধ্যে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালনের সময় তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে নেওয়া হয়। পরে আশুলিয়া থানা পুলিশ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিম তাকে সেখান থেকে অ্যাম্বুলেন্সে করে এনাম মেডিকেলে নিয়ে যায়।

সেখানে গভীর রাতে বেডে শোয়া অবস্থায় নাজমুলের হাতে হাতকড়া পরানো হয় বলে শিক্ষার্থীদের অভিযোগ।

 

এ বিষয়ে সোমবার ইংরেজি দৈনিক ডেইলি স্টারে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন আদালতের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এস এম রেজাউল করিম ও ব্যারিস্টার জ্যোর্তিময় বড়ুয়া।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, অসুস্থ অবস্থায় কাউকে হাতকড়া পরানো পুলিশ রেগুলেশনসের ৩৩০ (এ) বিধির লঙ্ঘন।

রেজাউল করিম পরে সাংবাদিকদের বলেন, আদালত আশুলিয়া থানার ওসিকে তলব করার পাশাপাশি একটি রুল জারি করেছে।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাতকড়া পরানো কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চাওয়া হয়েছে ওই রুলে।

স্বরাষ্ট্র সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক, ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি, ঢাকার পুলিশ সুপার ও আশুলিয়া থানার ওসিকে এই রুলে বিবাদী করা হয়েছে।

]]>
1331518 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/08/high-court_mm_180516_0008.jpg/ALTERNATES/w300/High+Court_MM_180516_0008.jpg 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341274 2017-05-28 17:31:17.0 জাবির ৪২ শিক্ষার্থীর জামিন
14 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341985 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 22:56:11.0 2017-05-29 22:56:11.0 আইন সংস্কার: মাঠ পর্যায়ের মতামত চেয়ে ইসির চিঠি আইন সংস্কার: মাঠ পর্যায়ের মতামত চেয়ে ইসির চিঠি একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনী আইনে সংস্কার আনতে সাতটি বিষয়ে মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের মতামত চেয়ে চিঠি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন-ইসি। একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনী আইনে সংস্কার আনতে সাতটি বিষয়ে মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের মতামত চেয়ে চিঠি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন-ইসি। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341985.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/12/30/election-bhaban-new-02-ed.jpg1/ALTERNATES/w300/Election-bhaban-new-02-ed.jpg
সোমবার ইসির উপ-সচিব মো. আবুল কাসেম স্বাক্ষরিত চিঠিটি আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা, জ্যেষ্ঠ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা/জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, নির্বাচন কমিশন সচিবালয় ও নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে গণপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশ-১৯৭২, নির্বাচন পরিচালনা বিধিমালা-২০০৮, সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা-২০০৮, স্বতন্ত্র প্রার্থী (প্রার্থীদের পক্ষে সমর্থন যাচাই) বিধিমালা-২০১১, নির্বাচন কর্মকর্তা (বিশেষ বিধান) আইন-১৯৯১ এবং নির্বাচনী এলাকার সীমানা পুনঃনির্ধারণ অধ্যাদেশ-১৯৭৬ (অধ্যাদেশ ১৯৭৬) এর বিষয়ে অধীনস্থদের সঙ্গে আলোচনা করে ইসিতে প্রস্তাব পাঠাতে বলা হয়েছে।

আগামী ১৩ জুনের মধ্যে সংশ্লিষ্টদের এসব বিষয়ে মতামত পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে ইসি।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নানা সংস্কার ও ভোট আয়োজনের ‘রোডম্যাপ’ ঘোষণার পর এই চিঠি পাঠাল ইসি সচিবালয়।

সিইসি এর আগে বলেছেন, “জাতীয় নির্বাচনের আগে নিবন্ধিত দলগুলোসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে একবারই সংলাপ করব। সীমানা পুনর্নির্ধারণ, আইন সংস্কার, ভোটার তালিকা হালনাগাদ, নতুন নিবন্ধন, ভোটকেন্দ্র, ইসির সক্ষমতা বাড়ানো ও সবার জন্যে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি-এ সাত বিষয় নিয়ে জুলাই থেকে নভেম্বর পর্যন্ত আলোচনা হবে।”

তিনি জানান, সবার সঙ্গে বসার আগে নিজেদের গাইডলাইন চূড়ান্ত করা হবে।

]]>
1265307 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/12/30/election-bhaban-new-02-ed.jpg1/ALTERNATES/w300/Election-bhaban-new-02-ed.jpg 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341922 2017-05-29 21:38:42.0 ছয় সিটির ভোট: নতুন বাজেটে প্রায় ৭০ কোটি টাকার প্রস্তাব 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341509 2017-05-29 00:04:49.0 আইন সংস্কার: ফের মাঠ পর্যায়ের মতামত চাইছে ইসি
15 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341780 মঈনুল হক চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মঈনুল হক চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 18:27:01.0 2017-05-30 03:16:44.0 মোরায় মহাবিপদ সংকেত ঘূর্ণিঝড় মোরায় মহাবিপদ সংকেত ঘণ্টায় ৮৯ থেকে ১১৭ কিলোমিটার শক্তির ঝড়ো হাওয়া নিয়ে এ ঘূর্ণিঝড় মঙ্গলবার সকাল ৬টা নাগাদ কক্সবাজার-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করতে পারে। ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ বাংলাদেশ উপকূলের ৩০৫ কিলোমিটারের মধ্যে পৌঁছে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়ায় দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোকে ‘মহাবিপদ সংকেত’ দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341780.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/05_mora_bhola_290517_0001.jpg/ALTERNATES/w300/05_Mora_Bhola_290517_0001.jpg
এর মধ্যে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ১০ নম্বর এবং পায়রা ও মোংলা বন্দরকে ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

ঘণ্টায় ৮৯ থেকে ১১৭ কিলোমিটার শক্তির ঝড়ো হাওয়া নিয়ে এ ঘূর্ণিঝড় মঙ্গলবার সকাল নাগাদ কক্সবাজারের কুতুবিদয়া, চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ ও হাতিয়া হয়ে উপকূল রেখা অতিক্রম করতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তরেরর পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “বিকাল থেকেই ঘূর্ণিঝড়টি শক্তিশালী হচ্ছিল। উপকূলের কাছাকাছি এসে ‘মোরা’র শক্তি বেড়ে যাওয়ায় মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।”

কক্সবাজার, পটুয়াখালী, বাগেরহাটসহ উপকূলীয় বিভিন্ন জেলায় সোমবার সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। বিকালে কক্সবাজারে নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিকের চেয়ে ৪ থেকে ৫ ফুট বেশি উচ্চতার জোয়ারে প্লাবিত হওয়ায় লোকালয়ে ঢুকে পড়ার খবর পাওয়া গেছে।

উপকূলীয় ১৯ জেলায় মাইকিং করে নিচু এলাকার বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে নিরাপদ আশ্রয়ে। মেডিকেল টিম গঠনের পাশাপাশি বিভিন্ন বাহিনীর সদস্য ও ৫০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে জরুরি উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতার জন্য।

দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে বিকাল থেকে সারা দেশে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ রেখেছে বিআইডব্লিউটিএ। চট্টগ্রাম বন্দরের পণ্য ওঠানামার কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে সকাল থেকেই।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব গোলাম মোস্তফা বলেছেন, সম্ভাব্য দুর্যোগ মোকাবিলায় সব প্রস্তুতিই তারা নিয়েছেন।

ঝড়ের কারণে আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থেকে প্রস্তুতি নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন আবহাওয়াবিদ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

# উপকূলীয় জেলা কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলো ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

# ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর ক্ষেত্রে ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেত প্রযোজ্য হবে।

যা আছে পূর্বাভাসে

আবহাওয়ার সর্বশেষ বুলেটিনে বলা হয়েছে, সোমবার মধ্যরাতে চট্টগ্রাম থেকে ৩০৫ কিলোমিটার দক্ষিণে, কক্সবাজার থেকে ২৩০ কিলোমিটার দক্ষিণে, মোংলা থেকে ৩৮০ কিলেমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপূর্ব এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৩০০ দক্ষিণ-দক্ষিণপূর্বে অবস্থান করছিল মোরা।

ওই সময় ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৬৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৮৯ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝড়োহাওয়ার আকারে ঘণ্টায় ১১৭ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছিল।

ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের কাছে সাগর খুবই উত্তাল থাকায় বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা, ট্রলার এবং সমুদ্রগামী জাহাজকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় মোরার প্রভাবে উপকূলীয় জেলাগুলোর নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪ থেকে ৫ ফুট বেশি উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় উপকূল অতিক্রমের সময় দমকা বা ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে থাকতে পারে অতি ভারি বর্ষণ।

অধ্যাপক এ কে এম সাইফুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত বুয়েটের ইন্সটিটিউট অব ওয়াটার অ্যান্ড ফ্লাড ম্যানেজমেন্ট (আইডব্লিউএফএম)-এর পর্যবেক্ষণে  বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে মঙ্গলবার সকাল থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজার ও আশপাশের এলাকায় ১২৮ মিলিমিটার থেকে ২৫৬ মিলিমিটার পর্যন্ত  বৃষ্টি হতে পারে।

ইনস্টিটিউটের সিনিয়র রিসার্চ ফেলো মোহন কুমার দাস বলেন, “সাগরে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ু কার্যকর রয়েছে। সেই সঙ্গে ভারি জলীয় বাষ্প নিয়ে ঘূর্ণিঝড়টি উপকূল অতিক্রম করার সময় অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে।”

৬৫ থেকে ১১৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাতকে তাকে ‘ভারি বর্ষণ’, ১১৫ থেকে ২০৫ মিলিমিটার পর্যন্ত ‘অতি ভারি বর্ষণ’ এবং ২০৫ মিলিমিটারের বেশি হলে তাকে ‘চরম ভারি বর্ষণ’ বলেন আবহাওয়াবিদরা।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ আবদুল মান্নান জানান, প্রতি ঘণ্টায় ২০ থেকে ২৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিচ্ছে ঘূর্ণিঝড় মোরা। অন্তত ২০০ কিলোমিটার ব্যসের এই ঘূর্ণিঝড় সকাল ৬টায় উপকূল অতিক্রম শুরু করলে পুরোপুরি স্থলভাগে উঠতে দুপুর হয়ে যেতে পারে।

উপকূল পার হওয়ার পর বৃষ্টি ঝরিয়ে ঘূর্ণিঝড় দুর্বল হয়ে পড়ে এবং এক পর্যায়ে তা স্থল নিম্নচাপে পরিণত হয়।

‘মোরা’

গত ২৬ মে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হওয়ার পর রোববার সকালে তা নিম্নচাপে এবং মধ্যরাতে ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নেয়।

এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সাগর তীরের আট দেশের আবহাওয়া দপ্তর ও বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার দায়িত্বপ্রাপ্ত প্যানেলের তালিকা অনুযায়ী তখন এর নাম দেওয়া হয়ে ‘মোরা’ (MORA)। নামটি প্রস্তাব করেছিল থ্যাইল্যান্ড।

নিম্নচাপ থেকে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়ার পর ১৮ ঘণ্টায় ২৮৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেয় মোরা; এরপর সেটি পরিণত হয় প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে।  

সর্বশেষ গত ১৫ এপ্রিল সকালে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হয় এবং পরদিন তা ঘূর্ণিঝড় ‘মারুথা’য় রূপ নেয়। পরে সেটি দক্ষিণপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে মিয়ানমার উপকূল অতিক্রম করে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরেরর পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এর আগে ২০০৭ সালে ঘূর্ণিঝড় সিডরের সময় মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছিল।
“মোরা সিডরের মতো অতোটা শক্তিশালী হয়তো হবে না, তবে এখনও এটার বাতাসের বেগ ঘণ্টায় ৮৯ কিলোমিটার বা তার বেশি। সেক্ষেত্রে ঝড়-জলোচ্ছ্বাসের প্রভাব থাকবেই।”

 

]]>
1341783 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/05_mora_bhola_290517_0001.jpg/ALTERNATES/w300/05_Mora_Bhola_290517_0001.jpg 1341865 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/mora-6-pm.jpg/ALTERNATES/w300/MORA-6+PM.jpg 1341868 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/mora-forecast-accuweather.jpg1/ALTERNATES/w300/MORA-Forecast-Accuweather.jpg 1341866 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/mora--6-pm-jtwc.jpg/ALTERNATES/w300/MORA-+6+pm+jtwc.jpg 1341779 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/101_cyclone_mora_chittagong_290517_8.jpg/ALTERNATES/w300/101_Cyclone_Mora_Chittagong_290517_8.jpg 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1155085 2016-05-20 22:07:20.0 ঘূর্ণিঝড়ে কী করবেন
16 2 Home ctg চট্টগ্রাম news-bn 10023 1341974 চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 22:28:21.0 2017-05-29 22:30:28.0 চট্টগ্রাম বন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ ঘূর্ণিঝড়: চট্টগ্রাম বন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ ঘূর্ণিঝড় মোরার কারণে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত জারির পর সোমবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে চট্টগ্রাম বন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় মোরার কারণে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত জারির পর সোমবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে চট্টগ্রাম বন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। false http://bangla.bdnews24.com/ctg/article1341974.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/101_cyclone_mora_chittagong_290517_12.jpg2/ALTERNATES/w300/101_Cyclone_Mora_Chittagong_290517_12.jpg
এর আগে সোমবার সকাল থেকেই বন্দরের বিভিন্ন কার্যক্রম ধাপে ধাপে বন্ধ হতে থাকে।

দুপুরের মধ্যে বন্দরের জেটিতে এবং বহির্নোঙরে থাকা জাহাজ থেকে পণ্য ওঠানামা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

বন্দরের জেটিতে থাকা সবগুলো বড় আকারের পণ্যবাহী জাহাজ (মাদার ভেসেল) বহির্নোঙরে নেওয়ার কাজ শুরু হয় সকাল থেকেই। বিকালের মধ্যে সব জাহাজ সরিয়ে নেওয়া হয়।

চট্টগ্রাম বন্দরের সচিব ওমর ফারুক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বন্দরে জাহাজ থেকে পণ্য ওঠানামা এবং পণ্য ডেলিভারিসহ সব ধরনের কাজ বন্ধ করা হয়েছে।

“বিকালে বন্দর চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ নির্দেশ বহাল থাকবে। বন্দরের যন্ত্রপাতি ও সম্পদ রক্ষায় সংশ্লিষ্টদের সর্তক থাকতে বলা হয়েছে।”

১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলার পর বন্দরের নিজস্ব সর্তকর্তা সংকেত অ্যালার্ট-৪ জারি করা হয়েছে জানিয়ে ওমর ফারুক বলেন, এটাই বন্দরের সর্বোচ্চ সর্তকর্তা সংকেত।

চট্টগ্রাম বন্দরের জেটিগুলোতে মোট ২৪টি মাদার ভেসেল ছিল। এগুলো বহির্নোঙরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বন্দরের বহির্নোঙরে ছোট-বড় মিলিয়ে মোট ১২৭টি জাহাজ অবস্থান করছে জানিয়ে সচিব ফারুক বলেন, চট্টগ্রাম বন্দরের কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়ার পর বন্দরের জেটিগুলোতে বাইরে থেকে আর কোনো শ্রমিক প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না।

]]>
1341973 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/101_cyclone_mora_chittagong_290517_12.jpg2/ALTERNATES/w300/101_Cyclone_Mora_Chittagong_290517_12.jpg 1341972 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/cgt-port-1--2-.jpg/ALTERNATES/w300/Cgt-port-1-%282%29.jpg 1341971 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/cgt-port-1--1-.jpg/ALTERNATES/w300/Cgt-port-1-%281%29.jpg
17 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341935 গোলাম মুজতবা ধ্রুব, নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম গোলাম মুজতবা ধ্রুব, নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 21:50:29.0 2017-05-29 21:50:29.0 শাহ আমানতে বন্ধ বিমান ওঠা-নামা ঘূর্ণিঝড় মোরা: শাহ আমানতে বিমান ওঠা-নামা বন্ধ ঘূর্ণিঝড় মোরার কারণে মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত চট্টগ্রামে শাহ আমানত বিমানবন্দরে উড়োজাহাজ ওঠা-নামা বন্ধ থাকবে। ঘূর্ণিঝড় মোরার কারণে মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত চট্টগ্রামে শাহ আমানত বিমানবন্দরে উড়োজাহাজ ওঠা-নামা বন্ধ থাকবে। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341935.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/101_cyclone_mora_chittagong_290517_4.jpg/ALTERNATES/w300/101_Cyclone_Mora_Chittagong_290517_4.jpg সাগরে ঘূর্ণিঝর ‘মোরা’; তার প্রভাবে চট্টগ্রাম পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে আছড়ে পড়ছে ঢেউ। সোমবার বিকালের ছবি। ছবি: সুমন বাবু
১০ নম্বর মহাবিপদ সঙ্কেত নিয়ে আসা ঘূর্ণিঝড়টি মঙ্গলবার সকাল নাগাদ চট্টগ্রাম উপকূলে আঘাত হানবে বলে আভাস দেওয়া হচ্ছে, তাই সতর্কতা হিসেবে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের এই পদক্ষেপ।

কক্সবাজার বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক সাধন কুমার মোহন্ত বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন, তারা মঙ্গলবার সকাল ৯টায় পরিস্থিতি দেখে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন।   

ঝড়ের কারণে ঢাকায় শাহজালাল বিমানবন্দরে বিমান ওঠানামা বন্ধের কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

শাহ আমানতে সোমবার রাতে শেষ ফ্লাইটটি রাত ১১টায়, সে পর্যন্ত কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলবে বলে জানিয়েছেন বিমানবন্দরটির ব্যবস্থাপক উইং কমান্ডার মোহাম্মদ রিয়াজুল কবির।

সোমবার রাত ১১টার পর থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত আর কোনো ফ্লাইট নেই শাহ আমানতে।

রিয়াজুল কবির বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আগামীকাল (মঙ্গলবার) সকাল পৌনে ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কোনো ফ্লাইট চলাচল করবে না।”

এয়ারলাইন্সগুলোকে চিঠি পাঠিয়ে তা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

রিজেন্ট এয়ারওয়েজের হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সহকারী মহাব্যবস্থাপক কে এম জাফরউজ্জামান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, শাহ আমানত বন্ধের ঘোষণা তারা পেয়েছেন।  

“সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ ফোন করে ফ্লাইট চলাচল করবে না বলে জানিয়েছে। তারা বলেছে, আবহাওয়া বিরূপ হলে আরও বেশি সময়ও ফ্লাইট বন্ধ থাকতে পারে।”

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জনসংযোগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, মঙ্গলবার সকাল ৭টায় বিমানের একটি ফ্লাইট দুবাই থেকে কক্সবাজার এবং সকাল ৯টায় মাসকাট থেকে একটি ফ্লাইট সরাসরি চট্টগ্রামে নামার কথা ছিল।

এছাড়াও সকালে ঢাকা থেকে আরেকটি ফ্লাইট চট্টগ্রাম হয়ে কলকাতা যাওয়ার কথাও জানান তিনি।

ঘূর্ণিঝড় মোরার সম্ভাব্য গতিপথ

ঘূর্ণিঝড় মোরার সম্ভাব্য গতিপথ

রিজেন্ট এয়ারওয়েজের কর্মকর্তা জাফরউজ্জামান জানান, মঙ্গলবার মাসকাট থেকে সকাল ৮টায় তাদের একটি ফ্লাইট চট্টগ্রামে নামার কথা ছিল।

এই ফ্লাইটগুলো চট্টগ্রামে ল্যান্ড করতে না পারলে সরাসরি ঢাকায় শাহজালাল বিমানবন্দরে চলে আসবে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় ঢাকা থেকে বিমানের একটি ফ্লাইট কক্সবাজার যাওয়ার কথা রয়েছে। ওই ফ্লাইটটি এখন অনিশ্চিয়তায় পড়েছে।

এদিকে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার বিমানবন্দর থেকে বিমানের ‘গ্রাউন্ড সাপোর্ট ইকুয়েপমেন্টগুলো’ নিরাপদ দূরত্বে সরিয়ে ফেলা হয়েছে বলে জানান শাকিল মেরাজ।

]]>
1341827 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/101_cyclone_mora_chittagong_290517_4.jpg/ALTERNATES/w300/101_Cyclone_Mora_Chittagong_290517_4.jpg সাগরে ঘূর্ণিঝর ‘মোরা’; তার প্রভাবে চট্টগ্রাম পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে আছড়ে পড়ছে ঢেউ। সোমবার বিকালের ছবি। ছবি: সুমন বাবু 1341931 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/storm-direction.jpg/ALTERNATES/w300/Storm-Direction.jpg ঘূর্ণিঝড় মোরার সম্ভাব্য গতিপথ 2 news-bn বাংলাদেশ 199 1341780 2017-05-29 18:27:01.0 মোরায় মহাবিপদ সংকেত 2 news-bn চট্টগ্রাম 10023 1341588 2017-05-29 12:57:17.0 বন্দরে পণ্য ওঠা-নামা বন্ধ
18 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341641 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 14:56:47.0 2017-05-29 21:35:45.0 সারা দেশে নৌ চলাচল বন্ধ ঘূর্ণিঝড়: সারা দেশে নৌ চলাচল বন্ধ ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’র প্রভাবে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে সারা দেশে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’র প্রভাবে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে সারা দেশে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341641.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/05/20/55_sadarghat-launch-terminal_20052016_002.jpg1/ALTERNATES/w300/55_sadarghat+launch+terminal_20052016_002.jpg দূরপাল্লার লঞ্চ চলাচল বন্ধ
সোমবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) যুগ্ম পরিচালক জয়নাল আবেদিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ তথ্য জানান।

এর আগে দুপরে শুধু উপকূলীয় এলাকায় ভোলা, পটুয়াখালী ও বরিশাল অঞ্চলে দূরপাল্লার লঞ্চ চলাচল বন্ধ করা হয়।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন বাংলাদেশ নৌ পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) জনসংযোগ কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম মিশা জানান, লঞ্চ ও স্টিমারসহ সব ধরনের নৌ চলাচল বন্ধ রয়েছে। 

তিনি বলেন, “উপকূলীয় এলাকায় ফেরি চলাচলও বন্ধ রয়েছে। তবে ঢাকাসহ দেশের অন্য অঞ্চলে ফেরি চলবে।”

খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম অঞ্চলসমূহের নদীবন্দরগুলোকে দুই (০২) নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

এসব অঞ্চলের উপর দিয়ে ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে বলে সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে।

সোমবার মধ্যরাতে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হওয়া ঘূর্ণিঝড় মোরা মঙ্গলবার ভোরে চট্টগ্রাম উপকূলে আঘাত হানতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।

বাংলাদেশ উপকূলের দিকে চলে আসায় চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

সেই সঙ্গে উপকূলীয় জেলা নোয়াখালী, লক্ষীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর জন্য একই বিপদ সংকত রয়েছে।

এছাড়া পায়রা ও মংলা বন্দর, ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোতে ৮ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

 

]]>
1154999 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/05/20/55_sadarghat-launch-terminal_20052016_002.jpg1/ALTERNATES/w300/55_sadarghat+launch+terminal_20052016_002.jpg দূরপাল্লার লঞ্চ চলাচল বন্ধ
19 2 Home samagrabangladesh সমগ্র বাংলাদেশ news-district 9945 1341741 কক্সবাজার প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম কক্সবাজার প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 17:40:47.0 2017-05-29 19:24:27.0 কক্সবাজারের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’: কক্সবাজারের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’র প্রভাবে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি জোয়ারে কক্সবাজারে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’র প্রভাবে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি জোয়ারে কক্সবাজারে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। false http://bangla.bdnews24.com/samagrabangladesh/article1341741.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/cox_mora_1.jpg/ALTERNATES/w300/cox_mora_1.jpg
সোমবার বিকালে জোয়ারের সময় পানির উচ্চতা স্বাভাবিকের চেয়ে বেড়ে যাওয়ায় পানি লোকালয়সহ বসতবাড়িতেও ঢুকে পড়েছে।

এছাড়া প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং করে লোকজনকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরে আসার প্রচার চালালেও এখনও আশ্রয় কেন্দ্রের দিকে কাউকে আসতে দেখা যায়নি।

ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ উপকূলের দিকে সরে আসায় আবহাওয়া অধিদপ্তরের সর্বশেষ বুলেটিনে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, নোয়াখালী, লক্ষীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলো ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর কক্সবাজার কার্যালয়ের সহকারী আবহাওয়াবিদ এ কে এম নাজমুল হক জানান, ঘূর্ণিঝড় মোরা প্রভাবে ভোর রাতে মাঝারি ও হালকা বৃষ্টি হলেও সোমবার সকাল থেকে গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে।

“ফলে সমুদ্রের ঢেউয়ের উচ্চতাও বৃদ্ধি পেয়েছে। জোয়ারে সময় পানির উচ্চতা ৪ থেকে ৫ ফুট বেড়ে গিয়ে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।”

কক্সবাজার পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আকতার কামাল জানান, দুপুরে জোয়ারের সময় সাগরে ঢেউয়ের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ায় পানি লোকালয়ে ঢুকে পড়েছে।

“ফলে শহরের সমিতি পাড়া, নাজিরারটেক, ফদনারডেইল ও কুতুবদিয়া পাড়ায় পানি ঢুকে মানুষ দুর্ভোগে পড়েছে।”

তাছাড়া কুতুবদিয়া, চকরিয়া, মহেশখালী ও টেকনাফেও জোয়ারের পানিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ আঘাতহানার আশঙ্কায় উপকূলীয় এলাকার লোকজনকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরে আসতে মাইকিং করছে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির কর্মী এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মসূচির (সিপিসি) কর্মীরা।

তবে বিকাল পর্যন্ত লোকজনদের আশ্রয়কেন্দ্রের দিকে আসতে দেখা যায়নি।

কক্সবাজার জেলা ফিশিং বোট মালিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমদ জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় বিপদ সংকেত দেখানোর পর অধিকাংশ মাছ ধরার ট্রলার নিরাপদ আশ্রয়ে অবস্থান নিলেও এখনও সাগরে বেশকিছু ট্রলার রয়েছে গেছে।

এসব ট্রলারকে ফিরিয়ে আনতে কোস্টগার্ডের সহায়তায় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

]]>
1341740 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/cox_mora_1.jpg/ALTERNATES/w300/cox_mora_1.jpg 1341739 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2017/05/29/cox_mora.jpg/ALTERNATES/w300/cox_mora.jpg
20 2 Home bangladesh_bn বাংলাদেশ news-bn 199 1341877 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 2017-05-29 20:35:12.0 2017-05-29 20:48:47.0 রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কায় তিনজন নিহত রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কায় তিনজন নিহত রাজধানীতে আলাদা আলাদা ঘটনায় ট্রেনের ধাক্কায় তিনজন নিহত হয়েছেন। রাজধানীতে আলাদা আলাদা ঘটনায় ট্রেনের ধাক্কায় তিনজন নিহত হয়েছেন। false http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1341877.bdnews false http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/04/09/banani-train-line.jpg/ALTERNATES/w300/banani-train-line.jpg
নিহতদের খিলক্ষেতে এক নির্মাণ শ্রমিক, গেন্ডারিয়ায় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী এবং মগবাজারে অজ্ঞাত এক যুবক রয়েছেন।

ঢাকা রেলওয়ে থানার ওসি মো. ইয়াছিন ফারুক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সোমবার সকালে খিলক্ষেতে রেললাইনের পাশ দিয়ে হাঁটার সময় ট্রেনের ধাক্কায় এক যুবক ঘটনাস্থলেই মারা যান।

নিহত জামাল হোসেন (২৫) নির্মাণ শ্রমিক ছিলেন। তার বাড়ি রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায়।

স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে খিলক্ষেত এলাকায় থাকতেন তিনি।

অন্য ঘটনায় দুপুরে মগবাজারে ট্রেনের ধাক্কায় এক যুবক নিহত হন বলে জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তা ইয়াছিন।

আনুমানিক ৩৫ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির পরিচয় জানাতে পারেনি পুলিশ।

এছাড়া রোববার গভীর রাতে গেন্ডারিয়ায় ট্রেনের ধাক্কায় এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে।

নিহত সমেদ আলী (৫০) মুরগি কেনাবেচা করতেন। তার বাড়ি গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায়।

মরদেহ তিনটি ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রয়েছে বলে জানান ওসি মো. ইয়াছিন।

]]>
1133615 http://d30fl32nd2baj9.cloudfront.net/media/2016/04/09/banani-train-line.jpg/ALTERNATES/w300/banani-train-line.jpg